বাগেরহাট-০৩ আসনের উপ-নির্বাচনে একমাত্র আ’লীগের প্রার্থী হাবিবুন নাহারে মনোনয়নপত্র দাখিল

আবু হোসাইন সুমন, মোংলা : মোংলা-রামপাল (বাগেরহাট-০৩) আসনের উপ-নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র জমার শেষ দিনে শুধুমাত্র একটি মাত্র মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে। এর আগে দুইজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও বৃহস্পতিবার একমাত্র আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হাবিবুন নাহার তার মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে বাগেরহাট জেলা নির্বাচন অফিসে রিটানিং কর্মকর্তা ও ফরিদপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো: নূরুজ্জামান তালুকদারের কাছে মনোয়নয় পত্র জমা দেন হাবিবুন নাহার। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে যিনি মনোনয়ন সংগ্রহ করেছিলেন তিনি তার মনোনয়ন পত্র জমা দেননি। মনোনয়নপত্র জমার দুইদিন আগেই চিত্র নায়ক শাকিল খান ঘোষণার মধ্যদিয়ে সরে দাড়িয়েছেন নির্বাচন থেকে। সুতরাং বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত ঘোষিত হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও এই এলাকারই সাবেক সাংসদ হাবিবুন নাহার।
মনোনয়নপত্র জমাকালে সাবেক সাংসদ হাবিবুন নাহারের সাথে ছিলেন তার স্বামী খুলনা সিটি কর্পোরেশনের নব নির্বাচিত মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. মোজ্জাম্মেল হোসেন এমপি, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ কামরুজ্জামান টুকু, মীর শওকাত আলী বাদশা এমপি, বাগেরহাট পৌর মেয়র খান হাবিবুর রহমান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এইচ,এম বদিউজ্জামান সোহাগ, কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগ নেত্রী তালুকদার রিনা সুলতানাসহ জেলা আওয়ামী লীগ ও মোংলা-রামপালের আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দরা।
খুলনা সিটি করপোরেশনের নব নির্বাচিত মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এর আগেও একবার সিটি মেয়র ছিলেন। তাছাড়া ১৯৯১ সাল থেকে মোংলা-রামপাল আসনে ধারাবাহিকভাবেই সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে আসছিলেন তিনি। এর ফাকে যে দুইবার তিনি খুলনায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন সেই দুইবারই তার স্ত্রী হাবিবুন নাহার তার ছেড়ে যাওয়া আসনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন এবং সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এর আগের বার বিপুল ভোটে হাবিবুন নাহার এমপি নির্বাচিত হলেও এবার হয়তো আর ভোটের প্রয়োজন হবে না। কারণ প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী না থাকায় তিনিই বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে নির্বাচন করতে গিয়ে এ আসনের এমপি আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক সংসদ সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করায় গত ১০ এপ্রিল এ আসনটি শূণ্য হয়ে পড়ে। সেই শুণ্য হওয়া আসনে তারই সহধর্মিনী হাবিবুন নাহারকে উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ। মোংলা-রামপাল আসনের উপ-নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিন ছিল ২৪ মে। আগামী ২৭ মে মনোনয়নপত্র ঝাচাই-বাছাই ও ৩ জনু মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ধার্য্য রয়েছে। এছাড়া ২৬ জুন ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। তবে শুধুমাত্র একজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেয়ায় ভোট গ্রহণ ছাড়াই বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় একমাত্র মনোনয়ন জমাকারী হাবিবুন নাহারের নাম ঘোষণার অপেক্ষা এখন মাত্র।

আপনার মতামত জানানঃ