রাজিব-দিয়া মামলা: দুই চালক ও এক হেলপারের যাবজ্জীবন

ঢাকা অফিস : রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব ও একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দিয়া খানম মিমের মৃত্যুর মামলায় জাবালে নূর বাসের দুই চালক মাসুম বিল্লাহ ও জুবায়ের হোসেন এবং সহকারি কাজী আসাদকে যাবজ্জীবন সাজার রায় দিয়েছে আদালত।
একই সাথে ৫০ হাজার টাকা জরিমানাসহ অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ডও দেয়া হয়েছে। বাস মালিক জাহাঙ্গীর হোসেন ও চালকের সহকারী এনায়েত হোসেনকে খালাস দেয়া হয়েছে।

ঢাকা মহানগর দায়রা জজ ইমরুল কায়েশ এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার আগে কারাগার থেকে জাবালে নূর পরিবহনের মালিক জাহাঙ্গীর আলম, দুই চালক মাসুম বিল্লাহ ও জুবায়ের সুমন এবং তাদের সহকারী এনায়েত হোসেনকে আদালতে হাজির করা হয়। অপর দুই আসামি বাস মালিক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম ও হেলপার মোহাম্মদ আসাদ কাজী এখনো পলাতক। আরেক আসামি বাস মালিক শাহদাত হোসেন আকন্দের অংশের বিচার হাইকোর্টের আদেশে স্থগিত রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ২৫শে অক্টোবর আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জগঠন করা হয়। এর আগে গত ৬ সেপ্টেম্বর আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে গোয়েন্দা পুলিশ। ২০১৮ সালের ২৯শে জুলাই জাবালে নূর পরিবহনের দুইটি গাড়ি বেপরোয়া ভাবে চালিয়ে একটি বাস রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের কয়েকজন ছাত্র ছাত্রীর উপর তুলে দিলে দিয়া খানম মিম ও আব্দুল করিম রাজীব নিহত হয়। এর প্রতিবাদে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামে সারাদেশের শিক্ষার্থীরা। স্থবির হয়ে পড়ে রাজধানীর যান চলাচল।

আপনার মতামত জানানঃ