স্বামীকে হত্যা করল স্ত্রী ও তার প্রেমিক : আটক ৩

বেনাপোল প্রতিনিধি : মালয়েশিয়া থেকে বাড়ি ফেরার ১০ ঘন্টা পর স্ত্রী ও তার প্রেমিকরা কুপিয়ে হত্যা করল জামাল হোসেন নামের এক প্রবাসিকে। এঘটনায় নিহতের স্ত্রী ও শ্বশুর ও শাশুড়ি কে আটক করেছে পুলিশ। নিহত জামাল হোসেন (৩৬) বেনাপোল পোর্ট থানার ধান্যখোলা গ্রামের হবিবর রহমানের ছেলে। বুধবার সকালে নিজ বাড়ির বেড রুমে স্ত্রী আয়েশা তার স্বামীকে কতিথ প্রেমিক ও নিজ বাবা মায়ের সহযোগিতায় হত্যা করে। তবে এসময় কোন প্রেমিককে আটক করতে পারেনি পুলিশ। আটককৃতরা হলো নিহত জামালের স্ত্রী আয়েশা খাতুন, শ্বশুর রিয়াজুল ইসলাম টুক, ও শাশুড়ী ফুলবুড়ি।
নিহতের বাবা হবিবার রহমান বলেন, তার ছেলে প্রায় ১৫ বছর যাবৎ মালয়েশিয়ায় ছিল। একই গ্রামের রিয়াজুলের মেয়ে আয়েশার সাথে তার ১৫ বছর আগে বিবাহ হয়। দীর্ঘদিনে তার ছেলে মালয়েশিয়া থেকে মাত্র ৩ বার বাড়ি এসেছে। তার বাড়ি না থাকার কারনে স্ত্রী আয়েশা এলাকার বিভিন্ন ছেলের সাথে প্রেম করত। প্রায় বিভিন্ন লোকের সাথে সে মটরসাইকেলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসত এবং ২/৩ দিন পর বাড়ি ফিরত। তার ছেলের বিল্ডিং এ আয়েশা ও তার মা বাবা বসবাস করত।
তার ছেলে মঙ্গলবার বেলা ২ টার সময় মালয়েশীয়া থেকে বাড়িতে আসে। রাত ৩ টার দিকে বুকে পেটে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে তার স্ত্রী ও সহযোগীরা।
স্থানীয়রা জানায়, স্বামী বিদেশ থাকার সুযোগে আয়েশা একাধিক ব্যক্তির সাথে প্রেম সম্পর্ক গড়ে তোলে এলাকায়। কেউ তাকে ফোন করে ডাকলে সে মটরসাইকেল ভাড়া করে সেখানে গিয়ে ২/৩ দিন একাধারে থাকত। এর আগে গতবার যখন তার স্বামী বিদেশ থেকে বাড়ি এসেছিল তখনও তাকে বিদ্যুতের তার জড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করেছিল।
বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি (তদন্ত) আলমগীর হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় সন্দেহ জনক ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিঙ্গাসাবাদ চলছে। কে বা কারা এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত তদন্ত না করে কিছু বলা যাবে না।

আপনার মতামত জানানঃ