অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন শিল্পী খুরশীদ আলম

ঢাকা অফিস : ট্রাকের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়েছেন একুশে পদকপ্রাপ্ত সঙ্গীত শিল্পী খুরশীদ আলম। শুক্রবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে বগুড়া শহরের চারমাথা এলাকায় তার ব্যক্তিগত গাড়ির সঙ্গে একটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনি আহত হন। পরে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়।

বর্তমানে তিনি বিশ্রামে আছেন।

জয়পুরহাটের কৃতী সন্তান জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী খুরশীদ আলম বগুড়ার সংগঠন জয়পুরহাট কল্যাণ ট্রাস্টের এক সম্মাননা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শুক্রবার বগুড়ায় যান তিনি।

বগুড়া শহর থেকে রাতে খাবার খেতে গাড়ি নিয়ে শহরে যান শিল্পী। পরে ঢাকা-রংপুর মহাসড়ক দিয়ে স্থানীয় হোটেলে ফেরার পথে দুর্ঘটনার শিকার হন তিনি। তার প্রাইভেটকারটিকে সামনে থেকে ধাক্কা দিয়ে ট্রাকটি পালিয়ে যায়। ট্রাকের ধাক্কায় শিল্পীর গাড়িটি দুমড়েমুচড়ে যায় এবং খুরশীদ আলমের মাথা ও মুখে আঘাত লাগে।

প্রসঙ্গত, কণ্ঠশিল্পী খুরশীদ আলমের জন্ম ১৯৪৬ সালে। পুরান ঢাকার আলাউদ্দীন রোড এলাকায় তিনি বেড়ে ওঠেন। তিন ভাই, দুই বোনের মধ্যে সবার বড় খুরশীদ আলম।

ছোটবেলা থেকেই তিনি সঙ্গীতের সঙ্গে জড়িত। খুরশীদ আলমের গাওয়া অসংখ্য জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে- ‘মাগো মা, ওগো মা, আমারে বানাইলি তুই দিওয়ানা’, তোমরা যারা আজ আমাদের ভাবছো মানুষ কি ন’, ‘বন্দি পাখির মতো মনটা কেঁদে মরে’ ইত্যাদি।

আপনার মতামত জানানঃ