ওবায়দুল কাদের দেশে ফিরবেন ১৫ই মে

ঢাকা অফিস : সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি আগামী ১৫ই মে দেশে ফিরবেন। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ফ্লাইট নম্বর বিজি ০৮৫ এ করে সম্ভাব্য বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা৬ টায় হযরত শাহ্জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে তিনি অবতরণ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতাল থেকে ওবায়দুল কাদের গত ৫ এপ্রিল ছাড়পত্র পান। তবে ওই হাসপাতালের কাছে একটি ভাড়া করা বাসায় থাকছেন তিনি। গত ২০ মার্চ ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি হয়।

এর আগে গত ৩ মার্চ ভোরে ঢাকায় নিজ বাসায় শ্বাসকষ্ট শুরু হলে ওবায়দুল কাদেরকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। ভারতের স্বনামধন্য হৃদ্‌রোগ সার্জন দেবী শেঠির পরামর্শে ৪ মার্চ এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ওবায়দুল কাদেরকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

দু’টি বিয়ে না করলে যাবজ্জীবন জেল!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আফ্রিকার ছোট্ট দেশ এরিত্রিয়ার সমস্ত পুরুষকে ন্যূনতম দু’টি বিবাহ করতেই হবে , যা আইনে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে। যদি দেশের কোনো পুরুষ বা নারী এই সিদ্ধান্তে আপত্তি করে, তা হলে শাস্তি হবে যাবজ্জীবন জেল।

একে চন্দ্র, দুয়ে পক্ষ। এক্ষেত্রে প্রথম পক্ষ এবং দ্বিতীয় পক্ষ, দুটোই বাধ্যতামূলক। এমনই আজব আইনে পাশ করেছে এরিত্রিয়া সরকার।

আরব দেশগুলির মধ্যে এরিত্রিয়াতেই শুধুমাত্র এমন আজব আইন জারি করা হয়েছে। ধর্মীয় আইনের মাধ্যমেই এই নির্দেশ দেন দেশটির গ্র্যান্ড মুফতি।

সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে, দেশে পুরুষের আকাল পড়েছে। এর আগে দীর্ঘদিন ইথিওপিয়ার সঙ্গে যুদ্ধের কারণে অনেক পুরুষ হারিয়েছে এরিত্রিয়া। ক্রমশ পুরুষশূন্য হয়ে পড়ছে এই দেশ। তাই দেশের স্বার্থেই এই আইন বলবৎ করল সরকার।

প্রসঙ্গত, এরিত্রিয়ার জনসংখ্যা চৌষট্টি লক্ষেরও কিছু কম। এর একদিকে সুদান আর ইথিওপিয়া, অন্য দিকে জিবুটি, লোহিত সাগর। ইথিওপিয়ার থেকে আলাদা হয়ে স্বাধীন হয়ে এর জন্ম হয় ১৯৯৩ সালে।

বিয়ে নয়, তবে বাবা হতে চান সালমান!

বিনোদন ডেস্ক : দীর্ঘ কয়েক বছর ধরেই সালমান খান বলিউডের মোস্ট এলিজেবল ব্যাচেলার। এই পদটি যেন তিনি একাই ধরে রেখেছেন। তবে, কবে বিয়ে করবেন সালমান? এই প্রশ্নও বহুবার শুনতে হয়েছে ভাইজানকে। কিন্তু অন স্পষ্ট কোনও উত্তর দেননি। তবে খবরে প্রকাশ হয়েছে, ৫৩ বছর বয়সে আর বিয়ে নয়, বরং বাবা হওয়ার দিকেই নাকি বেশি ঝুঁকছেন সালমান।

বলি সূত্রে খবর, সরোগেসির মাধ্যমে সন্তানের বাবা হতে চান সালমান। সেই লক্ষ্যে খোঁজ খবর শুরু করেছেন অভিনেতা। এর আগে, এই জনপ্রিয় অভিনেতা জানিয়েছিলেন, বিয়ে যদি করেন, তা হলে তা সন্তানের জন্যই করবেন।

সরোগেসির মাধ্যমে বাবা-মা হওয়ার ঘটনা বলিউেডে নতুন নয়। শাহরুখের ছোট ছেলে আব্রামের জন্ম হয়েছে সরোগেসির মাধ্যেমে। দুই যমজ সন্তান যশ এবং রুহির বাবা হয়েছেন করন জোহর সরোগেসির মাধ্যমেই।

আবার একতা কাপুর, তুষার কাপুরও সন্তানের মা, বাবা হয়েছেন সরোগেসির মাধ্যমে। এবার সেই পথেই হাঁটেতে চলেছেন সালমান। অন্তত এমনটাই গুঞ্জন বলিউডে। শোনা যাচ্ছে, খুব তাড়াতাড়িই এ বিষয়ে নিজের সিদ্ধান্তের কথা প্রকাশ্যে জানাবেন সাল্লু মিয়া ।

এদিকে সালমান খানকে শিগগির দেখা যাবে বলিউডের ‘ভারত’ ছবিতে। ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে ৫ জুন। এছাড়াও সম্প্রতি তিনি ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন ‘দাবাং থ্রি’ ছবির শুটিংয়ে। এ ছবিটি মুক্তি পাবে এ বছরের ২০ ডিসেম্বর।

ফুলতলায় রহিঙ্গা সন্দেহে পাগলিকে গনপিটুনি

(ফুলতলা) খুলনা : যা ঘটে, তা রটে আর যা রটে তার পুরোটা সত্য নয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে ছড়িয়ে পড়া রহিঙ্গা গুজব জন মনে আতঙ্কের কাজ করছে। ভুলে হুযকে মার খাচ্ছে পাগল , অপরিচিত সাধারণ মানুষ। এক শিশুর হাত থেকে মুড়ি কেড়ে খেতে যেয়ে মার খেতে হয় এক পাগলির। স্থানীয়রা রহিক্সগা ছেলে ধরা মনে করে বেধড়ক গণপিটুনি দেয় পাগলিকে। শনিবার সন্ধার পর ফুলতলার দামোদরের জোমাদ্দার পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি মিসেস কেয়া ও ফুলতলা থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে পৌছে পরিস্থিতি সামাল দিয়ে পাগলিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ফুলতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মনিরুল ইসলাম আমাদের জানান, রহিঙ্গা ছেলেধরা এটা একটি নিছক গুজব। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক থেকে এ গুজব ছড়িয়ে পড়েছে। রহিঙ্গা ছেলে ধরা বিষয়ে কোন সত্যতার প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তিনি আরও বলেন, উপজেলা নির্বাহি অফিসারের সাথে আলোচনা করে অচিরেই মাইকিং করে জনসাধারণকে সতর্ক করা হবে এবং কোথাও কোন অপরিচিত লোক দেখলে বা সন্দেহ হলে মারপিট না করে পুলিশকে খবর দেওয়ার জন্য আহ্বান জানান

ডুমুরিয়ায় কলেজ ছাত্রের আত্মহত্যা

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি : ডুমুরিয়ার পল্লীতে গলায় রশি দিয়ে এক কলেজ ছাত্র আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটে শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার সদরের হাজিডাঙ্গা গ্রামে। থানা পুলিশ লাশের সুরোতহাল হাল রির্পোট শেষে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।
পুলিশ ও পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, ডুমুরিয়া উপজেলা সদরের হাজিডাঙ্গা গ্রামের বিষ্ণু মন্ডলের ছেলে সাগর রায় (১৭) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সে কৈয়া শহীদ জিয়া কলেজের একাদশ শ্রেনীর ছাত্র এবং চলমান পরীক্ষার পরীক্ষার্থী ছিল। নিহত সাগর শুক্রবার সন্ধ্যা রাতের পর থেকেই নিখোঁজ ছিল। পরদিন শনিবার সকালে বাড়ির পাশে বাগানে একটি গাবগাছে ঝুলন্ত অবস্থায় তার মরদেহ দেখতে পায় স্বজনরা। খবর পেয়ে ডুমুরিয়া পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার ও সুরোতহাল রির্পোট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে। ডুমুরিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম বিপ্লব জানান, গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার ঘটনায় এক কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে সে কি কারণে মারা গেছে এ বিষয়ে জানা যায়নি।

ডুমুরিয়ায় রোহিঙ্গা সন্দেহে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি : ডুমুরিয়ায় উত্তেজিত জনতার নির্যাতন ও বেধড়ক মারপিটে রোহিঙ্গা সন্দেহে ৬৫ বছর বয়সি এক বৃদ্ধ মারা গেছে। ঘটনাটি ঘটে শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় উপজেলার মাগুরখালি ইউনিয়নের কাঠালিয়ার বাজারে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধারসহ এ ঘটনায় জড়িত দুইজনকে আটক করেছে।
পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার মাগুরখালি ইউনিয়নের কাঠালিয়া বাজারে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক বৃদ্ধ চলাফেরা করছিল। এ সময় বাজারে কতিপয় দোকানদারসহ স্থানীয় জনতারা তাকে রোহিঙ্গা সন্দেহে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করতে থাকে। কিন্তু বৃদ্ধটি সন্তোষজনক উত্তর দিতে না পারায় তার ওপর চালানো হয় অমানুসিক নির্যাতন ও বেধড়ক মারপিট। এক পর্যায়ে তাকে মৃত অবস্থায় মধু মন্ডলের দোকানের পাশে ফেলে দিয়ে চলে যায়। এরপর রাত সাড়ে ১২টার দিকে মাগুরখালি ক্যাম্প পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে ডুমুরিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করে। এ ঘটনায় ডুমুরিয়া থানা পুলিশ কাঠালিয়া গ্রামের মৃত খোকন মন্ডলের ছেলে মধু মন্ডল (৩০) ও সাহস ঘোষগাতি গ্রামের মিলন মোড়লের ছেলে মেহেদী হাসান (২৫) নামের দু’জনকে আটক করেছে। এ প্রসঙ্গে ডুমুরিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম বিপ্লব জানান, বেশ কয়েক দিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বোরখা বাহিনী, শিশুধরা, রোহিঙ্গার প্রবেশসহ উৎপাত এমন গুজব চলতে শুরু করেছে। পাগল বা অপরিচিত কাউকে দেখলেই তাকে ধরে মারপিট করছে জনতারা। এরই জের ধরে কাঠালিয়ার বাজারে অপরিচিত ওই বৃদ্ধকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে একদল উত্তেজিত জনতা। আমরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বার বার বলছি, অপরিচিত কাউকে দেখলে আইন নিেেজর হাতে তুলে না নিয়ে আমাদের নিকট সোপর্দ করার জন্য। এখন যেহেতু তারা আইন মানে নাই, সেক্ষেত্রে পুলিশ বাদি হয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে এবং এ ঘটনায় জড়িত দু’জনকে আটক করা হয়েছে।