ডুমুরিয়ায় কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

ডুমুরিয়া(খুলনা) প্রতিনিধি : গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ বলেছেন; শিক্ষাক্ষেত্রে ডুমুরিয়া উত্তরাঞ্চল অনেক এগিয়ে। এখানকার মানুষ দলমত নির্বিশেষে এক হয়ে শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করে। ডুমুরিয়ার শাহপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও সাংকৃতিক অনুষ্ঠানে রোববার দুপুরে প্রধান অতিথির ভাষণে এ কথা বলেন। বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি গাজী আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন; খুলনা জেলা পরিষদের সদস্য সরদার আবু সালেহ, অতিরিক্ত পুলিশ (সার্কেল) সজীব খান, ইউপি চেয়ারম্যোন খান শাকুর উদ্দিন প্রমুখ।

ডুমুরিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১

ডুমুরিয়া(খুলনা) সংবাদদাতা : খুলনা মেট্রোপলিটন স্কুলের ১০ম শ্রেণির ছাত্র সৌরভ রায় শুভ এক মর্মান্তি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে। শুভ ডুমুরিয়ার রামকৃঞ্চপুর গ্রামের অবসর প্রাপ্ত নৌবাহিনী কর্মকর্তা সুশান্ত রায়ের ছেলে।
এলাকাবাসি জানায়; শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে সৌরভ রায় শুভ রংপুর কালিবাড়ি থেকে মটর সাইকেল চালিয়ে বাড়ি আসছিল। পথিমধ্যে দ্রুতগামি মটর সাইকেলটি একটি কুকুরকে চাপা দিলে ঘটনা স্থলে কুকুরটি মারা যায়। তখন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাটর সাইকেলটি রামকৃঞ্চপুর গ্রামে সুভাষ ম-লের বাড়ির দেয়াল ও বিদ্যুতের পিলারে সাথে ধাক্কা খায়। গুরুতর আহতাবস্থায় চিকিৎসার জন্য শুভকে খুলনায় নেয়ার পথে মারা য্য়।

তানভীর আমার জীবন নষ্ট করেছে

জয় মহন্ঠাত অলোক,ঠাকুরগাঁও : ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা জগন্নাথপুর খোঁচাবাড়ি এলাকার প্রেমিক তানভীর আহম্মেদের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে গত ৩ দিন ধরে অনশন করছে সরকারি মহিলা কলেজের এক এইচএসসি পরীক্ষার্থী।

রোববার এ বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন প্রভাবশালী ছেলের পক্ষ নিয়ে বিষয়টি মীমাংসা করার চেষ্টা করলে তা এলাকাবাসী মেনে নেয়নি। উল্টো ছেলের বাবা ওই তরুণীকে টাকা দিয়ে ম্যানেজ করতে চাইছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের দৌলতপুর খোঁচাবাড়ি এলাকার ব্যবসায়ী আব্দুল মোতালেবের ছেলে তানভীর আহম্মেদ বাবুর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে একই ইউনিয়নের ঠাকুরগাঁও সরকারি মহিলা কলেজের এইচএসএসি পরীক্ষার্থীর।

গত দেড় বছর ধরে সম্পর্ক চলাকালে তানভীর আহম্মেদ ওই তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে অবৈধভাবে মেলামেশা শুরু করে। হঠাৎ ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

তখন প্রেমিকা তানভীর আহম্মেদ বাবুকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। এ অবস্থায় গর্ভের সন্তান নষ্ট করলে প্রেমিকাকে বিয়ে করবে বলে শর্ত দেয় তানভীর। ৩ মাস আগে গর্ভের সন্তান নষ্ট করে ওই ছাত্রী। তখন বিয়ের দাবি নিয়ে গেলে বিয়েতে অস্বীকৃতি জানায় তানভীর।

অবশেষে কোনো উপায় না পেয়ে ওই প্রেমিকা গত শুক্রবার প্রেমিক তানভীরের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করে। এলাকাবাসী অনশনের বিষয়টি অবগত হলে স্থানীয় ইউপি সদস্য কেদার নাথকে অবহিত করে। পরে ইউপি সদস্য ঘটনাস্থলে এসে প্রভাবশালী ছেলের বাবা মোতালেবকে ম্যানেজ করে অনশনকারী ওই মেয়েকে ২ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার প্রস্তাব দেন।

কিন্তু অনশনকারী প্রেমিকা টাকা না নিয়ে প্রেমিককে বিয়ে করতে চায়। সেইসঙ্গে অনশন অব্যাহত রাখে। এই সুযোগে ইউপি সদস্য কেদার নাথ বাড়ি থেকে তানভীর ও তার পরিবারকে ভাগিয়ে দেয়।

রোববার সকালে বিয়ের দাবিতে অনশনের বিষয়টি নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় লোকজন ইউনিয়ন পরিষদে বসলে শেষ পর্যন্ত সুরাহা হয়নি।

স্থানীয় বাসিন্দা মেরাজুল জানান, ছেলের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে অর্থ দিয়ে মুখ বন্ধ করে দিয়েছে। তাই তারা বিয়ের বিষয়ে অনীহা প্রকাশ করছে। এছাড়া মেয়েটির কালকে এইচএসসি পরীক্ষা। এই মূহূর্তে একটা দুর্ঘটনা ঘটে গেলে অন্ধকার নেমে আসবে।

অনশনকারী মেয়ের মা জানান, তানভীর নামে ছেলেটি আমার মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে। ৩ মাস আগে বাচ্চা নষ্ট করলে বিয়ে করবে বলে জানায়। বাচ্চা নষ্টের পর তানভীরকে বিয়ের চাপ দিলে অস্বীকৃতি জানায়। অবশেষে আমার মেয়ে বিষের বোতল হাতে নিয়ে বিয়ের দাবিতে ছেলের বাড়িতে অবস্থান নেয়।

স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বার ছেলের বাবার কাছে মোটা অংকের অর্থ নিয়ে বিষয়টি মীমাংসা করার প্রস্তাব দেয় আমাকে। আমার মেয়েকে ওই ছেলে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবে। কালকে তার এইচএসসি পরীক্ষা। সে পরীক্ষা দিতে পারবে বলে মনে হয় না।

বিয়ের দাবিতে অনশনকারী ওই মেয়ে জানায়, তানভীর আমার জীবন নষ্ট করেছে। আমি তাকেই বিয়ে করবো। তার সঙ্গে বিয়ে না দিলে এই বাড়িতে আত্মহত্যা করবো।

ছেলের বাবা মোতালেবের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমার ছেলে ওই মেয়েকে বিয়ে করবে না। বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যানকে মীমাংসার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে ইউপি সদস্য কেদার নাথ বলেন, স্থানীয়ভাবে অনশনের বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে। সমাধান না হলে বিয়ের ব্যবস্থা করা হবে।

জগন্নাথপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিনের কাছে জানতে তিনি বলেন, ছেলে ও তার পরিবার ওই মেয়েকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। মেয়ের পরিবার পরিষদে বা থানায় লিখিত অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ঠাকুরগাঁও সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিঞ্চা বলেন, অনশনের বিষয়টি আমরা এখনও অবগত নই। অভিযোগ পেলে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রামপালে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ১

সুব্র ঢালী, রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : রামপালে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে হায়দার (৪০) নামের এক বনদস্যু নিহত হয়েছে। শনিবার ভোররাতে উপজেলার সাপমারী এলাকায় তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের অদূরবর্তী স্থানে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ৪টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ১২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। র‌্যাব ও রামপাল থানা পুলিশ নিহতের পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি। এ ব্যাপারে র‌্যাব বাদী হয়ে রামপাল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং-০১, তাং ০১.০৪.২০১৮। র‌্যাব-৮ এর উপ অধিনায়ক মেজর সজিবুল ইসলাম বলেন, রোববার বিকালে সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের হাতে অস্ত্র ও গুলি দিয়ে সুন্দরবনের তিনটি বনদস্যু বাহিনীর সদস্যদের আত্মসমর্পন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি চলছিল। তারই অংশ হিসেবে র‌্যাবের একটি দল শনিবার দিনগত রাত ৩ টার সময় সুন্দরবনের বনদস্যুদের তিন বাহিনীর সদস্যদের রামপাল উপজেলার সাপমারী এলাকায় আনতে যায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে অন্ধকারের মধ্যে দুর্বৃত্তরা গুলি ছোড়ে। এসময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। প্রায় দশ মিনিট ধরে গোলাগুলি চলে। গোলাগুলির একপর্যায়ে দুর্বৃত্তরা পিছু হটলে সেখান থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজনের মরদেহ ও ১টি একনলা বন্দুক, ২টি কাটা বন্দুক, ১টি পিস্তল, বন্দুকের ১২টি তাজা গুলি ও ২১টি গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়। পরে স্থানীয়রা এসে মরদেহটি হায়দার আলী নামের এক বনদস্যুর বলে সনাক্ত করেন। নিহত হায়দার আলী সুন্দরবনের বনদস্যু বাহীনির সক্রিয় সদস্য বলে র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা দাবী করেন ৷ তিনি আরও বলেন, বনদস্যুরা যখন স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে সরকারের কাছে আত্মসমার্পণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সে সময়ে দস্যুদের অতর্কিত হামলা আইনের প্রতি বৃদ্ধাআঙ্গুলি দেখানোর শামিল। এই তিনটি বনদস্যু দলের সদস্যরা যাতে সুন্দরবনে দস্যুতা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে না পারে তা ভেস্তে দিতে অজ্ঞাত বনদস্যু দল পরিকল্পিত ভাবে এই হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করেন র‌্যাবের ওই কর্মকর্তা। কোন বনদস্যু দল এই হামলা চালিয়েছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। রামপাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা লুৎফর রহমান মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বন্দুকযুদ্ধে নিহত হায়দারের লাশ রামপাল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

কেশবপুরের  ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

এস আর সাঈদ, কেশবপুর (যশোর) : যশোরের কেশবপুর উপজেলার বরণডালি হাইস্কুল মাঠে শিক্ষানুরাগী এরশাদ আলী গাজী স্মৃতি ৮দলীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা শনিবার বিকালে অনুষ্ঠিত হয়েছে। খেলায় বরণডালি সানমুন স্পোটিং ক্লাব ট্রাইব্রেকারে ৪-৩ গোলে কেশবপুর নিধি স্পোটিং ক্লাবকে পরিজিত করে চ্যাম্পিয়ান হয়। অধ্যক্ষ তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও আওয়ামী লীগনেতা লতিফুল কবির মনির পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে পুরস্কার বিতরণ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন যশোর জেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা কাজী রফিকুল ইসলাম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক দীপংকর দাস, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি সৈয়দ নাহিদ হাসান, সাধারণ সম্পাদক রমেশ চন্দ্র দত্ত, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী রাবেয়া ইকবাল, আওয়ামী লীগনেতা ইব্রাহীম হোসেন, শাহিদুজ্জামান শাহিন, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কাজী আজাহারুল ইসলা মানিক প্রমুখ।

ডুমুরিয়ায় উপজেলা যুবদলের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল খুলনা জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহীদ মোল্যা সিরাজুল ইসলামের ১৬ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে ডুমুরিয়া উপজেলা যুবদলের উদ্যোগে রবিবার বিকাল ৪ টায় বিএনপি কার্যালয়ে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা যুব দলের সাবেক আহ্বায়ক গাজী আব্দুল হালিম। প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খান আলী মুনসুর। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক খান ইসমাইল হোসেন ও জেলা বিএনপির স্বনির্ভর সম্পাদক বিএম হাবিবুর রহমান হবি। যুব দল নেতা মোল্যা মশিউর রহমানের পরিচালনায় বক্তব্য দেন শেখ সরোয়ার হোসেন, কবির হাসান ডাবলু, মশিউর রহমান লিটন, দেলোয়ার হোসেন, শেখ ফরহাদ হোসেন, মাষ্টার আইয়ুব আহম্মেদ, হেমায়েত রশিদ খান, সরদার আব্দুস সালাম, শেখ আতিয়ার রহমান, এস,এম,জিহাদুল ইসলাম, শফিকুল খান, সোহাগ গোলদার, দেবব্রত রায় দেবু, গাজী আ: গফুর, আইয়ুব মাহমুদ, আবুল কালাম খান, গাজী রফিকুল ইসলাম, মোঃ রিপন ঢালী, গাজী আঃ আজিজ, পারভেজ গাজী, শেখ ফরিদুল ইসলাম, শেখ সিরাজুল ইসলাম, আফজাল বিশ্বাস, আঃ খালেক, আজিজ মোড়ল, গাজী মশিউর রহমান, তাজনুর রহমান খান, ফেরদৌস হোসেন, জীবন চক্রবর্তী, শহীদ সরদার, শফিকুল ইসলাম সরদার, স্বপন মিস্ত্রী, শাহাদুত হোসেন, আনিসুর রহমান আনিস, ফরহাদ হোসেন, আলমগীর হোসেন, সালাতুল শেখ, কিসলু জোয়ার্দ্দার, জনাব আলী ঢালী, রবি মেম্বার, পঙ্কজ মন্ডল, হযরত আলী, অহিদ মোল্যা, হুমায়ুন গাজী, উজ্জ্বল ঘোষ, নয়ন মোল্যা, জসিম উদ্দীন, হারুন খান, মতিয়ার জোয়ার্দার, হাবিবুর শেখ, শাহীন ফকির, বিএম আঃ মান্নান, আরিফ গাজী প্রমুখ। সভায় আগামী ১০ এপ্রিল সকালে কোরআন তেলাওয়াত, সকাল ১০টায় শোক র‌্যালি, ১১টায় আলোচনা সভা, ১২টায় কবর জিয়ারত ও দুপুর ১টায় দুঃস্থদের মাঝে তাবারক বিতরণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

কেশবপুরের গড়ভাঙ্গা বালিকা বিদ্যালয়ে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

এস আর সাঈদ, কেশবপুর (যশোর): যশোরের কেশবপুরের গড়ভাঙ্গা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ২দিন ব্যাপী বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা এবং পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি সিদ্ধার্থ বসুর সভাপতিত্বে ও প্রধান শিক্ষক সুপ্রভাত কুমার বসুর পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন পাঁজিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মুকুল। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেশবপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এস আর সাঈদ, সাবেক চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দীন, তথ্য অফিসার মীর মোশারফ হোসেন, পাঁজিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আহাদ আল বাহার, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক আবু সাঈদ লাভলু ও পাঠাভ্যাস উন্নয়ন কর্মসূচীর প্রোগ্রাম অফিসার মিজানুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক আব্দুল হামিদ, আওয়ামী লীগনেতা আলী আব্বাস, মহিউদ্দীন আহম্মেদ প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রফিকুল ইসলাম।

ঠাকুরগাঁওয়ে ট্রেন ও ট্রলির সংঘর্ষে আহত ২

জয় মহন্ত অলক, ঠাকুরগাঁও : ঠাকুরগাঁওয়ে ট্রেন ও মালবাহী ট্রাকটর / ট্রলির সংঘর্ষে ২ জন গুরুতর আহত হয়েছে। আহতরা হলেন মকবুর হোসেন (৩৫) এবং রঘুনাথ রায় (৪০)।
রোববার বিকেলে ঠাকুরগাঁও শিবগঞ্জ এর আমতলী রেল ক্রেসিংয়ে পঞ্চগড় থেকে ছেড়ে আসা দিনাজপুর গামী একটি ট্রেনের সাথে মাল বোঝাই ট্রলির সংঘর্ষে হতাহতের এ ঘটনা ঘটে।
জানাযায়, রোববার বিকেলে ঠাকুরগাঁওয়ের শিবগঞ্জ এলাকার আমতলী রেল ক্রসিংয়ে গমের আটি বোঝাই একটি ট্রলি পার হচ্ছিল।্ এ সময় পঞ্চগড় থেকে ছেড়ে আসা দিনাজপুর গামী একটি ট্রেন এসে ট্রলিটিকে ধাক্কা দিয়ে দুমড়ে মুচড়ে প্রায় ৩শ গজ দূরে ফেলে দেয়। সে সময় মালবোঝাই ট্রলিটিতে থাকা চালক ও হেলপার দু জনেই ছিটকে পড়ে যায় এবং গুরুতর আহত হয়।
এলাকাবাসী দ্রুত তাদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরন করে। আহত দু জনের মধ্যে রঘুনাথ এর অবস্থা আশংক্যাজনক বলে জানিয়েছে কর্তব্যরত চিকিৎসক তানিয়া ইসলাম। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্যে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মালবোঝাই ট্রলিটির ড্রাইভার মকবুল হোসেনের অসচেতনতার কারনেই এ দূর্ঘটনাটি ঘটেছে। রেল ক্রসিং পার হবার সময় সে ট্রেন আসার তোয়াক্কা করেনি।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আব্দুল লতিফ ট্রেন ও ট্রলির সংঘর্ষে ২ জন গুরুতর আহতের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ডুমুরিয়ায় মাথার খুলি বিহীন শিশু ভূমিষ্ঠ

ডুমুরিয়া(খুলনা)প্রতিনিধি: খুলনার ডুমুরিয়া জনতা হাসপাতালে শুক্রবার সকালে মাথার খুলি বিহীন জীবিত নবজাতক শিশু ভূমিষ্ঠ হয়। সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে জীবিত অব¯হায় ভূমিষ্ঠ হলেও ঘন্টা খানেক পরে শিশুটি মারা যায়। রোগির স্বজন ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে ডুমুরিয়া উপজেলার কুকিয়া গ্রামের কৃষক হাফিজুর রহমানের স্ত্রী হেনা বেগম (২২) ৮ মাস আগে প্রথম সন্তান সম্ভাবা হন। অজ্ঞতা বশত গত ৮ মাসেও গর্ভবতী স্ত্রীকে কোন ডাক্তার দেখাননি তারা। সম্প্রতি হেনা বেগমের শারীরিক সমস্যা দেখা দিলে গত ২৪ মার্চ যশোর জেলার কেশবপুরে একটি ডায়াগনিষ্ট সেন্টারে তার আল্ট্রা সনোগ্রাম করানো হয়। এতে রিপোর্টে তার বাচ্চার মাথার খুলি নেই বলে রিপোর্ট পাওয়া যায়। বিষয়টি হাফিজুরের পরিবারের কাছে বিশ্বাস যোগ্যে মনে না হওয়ায় তার গত ২৬ মার্চ তারিখে খুলনার একটি ডায়গনিষ্ট সেন্টার আবারও আলাট্রাসনোগ্রাম করালে সেখান থেকেও একই রিপোর্ট পাওয়া যায়। এরপর তারা গত বুধবার বিষয়টি নিয়ে ডুমুরিয়া জনতা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে সিজারিয়ান অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাফিজুর রহমান জানান, ভূমিষ্ট হওয়া কন্যা শিশুটি আমাদের দ¤পতির প্রথম বাচ্চা। সবই আমাদের নসিব। কি আর বলবো। তবে তার স্ত্রীর শারীরিক অব¯হা ভাল আছে বলে তিনি জানান। জনতা হাসপাতের মালিক জি,এম জুলফিকার আলী (ভুট্রো জানান, আমরা রোগির দুই দফা আল্ট্রাসনোগ্রাম রিপোর্টে বাচ্চার মাথার খুলি বিহীন দেখে অপারেশন করতে প্রথমে রাজি ছিলাম না। কিন্তু রোগির স্বজন ও তার এলাকার একজন জনপ্রতিনিধির অনুরোধ ও সম্মতিতে খুলনা শহর থেকে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এনে সিজারিয়ান অপারেশন করার ব্যব¯হা করি। শিশুটি ভূমিষ্ট হওয়ার সময় জীবিত থাকলেও ঘন্টা খানেক পরে মারা যায়।

কেসিসি নির্বাচনে চূড়ান্ত হয়নি প্রধান দু’দলের মেয়র প্রার্থী

খুলনা : খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল শনিবার ঘোষণা করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এদিন বেলা ১১টায় বৈঠকে বসবে ইসি। বৈঠক শেষে তফসিল ঘোষণা করা হবে। এই সিটিতে ভোটগ্রহণের সম্ভাব্য তারিখ ১০ মে হতে পারে। ইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। একই সাথে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনেরও তফসিল ঘোষণা করা হবে।
সূত্র জানায়, সংসদ ভোটের আগেই (গাজীপুর, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও সিলেট) পাঁচ সিটিতে ভোটগ্রহণ করতে হবে। যেহেতু এর আগে ঢাকার দুই সিটি নিয়ে নির্বাচন তফসিল ঘোষণা করার পরও জটিলতা থাকায় বন্ধ করতে হয়েছে, তাই এসব সিটিতে কোনো জটিলতা আছে কি না, তা আগে থেকেই জানার জন্য দুই দফায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয় ইসি। ওই চিঠির জবাবে মন্ত্রণালয় বুধবার ইসিকে জানায় এসব নির্বাচনে কোনো জটিলতা নেই।
সূত্র জানায়, আসছে রমজানের আগে গাজীপুর ও খুলনা সিটি ভোটের পর যথাসময়েই বাকি তিন সিটিতে ভোট আয়োজনের প্রস্তুতি নিয়ে রাখছে ইসি। যদিও এরই মধ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ‘জুলাইয়ের মধ্যে এসব নির্বাচন সম্পন্ন করতে চায় কমিশন।’
ইসির সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, খুলনা সিটি করপোরেশনের পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হবে ২৫ সেপ্টেম্বর। ২০১৩ সালের ১৫ জুন এ সিটিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। সে হিসাবে এই সিটিতে নির্বাচনের দিন গণনা শুরু হয়েছে গতকাল শুক্রবার থেকেই।
এদিকে খুলনা সিটিতে আজ নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হলেও এখন পর্যন্ত প্রধান দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি তাদের মেয়র প্রার্থী চূড়ান্ত করতে পারেনি। বিএনপি’র পক্ষ থেকে মেয়র প্রার্থীর বিষয়টি নিশ্চিত তথ্য পাওয়া গেলেও আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনা। দলীয় সূত্র বলছে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা শিগগিরই মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করবেন।
খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি তালুকদার আবদুল খালেক ২০১৩ সালের সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বড় ব্যবধানে হেরে যাওয়ার পর বাগেরহাট-৩ (রামপাল-মংলা) আসন থেকে সংসদ সদস্য হয়েছেন। তিনি আগামী জাতীয় নির্বাচনে সেখান থেকেই প্রার্থী হতে আগ্রহী। আর সিটি নির্বাচনে অংশ নেয়ার কোনো ইচ্ছা নেই তার।
আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, দৌলতপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ সৈয়দ আলী ও খুলনা মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক সরদার আনিসুর রহমান পপলু দলের সমর্থন পাওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছন। যদিও দলীয় প্রধানের ইচ্ছায় শেষ মুহুর্তে প্রার্থী হতে পারেন সাবেক মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক এমন গুঞ্জনও চলছে খুলনা নগরে।
অপরদিকে বিএনপি থেকে এখন পর্যন্ত সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে বর্তমান মেয়র মনিরুজ্জামান মনির নামটিই সর্বাগ্রে আসছে। যদিও জেলা বিএনপির সভাপতি ও সিটি করপোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর এসএম শফিকুল আলম মনাও ভোটে আগ্রহী। সেক্ষেত্রে বিএনপিতেও চলতে নানা হিসাব নিকাশ।