সুন্দরবনে বনদস্যুদের সঙ্গে কোস্টগার্ডের ‘বন্দুকযুদ্ধ’

সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরা রেঞ্জে অভিযান চালিয়ে সেলিম বাহিনীর দুই সদস্যকে অস্ত্রসহ আটক করা হয়েছে।  সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের গহীনে হলদেবুনিয়া বন অফিস সংলগ্ন আমড়াতলী খালে অভিযান চালিয়ে বনদস্যু সেলিম বাহিনীর দুই সদস্যকে দেশি বিদেশি ৩টি আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলিসহ দু্ইজনকে আটক করেছে কোস্টগার্ড।

এসময় ঘটনাস্থলে জিম্মি থাকা ৩জেলেকে উদ্ধার করা হয়। শনিবার ভোরে এসব বনদস্যুদের আটকের কথা জানান কোস্টগার্ড।

কৈখালি কোস্টগার্ড অফিসের দায়িত্বরত পেটি অফিসার আমির হোসেন জানান, আমড়াতলী খালে বনদস্যু সেলিম বাহিনীর অবস্থান নিশ্চিত হয়ে শুক্রবার রাতে অভিযান চালানো হয়। ঘটনাস্থলে কোস্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে সেলিম বাহিনী উপর্যপুরি গুলিবর্ষন করে। আত্মরক্ষার্থে কোস্টগার্ড পাল্টা গুলি ছোড়ে।

এতে উভয় পক্ষের মধ্যে অর্ধশতাধিক রাউন্ড গুলি বিনিময় শেষে সেলিম বাহিনীর ২ সদস্য খুলনার কয়রা থানার পাথরখালি গ্রামের মৃত জবেদ আলীর ছেলে আব্দুল্যাহ গাজী (৩০) ও জেলার দেবহাটা উপজেলার টাউনশ্রীপুর গ্রামের আব্দুল জলিল গাজীর ছেলে মালেক গাজী (২৬) কে আটক করে কোস্টগার্ড।

এসময় সেখান থেকে দুইটি বিদেশী দোনলা বন্দুক, ১টি দেশী টুটুবর রাইফেল ও ২১ রাউন্ড গুলি, ২টি কুড়াল, ১টি দা, ৪টি মোবাইল সেট ও নগদ ১হাজার ৬শত টাকাসহ আনুসাঙ্গিক মালামাল জব্দ করা হয়।

একই সময়ে বনদস্যু সেলিম বাহিনীর ডেরা থেকে অপহৃত ৩ জেলে আবু সাঈদ, আজিবর মোল্যা ও আমিরুল ইসলামকে উদ্ধার করে কোস্টগার্ড। তবে, কোস্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে বাহিনী প্রধান সেলিমসহ অপর ৩ বনদস্যু বুলবুল, রাম বাবু ও কার্তিক পালিয়ে যায়।

এদিকে সকালে অস্ত্র গুলি সহ আটক বনদস্যুদের শ্যামনগর থানায় হস্তান্তর করেছে কোস্টগার্ড। শ্যামনগর থানার এসআই হাবিব এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটক বনদস্যুদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের পূর্বক আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ