মোংলায় কলেজ ছাত্রীকে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা : আটক ৩

মোংলা প্রতিনিধি : মোংলায় কলেজ পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে শ্লীলতাহানীর চেষ্টার ঘটনায় ৩ লম্পট যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েরের পর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
মামলার বিবরণে জানা যায়, মোংলা পোর্ট পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের গিয়াস উদ্দিন সড়কের বাসিন্দা মো: হারুন খানের মেয়ে শিল্পি আক্তার (২০) মোংলা কলেজে লেখা পড়া করে আসছিল। কলেজে যাওয়া আসার পথে শিল্পিকে একই ওয়ার্ডের মাদ্রাসা রোডের বাসিন্দা মৃত মোকারম হোসেনে ছেলে মো: সোহেবের (২০) নেতৃত্বে মো: অলিয়ার হোসেনের ছেলে আবু বকর সিদ্দিক ওরফে আবির ও মো: সেলিম তালুকদারের ছেলে মো: শফিকুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে উত্ত্যক্তসহ প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। প্রেম প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শিল্পিকে বিভিন্ন সময়ে বিরক্ত করার পাশাপাশি তুলে নেয়ার/অপহরণের হুমকিও দেয় সোহেব ও তার সহযোগীরা। বিষয়টি শিল্পি তার পরিবারকে জানালে পরিবারের অভিভাবক সোহেব, আবির ও শফিকুলের অভিভাবকদের জানিয়ে সতর্ক করেন। এতে আরো বেশি ক্ষিপ্ত হয়ে সোহেব তার সহযোগী আবির ও শফিকুলকে সঙ্গে নিয়ে শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে শিল্পির বাড়ীতে গিয়ে ঘরে ঢুকে সোহেব শিল্পির শ্লীলতাহানীর চেষ্টা চালায়। এ সময় শিল্পির ডাক চিৎকারে পরিবারসহ আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। পরে পুলিশকে খবর দেয়া হলে ঘটনাস্থল থেকেই দুই সহযোগীসহ সোহেবকে আটক করে পুলিশ। এ ঘটনায় রবিবার সকালে শিল্পির বড় বোন শিউলী (২৩) বাদী হয়ে থানায় শিশু ও নারী নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছে। এ মামলায় সোহেব, আবির ও শফিকুলকে দুুপুরেই বাগেরহাট আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। এদিকে শহরের মাদ্রাসা রোডের জনৈক এক ব্যক্তি লম্পট চক্রের পক্ষ হয়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে বাদী পক্ষকে হুমকি-ধামকিসহ ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ