বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : সদর উপজেলার কচুবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আ:লীগের সাধারণ সম্পাদক মুহা.সাদেক কুরাইশী ।

পুরস্কার বিতরণ উপলক্ষে স্কুল মাঠে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল মজিদ আপেলের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন, সদর উপজেলা আ:লীগের সভাপতি অরুণাংশু দত্ত টিটো, জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দেবাশীয় দত্ত সমীর, ৬নং আউলিয়াপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান, ইউনিয়ন আ:লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন প্রমূখ।

আলোচনা সভা শেষে ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

চৈত্র সংক্রান্তিতে খুবিতে মানুষের ঢল : আজ বাংলা বর্ষবরণ উৎসব

খুলনা : খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় খেলার মাঠে চৈত্র সংক্রান্তিতে হা-ডু-ডু খেলা, লাঠিখেলা, সাপখেলা, মোরগ লড়াইসহ ঐতিহ্যবাহী বিভিন্ন আয়োজন ছাড়াও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা গান পরিবেশন করে। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান, বিভিন্ন স্কুলের ডিন, ডিসিপ্লিন প্রধান, নববর্ষ আয়োজক কমিটির আহবায়ক, কমিটির সদস্য-সচিব ছাত্রবিষয়ক পরিচালক, সহকারী ছাত্রবিষয়ক পরিচালকবৃন্দ, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও শত শত উৎসুক মানুষের উপস্থিতিতে লোকারণ্য হয়ে ওঠে মেলার মাঠ। অনেকেই পরিবার পরিজন নিয়ে আসেন মেলার মাঠে।
এদিকে আজ পহেলা বৈশাখ উদযাপনে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। চারুকলায় তৈরি হয়েছে বিভিন্ন উপকরণ ও অনুসঙ্গ। বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বর্ষ আবাহন সকাল ৬-৪৫ মিনিট, মেলা (সকাল ৬-৪৫ মিনিট থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত), সকাল ৮টায় শোভাযাত্রা (শিববাড়ী মোড় থেকে ময়লাপোতা হয়ে রয়েল চত্ত্বর), সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান (প্রথম পর্ব) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান (দ্বিতীয় পর্ব) বেলা ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে দিনব্যাপী বৈশাখী মেলায় লাঠিখেলা, ম্যাজিকশো, নাগরদোলা ইত্যাদির আয়োজন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় খেলার মাঠে আয়োজিত এ মেলায় ৮০টি স্টল থাকছে। এদিকে পহেলা বৈশাখ/ ১৪ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মেলা চলাকালে দুপুর থেকে সন্ধ্যার আগে পর্যন্ত গল্লামারী টু জিরোপয়েন্ট সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখার সিন্ধান্ত গৃহীত হয়।

খুলনায় এইচএসসি’র প্রশ্নফাঁস চক্রের এক সদস্য গ্রেফতার

খুলনা : খুলনায় এইচএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬। গ্রেফতারকৃত যুবক মোঃ আবুল আলা ওয়ালিদ (২১) নগরীর সোনাডাঙ্গা থানাধীন ডালমিল মক্কী মসজিদ এলাকার মোঃ ইসমাইল মুন্নার ছেলে। গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
র‌্যাব সূত্র জানায়, গত ২ এপ্রিল সারা বাংলাদেশে একযোগে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হয়। পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর থেকেই একটি চক্র উক্ত পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস করে টাকার বিনিময়ে দেশের অন্যতম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের সাহায্যে দেশের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিয়ে দেশের শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করাসহ শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করার কাজে লিপ্ত রয়েছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৬ এর গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করা হয়। প্রশ্ন ফাঁসকারী চক্রটিকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, মোঃ এনায়েত হোসেন মান্নান, কমান্ডার, সিপিসি স্পেশাল এর নেতৃত্বে একটি দল খুলনা মহানগরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে সোনাডাঙ্গা থানাধীন কেডিএ এ্যাপ্রোচ রোড থেকে প্রশ্ন ফাঁসকারী চক্রের ওই সদস্যকে গ্রেফতার করে।
আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে Facebook ID SP Ornob, Daniel Brown, Exam Helper এবং গ্রুপ পেইজ Question Out Team এর মাধ্যমে ঐঝঈ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র আগাম সংগ্রহ করে। সে PSC/JSC/SSC/HSC All Board Question 100% Common GB Groop যার সদস্য সংখ্যা প্রায় ৪০,০০০ (চল্লিশ হাজার) লোক; সেখানে ধৃত আসামী Post দেয় যে,HSC পরীক্ষার আগাম প্রশ্নপত্র দেওয়া হচ্ছে। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে Facebook, Massenger, Imo ইত্যাদি মাধ্যমে সে বিভিন্ন প্রশ্নপত্র বিক্রয় করে। প্রতিটি প্রশ্ন সে ৩০০/- টাকা থেকে ৫০০/- টাকার বিনিময়ে পরীক্ষার্থীদের নিকট বিক্রয় করে। Facebook এ সে বিকাশ নম্বর দেয় এবং যারা প্রশ্ন ক্রয় করে উক্ত বিকাশের মাধ্যমে তারা টাকা পরিশোধ করে বলে জানায়।
সে আরো জানায়, Web Page HSC-2018 এ লাইক দিলে পরীক্ষার আগের রাতে প্রশ্ন পেতো। তবে, তার দেওয়া প্রশ্নপত্রের ভিতরে SSC পরীক্ষার অনেক বিষয়ের প্রশ্ন মিললেও HSC পরীক্ষায় তার দেওয়া কোন প্রশ্নই বোর্ডের প্রশ্নপত্রের সাথে মিলেনি বলে জানায়।
উল্লেখ্য যে, সে SSC পরীক্ষার সময়ও বিভিন্ন বিষয়ের ফাঁসকৃত প্রশ্নপত্র আগাম বিক্রয় করেছে বলে স্বীকার করে এবং উহার সফ্ট কপিও তার মোবাইল ফোনে সংরক্ষিত পাওয়া যায়। সর্বশেষ সে আইসিটি পরীক্ষার প্রশ্ন অনেক পরীক্ষার্থীর নিকট বিক্রয় করেছে বলে জানায়।HSC পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর থেকে সে MCQ নামে Massenger এ একটি গ্রুপ তৈরী করে গ্রুপ মেম্বারসহ টাকার বিনিময়ে প্রশ্নপত্র সরবরাহ করে। আসামীর বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন ২০০৬ (সংশোধনী-২০১৩) এর ৫৭(২)/৬৬(২) ধারায় মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

খুলনায় ফাস্টফুডের দোকানে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ : দগ্ধ ৮

খুলনা : খুলনায় ফাস্টফুডের দোকানের রান্নাঘরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ফায়ার সার্ভিসের তিন কর্মীসহ আটজন দগ্ধ হয়েছেন। শুক্রবার দুপুরে নগরীর আহসান আহমেদ রোডের রোস্টার কিং ফাস্টফুডে এ ঘটনা ঘটে। এসময় সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আহত হন- ফাস্টফুড ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক আল আমিন, ফায়ার সার্ভিসের লিডার মামুন, ফায়ারম্যান ফরিদ, মেজবাহ এবং দোকানে মুরগি সরবরাহকারী আবু তাহের। বাকি তিনজনের নাম জানা যায়নি।
খুলনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এম মিজানুর রহমান জানান, দুপুরে রান্নাঘরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ হয়। এ সময় রান্নাঘরের বিভিন্ন স্থানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার সময় ফায়ার সার্ভিসের তিনকর্মী, দোকান মালিকসহ আটজন দগ্ধ হন। তাদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। পরে ফায়ারম্যান ফরিদসহ তিনজনকে ঢাকায় পাঠানো হয় বলে জানান হাসপাতালের চিকিৎসক শাহরিয়ার শরীফ।
খুলনা ফায়ার সার্ভিসের কন্ট্রোল রুমের অপারেটর রবিউল ইসলাম জানিয়েছেন, পরে প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। আহতদের মধ্যে এদের মধ্যে ফায়ারম্যান ফরিদের অবস্থা আশংকাজনক।

রামপালে ঘূর্নিঘড় আশ্রয় কেন্দ্রের নির্মান কাজের উদ্বোধন

রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : রামপাল উপজেলার শ্রীফলতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ঘূর্নিঝড় আশ্রয়ন কেন্দ্র নির্মান কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়। বাগেরহাট-৩ এর সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব তালুকদার আঃ খালেক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শুক্রবার সকাল ৯ টায় এ আশ্রয় কেন্দ্রের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন কাজের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ মোঃ আবু সাইদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তুষার কুমার পাল, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোল্যা আঃ রউফ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও রামপাল ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জামিল হাসান জামু, কৃষকলীগ নেতা শ্যামল সিংহ রায়, ভাইচ চেয়ারম্যান শেখ মোয়াজ্জেম হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শেখ লুৎফর রহমান, সাবেক প্রধান শিক্ষক আজম হোসেন, রামপাল থানার ওসি লুৎফর রহমান, আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক মোঃ নাসির উদ্দিন, জেলা পরিষদ সদস্য অসিত বরন কুন্ডু, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ নাহিদ, রামপাল ইউনিয়ন সভাপতি আরাফাত হোসেন কচি, শ্রীফলতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আঃ মান্নান সহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠরে নেতাকর্মীরা।

রামপালে শিক্ষিকার বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের মারপিটের অভিযোগ

সুব্র ঢালী, রামপাল (বাগেরহাট) : রামপাল উপজেলার গোবিন্দপুর আদর্শগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামসুন নাহার ইরানী নামের এক শিক্ষিকার বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের বেধড়ক মারপিটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিভাবকদের লিখিত অভিযোগ, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত ১০ এপ্রিল উপজেলার গোবিন্দপুর আদর্শগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা সামসুন নাহার ইরানী ৪র্থ শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের ইংরেজি বিষয়ের ক্লাশ নিচ্ছিলেন। শিক্ষার্থীরা ক্লাশে পড়া না পারার কারনে জিয়াল গাছের কচা দিয়ে সবাইকে বেধড়ক মারপিট করেন। এতে শিক্ষার্থীরা কেউ কেউ বেশ অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। এ ঘটনায় অভিভাবকরা অভিযুক্ত শিক্ষী কার বিরুদ্ধে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পেয়ে সংশ্লিষ্ট ক্লাস্টারের সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা জারজিস আহম্মেদ প্রাথমিক তদন্ত করে এর সত্যতা পান। ঘটনার বিষয়ে উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টায় ওই স্কুলে গিয়ে বিষয়টি জানার চেষ্টা করেন। সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে অত্র স্কুলের সহকারি শিক্ষিকা নিলুফার ইয়াছমিন ও সামসুন নাহার ইরানী স্কুলে ঢুকতে বাঁধা প্রদান করেন। কেন তিনি এমন আচারণ করছেন জানতে চাইলে তিনি ক্ষীপ্ত হয়ে সাংবাদিকদের গালমন্দ করেন এবং শিক্ষার্থীদের ক্লাশের বাইরে বের করে দিয়ে ক্লাশের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করে দেন। ওই বিদ্যালয়ের সভাপতি হাওলাদার আবুল কালামের উপস্থিতিতে ওই দুই শিক্ষিকা এমন আচারণ করেন। সভাপতি আবুল কালাম আক্ষেপ করে বলেন, স্কুলের কোন বিষয়ে শিক্ষিকারা আমার সাথে সমন্বয় করেন না এবং কোন বিষয়ে জানান না। অভিযোগের বিষয়ে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা মারপিটের ঘটনাটি স্বীকার করে বলে, সামসুন নাহার আপা ও নিলুফার আপা আমাদের সাথে সব সময় খারাপ ব্যবহার করেন। তবে অভিযুক্ত শিক্ষিকা সামসুন নাহার ইরানী শিক্ষার্থীদের মারপিটের বিষয়টি অস্বীকার করেন। শিক্ষার্থীদের মারপিটের ঘটনার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে তদন্ত করে সত্যতা পাওয়া গেছে বলে শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মতিউর রহমান ও সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা জারজিস আহম্মেদ নিশ্চিত করেন। এলাকাবাসী বিদ্যালয়ের শৃঙ্খলার সার্থে ওই দুই শিক্ষিকার বিষয় তদন্তসহ বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মায়ের জানাযা অনুষ্ঠিত

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ের প্রয়াত মন্ত্রী মির্জা রুহুল আমিনের সহধর্মিণী ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মা ও জেলা মহিলা সংস্থার সাবেক চেয়ারম্যান ফাতিমা আমিনের (৮৮) জানাযার নামায অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শুক্রবার বিকেল ৫টায় ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় বড়মাঠে কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব আলহাজ্ব খলিলুর রহমান মরহুমের জানাযার নামায আদায় করেন।
এসময় সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় বড়মাঠে দলের নেতাকর্মী, জেলার প্রত্যান্ত গ্রামাঞ্চল থেকে বিএনপির দলীয় লোকজন সহ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও জেলার সাধারণ মানুষের ঢল নামে।
জানাযার নামাজে মরহুমের বড় ছেলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, মেঝো ছেলে মির্জা ইকবাল, ছোট ছেলে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মির্জা ফয়সাল আমিন, জামাতা সেনাবাহিনীর সাবেক জেনারেল ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে. অব. মাহবুবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।
পরে জানাযার নামায শেষে ঠাকুরগাঁও পুরাতন গোরস্থানে প্রয়াত মির্জা রুহুল আমিনের কবরের পাশে সহধর্মিণী ফাতিমা আমিনকে শায়িত করা হয়।
বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় মহরুম ফাতিমা রাজধানীর ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন ।
শুক্রবার সকালে একটি অ্যাম্বুলেন্সে মহরুমের নিজ বাস ভবনে মরহুমের মরদেহ ঠাকুরগাঁওয়ে পৌছায়। এ সময় মির্জা ফখরুল ইসলামের মাকে এক পলক দেখতে দলীয় নেতাকর্মী ও সর্ব সাধারন মানুষের ঢল নামে।
উল্লখ্য, গত মঙ্গলবার সকালে মরহুম ফাতিমা আমিনকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। ফুসফুস, কিডনিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যার কারণে বেশ কিছুদিন ধরে তিনি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। ফাতিমা আমিনের স্বামী প্রয়াত মির্জা রুহুল আমিন আশির দশকে এইচ এম এরশাদ সরকারের মন্ত্রী ছিলেন।

সাঁথিয়ায় বসত ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ভিটাবাড়ি দখল

পাবনা প্রতিনিধিঃ পাবনার সাঁথিয়া ফকির পাড়া গ্রামে মঙ্গলবার দুপুরে নুর আলী গং হোসেন মোল্লার বসত ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ভিটাবাড়ি দখল করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগে জানা যায়, সাঁথিয়া পৌরসভার ফকিরপাড়া গ্রামের নুর আলী গংদের সাথে হোসেন মোল্লার প্রায় একযুগ ধরে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরে ১০/০৪/১৮ মঙ্গলবার দুপুরে নুর আলী গং দেশিও অস্ত্রসহ হোসেন মোল্লার বাড়িতে হামলা করে নগদ টাকাসহ মালামাল লুট করে নিয়ে যায় এবং দুইটি বসত ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়ে ভিটাবাড়ি দখল করার অপচেষ্টা করছে বলে অভিযোগে জানা যায়।
এলাকাবাসী জানান, হোসেন আলী প্্রায় ১৫ বছর এই জায়গা কিনে এখানে বসবাস করছে,এই জায়গা নিয়ে অনেক বার দরবার শালিস হলেও কেও কোন সুরাহা করে দিতে পারেনি, হোসেন মোল্লা গরীব এবং দুর্বল লোক তাই প্রভাবশালীরা তার জায়গা দখল করে নিয়েছে।

হোসেন মোল্লা জানান, আমার বিরুদ্ধে নুর আলী কোটে মামলা করেছিল কিছু দিন মামলা চালানোর পর মামলা হেরে যাবার ভয়ে সে নিজেই মামলা উঠিয়ে নিয়েছে।আমি গরিব মানুষ আমার শক্তি নাই তাই আমার দুইটা ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মালামালসহ নগদ টাকা লুট করে নিয়ে বাড়ি দখল করে নিয়েছে। নানা ভয় ভিতি দেখিয়ে আমাকে থানায় যেতে দিচ্ছেনা নুর আলী গং আমার স্ত্রী বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় একটা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
নুল আলী বিশ্বাস গং জানান, হোসেন মোল্লা জমির দাগ নং ভুল করে জমি কিনেছে তার জমি নিচে আছে কিন্তু সে আমাদের জমি খালি না করায় আমরা তার বাড়ির দুইটি ঘর ভেংগে দিয়েছি, আমরা আগুন দিয়ে ঘর পুড়াইনি।
সাঁথিয়া থানা পুলিশ জানায়, আমরা শুনেছি লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফকিরহাটে গাজাসহ কিশোর আটক

ফকিরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের ফকিরহাট কাটাখালী হাইওয়ে থানা পুলিশের বিশেষ এক অভিযানে কাটাখালী মোড় এলাকা থেকে ৫০০ গ্রাম গাজা সহ মোঃ আমিনুল ইসলাম নামের এক কিশোরকে আটক করেছে। ১২ এপ্রিল দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক জামাল উদ্দিন ও এটি এস আই জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে বিশেষ এক অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করেছে। সে ফকিরহাটের মাসকাটা গ্রামের হামিদ শেখের পুত্র। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট মডেল থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা হয়েছে। যার নং-০৭, তারিখ-১২/০৪/২০১৮ইং।

পাইকগাছার মডেল নিশার বৈশাখী সাজ

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : পাইকগাছার মেধাবী শিক্ষার্থী, মডেল ও অভিনয় শিল্পী অমৃতা সাহা নিশার বৈশাখী সাজের ছবি বিভিন্ন ফটোগ্যালারিতে স্থান পেয়েছে। পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষ উৎসব ১৪২৫ উপলক্ষ্যে চলতি সপ্তাহে এসএস মাল্টিমিডিয়ার সাগর ফটোগ্রাফী, শখের ছবিয়াল, খুলনা ফটোগ্রাফী গ্যালারি ও ভারতের ক্যামেরিনা একাডেমী মডেল নিশার বৈশাখী সাজের বিভিন্ন আঙ্গিকের ছবি সংগ্রহ করেছে। এসব ছবি নববর্ষের দিন খুলনা ভিশনে প্রদর্শন করা হবে বলে নিশা জানিয়েছে। অমৃতা সাহা নিশা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড বাতিখালী গ্রামের অবসর প্রাপ্ত ডাক্তার ঋষিকেশ সাহা ও অপর্ণা সাহার মেয়ে। দুই বোনের মধ্যে নিশা ছোট। নিশার বড় বোন অমৃকা সাহা নিপা পেশায় একজন ডেন্টাল চিকিৎসক। নিশা এবার পাইকগাছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। লেখাপড়ার পাশাপাশি নাচ-গান, অভিনয়, ছবি আঁকা, কবিতা আবৃতি ও মডেল হিসাবে নিশার ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে সে অসংখ্য পুরষ্কার লাভ করেছে। ২০০৬ সালে বিটিভি’র অগ্রদুত অনুষ্ঠান ও ২০০৭ সালে ইত্যাদি অনুষ্ঠানে অভিনেত্রী মৌসুমী ও অভিনেতা ফেরদৌসের সাথে নৃত্য করে নিশা। আগামী ঈদে তার এসএস মাল্টিমিডিয়ায় মডেল হিসাবে দুটি মিউজিক ভিডিও প্রকাশ হবে। এ প্রসঙ্গে নিশা জানায়, ফেসবুকে আমার নাচ ও ছবি দেখে এসএস মাল্টিমিডিয়া সহ বিভিন্ন ফটোগ্রাফী প্রতিষ্ঠান আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে, এরপর পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে তারা আমার বৈশাখী সাজের বিভিন্ন আঙ্গিকের ছবি নিয়েছে। এ ধরণের কাজ সবে মাত্র শুরু করেছি। আমি মূলতঃ ভবিষ্যতে ডাক্তার হতে চায়। তবে এর পাশাপাশি মডেল ও অভিনয়ের কাজ গুলো করে যেতে চায়।