ক্ষুধা পেলেই মেয়ের মুখে মদ তুলে দেন বাবা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ক্ষুধা পেলে তিন বছরের কন্যা শিশুকে মদ রাইয়ে রাখতেন তার নিজের বাবা। শুনে অনেক খারাপ লাগলেও এটাই সত্য। সম্প্রতি এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের রাজধানী দিল্লি শহরে। এমন খবর প্রকাশ করেছে ভারতের প্রথম সারির সংবাদ মাধ্যম আনন্দনবাজার।

দিল্লির মহিলা কমিশন অফিসের হেল্পলাইনে ফোন করে তিন বছরের একটি শিশুকন্যার এই করুণ অবস্থার কথা জানানো হয়। সেই তথ্য মতো দিল্লির প্রেমনগর এলাকা থেকে ওই শিশুটিকে উদ্ধার করে মহিলা কমিশন। উদ্ধারের পর শিশুটির বেহাল অবস্থা দেখে চমকে গিয়েছেন কমিশনের কর্মকর্তারা।

হেল্পলাইনে আসা ফোনে কমিশনকে জানানো হয়, ক্ষুধা পেলে বাচ্চাটি যখন কাঁদে, তখন দুধের বোতলে মদ ভরে শিশুটিকে খাইয়ে দেয় তার বাবা। অভিযোগকারী ওই ব্যক্তি আরও জানান, গত তিনদিন ধরে শিশুটিকে মদ ছাড়া কিছু খেতেই দেয়নি তার বাবা!

এদিকে শিশুটিকে উদ্ধার করে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান কমিশনের কর্মকর্তারা। সেখানে গিয়ে দেখা যায়, নোংরা ডায়াপার ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে থাকার জন্য শিশুটির বিভিন্ন অঙ্গে সংক্রমণ হয়েছে। আপতত কমিশনের হেফাজতেই শিশুটির প্রয়োজনীয় চিকিৎসা চলছে।

প্রতিবেদনেটিতে বলা হয়, ওই শিশুটির মা এক বছর আগে মারা যান। বাবা রিক্সাচালক।

প্রতিবেশীরা অভিযোগ করেন, কাজে যাওয়ার সময় বাচ্চাটিকে ঘরে রেখেই চলে যেত তার বাবা। তাদেরকেও ঘরে ঢুকতে বাধা দিত অভিযুক্ত। যদিও এই ঘটনায় এখনো কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি।

দিল্লির মহিলা কমিশনের প্রতিনিধি বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, কেন এখনো মামলা দায়ের করা হল না, সে ব্যাপারে প্রেম নগর থানার পুলিশের সঙ্গে কথা বলবেন তারা।

আপনার মতামত জানানঃ