খুলনায় নির্মাণাধীন বাড়ীর সানসেট ধসে ভাই-বোনের মৃত্যু

খুলনা : খুলনার দৌলতপুরের দেয়ানায় নির্মাণাধীন সেমিপাকা বাড়ীর সানশেড ধসে দুই শিশুর নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে দেয়ানার উত্তর পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত দুই শিশু সম্পর্কে ভাই-বোন। পুলিশ ও দমকল বাহিনীর কর্মকর্তারা জানান, উত্তর দেয়ানা এলাকার রিকশা চালক বাদল শেখ তার নিজ জমিতে টিনশেডের একটি সেমি পাকা বাড়ী নির্মাণ করছিলেন। নির্মাণাধীন ওই বাড়ীর সানসেটের নিচে বসে তার দুই সন্তান (১২ বছরের মোঃ আলফাত শেখ শিপন ও ১৮ মাস বয়সের সামিয়া খাতুন) খেলা করছিলো। এসময় সানসেট ভেঙ্গে তাদের উপর পড়ে। ঘটনাস্থলে সামিয়ার মৃত্যু হয়। আশংকাজনক অবস্থায় শিপনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে সে মারা যায়। এসময় গৃহকর্তা বাদল শেখের এক ভাই রাজা শেখও আহত হয়। এ ঘটনা দেখে বাদল শেখের অপর এক ভাই আসলাম শেখ নারকেল গাছ থেকে দ্রুত নামতে গিয়ে পড়ে আহত হয়েছে। তাঁর পা ভেঙ্গে যায়। আহতদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
দৌলতপুর থানার ওসি কাজী মোস্তাক আহমেদ বলেন, গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে দেয়ানা উত্তরপাড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা ওই এলাকার বাদল শেখের ছেলে মো. শিপন (১২) ও দেড় বছর বয়সী মেয়ে সামিয়া খাতুন। ওসি মোস্তাক পরিবারের বরাতে বলেন, তারা তাদের নির্মাণাধীন বাড়ির সানশেডের নিচে খেলাধুলা করছিল। এ সময় সানশেড ধসে পড়লে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। বাড়িটি ইটের দেয়ালের ওপর টিনের চাল দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে। ওসি বলেন, নির্মাণাধীন এই বাড়ির সানশেড রড না দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। সিমেন্টও কম দেওয়া হয়েছে। নিহতদের প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। নিজ ঘরের সানসেট ভেঙ্গে দুই শিশুর করুন মৃত্যুর ঘটনায় ওই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

আপনার মতামত জানানঃ