২ আগস্ট পাইকগাছায় বিশ্ববরেণ্য বিজ্ঞানী পি সি রায়ের ১৫৮তম জন্মবার্ষিকী

স্নেহেন্দু বিকাশ, পাইকগাছা : ২ আগস্ট খুলনার পাইকগাছায় বিশ্ববরেণ্য বিজ্ঞানী আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র (পিসি) রায় এঁর ১৫৮তম জন্মবার্ষিকী পালিত হচ্ছে। এ উপলক্ষে খুলনা জেলা ও উপজেলা প্রশাসন ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। বিজ্ঞানীর বসতভিটা উপজেলার রাড়–লীতে বিজ্ঞানীর প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, তথ্য চিত্র প্রদর্শন, আলোচনা সভা ও ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণের বিজ্ঞান মনস্ক কুইজ বিতর্ক সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রতিযোগিতা সহ দিন ব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন, খুলনা-৬ পাইকগাছা-কয়রার সংসদ সদস্য আকতারুজ্জামান বাবু। বিশেষ অতিথি থাকবেন, জেলা পুলিশ সুপার এস,এম শফিউল্লাহ সহ পদস্থ সরকারি কর্মকর্তা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন।
উল্লেখ্য, বিজ্ঞানী পিসি রায় ১৮৬১ সালের ২ আগষ্ট পাইকগাছার কপোতাক্ষ নদের তীরে রাড়–লীতে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম হরিশ্চন্দ্র রায় ও মাতার নাম ভুবন মোহিনী রায়। তিনি একাধারে ছিলেন শিক্ষাবিদ, শিল্পপতি, রসায়নবিদ, সমাজ সেবক, রাজনীতিবিদ, সমবায় আন্দোলনের পুরোধা। পিসি রায় ১৮৯২ সালে কলকাতার মানিক তলায় মাত্র ৮’শ টাকা পুঁজি নিয়ে বেঙ্গল কেমিক্যাল এ্যান্ড ফার্মাসিউটিক্যাল ঔষধ শিল্প কারখানা প্রতিষ্ঠা করেন। খুলনা, সাতক্ষীরা ও বাগেরহাটে একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কাপড়ের মিল ও জন্মভূমি রাড়ুলীতে উপমহাদেশে সর্বপ্রথম সমবায় ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি একাধারে ২০ বছর কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে রসায়ন শাস্ত্রের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। ব্রিটিশ সরকার ১৯৩০ সালে তাকে ‘নাইট’ উপাধিতে ভূষিত করেন। এছাড়া একই বছর লন্ডনের ডারহাম বিশ্ববিদ্যালয়, ১৯৩৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভারত বর্ষের মহীশুর ও বেনারস বিশ্ববিদ্যালয় তাকে সম্মান সূচক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করে। চিরকুমার এই বিজ্ঞানী তার জীবনের অর্জিত সমস্ত সম্পদ মানব কল্যানে দান করে গেছেন। ১৯৪৪ সালের ১৬ জুন ৮৩ বছর বয়সে বিজ্ঞানীর জীবনাবসান ঘটে।

আপনার মতামত জানানঃ