শেখ কামাল ছিলেন তরুণ সমাজের মধ্যমনি- তালুকদার আব্দুল খালেক এমপি

 

খুলনা অফিসঃ খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এমপি বলেছেন, শেখ কামাল ছিলেন তরুণ সমাজের মধ্যমনি। তাঁর মধ্যে ছিলো দেশাত্ম বোধ তেমনি ছিলো ক্রীড়াঙ্গনের প্রতি অপরিসীম ভালোবাসা। তাঁর তারুণ্য দিপ্ত চেতনায় বাংলাদেশে আজ ফুটবল হাটিহাটি পা পা করে এ পর্যন্ত এসেছে। তিনি আরো বলেন, পাকহানাদার বাহিনীর হাত থেকে দেশকে মুক্ত করতে তাঁর অনন্য ভূমিকা ছিলো। শেখ কামাল বঙ্গবন্ধুর মত দেশ প্রেম নিয়ে বাঙালি জাতির জন্য কাজ করে গেছেন।
শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় সদর থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত শেখ কামালের জন্মদিনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সদর থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং ফকির মো. সাইফুূল ইসলামের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, জাতীয় কমিটির সদস্য এ্যাড. চিশতি সোহরাব হোসেন শিকদার, আওয়ামী লীগ নেতা এমডিএ বাবুল রানা, নুর ইসলাম বন্দ, শ্যামল সিংহ রায়, মকবুল হোসেন মিন্টু, জামাল উদ্দিন বাচ্চু, মো. মাহবুব আলম সোহাগ, এ্যাড. খন্দকার মজিবর রহমান, কাউন্সিলর আলী আকবর টিপু, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন খান, হাফেজ মো. শামীম, হাজী মো. নুরুজ্জামান, আবুল কাশেম মোল্লা, রনজিত কুমার ঘোষ, বিএম সজীব, ফেরদৌস হোসেন লাবু, চৌধুরী মিনহাজ উজ্জামান সজল, গাজী মোশাররফ হোসেন, আতাউর রহমান শিকদার রাজু, মো. শিহাব উদ্দিন, এশারুল হক, এস এম শামছুদ্দিন আহমেদ শ্যাম, একেএম শাজাহান কচি, সমীর কৃষ্ণ হীরা, দিলীপ রায় খোকন, এমরানুল হক বাবু, এ্যাড. আহসান হাবীব, আজম খান, মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম, শেখ হারুন মানু, কনিকা সাহা, মো. রিয়াজ হোসেন, মো. আইয়ুব আলী, মুন্সি আব্দুল কাদের, আব্দুর রহমান, উজ্জল রায়, মো. মামুন, মো. তাইজুল ইসলাম, আবু সালেহ শাহীন, মোস্তাফিজুর রহমান সুইট, মো. হায়দার আলী মোল্লা সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। আলোচনা সভা শেষে শেখ কামালে বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

পার্বতীপুরে কিশোরী ধর্ষিত

আব্দুল্লাহ আল মামুন, পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ১২ বছরের কিশোরীকে ধর্ষনের ঘটনা ঘটেছে হয়েছে।  ৪আগস্ট শুক্রবার বিকেলে উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের ফোটামারী ডাঙ্গা নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
তার পিতার নাম আকবর আলী। রক্তাক্ত অবস্থায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন প্রথমে উপজেলা সরকারী হেলথ কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করে পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে মেয়েটি সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছে । প্রত্যক্ষদর্শী ও পারিবারিক সূত্রমতে জানা যায় একই গ্রামের আমিরুল হকের ছেলে জাকারিয়া (২২) নদীর পাশে খড়ি কুড়াতে যাওয়া কিশোরীকে একাকি পেয়ে মুখ বেধে গ্রামের পরিত্যক্ত একটি ঘরে নিয়ে যায় । সেখানে ইচ্ছার বিরোদ্ধে জোরপূর্বক উপর্যপরি ধর্ষনের ফলে মেয়েটি অজ্ঞান হয়ে পড়ে। শনিবার সকালে যোগাযোগ করলে পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি মোস্তাাক আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক-শিক্ষিকা নির্বাচিত হলেন সেলিম ও মর্জিনা

এ রায়হান চৌধূরী রকি, আটোয়ারী থেকেঃ পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক-শিক্ষিকা নির্বাচিত করা হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানাগেছে, ২০১৭ ইং সালে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক এর উপজেলা যাচাই বাছাই কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন সুলতানা, সদস্য সচিব উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আঃ লতিফ সহ সদস্য উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসারবৃন্দ শিক্ষক ফরম পুরনের মাধ্যেমে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে উপজেলার দোহশুহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সেলিম রেজা ও ফকিরগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা মোছাঃ মর্জিনা বেগম কে উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত করেন। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ শিক্ষক সমিতির সকল সদস্য দুজনেই শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত করায় উপজেলা যাচাই বাছাই কমিটিকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। #

তালা প্রেসক্লাবের নির্বাচনী তফসিল ঘোষনা

তালা প্রতিনিধিঃ তালা প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটি গঠনের লক্ষ্যে তফসিল ঘোষনা করা হয়েছে। শনিবার (৫আগষ্ট) সকালে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও তালা প্রেসক্লাবের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার মো. আতিয়ার রহমান এ তফসিল ঘোষনা করেন।
তালা প্রেসক্লাবের নির্বাচনে কার্যনির্বাহী পরিষদে ১৭টি পদে প্রার্থীরা প্রতিদন্দ্বীতা করতে পারবেন। মনোনয়ন গ্রহন ও জমাদানের তারিখ ৮ আগষ্ট থেকে ১০ আগষ্ঠ । মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার ও বরাদ্দের তারিখ ১৩ই আগষ্ট ।
নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ১৯ আগষ্ট শনিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত তালা প্রেসক্লাব কার্যালয়ে ভোট গ্রহন চলবে। সকল শ্রেনী সদস্য পদে নির্বাচন একযোগে এবং একই সময়ে অনুষ্ঠিত হবে । মনোনয়ন পত্র গ্রহন, দাখিল এবং অন্যন্য কার্যাবলি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়ে স¤পন্ন হবে।

লামায় ভবন ধসের আতঙ্কেঃ জীবনের ঝুকি নিয়ে ক্লাস করছে শিক্ষার্থীরা

জয় মারমা,লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধিঃ অন্ধকারাচ্ছন্ন শ্রেণি কক্ষ। ভবনে দেয়াল ও বারান্দায় ফাঁটল। ছাদের ভীম ভেঙ্গে বৃষ্টি পানি শ্রেণিকক্ষে। প্রতিটি শ্রেণিকক্ষের ছাদের বীম, ইট-সুরকি খসে পড়ে ঝং পড়া রড বেরিয়ে কঙ্কালের পরিণত। দরজা-জানালার অবস্থাও নাজুক। সেই সঙ্গে সামান্য বৃষ্টি হলেই ছাদ চুইয়ে পড়ে পানি। ভয় হয়। তবুও এর মধ্যেই বাধ্য হয়ে শিক্ষার্থীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ক্লাস করছে। তারা আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে মাঝে মধ্যে উপরের দিকে তাকাচ্ছে। শঙ্কা কখন বা মাথার উপর খসে পড়ে ইটের টুকরা। এসব আতঙ্কে দিন দিন শিক্ষার্থীর উপস্থিতির হার যেমন কমছে তেমনি ব্যাহত হচ্ছে মানসম্মত শিক্ষা কার্যক্রম। এমন চিত্র দেখা মিললো বান্দরবান জেলার লামা উপজেলায় ১০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের। ভবনগুলোর এমন পর্যায়ে এসে দাঁড়িয়েছে যে কোন সময় ছাদ, বীম ও পিলারের অংশ ধসে পড়ে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।
উপজেলায় মোট ৮৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে ১০টি বিদ্যালয়ের ভবনই ঝুঁকিপূর্ণ ও জরাজীর্ণ। এর মধ্যে অত্যন্ত ঝুঁকিপূণ বিদ্যালয় পাঁচটি। অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যালয়গুলো হলো, আজিজনগর ইউনিয়নে ইসলামপুর বি আলম ও ০২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, লামা পৌর শহরে রাজবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রূপসী পাড়া ইউনিয়নে দরদরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ফাইতং হেডম্যান পাড়া বিদ্যালয়। এসব বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সংখ্যা২ হাজার ৫শত ৫১জন। ভবন ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় ঝুঁকি নিয়ে পরিত্যক্ত ভবনেই চলছে শিক্ষা কার্যক্রম।
এদিকে পরিত্যক্ত তালিকায় নাম না থাকলেও ভবনের অবস্থা জরাজীর্ণ, এমন বিদ্যালয়ও রয়েছে। যার মধ্যে লামা পৌর শহরে চেয়ারম্যান পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ,ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে শহীদ জিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সরই ইউনিয়নে জুরেমণি পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ডান-বাম হাতি ছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ০৩নং রেফজি পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে পাঠদান না করার জন্য এবং বিকল্প নিরাপদ স্থানে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করতে উপজেলা শিক্ষা অফিস বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দিলেও তা মানা হচ্ছে না। আর বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে, কক্ষ সংকটের কারণে বাধ্য হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে পাঠদান করাতে হচ্ছে। এসব ভবনে পাঠদান বন্ধ করলে বিদ্যালয়ই বন্ধ করে দিতে হবে।
গত মঙ্গলবার সরেজমিনে দেখা যায়, লামা পৌর শহরে চেয়ারম্যান পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তিনটি ভবনের মধ্যে একটি ঝুঁকিপূর্ণ ও জরাজীর্ণ। ভবনটি বীম ভেঙ্গে খসে পড়ছে। ভবনের বারান্দার স্তম্ভগুলো বিপজ্জনকভাবে ফেটে গেছে। ধসের আতঙ্কে দুইটি কক্ষ তালা মেরে রাখা হয়েছে। অন্যদিকে কক্ষ সংকটের কারণে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সে র্জীণ ভবনে বৃষ্টি মাঝে ছাতি খোলে পাঠগ্রহণ করছে। প্রধান শিক্ষক আবদুর রহিম বলেন, একদিকে ভবন ধসের আতঙ্ক, অন্যদিকে শিক্ষকের সংকটময়। অবকাঠামো উন্নয়ন বা সমস্যা সমাধানে কর্তৃপক্ষ আর এলজিইডি জায়গা মেপে নিয়ে যাচ্ছে। অনেক স্বপ্নও দেখিয়েছে কিন্তু আজো পর্যন্ত বিদ্যালয়ের কোন উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি। বিদ্যালয়ের জন্য আমিসহ মোট ১০জন শিক্ষকের পদ থাকলেও, প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষকসহ দুইজন শিক্ষক মাতৃত্বকালীন ছুটিতে, একজন ডিপিএড ট্রেনিং রয়েছে। আবার গত ১০ জুলাই/১৭ইং জেলা শিক্ষা অফিসারের স্বাক্ষরিত একজন শিক্ষককে নাইক্ষ্যছড়ি উপজেলায় ডেপুটেশনে দেওয়া হয়। প্রাক থেকে ৬ষ্ঠ শ্রেণি পর্যন্ত বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী রয়েছে মোট ৩৬১জন।

একই দিনে রাজবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিলে দেখা যায়, পরিত্যক্ত ভবনের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির পাঠদান চলছিল। বিদ্যালয়ের ছাদ, দেয়াল ও বীমের পলেস্তার খসে পড়ছে। ফাটল। প্রধান শিক্ষক রাজিয়া বেগম বললেন, শিক্ষার্থী ১৫৩ জন। একটি ভবনে শ্রেণীকক্ষও তিনটি। মাঝে মধ্যে ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ে। বৃষ্টি পড়লে তড়িঘড়ি করে শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয় হতে খোলা আকাশে নিচে বের করে আনিই, নয় তো স্কুল ছুটি দিয়ে দিই। আজো পর্যন্ত সংস্কারের মূখ না দেখা একতলা ভবনটিকে ২০১৩সালে পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। যার ফলে অন্য কোন ভবন না থাকায় বাধ্য হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ কক্ষে পাঠদান করাতে হচ্ছে।
এরপর বুধবার উপজেলার রূপসী পাড়া ইউনিয়নে দরদরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গেলেই দেখা যায়, তার অবস্থায় একই দশা। প্রধান শিক্ষক খালেদা বেগম জানালেন, ভবনের পিছনে দেয়ালে বড় ধরনে ফাটল।বাতাসে টিন উড়ে গেছে। ধসে আতঙ্কে একটি শ্রেণি কক্ষও তালা মেরে রাখা হয়েছে। অন্য একটি তে প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণি পাঠদান কার্যক্রম চালাচ্ছি। তিনি আরো বলেন, ইউনিয়নে পঞ্চম শ্রেণির পিএসসি (সমাপনী) পরীক্ষার একটি মাত্র কেন্দ্র এটি। ২০১৩ সালে স্কুলভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষিত হয়।
সরেজমিনে দেখা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বলেন, আমাদের স্কুলে ভবনের চারপাশে ফাঁক ফাঁক দেখা যাচ্ছে, মাঝে মধ্যে সেখান হতে ইটের টুকরা পড়ে, বৃষ্টি পড়লে ছাদ থেকে পানি আমাদের উপর পড়ে, বেশি বৃষ্টি হলে আমাদের অনেক ভয় লাগে। তারপরেও আমরা নতুন কিছু শেখার জন্য বিদ্যালয়ে আসি।
লামা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা যতীন্দ্র মোহন মন্ডলও বিষয়টি স্বীকার করলেন। তিনি বৃহস্পতিবার প্রতিবেদককে বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ ১০টি বিদ্যালয়ের ভবনগুলোয় প্রায় ২হাজার ৬শত শিক্ষার্থী প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে আতঙ্কের মধ্যে ক্লাস করছে। অধিক ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যালয়ের তালিকা ইতিপূর্বে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনগুলো ভেঙ্গে জরুরী ভিত্তিতে নতুন ভবন নির্মান করা প্রয়োজন বলে মতামত প্রকাশ করেন এই শিক্ষা কর্মকর্তা।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রিটন কুমার বড়–য়া গত শনিবার প্রতিবেদককে বলেন, জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যালয় ভবনের তালিকা বান্দরবান জেলা পরিষদ ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। তিনি আশা করছেন, দ্রুত এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হবে।

শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষে সিটি কলেজের দোয়া ও মিলাদ মাহফিল

খুলনা অফিসঃ খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে মজিদ মেমোরিয়াল সিটি কলেজ ছাত্রলীগের আয়োজনে গতকাল বাদ জোহর সিটি কলেজ জামে মসজিদে শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও দোয়া মহাফিল অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলন ামহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রাসেল। “আসাদুজ্জামান রাসেল তার সংক্ষিপ্ত আলোচনায় বলেন, জাতির পিতার জ্যেষ্ঠপুত্র হিসেবে শেখ কামাল ছিলেন একজন নিরহংকারী ও সদালপী। সাথে সাথে তিনি মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও বিশিষ্ঠ ক্রীড়া সংগঠক ছিলেন। তার হাত ধরে জনপ্রিয় ক্রীড়া সংগঠন আবহানী ক্লাব প্রতিষ্ঠা হয়।” এসময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিটি কলেজর উপ-অধ্যক্ষ সরদার মনিরুল ইসলাম, শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক ওহিদুর ইসলাম, শিক্ষক ওহিদুজ্জামান, মোঃ আব্দুল্লাহ, আব্দুর রশিদ, নিয়ামত এলাহী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মহানগর সহ সভপতি রেজাউল করিম সবুজ, যুগ্ম সম্পাদক কামরুজ্জামান ইমরান, দপ্তর সম্পাদক শাহীন আলম, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আহনাফ অর্পন, শরিফুল ইসলাম বাবু, মেহেদী হাসান সুজন, আব্দুস সালাম, বোরহান উদ্দীন সজিব, মাহমুদুল ইসলাম সুজন, সাব্বির আহমেদ, সিটি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা শেখ ইসতিয়াক আহমেদ জয়, সুমন হাওলাদার, রাকিব আহমেদ রাব্বি, আরাফাত হোসেন, মঞ্জুরুল ইমাম, সজিব দে, তুষার আহমেদ, মোঃ সৌরভ হাওলাদার, রাতুল হাওরাদার, আনজুমবিন জাকির, নিয়াজ মাহমুদ, মোঃ তাজউদ্দীন তুষার, বাধন রায়, মেখ রায়হান, মারুফ হাসান, কাজী রনাকুল ইসলাম, শেখ সজল, হাসান শেখ প্রমুখ।

 

মোংলা কোস্ট গার্ডের অভিযানে অস্ত্রসহ বনদস্যু আটক

মোংলা প্রতিনিধি: মোংলা-খুলনা মহাসড়কের কাটাখালী বাস ষ্ট্যান্ড এলাকা থেকে অস্ত্রসহ এক বনদস্যুকে আটক করেছে কোস্ট গার্ড। কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোন’র (মোংলা) অফিসার লে: কমান্ডার এম ফরিদুজ্জামান খান জানান, শনিবার ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মহাসড়কের কাটাখালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে সুন্দরবনের বনদস্যু সুমন বাহিনীর সদস্য আশরাফুল শেখ (৪৫) কে আটক করা হয়। এ সময় দস্যু আশরাফুলের কাছ থেকে ১টি পিস্তল ও ৬ রাউন্ড তাজা গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃত দস্যুকে বাগেরহাটের ফকিরহাট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানায় কোস্ট গার্ড। ডাকাত আশরাফুল ফকিরহাটের খাজুরা গ্রামের সুলতান শেখের ছেলে। #

টয়লেটের ভেতর আটকে রেখে চতুর্থ শ্রেনীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টাঃ স্পীডবোট চালক গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে চতুর্থ শ্রেণীতে পড়–য়া এক স্কুল ছাত্রীকে ধরে নিয়ে গিয়ে টয়লেটের ভেতর আটকে রেখে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনায় স্পীডবোট চালককে থানা পুলিশ শুক্রবার গ্রেফতার করেছে।’ গ্রেফতারকৃতর নাম সোহেল মিয়া (২৮)।’ সে জেলার ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জের রামপুর গ্রামের মৃত আবদুর রউফের ছেলে ও জেলা শহর সুনামগঞ্জের বনানীপাড়ার বাসিন্দা।’ এ ব্যাপারে শুক্রবার রাতে তাহিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ’
জানা গেছে, সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সদর ইউনিয়নের উজান তাহিরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চতুর্থ শ্রেণীতে পড়–য়া ৯ বছরের এক কিশোরী শুক্রবার দুপুরে মধ্যতাহিরপুর নীজ বাড়ি থেকে বাজারে যাবার পথে ষ্পীডবোড চালক সোহেল জোর পুর্বক ধরে নিয়ে গিয়ে তাহিরপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের টয়লেটে জামা-কাপড় খুলে বিবস্ত্র করে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ওই সময় কিশোরী চিৎকার শুরু করলে পথচারীগণ স্কুলে ভেতর প্রবেশ করে ওই কিশোরীকে উদ্ধার ও সোহেলকে আটক করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সোহেলকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।’ এ ব্যাপারে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে সোহেলের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।’
অপরএকটি সুত্র জানিয়েছে, জেলার বনানীপাড়ার বাসিন্দা সোহেল এমননিতে বখাটেপনা জীবপন যাপনের আড়ালে টাকার জন্য শহরে রিক্সা চালকের কাজের পাশাপাশী মাঝে মধ্যে ভাড়ায় চালিত ষ্পীডবোটের চালক হিসাবে তাহিরপুরে যাতায়াতের সুবাধে শুক্রবার একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানের ষ্পীডবোর্টের চালকের সাথে সহকারি চালক হিসাবে তাহিরপুর এসে এ অপকর্ম ঘটায়।’ তবে এ বিষয়টি সরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যাক্তিরা অবহিত নন। এর কারন হিসাবে জানা গেছে, শুক্রবার সকালে স্পীডবোটটি কোন দায়িত্বশীল কর্মকর্তাকে বহন না করেই তাহিরপুরে বোট নিয়ে আসার পথে সরকারি প্রতিষ্ঠানের ওই বোট চালক সোহেলকে বোটে সহকারি চালক হিসাবে ব্যাক্তিগত ভাবে নিয়ে আসে। পরবর্তীতে সুনামগঞ্জ থেকে গাড়ী যোগে সরকারি কর্মকর্তাগণ তাহিরপুরে পৌছে দুপুরের পর বোট নিয়ে বিভিন্ন স্থান পরিদর্শনে বেড়িয়ে গেলে ধর্ষণ অপচেষ্টার বিষয়টি কেউ প্রশাসনের দায়িত্বশীলদের অবহিত করেনি।’ তাহিরপুর থানার ওসি শ্রী নন্দন কান্তি ধর শুক্রবার রাত পৌণে ১২টার দিকে মামলা দায়ের ও সোহেলকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শহীদ সিরাজ বীর উওম লেকে গোসল করতে নেমে এক পর্যটক নিখোঁজ

নিজস্ব প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের টেকেরঘাটের ডিসি পার্কের শহীদ সিরাজ বীর উওম লেকে (চুনাপাথরের পতিত গভীর কোয়ারী) ঢাকা থেকে আসা এক পর্যটক গোসল করতে নেমে শনিবার বেলা ২টা থেকে নিখোঁজ রয়েছেন।’ নিখোঁজের নাম, ওয়াহিদ পলিন(২৮)। তিনি কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার লাজুড় গ্রামের মো. মোস্তফা কামালের ছেলে ও রাজধানী ঢাকার বসুন্ধরা গ্রুপের সাবেক কর্মকর্তা।’ নিখোঁজের পর থেকে টাঙ্গুয়ার হাওরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ-বিজিবি ও স্থানীয় লোকজন লেকের পানিতে দিনভর কয়েকটি নৌকা নিয়ে সন্ধান চালিয়েও গেলেও বিকেল সন্ধা পৌণে ৬টা পর্য্যন্ত পলিনের কোন সন্ধান পায়নি।’
জানা গেছে, রাজধানী ঢাকায় বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ওয়াহিদ পলিন সহ ৫ বন্ধু-বান্ধব মিলে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের টাঙ্গুয়ার হাওরে শুক্রবার ভ্রমণে এসে ইঞ্জিন চালিত ট্রলারে টেকেরঘাট চুনাপাথর খনি প্রকল্পের নৌ-ঘাটে রাত্রী যাপন করেন। শনিবার সকালে ফের ৫ বন্ধু –বান্ধব মিলে বারেক টিলা ও সীমান্তনদী জাঁদুকাঁটা ভ্রমণ শেষে টেকেরঘাটে দুপুরে ফিরে আসেন। এদিকে শনিবার বেলা ২টার দিকে ওয়াহিদ পলিন সহ সবাই টেকেরঘাট সীমান্তের জিরো লাইন বরাবর শহীদ সিরাজ বীর উওম লেকে গোসল করতে নামলে ৪ বন্ধু গোসল শেষে তীরে উঠে আসলেও ওয়াহিদ পলিন সাঁতার না জানায় লেকের পানিতে ডুবে যেতে থাকেন।’ তখনই সবাই চিৎকার করলে ট্রলারের মাঝিরা লেকের পানিতে সাথে সাথে ওয়াহিদকে উদ্ধারে ঝাঁপিয়ে পড়লেও তাকে উদ্ধার করা যায়নি। ’তাহিরপুরের টাঙ্গুয়ার হাওরের কর্তব্যরত নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. শাকিল আহমেদ বিকেলে জানিয়েছেন, নিখোঁজের সন্ধানে স্থানীয় লোকজন দুপুর থেকেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন এছাড়াও সিলেটে ফায়ার সার্ভিসে থাকা ডুবুরি দলকে খবর দেয়া হয়েছে। ’##