কেশবপুরে কুকুরের তাড়া খেয়ে আহত শিশুর মৃত্যু

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি : কেশবপুরে কুকুরের তাড়া খেয়ে দৌড়ে পালানোর সময় পড়ে গিয়ে আলিফ (৬) নামে একটি শিশু আহত হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। সে শিশু কল্যাণ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক প্রাথমিক শ্রেণীর শিক্ষার্থী।
জানাগেছে, কেশবপুর শহরের আলতাপোল মাছবাজার এলাকার সাগর খান ও আসমা বেগমের ছেলে আলিফ প্রতিদিনের মতো শুক্রবার বিকেলেও খেলা করতে যায়। সন্ধ্যার আগে বাড়ি ফেরার পথে কুকুর তার পিছু নিলে দৌড়ে বাড়ির উঠানে এসে সে পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হয়। পরিবারের লোকেরা উদ্ধার করে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার আহসানুল মিজান রুমি জানান, আলিফকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। আর শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।
থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আবু সাঈদ জানান, এ ঘটনায় কেশবপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ না থাকায় আলিফের লাশ তার বাবার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
এদিকে শনিবার সকালে অত্যান্ত শোকাবাহ পরিবেশে মণিরামপুর উপজেলার বাঁকোশপোল গ্রামে নামাজে জানাজা শেষে ঐ গ্রামে তাঁদের পারিবারিক কবরস্থানে শিশু আলিফের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।
উল্লেখ্য কেশবপুর পৌর শহর-সহ উপজেলা ব্যাপী বে-অরিস কুকুরের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এসকল বে-অরিস কুকুর ক্ষুধার তাড়নায় প্রতিনিয়ত হাস, মুরগী, ছোট ছাগল খেয়ে ফেলছে। পাগলা কুকুরের কামড়ে প্রতিনিয়ত মানুষ-সহ বিভিন্ন প্রাণী আহত হচ্ছে। আদালতের নিষেধাজ্ঞার কারণে কুকুর নিধন বন্ধ রায়েছে। অবিলম্বে আদালতের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে কুকুর নিধন কার্যক্রম শুরু করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট জোর দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগি উপজেলা বাসি।

আপনার মতামত জানানঃ