শার্শায় ছিনতাই হওয়ায় টাকা উদ্ধার : আটক ৩

যশোর : যশোরের শার্শা থেকে ডাচ বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিং এর ছিনতাই হওয়া প্রায় ৮ লাখ টাকা তিন যুবককে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। একই সাথে তাদের কাছ থেকে একটি ওয়ান স্যুটারগান এবং ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়েছে। আটককৃতরা হলো, বেনাপোল পোর্ট থানার সাদিপুর গ্রামের আহসানের ছেলে সুজন (২৫), আবু তৈয়ব মোড়লের ছেলে আনোয়ার হোসেন (২৫) এবং ভবেরবেড় গ্রামের মোহাম্মদ নুরুর ছেলে মোহাম্মদ নোমান (১৯)। যশোরের পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার বৃহস্পতিবার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেসব্রিফিং জানান, বেনাপোলের ডাচ বাংলা ব্যাংকিং এর এজেন্ট শরীফ ট্রেডার্সের মালিক শরীফ হোসেন। তার কর্মচারি শিমুল হোসেন টুটুল (২৪) এজেন্ট ব্যাংকিং এর ১৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা নিয়ে গত বুধবার বেনাপোলে যান। সেখানে একটি ব্যাংকে ৬ হাজার টাকা জমা দেন। বাকি টাকা নিয়ে তিনি একটি মোটরসাইকেলে করে শার্শার দিকে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে শার্শা মাঠপাড়া গ্রামের বিজিবি চেকপোস্ট পার হওয়া মাত্রই ওই তিন ছিনতাইকারী বাজাজ কোম্পানির পালসার ব্রান্ডের একটি মোটরসাইকেলে করে এসে তার পথরোধ করে। পরে তার কাছে থাকা ৭ লাখ ৮০ হাজার টাকা ভর্তি ব্যগ ছিনিয়ে নিয়ে বেনাপোলের দিকে চলে যায়। সংবাদ পেয়ে শার্শা থানা পুলিশ এবং ডিবি পুলিশের একটি টিম সেখানে গিয়ে খোঁজ খবর নেয়া শুরু করে। ডিবি পুলিশ উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে তিন ছিনতাইকারীকে বুধবার দিবাগত রাত ১টার দিকে আটক করে। তাদের কাছ থেকে ছিনতাই হওয়ার টাকার মধ্যে ৭ লাখ ৬৪ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। সে সময় তাদের কাছ থেকে একটি ওয়ান স্যুটারগান এবং একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়েছে। টুটুলের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়া মোবাইল ফোনটিও উদ্ধার করা হয়েছে। প্রেস ব্রিফিং এ আরো জানানো হয়েছে, ঘটনার ৮ থেকে ১০ ঘন্টার মধ্যে ছিনতাইকারীকে আটক এবং টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। ১৬ হাজার টাকা উদ্ধার করা যায়নি। এ ঘটনার সাথে আরো কেউ জড়িত কি না তা দেখা হচ্ছে। ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করেছে আটক তিন যুবক। এই ঘটনায় শার্শা থানায় একটি মামলা হয়েছে। প্রেসব্রিফিং এ অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পুলিশ সুপার (পিবিআই) রেশমা শারমিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) সালাহ উদ্দীন শিকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) তৌহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ক সার্কেল গোলাম রব্বানী, ডিবি পুলিশের ওসি ইন্সপেক্টর সোমেন দাস, শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম খান, শার্শা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তারিকুল ইসলাম তারেক প্রমুখ।

আপনার মতামত জানানঃ