‘বিচারকাজ হবে ভার্চুয়াল আদালতে’

ঢাকা অফিস : অনলাইনে বিচার কাজ সম্পন্ন করতে পর্যায়ক্রমে দেশে সকল জেলায় ভার্চুয়াল আদালত স্থাপন করা হবে বলে জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রবিবার জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। এসময় বিচারপ্রার্থীরা যেন হয়রানির শিকার না হন, তা নিশ্চিত করার তাগিদ দেন প্রধানমন্ত্রী।

এ বছর আইনগত সহায়তা দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় শেখ হাসিনার অবদান। বিনামূল্যে লিগ্যাল এইডে আইন সেবাদান’। ২০১৩ সাল থেকে প্রতিবছর ২৮শে এপ্রিল এ দিবসটি পালন করে আসছে সরকার।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকার আইনের শাসন ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আর্থিকভাবে অসচ্ছল, সহায় সম্বলহীন ও নানাবিধ আর্থ-সামাজিক কারণে দেশের কোনো নাগরিক যেন ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত না হয়, সে লক্ষ্যে আমরা ‘আইনগত সহায়তা প্রদান আইন, ২০০০’ প্রণয়ন করেছি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ন্যয় বিচার প্রতিষ্ঠার দায়িত্ব যেমন বিচারকদের তেমনি আইন পেশার সঙ্গে জড়িতদেরও। এসময় মামলার দীর্ঘসূত্রিতা কমিয়ে দ্রুততম সময়ে রায় প্রদানের উপায় বের করার আহ্বান জানান তিনি।

সরকারি আইন সহায়তা কার্যক্রম বৈষম্য দূর করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, অসহায়, দরিদ্র ও নিঃস্ব জনগণকে বিনা খরচে সরকারি আইন সহায়তা ও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। জেলা লিগ্যাল এইড অফিসসমূহ ‘বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি’র কেন্দ্রস্থল হিসেবে মামলার পক্ষসমূহের মধ্যে আপোষ-মীমাংসার মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তি করছে, যা সারাদেশের আদালতসমূহে মামলাজট কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

আপনার মতামত জানানঃ