বাজারে ভেজাল পণ্য: দুই সংস্থার প্রতিধিনিকে হাইকোর্টের তলব

ঢাকা অফিস : বাজারে ৫২টি প্রতিষ্ঠানের ভেজাল পণ্যের বিষয়ে কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, এর ব্যাখ্যা দিতে বিএসটিআই ও নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের দুইজন প্রতিনিধিকে তলব করেছে হাইকোর্ট। এই বিষয়ে করা রিটের প্রাথমিক শুনানি শেষ, আদেশ রবিবার।

বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেয়। কনসাস কনজ্যুমার সোসাইটি বিএসটিআইয়ের পরীক্ষার মাধ্যমে নির্ধারণ করা প্রাণ, এসাই, ডানকান, ড্যানিশসহ ৫২টি প্রতিষ্ঠানের পণ্য জব্দ করার নির্দেশনা চেয়ে রিট দায়ের করেন। এসব কোম্পানির কিছু পণ্য নিম্নমানের ও অস্বাস্থ্যকর, যা বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় উঠে এসেছে। আদালত এসব বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে বলে, সব যদি আদালত দেখে তাহলে অন্যদের কাজটা কী?

এর আগে, বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্স অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) পরীক্ষায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৫২টি মানহীন ও নিম্নমানের পণ্য জব্দ এবং এসব পণ্য বাজার থেকে প্রত্যাহারের নির্দেশনা চেয়ে রিট আবেদন করা হয়েছে। রিটে পণ্যের গুণগত মান উন্নত না হওয়া পর্যন্ত উৎপাদন বন্ধেরও নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে, হাইকোর্টে ভোক্তা অধিকার সংস্থা কনসাস কনজুমার্স সোসাইটির (সিসিএস) পক্ষে জনস্বার্থে সংগঠনের আইন উপদেষ্টা আইনজীবী ব্যারিস্টার শিহাব উদ্দিন খান এই রিট করেন।

রিটের বিবাদীরা হলেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্স অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) মহাপরিচালক (ডিজি), বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।

এর আগে ৬ই মে বিএসটিআই কর্তৃক বাজারে এসব পণ্যে ভেজাল ধরা পড়ার পরও জব্দ না করা, সেগুলো বাজার থেকে প্রত্যাহারের ব্যবস্থা না নেয়া ও প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় দুই মন্ত্রণালয়ের সচিব ও তিন প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে আইনি নোটিশ পাঠান ভোক্তা অধিকার সংস্থা কনসাস কনজুমার্স সোসাইটি (সিসিএস)। নোটিশের পরও যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় এ রিট আবেদন করা হয়।

আপনার মতামত জানানঃ