পাইকগাছায় মাদরাসায় অধ্যক্ষ পদের নিয়োগ পরীক্ষার অভিযোগ

স্নেহেন্দু বিকাশ, পাইকগাছা : পাইকগাছায় মেয়াদোত্তীর্ণ তারিখে রাড়ুলী আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ পদে নিয়োগ পরীক্ষার অভিযোগে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ হয়েছে। এ অভিযোগটি করেছেন গভর্ণিং বডির সদস্য মোক্তার হোসেন। এদিকে, গভর্ণি বডির সভাপতি এ ঘটনা অস্বীকার করে জানিয়েছেন, কিছু ব্যক্তির চক্রান্ত ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের অপরাধ ঢাকতে কথিত অভিযোগটি আনা হয়েছে।

 সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ০৪/০১/২০১৯ পূর্ব নির্ধারিত তারিখে রাড়–লী আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ পদে নিয়োগ পরীক্ষার অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অজানা কারণে এ পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যায়। একটি সূত্র বলেন, নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ ওঠায় কয়রা-পাইকগাছার এমপির হস্তক্ষেপ এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। ইউএনও দপ্তরে অভিযোগের বরাত দিয়ে অভিভাবক সদস্য মোক্তার হোসেন জানান, বিগত ৪ জানুয়ারির পরীক্ষা ৫ এপ্রিল খুলনায় অনুষ্ঠিত হয় এবং পূর্ব নির্ধারিত শিহাব উদ্দীনকে উত্তীর্ণ দেখানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় তিনি ৮ এপ্রিল প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ করেছেন। এ অভিযোগ অস্বীকার করে প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মজিদ গোলদার বলেন, যেহেতু নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে সেখানে পরীক্ষার প্রশ্নেই ওঠে না। এটা বিরোধীদের অপপ্রচার মাত্র। তিনি জানান, নতুন করে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির জন্য ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের কাছে রেজুলেশনের খাতাপত্র চাওয়া হয়। ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মহাসিন সরদার বলেন, পরীক্ষার সম্বন্ধে আমি কিছুই জানি না। তবে রেজুলেশন খাতা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে জমা দিয়েছি। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুলিয়া সুকায়না বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান জানিয়েছেন নতুন করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের জন্য ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে নির্দেশনা দেন। এ বিষয়ে তার দপ্তরে একটি অভিযোগ হয়েছে বলে জানান।

আপনার মতামত জানানঃ