বটিয়াঘাটায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে অবুঝ শিশু প্রাপ্তি

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধিঃ সন্ধ্যা প্রদ্বীপের শিখা থেকে শরীরে আগুন লেগে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বটিয়াঘাটার হাটবাটি-হোগলবুনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেনীর ছাত্রী প্রাপ্তি বাগচী(৭)। সে হোগলবুনিয়া গ্রামের দিনমজুর চিন্ময় বাগচীর কন্যা। বাঁচিয়ে রাখতে হলে তার চিকিৎসার জন্য প্রায় ৭/৮ লক্ষ টাকার প্রয়োজন। প্রাপ্তি গত ১০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় তার মায়ের সাথে পূজার আসনে সন্ধ্যা প্রদ্বীপ দিতে গিয়ে শরীরে থাকা কাপড়ে আগুন ধরে যায়। ওই সময় তার শরীরের বাম পাশে সম্পূর্ন অংশ পুঁড়ে ঝলসে যায়। সঙ্গে সঙ্গে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সাময়িক চিকিৎসা শেষে চিকিৎসকরা তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে প্রেরন করেছেন। চিকিৎসা ব্যায়ের ওই টাকা হতদরিদ্র পিতার পক্ষে জোগাড় করা কোনোক্রমেই সম্ভব নয় বিধায় দিনমজুর পিতা নিরুপায় হয়ে বাড়িতে এনে রেখেছে। বর্তমানে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে পচন ধরেছে। দিনমজুর পিতা সাহায্যের হাত নিয়ে খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ ও জেলা প্রশাসক আমিন উল আহসানের কাছে গেলে তারা প্রত্যেকেই নগদ ৫হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। কিন্তু তাতে তার চিকিৎসা ব্যায় সংকুলান হওয়ার নয়। এক দিকে সাংসারিক দারিদ্রতা অন্যদিকে অবুঝ শিশুর চিকিৎসা না দিতে পারায় মৃত্যু যন্ত্রনা তার বাবা মাকে প্রতিক্ষণ কুঁড়ে কুঁড়ে খাচ্ছে। তাই তার বাবা-মা অবুঝ সন্তানকে বাঁচিয়ে রাখতে চিকিৎসা ব্যায়ের জন্য সমাজের বিত্ত-বৈভব, ধনশালী ও প্রবাসী ব্যক্তিদের কাছে আর্থিক সাহায্য কামনা করেছেন। সাহায্য পাঠাতে বিকাশের মাধ্যমে ০১৭১৭-২৪৮৫১৬ নম্বরে যোগাযোগ করতে অনুরোধ রেখেছে।

আপনার মতামত জানানঃ