কেমন ছিলো শেষ পাঁচ বিশ্বকাপ?

ঢাকা অফিস : আর মাত্র একদিন দিন, ইংল্যান্ডের মাটিতে শুরু হবে ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর। পুরো দুনিয়ার ক্রিকেট ফ্যানরা বুঁদ হবেন আইসিসি ওয়াল্ডকাপের ১২তম আসরে।

বাংলাদেশের প্রথম, সাউথ আফ্রিকা ট্রাজেডি, অস্ট্রেলিয়ার হ্যাটট্রিকের শুরু…..শতাব্দীর শেষ বিশ্বকাপ ১৯৯৯ এর পরতে পরতে ছিলো চমক। নিজেদের প্রথম আসরেই গ্রুপ পর্বে পাকিস্তানকে হারিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাস।

তবে সব ছাপিয়ে সাউথ আফ্রিকা-অস্ট্রেলিয়ার সেমিফাইনাল। শেষ চার বলে দরকার মাত্র ১ রান, কিন্তু কপাল্টা যে খারাপ প্রোটিয়াদের! অ্যালান ডোলান্ডের পাগলাটে দৌড়ে ম্যাচ টাই, পয়েন্টে এগিয়ে ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া। শিরোপা লড়াইয়ে পাকিস্তানকে হারিয়ে রাজত্বের শুরু অজিদের।

২০০৩ বিশ্বকাপ উপহার দিয়েছে বাংলাদেশকে একরাশ হতাশা। প্রথম বারের মতো আফ্রিকায় বসে বিশ্বকাপ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০০ মাইলের রেকর্ড গড়েছিলেন রাওয়াল পিন্ডি এক্সপ্রেস। এবারো একপেশে ফাইনাল, রিকি পন্টিয়ের ঝড়ে দাঁড়াতে পারেনি ভারত।

বদলেছে ভেন্যু, বদলেছে মহাদেশ……কিন্তু চ্যাম্পিয়ন সেই অস্ট্রেলিয়া। এই বিশ্বকাপে ফের চমক বাংলাদেশের। ভারতকে লজ্জা দিয়ে সুপার এইটে টিম টাইগার্স। ১৯৯৯ এর গ্রুপ পর্ব থেকে ২০০৭ বিশ্বকাপ, ২৯ ম্যাচে আনবিটেন থেকে দাপটের সাথে হ্যাটট্রিক বিশ্বকাপ অস্ট্রেলিয়ার।

দশম বিশ্বকাপ………প্রথম বারের মতো আয়োজক দেশের তালিকায় বাংলাদেশ। মুম্বাইয়ে শচীন টেন্ডুলকারের শেষ ম্যাচে আর ভাগ্যদেবতা মুখ ফেরাননি।২৮ বছরের শিরোপা ঘুঁচিয়ে টিম ইন্ডিয়া বিদায় জানিয়েছে মায়েস্ত্রোকে।

২০১৫তে ফের তাসমানিয়ার পাড়ে বিশ্বকাপ। বাংলাদেশ পায় বিশ্বকাপে ওদের সেরা সাফল্য…কোয়ার্টার ফাইনাল। সেমিফাইনালের ট্যাগ থেকে বেরিয়ে প্রথম ফাইনালে ওঠে নিউজিল্যান্ড। কিন্তু ফের একপেশে ফাইনাল। নিজেদের মাটিতে প্রথম আর পাঁচ নম্বর শিরোপা অস্ট্রেলিয়ার।

আপনার মতামত জানানঃ