বটিয়াঘাটায় তহসিল অফিসের দাখিলা বই সংকটে বিড়ম্বনার স্বীকার

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি : বটিয়াঘাটা উপজেলার জলমা তফসিল অফিসের দাখিলা বই সংকটের কারনে সরকার লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব আদায় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অন্যদিকে সাধারন মানুষ দাখিলা না পেয়ে নানা ধরনের বিড়ম্বনার স্বীকার হচ্ছে। সূত্রে প্রকাশ উপজেলার বটিয়াঘাটা ইউনিয়ন ভূমি(জলমা তহশীল) অফিসে দাখিলা সংকটের কারনে একদিকে সরকার যেমন লক্ষ লক্ষ টাকার রাজস্ব আদায় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, তেমনি অন্যদিকে সাধারন মানুষ দাখিলা কাটতে না পেরে তাদের গুরুত্বপূর্ন কাজ সহ নানা ধরনের বিড়ম্বনার স্বীকার হচ্ছে। জলমা তহশীল অফিস সূত্রে জানায় সরকার বটিয়াঘাটা ইউনিয়ন ভূমি অফিসের রাজস্ব আদায়ের ডিমান্ড বেধে দিয়েছে ১(এক) কোটি ২০(বিশ) লক্ষ টাকা। সেই ডিমান্ড পূরন করতে হলে প্রচুর দাখিলা বইয়ের প্রয়োজন। জলমা তহশীলদার সরকারের রাজস্ব আদায়ের ডিমান্ড পূরন করার লক্ষ্যে উপজেলা ভূমি অফিসের কর্তৃপক্ষের নিকট দাখিলা বইয়ের জন্য আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ দাখিলা বই সংকটের কারনে ১০টি বই চাইলে ৩টি বই বরাদ্দ করেন। যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। এদিকে দাখিলা বই স্বল্পতার কারনে ভূমির মালিকগন মামলা, জমি ক্রয়-বিক্রয়, নামপত্তন সহ যাবতীয় কাজ করতে নানান ধরনের বিড়ম্বনার স্বীকার হতে হচ্ছে। এতে করে একদিকে যেমন সাধারন মানুষের সময়ের অপচয় সহ অর্থনৈতিক দন্ড ও সরকার লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব আদায় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। কর্তৃপক্ষের ডিমান্ড বেধে দেওয়া প্রায় ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকার রাজস্ব আদায় পূরন না হবার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী এলাকার জমির মালিকগন জেলার একমাত্র সর্বশ্রেষ্ঠ রাজস্ব আদায়ের প্রতিষ্ঠান বটিয়াঘাটা ইউনিয়ন ভূমি(জলমা তহশীল) অফিসের চাহিদা মোতাবেক দাখিলা বই বরাদ্দ করে সরকারের রাজস্ব আদায়ের ডিমান্ড পূরনের সহায়তা ও সাধারন মানুষের বিড়ম্বনার হাত থেকে রেহাই পাওয়ার জোরদার দাবী জানিয়েছি।

আপনার মতামত জানানঃ