কেশবপুরে কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি  : কেশবপুরে কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।
এলাকাবাসি সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার ভরতভায়না গ্রামের তৌহিদুর রহমানের বাড়িতে আতœীয়তার সূত্রে মণিরামপুর উপজেলার কপালিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল খালেক গাজীর পূত্র এক সন্তানের জনক বাবলুর রহমান গাজী (৩৩) এর যাতায়াত ছিল। তারই সূত্র ধরে বাবলুর রহমান তৌহিদুর রহমানের স্ত্রী ২ সন্তানের জননী মিতা খাতুন (৩০) কে প্রায়ই কু-প্রস্তাব দিত। কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বাবলুর রহমান মঙ্গলবার রাত ৯ টার দিকে বাড়িতে কেউ না থাকায় সূযোগে গৃহবধূ মিতা খাতুনকে চোখ-মুখ বেধে পাশের বাশ বাগানে নিয়ে সমস্ত শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুণ ধরিয়ে দেয়। ধস্তা-ধস্তির এক পর্যায়ে লম্পট বাবলুর গায়েও আগুণ ধরে যায়। সঙ্গে আগুণের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়লে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে আগুণ নিভালেও গৃহবধূ মিতার সমস্ত শরীর পড়ে যায়। এসময় লম্পট বাবলুকে আটক করে এলাকাবাসি থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি ককটেল, একটি খেলানা পিস্তল ও দুটি কাচের বোতল উদ্ধার করে। মারাতœক আহতাবস্থায় গৃহবধূ মিতাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালের বার্ন ইউনিটে এবং লম্পট বাবলুকেও চিকিৎসার জন্য ঐ বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। এব্যাপরে থানায় অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লাহ জানান, গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ