তালায় পাইথন ও স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা

তালা অফিস : “তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীনে জাতীয় শিশু-কিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা-২০১৯” এর আওতায় সাতক্ষীরার তালা উপজেলার সমকাল মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠের শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবে ৬ দিনব্যাপী পাইথন ও স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা বৃহস্পতিবার দুপুরে সম্পন্ন হয়েছে।
সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহযোগিতায় ১৫ থেকে ১৭ জুন প্রাথমিক পর্যায়ের শিশু শিক্ষার্থীদের জন্য স্ক্র্যাচিং এবং ১৮ জুন থেকে ২০ জুন পর্যন্ত মাধ্যমিক পর্যায়ের কিশোর শিক্ষার্থীদের জন্য পাইথন প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।
সমাপনী দিনে সমকাল মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠের বিদ্যুৎসাহী সদস্য ও তালা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ এনামুল ইসলাম, সংশ্লিষ্ট প্রোগ্রামের সাতক্ষীরা জেলা কো-অর্ডিনেটর শেখ ফারুক হোসেন, সমকাল মাধ্যমিক বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক মোঃ আলমগীর হোসেন, সহকারী প্রধান শিক্ষক গাজী জাহিদুর রহমান, শিক্ষক মোঃ শহিদুল ইসলাম ও আইসিটি শিক্ষক রাজীব সরদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বটিয়াঘাটায় অবৈধ বালির বেল্ড ও বহনকারী কার্গোট্রাক বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধিঃ বটিয়াঘাটা উপজেলার জলমা পুরাতন ফেরীঘাট সংলগ্ন এলাকায় অবৈধ বালির বেল্ড ও বহনকারী কার্গোট্রাক বন্ধের দাবিতে এক মানববন্ধন কর্মসূচী বুধবার বেলা ১১ টায় স্থানীয় মল্লিকের মোড়ে অনুষ্ঠিত হয়। মানব বন্ধনে অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই গাইন, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বিনয় কৃষ্ণ সরকার, জলমা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নারায়ন চন্দ্র সরকার, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি বিধান চন্দ্র রায়, জলমা ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান বিপ্রদাস টিকাদার কার্তিক, ইউপি সদস্য তপতী রানী বিশ্বাস, ৮নং ওয়ার্ড পুলিশ কমিটির সাধারণ সম্পাদক গৌরপদ মল্লিক, আ’লীগ নেতা সুধীর মল্লিক, বিপ্লব মল্লিক, হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদের উপজেলা সাধারণ সম্পাদক গোবিন্দ মল্লিক, রথিন মল্লিক, অরবিন্দু মহালদার, তরুন মল্লিক, মান্দার রায়, প্রসেনজিৎ সরকার, মমতা মল্লিক, বিশ্বজিৎ রায়, মান্দার রায়, প্রসেনজিৎ সরকার, মমতা মল্লিক প্রমূখ। বক্তরা বলেন অবৈধ বালু ব্যবসায়ীরা বালু উত্তোলন করে লবন পানি উঠায়ে জমির উর্বরা শক্তির হ্রাস ও পরিবেশের ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছে। পাশাপাশি বালু বহনকারী কার্গোট্রাক বন্ধের জোর দাবী জানান। অন্যদিকে জামাত ও বিএনপি নেতা চরা এলাকার ইউনুছ মাকের্টের সত্ত্বাধিকারী ইউনুছ মোল্লা ও মোঃ বাদশা বাহীনির ভূমিদুস্য কর্র্তৃক রাতের আধারে সংখ্যালঘুদের জমিতে বালিভরাট, ঘর বাড়ি নির্মাণ ও ঘেরা বেড়া দিয়ে জমি, বাড়িঘর জোর পূর্বক দখলের বিরুদ্ধে আইন শৃংঙ্খলা বাহিনীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে। এ ব্যাপারে এলাকার ভূমি মালিকগন ভূমি দুস্যদের তালিকা প্রস্তুত করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্ঠান্ত মূলক শাস্তিরর দাবী জানিয়েছে। এ ব্যাপারে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ রবিউল কবির এর কাছে জানতে চাইলে এ প্রতিবেদকে জানান, আমি শুনেছি গত পরশুদিন গভীর রাতে চক্রাখালী বাজার মোড়ে কতিপয় ভূমিদস্যুরা হিন্দু সম্প্রদায়ের ভিটা বাড়িতে জোর পূর্বক ঘর নির্মাণ করছে। পরবর্তীতে গতকাল বুধবার সকালে চক্রাখালী বাজারের নৈশ্য প্রহরীদের থানায় ধরে আনা হয়েছে সঠিক তদন্তের জন্য জিজ্ঞাসাবাদ করে স্থানীয় ইউপি সদস্য জিম্মায় তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতির মামলা চলছিল।

ডুমুরিয়ায় ২২ ঘন্টা পর পিস্তল-গুলি উদ্ধার

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি : ডুমুরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন কালে সহকারি উপ-পরিদর্শকের খুইয়ে যাওয়া অস্ত্র ২২ ঘন্টা পরে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।
ডুমুরিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম বিপ্লব জানান, ডুমুরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলার শরাফপুর ইউনিয়নের বানিয়াখালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দায়িত্ব পালন করতে যাওয়া খুলনার দিঘলিয়া থানার সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) নাজমুল হক তার পিস্তলটি হারিয়ে ফেলেন। তিনি ১৮ জুন মঙ্গলবার দুপুরে স্কুলের একটি কক্ষে তার ব্যাগের ভিতরে পিস্তল ও ১২ রাউন্ড গুলি রেখে বাহিরে যান। কিছুক্ষণ পরে ফিরে এসে তার পিস্তল ও গুলি খুঁজে পাচ্ছিলেন না। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় তুলকালাম কান্ড শুরু হয়। এ ঘটনায় পুলিশ সন্দেহ জনক ভাবে ওই স্কুলের দপ্তরি সন্দ্বীপ কুমার রাহা (২৫) ও রাজমিস্ত্রি বুলবুল খান (৩০) নামের দু’জনকে আটক করে। তবে হারিয়ে যাওয়া পিস্তল-গুলি ২২ ঘন্টা পর গতকাল বুধবার দুপুর ২টায় ওই স্কুলের পিছনে একটি ঝোপের ভিতর থেকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। তবে কি ভাবে এ গুলো উদ্ধার হয়েছে পুলিশ তদন্তের স্বার্থে বিস্তারিত জানাতে চাননি।

দখল-দূষণে অস্থিত্ব সংকটে তালার খলিলনগরের বাওনের কুড়ের খাল

সেলিম হায়দার, তালা : গত কয়েক বছরে দখল হয়ে গেছে সাতক্ষীরা তালার খলিলনগরের জনগুরুত্বপূর্ণ বাওনের কুড়ের খালটি। সেখানকার গঙ্গারামপুরের কদমতলা-ঘোষনগরের উপর দিয়ে কপোতাক্ষে প্রবাহিত খালটি বিস্তীর্ণ জনপদের পানি নিষ্কাশনের এক মাত্র মাধ্যম।
উপজেলার সব্জিসহ ফসল উৎপাদনের অন্যতম ক্ষেত্র খলিলনগরের কাপালিপাড়ার ফসলের প্রাণ পানির যোগান পেতে খালটি ব্যবহার হয়ে আসছে সেই শ্মরণাতীত কাল থেকে। ক্যাচমেন্ট এরিয়ার গঙ্গারামপুর,ঘোষনগর,খলিলনগর,নলতা,পাইকগাছার কাশিমনগরসহ বিস্তীর্ণ অঞ্চলের পানি নিষ্কাশনের একমাত্র মাধ্যম বাওনের কুড়ের খাল। তবে খালটির দু’পাশের রেকর্ডীয় জমির মালিকদের অব্যাহত দখল প্রক্রিয়ায় তা পরিণত হয়েছে সরু ড্রেনে। স্থানীয়দের দাবি,বহিরাগতদের বসতি স্থাপনে অকাল মুত্যু হয়েছে খালটির। এছাড়া আশপাশের জমি ও বাড়ির ময়লা আবর্জনা ফেলে খালটিকে ভরাট করে তা দখলে নিচ্ছে।
অন্যদিকে দখল প্রক্রিয়ায় শেষ পেরেক ঠুকেছে স্থানীয় ক’মৎস্য চাষী। খালটিকে ঘেরের মধ্যে নিয়ে বাঁধ দিয়ে শুরু হয়েছে মাছ চাষ। আসন্ন বর্ষা মৌসুমকে ঘিরে তাই পানি নিষ্কাশনের পুরনো চিত্রকে মনে করে এলাকাবাসীর দিন কাটছে অজানা আশংকায়। তাদের দাবি,খালটির দখলমুক্ত করে পুন:খনন।
অভিযোগের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে প্রতিবেদনকালে কথা হয়,স্থানীয় ইউপি সদস্য প্রকাশ চন্দ্র দালালসহ ভূক্তভোগী অনেকের সাথে। তারা জানান,তালা ও পাইকগাছা সীমান্তবর্তী খলিলনগর ইউনিয়নের গঙ্গারামপুর,ঘোষনগর,নলতা ও খলিলনগরসহ পাশ্ববর্তী পাইকগাছার কাশিমনগর এলাকার একাংশের পানি নিষ্কাষণের একমাত্র মাধ্যম বাওন কুড়ের খাল।
তাছাড়া সব্জি উৎপাদন থেকে বিভিন্ন ফসল উৎপাদন মৌসুমে পানির যোগান মেটাতে স্থানীয় কাপালি পরিবার থেকে শুরু করে সর্ব স্তরের কৃষকের একমাত্র মাধ্যম ছিল খালটি।
গুরুত্বের কথা বিবেচনায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান প্রনব ঘোষ বাবলুর তত্ত্বাবধানে কয়েক দফায় সংষ্কার হলেও সর্বশেষ কয়েক বছরে কোন খনন হয়নি খালে। আর এই সুযোগে খালের দু’পাশের রেকর্ডীয় জমির মালিক বিশেষ করে বহিরাগতরা বসতিস্থাপনে ক্রমান্বয়ে খালটি চলে গেছে অবৈধ দখলদারদের হাতে। এছাড়া কয়েক মাছ চাষী খালের বড় একটি অংশের দখল নিয়ে তাদের মাছের ঘেরে সম্পৃক্ত করে যার যার মত বাঁধ দিয়ে শুরু করেছে মাছ চাষ।
এলাকাবাসী জানায়,গঙ্গারামপুরের মৃত অনন্ত সরদারের ছেলে সরজিৎ সরদার,রনজিৎ সরদার,মৃত সোবহান সরদারের ছেলে আলম সরদার,মোসলেম শেখ’র ছেলে জিয়া শেখ ও মৃত জালাল শেখ’র ছেলে সাজ্জাত শেখ তাদের নিজ নিজ সীমানার মাথায় খালের অংশ দখলে নিয়ে মূলত খালের অস্তিত্ব সংকটে ফেলেছে।
এলাকাবাসীর দাবি,অচিরেই খালটির দখলমুক্ত করে পুন:খনন না হলে দখল আর দূষণে অস্থিত্ব হারাবে বাওন কুড়ের খাল।

ওষুধ শিল্প ধ্বংসের ষড়যন্ত্র চলছে

ঢাকা অফিস : ঢাকার ৯৩ শতাংশ ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রি হয়, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের এমন তথ্য বাস্তবতা বিবর্জিত বলে দাবি দোকান মালিকদের। এর পেছনে গভীর চক্রান্ত কাজ করছে বলে মনে করেন তারা। তবে নামী কোম্পানিগুলো মেয়াদ পার হওয়া ওষুধ ফেরত নিতে টালবাহানা করেন বলে জানিয়েছেন তারা।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর গত ছয় মাসে যেসব ফার্মেসি বা ওষুধের দোকান পরিদর্শন করেছে তার ৯৩ ভাগেই মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ পাওয়া গেছে। এ প্রতিবেদন পেয়ে এক মাসের মধ্যে মেয়াদোত্তীর্ণ এসব ওষুধ বাজার থেকে সরিয়ে নিয়ে ও ধংস করার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

বুধবার রাজধানীর কলেজগেট এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, ফার্মেসিতে থাকা মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ তো বটেই আরো দু-এক মাস মেয়াদ আছে এমন ওষুধও সরিয়ে ফেলছেন দোকানীরা।

ফার্মেসি মালিকদের দাবি, দোকানে যাতে মেয়াদ পার হওয়া ওষুধ না থাকে এজন্য তারা নিয়মিত তদারকি করেন। মানুষ আগের চেয়ে অনেক বেশি সচেতন হওয়ার তারাও মেয়াদ দেখেই ওষুধ কিনেন। এমন পরিস্থিতিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের এ তথ্যে মানুষ বিভ্রান্ত হতে পারে। তারা এটাকে কোন আন্তর্জাতিক চক্র ও ষড়যন্ত্র মনে করছেন। আর এতে তারা সামাজিক ও মানসিকভাবে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

তাদের অভিযোগ, নামী-দামী ওষুধ কোম্পানিগুলো মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ফেরত নিতে চায় না। ফলে লোকসান গুনতে হয় তাদের। একজন ফার্মেসি মালিক বলেন, ‘ আমরা এগুলো ফেলেও দিতে পারিনা, আমাদের তো টাকা ইনভেস্ট করা আছে এখানে। ড্রাগ ইন্টারন্যাশনাল, ওরিওন, স্যানডোজ ও বেক্সিমকো মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে কোন ওষুধই ফেরত নেয়না’।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট সমিতির পরিচালক সৈয়দ হাসান নূর ইসলাম রাস্টন বলেন, ‘এটা চলমান প্রক্রিয়া, প্রতিদিনই এক্সপায়ার হবে, প্রতিদিনই আমরা গারবেজে রাখবো এবং কোম্পানিকে ফেরত দিবো। মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধের ব্যাপারে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ডিজি মহোদয় যে কথা বলেছেন তার ধিক্কার জানাই এবং এই তথ্যটা সঠিক নয়’। তিনি আরো জানান, উচ্চ আদালতের নির্দেশনার তারা মেনে চলবেন। এছাড়াও কোম্পানিগুলোকে ঠিক সময়ে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ফেরত নিতেও অনুরোধ করেন তিনি।

বিশ্ব শরণার্থী দিবস আজ

ঢাকা অফিস : আজ ২০ জুন, বিশ্ব শরণার্থী দিবস। বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাংলাদেশেও আজ দিবসটি পালিত হচ্ছে। বিশ্বজুড়ে শরণার্থীদের অমানবিক অবস্থানের প্রতি আন্তর্জাতিক নেতৃবৃন্দের সচেতনতা সৃষ্টির জন্য দিবসটি পালন করা হয়। বর্তমানে বিশ্বে প্রায় আট কোটি মানুষ শরণার্থী। এটি এ যাবৎ কালের শরণার্থী সংখ্যার সর্বোচ্চ রেকর্ড। মূলত যুদ্ধ, জাতিগত সন্ত্রাসই সাম্প্রতিক সময়ে শরণার্থী সংখ্যা বৃদ্ধির মূল কারণ।

২০০০ সালের ৪ ডিসেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ৫৫/৭৬ ভোটে অনুমোদিত হয় যে, ২০০১ সালে থেকে জুন মাসের ২০ তারিখ আন্তর্জাতিক শরণার্থী দিবস হিসেবে পালন করা হবে। এ দিনটি বাছাই করার কারণ, ১৯৫১ সালে অনুষ্ঠিত শরণার্থীদের অবস্থান নির্ণয় বিষয়ক একটি কনভেনশনের ৫০ বছর পূর্তি হয় ২০০১ সালে। ২০০০ সাল পর্যন্ত আফ্রিকান শরণার্থী দিবস নামে একটি দিবস বিভিন্ন দেশে পালিত হয়ে আসছিল। জাতিসংঘ পরবর্তীকালে নিশ্চিত করে যে, অর্গানাইজেশন অব আফ্রিকান ইউনিটি (ওএইউ) পরবর্তীকালে ২০ জুনকে আফ্রিকান শরণার্থী দিবসের পরিবর্তে আন্তর্জাতিকভাবে শরণার্থী দিবস হিসেবে ২০ জুনকে পালন করতে সম্মত হয়।

বাংলাদেশেও জাতিগত সন্ত্রাসের শিকার হয়ে মিয়ানমার থেকে আশ্রয় নিয়েছে প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী। ১৯৭৮ সালে শুরু হওয়া রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ থামেনি এখনও।  এরপর থেকে বিভিন্ন সময়ে এদেশে দলে দলে অনুপ্রবেশ করে রোহিঙ্গারা। সর্বশেষ ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর ও ২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর থেকে বাংলাদেশে তাদের ব্যাপক আগমন ঘটে। রাখাইনে সহিংস ঘটনায় প্রাণভয়ে পালিয়ে আসে সাড়ে সাত লাখ রোহিঙ্গা। বর্তমানে নতুন-পুরনো মিলিয়ে ১১ লাখ ১৮ হাজার ৫৫৭ জন রোহিঙ্গা কক্সবাজারে অবস্থান করছে। উখিয়া ও টেকনাফে ৩২টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এসব রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করছে বাংলাদেশ সরকার।

কবি সুফিয়া কামালের জন্মদিনে গুগলের বিশেষ ডুডল

ঢাকা অফিস : বাংলাদেশের নারী আন্দোলনের অন্যতম অগ্রদূত কবি সুফিয়া কামালের ১০৮তম জন্মদিন আজ। এই মহীয়সী নারী আজীবন মুক্তবুদ্ধির চর্চার পাশাপাশি সাম্প্রদায়িকতা ও মৌলবাদের বিপক্ষে সংগ্রাম করেছেন। সাহিত্যচর্চার পাশাপাশি গণতান্ত্রিক আন্দোলন-সংগ্রামে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন। কবির জন্মদিন উপলক্ষে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথকভাবে বাণী দিয়েছেন।

বিশেষ দিন, বিশেষ ঘটনা বা বিশেষ কোনো মুহূর্ত ফুটিয়ে তুলতে বরাবরই ডুডল প্রকাশ করে গুগল। জননী সাহসিকা কবি জন্মদিন উপলক্ষে বিশেষ ডুডল বানিয়েছে গুগল। বাংলাদেশ থেকে গুগলে প্রবেশ করলেই জননী সাহসিকার ছবিসহ এ ডুডল দেখা যাচ্ছে। বুধবার দিবাগত রাত ১২টার পর থেকে গুগলের সার্চ ইঞ্জিনে দেখা যাচ্ছে কবি সুফিয়া কামালকে।

১৯১১ সালের ২০ জুন বরিশালের শায়েস্তাবাদের এক অভিজাত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন সুফিয়া কামাল। তিনি সাহিত্যচর্চার পাশাপাশি নারীমুক্তি, মানবমুক্তি ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় নিরলস কাজ করে গেছেন। একুশে পদক, স্বাধীনতা পদকসহ ৫০টির বেশি পুরস্কার পেয়েছেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি সাহিত্যিক, রাজনৈতিক ও সংস্কৃতি কর্মীদের অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন। ১৯৯৯ সালের ২০ নভেম্বর মারা যান তিনি।

মহিলা পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কবি সুফিয়া কামালের জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে সংগঠনটি বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে। এর মধ্যে রয়েছে কবি সুফিয়া কামাল স্মারক বক্তৃতা, কবি সুফিয়া কামাল সম্মাননা পদক প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

রোহিঙ্গারা পরিবেশের বিষয়ে সচেতন না হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর উদ্বেগ

ঢাকা অফিস : রোহিঙ্গা আশ্রিত এলাকায় পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি এবং রোহিঙ্গারা পরিবেশ ও বন রক্ষায় সচেতন না হওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই সঙ্গে, মানবিক কারণে তাদের আশ্রয় দেয়া হলেও কক্সবাজারে পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে বলে জানান তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে, রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে পরিবেশ দিবস ও বৃক্ষমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় কর্মস্থল ও বাড়িতে প্রত্যেককে তিনটি করে গাছ লাগাতে ও গাছের পরিচর্যা করার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

তিনি আরো বলেন, ‘ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ নির্মাণে শত বছরের ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে। পরিবেশ সংরক্ষণ ও কর্ম পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই ১৪৫টি পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।’

পরিবেশ সুরক্ষায় জলাধার সংরক্ষণে জোর দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আর কোনো বক্স কালভার্ট নির্মাণ করা হবে না, সব খাল উন্মুক্ত রাখতে হবে। এ সময়, সুন্দরবন রক্ষায় গুরুত্ব দিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

র‌্যাবের অভিযানে গাজাসহ আটক ২

নিজস্ব প্রতিবেদক : র‌্যাব-৬ এর অভিযানে আড়াইশ গ্রাম গাজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছেন। আটককৃতরা হচ্ছে মোঃ শহিদুল শেখ (২৯) এবং মোঃ শফিক শেখ (৪৫)। মঙ্গলবার রাতে খুলনা জেলা ডুমুরিয়া থানাধীন কালিকাপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়।
র‌্যাব-৬ জানায়, মঙ্গলবার রাত পৌনে ১২ টার দিকে র‌্যাবের সিপিসি স্পেশাল কোম্পানী কমান্ডার মেজর শামীম সরকারের নেতৃত্বে একটি টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডুমুরিয়া উপজেলা কালিকাপুর এলাকায় অভিযান চালান। এ সময় ওই এলাকার বাসিন্দা মৃত নজরুল শেখের পুত্র মোঃ শহিদুল শেখ এবং মৃত নয়াব আলী শেখের পুত্র মোঃ শফিক শেখকে আড়াইশ গ্রাম গাজাসহ আটক করা হয়। তারা দীর্ঘদিন যাবৎ খুলনা জেলার ডুমুরিয়া থানার বিভিন্ন স্থানে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছে। তারা এলাকায় মাদক ব্যবসার সক্রিয় সদস্য বলিয়া জানা যায়। আসামীদের বিরুদ্ধে খুলনা জেলার ডুমুরিয়া থানায় মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

আন্তজার্তিক মাদক বিরোধী দিবস উপলক্ষে শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামী ২৬ জুন মাদকদ্রব্য অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে খুলনায় ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেলে নগরীর শিশু একাডেমিতে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা জেলা প্রশাসন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে এ চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।
জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ আবুল  আলমের সভাপতিত্বে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা বিভাগের শিক্ষক শেখ সাদী ভুইয়া, শিশু একাডেমির লাইব্রেরিয়ান মোঃ আব্দুল মাজেদসহ ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন। চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার শেষে বিচারকমন্ডলীরা বিজয়দের নাম ঘোষনা করেন। এর মধ্যে ‘ক’ গ্রুপে প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছে মাহিন আনন খানম, ২য় নিশাত রহমান ও সামমিয়া জাহান এবং তৃতীয় হয়েছে শাহারিয়া রাইফু ইসলাম এবং সুমাইয়া জাহান অধরা। ‘খ’ গ্রুপে প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছে জয়দূতি সরকার, ২য় মাহিয়ান ইসলাম ও ৩য় ফারিয়া হাসান মিম এবং ‘গ’ গ্রুপে একজন মাত্র প্রথম স্থান অধিকার করেছে নুসরাত ইসলাম তিতলী। আগামী ২৬ জুন মাদকদ্রব্য অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবসে বিজয়দের মাঝে পুরস্কার তুলে দেয়া হবে।