গ্রামীনফোন (টনিক) “সেলস এক্সিকিউটিভ” পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

তারিখ-৩১/০৭/২০১৯
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি
সরাসরি সাক্ষাতকার কোম্পানি নামঃ গ্রামীনফোন (টনিক) পদের নামঃ সেলস এক্সিকিউটিভ পদের সংখ্যাঃ ছেলে ২০জন এবং মেয়ে ২০জন। শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ বিএ পাস। কর্মস্থলঃ খুলনা। বেতনঃ ১৫০০০/=টাকা। সাক্ষাতের দিনঃ ০৩/০৮/২০১৯ইং সকাল ১০ টা থেকে শুরু। ঠিকানাঃ আঙিনা ভবন, ১নং পি.সি. রয় রোড, হাদিস পার্কের পাশে, খুলনা-৯১০০। আগ্রহী প্রার্থীগন নির্দিষ্ট তারিখে জীবনবৃত্তান্তসহ উপস্থিত হতে হবে। যে কোন প্রয়োজনে-টিম লিডার-০১৭৩৯০৭৯৮২৩।

মোড়েলগঞ্জে ৬ বাড়িতে হামলা : আ’লীগ কর্মী খুন, আহত ১২

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে গভীররাতে ৬ টি বসতবাড়িতে একযোগে হামলা করেছে দুর্বৃত্তরা। হামলায় আওয়ামী লীগ কর্মী সালাম সরদার(৪০) নিহত হয়েছেন। দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ৫ নারীসহ আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১২ জন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের ছোট কুমারখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সালাম সরদারের স্ত্রী ও ৩টি শিশু সন্তান রয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

বুধবার ভোর ৫টার দিকে আহতদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে বেলা ৯টার দিকে সালাম সরদারকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। খুলনা হাসপাতাল থেকে নিহত সালাম সরদারের ভাতিজা সাগর সরদার এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

অপর আহত গড়ঘাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরী শামীম সরদার(২৪), তার স্ত্রী জান্নাতি বেগম(১৯), পিতা ইসমাইল সরদার(৫০), রাকিব সরদার(১৪), মোজাম সরদার(৫০), লোকমান সরদার(৪০) ও মঞ্জু বেগম(৩০) খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এদের মধ্যে রাকিব সরদার ও মোজাম সরদারের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে। স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে রিনা বেগম ও রেক্সনা বেগমকে।

রাজনৈতিক শত্রুতার কারনে পরিকল্পিতভাবে এ হামলা ও হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন নিহত সালম সরদারের স্ত্রী রেক্সনা বেগম। তিনি বলেন, ২০০১সালে জাতীয় নির্বাচন চলাকালে জামায়াত বিএনপির কর্মীদের হাতে আওয়ামী লীগ কর্মী এনায়েত সিকদার নিহত হন। ওই মামলার আসামিরা এ হামলা চালিয়েছে।

গুরুতর আহত লোকমান সরদারের স্ত্রী রীনা বেগম বলেন, গভীর রাতে সিঁধ কেটে ১০/১২জন লোক ঘরে ঢুকে লোকমানকে মারপিট শুরু করে। তার চিৎকার শুনে পাশের ঘর থেকে ছোটভাই সালাম সরদার ছুটে গেলে দুর্বৃত্তরা সালামকে পিটিয়ে কুপিয়ে খালে ফেলে দেয়।
গুরুতর আহত রাকিব সরদারের পিতা ছলেমান সরদার বলেন, গভীর রাতে একই সময়ে আমাদের বংশের ৬টি বাড়িতে হামলা চালিয়েছে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। তার ৪টি মিনি গ্যাস সিলিন্ডার, বেশকিছু লাঠি ও ধারালো অস্ত্র এসব বাড়িতে ফেলে রেখে গেছে।
এ সর্ম্পকে ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক মহিদ হোসেন স্বপন জানান, নিহত সালাম সরদার একজন আওয়ামীলীগের সক্রিয় কর্মী। ওই পরিবারটি ২০০১ সালে নির্যাতিত ছিলো।
ঘটনার পর থেকে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান, মোড়েলগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রিয়াজুল ইসলাম, থানার ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, পূর্ব শত্রুতার কারনে এ হামলার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে মন্টু মোল্লা ও জাফর শেখ নামে দু’জনকে আটক করা হয়েছে।

শার্শায় যুবকের লাশ উদ্ধার

বেনাপোল প্রতিনিধি : শার্শা উপজেলার গোগা-কালিয়ানী গ্রামে হাজি মশিয়ার রহমানের মাছের ঘেরের পাশে খড়ের মাঠ নামক স্থান থেকে বুধবার সকালে রক্তাক্ত অবস্থায় এক যুবকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। অজ্ঞত হিসেবে লাশ উদ্ধার হলেও পরে তার মা যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে লাশ সনাক্ত করেছে। ছোট বাবু (২৭) ঝিকরগাছা উপজেলার কৃষœনগর গ্রামের নজর আলী ছেলে।
বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক আব্দুর রহিম জানান, লোকমুখে খবর পেয়ে গোগা-কালিয়ানী গ্রামে হাজি মশিয়ার রহমানের মাছের ঘেরের পাশে খড়ের মাঠ নামক স্থান থেকে লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়। তার বুকে পেটে ধারালো অস্ত্রের ১৪টি কোপের চিহ্ন (দাগ) রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে অভ্যন্তরীন দ্বন্দের কারণে তাকে অপহরণ করে এনে দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করেছে। প্রথমে নিহতের পরিচয় না পাওয়া গেলেও পরে তার মা লাশ সনাক্ত করেছে। এ ব্যাপারে হত্যা রহস্য উদঘাটনের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

গোপালগঞ্জে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ২২

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২২ জনে।ডেঙ্গু প্রতিরোধে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।জেলা আওয়ামী লীগ আজ থেকে ৩দিন ব্যাপী পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু করেছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে, গোপালগঞ্জে অন্যান্য জেলার মত দেখা দিয়েছে ডেঙ্গু রোগের প্রভাব। গত ২৪ ঘন্টায় আজ বুধবার বেলা ২টা পর্যন্ত আরো ৮ ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত করা হয়। গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ৯ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি রয়েছে।এ নিয়ে জেলায় মোট ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ২২ জনে। এর মধ্যে সদরে ১৫ জন, মুকসুদপুরে ৪ জন এবং টুঙ্গিপাড়ায় ৩ জন।

এদিকে, ডেঙ্গু রোগের প্রাদূর্ভাব কমাতে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জরুরী সভায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক কাজী শহীদুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, সিভিল সার্জন ডাঃ তরুন কুমার মন্ডল, ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ অসিত কুমার মল্লিসহ সরকারী বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জরুরী মিটিং এ আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে স্কুল, কলেজ ও সরকারী-বেসরকারী সকল দপ্তরে স্বস্ব উদ্যোগে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযান শুরু করা হবে। জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে জেলা শহরের সচেতনতামূলক মাইকিং শুরু করেছে। বাসা বাড়ীর অঙ্গিনাসহ চারপাশ পরিস্কার পরিচ্ছন্ন, যথাস্থানে ময়লা ফেলার জন্য আহবান জানানো হচ্ছে।

অপরদিকে, বেশ কয়েকদিন ধরে ডেঙ্গুর প্রভাব দেখা দিলেও পৌরসভার মশা নিধনের কোন উদ্যোগ চোখে পড়েনি। বাসা বাড়ীসহ ড্রেনে মাশা নিধনের কোন ঔষধ ছিটানো হয়নি। ফলে মশার হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেনা পৌরবাসী।

এ ব্যাপারে পৌর মেয়র কাজী লিয়াকত আলী লেকু বলেন, গোপালগঞ্জ পৌরসভায় মশা নিধনের পর্যাপ্ত মেশিন নেই। যে চারটি মেশিন রয়েছে তা অকেজো। যে কারনে মশা নিধনের জন্য সিরাজগঞ্জ জেলা থেকে ৬টি মেশিন আনা হচ্ছে। সেই সাথে ঢাকা থেকে এক ট্রাক মশা মারার ওষুধ আনা হচ্ছে।

সিভিল সার্জন ডাঃ তরুন কুমার মন্ডল বলেন, জেলার সরকারী হাসপাতাল গুলোতে ডেঙ্গু রোগ সনাক্তকরনের কোন কীট ছিল না। ঢাকা থেকে ১২০টি কিট পাঠানো হচ্ছে। যা জেলার জন্য অপ্রতুল।

জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা বলেন, ডেঙ্গু রোগীদের নিয়ে যাতে কোন ক্লিনিক মালিক ব্যবসা করতে না পারে সেদিকে নজর দেয়া হবে। সেই সাথে বিভিন্ন সরকারী দপ্তরসহ বাসা-বাড়ী আঙ্গীনা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার আহবান জানান।

পাইকগাছায় অন্তঃসত্ত্বা মেয়ে হত্যার অভিযোগে পিতার সংবাদ সম্মেলন

স্নেহেন্দু বিকাশ, পাইকগাছা : পাইকগাছায় অন্তঃসত্ত্বা পূর্ণিমাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার অভিযোগ এনে পিতা সংবাদ সম্মেলন করেছেন। বুধবার দুপুরে গৃহবধুর পিতা পংকজ কুমার সরদার সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য বলেন, আমার মেয়ে পূর্ণিমার সাথে উপজেলার মুনকিয়া গ্রামের প্রিন্স মল্লিকের এক বছর পূর্বে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুক সহ নানা অজুহাতে প্রিন্স ও তার পরিবার শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করত। সর্বশেষ গত ২৭ জুলাই ঘরের আড়ায় ঝুলন্ত অবস্থায় পূর্ণিমার লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনাকে পরিকল্পিতভাবে তার মেয়েকে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। মেয়ের অর্ধপোড়া লাশটি নদীর কুলে ভেসে উঠলে শিয়াল-কুকুরে খাচ্ছে বলে পংকজ সরদার সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করে। এদিকে, ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান, ময়না তদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করা ঠিক হবে না।

পাইকগাছায় হালিম শিকারী অস্ত্র ও গুলি সহ আটক

স্নেহেন্দু বিকাশ, পাইকগাছা : খুলনার পাইকগাছায় আলোচিত একাধিক মামলার আসামী হালিম শিকারী (৫০) পিস্তল-গুলি সহ আটক হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ৯ টার দিকে জেলা ডিবি পুলিশ সুন্দরবন সংলগ্ন শিবসা নদীর পাড়ের চিংড়ি ঘের থেকে হালিমকে আটক করে। এ সময় ১ অত্যাধুনিক পিস্তল, ১টি ম্যাগজিন সহ ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার হয়। হালিমের আটকের ঘটনায় এলাকায় মিষ্টি বিতরণ সহ স্বস্তির খবর পাওয়া গেছে। সে গড়ইখালীর ইউপির হোগলার চক গ্রামের এয়াকুব্বর শিকারীর ছেলে।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্র জানান, হালিম শিকারীর বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় কোষ্টগার্ডের সোর্স পরিচয় দিয়ে সুন্দরবনের উপর নির্ভরশীল মৎস্যজীবি জেলে, বাওয়ালীদের ভয় দেখিয়ে হয়রানী ও চাঁদাবাজির অভিযোগ রয়েছে। এসব ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে অস্ত্র-চাঁদাবাজি সহ একাধিক মামলাও রয়েছে। সম্প্রতি হালিমের বিরুদ্ধে গড়ইখালী ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমীন বিশ্বাসের নেতৃত্বে এলাকাবাসী শান্তা বাজারে বিক্ষোভ সমাবেশ করলে গণমাধ্যমে ব্যাপক ভাবে সাড়া পড়ে। এদিকে এলাকায় মিষ্টি বিতরণের খবর দিয়ে স্থানীয় প্যানেল চেয়ারম্যান আঃ ছালাম কেরু অভিযোগ করেন, হালিম শিকারীর অত্যাচারে মানুষ ছিল অতিষ্ঠ এমকি মামলা ভয়ে কেহ মুখ খুলতো না। সর্বশেষ মঙ্গলবার রাতে ডিবি পুলিশের এসআই লুৎফর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অস্ত্র-গুলি সহ হালিমকে আটক করেন। এ ঘটনায় এসআই লুৎফর রহমান বাদী পাইকগাছা থানায় অস্ত্র আইনে মামলা করেছেন, যার নং- ৫৮। হালিম শিকারীকে অস্ত্র-গুলি সহ আটকের তথ্য দিয়ে ওসি এমদাদুল হক শেখ বলেন, সে ইতিপুর্বে একাধিকবার আটক হয়, এমনকি তাঁর বিরুদ্ধে বহু মামলাও রয়েছে।

ফেরিতে তিতাসের মৃত্যু: তদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের

ঢাকা অফিস : এক যুগ্ম সচিবের অপেক্ষায় থাকা ফেরি তিন ঘন্টায়ও না ছাড়ায়, অ্যাম্বুলেন্সে স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। তিন সপ্তাহের মধ্যে অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার নিচে নন- এমন একজন কর্মকর্তার নেতৃত্বে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। একইসঙ্গে তার পরিবারকে কেন তিন কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে না- জানতে চেয়ে রুল দিয়েছেন আদালত।

তিতাসের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত ও ক্ষতিপূরণ চেয়ে করা এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে আজ বুধবার, বিচারপতি এফ আর নাজমুল ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন। একই সাথে, ২৮শে আগস্ট পরবর্তী শুনানির দিন ঠিক করেছেন আদালত।

রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. জহির উদ্দিন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

গেল ২৮শে জুলাই এক যুগ্ম-সচিবের গাড়ির অপেক্ষায় ফেরি পার হতে তিন ঘণ্টা দেরি হয়। এ সময়, অ্যাম্বুলেন্সে থাকা তিতাসের মৃত্যুর অভিযোগ ওঠে।  স্বজনদের অভিযোগ, ঘাট কর্মকর্তা ও পুলিশের কাছে অনুরোধের পরও ওই কর্মকর্তা না আসা পর্যন্ত কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে ফেরি ছাড়েনি। এমনকি, ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে সাহায্য চাওয়ার পরও ফেরি চালু করা যায়নি।

প্রায় তিন ঘণ্টা অপেক্ষার পর যুগ্ম-সচিবের গাড়ি আসলে ‘ফেরি কুমিল্লা’ যাত্রা শুরু করে। কিন্তু, ততক্ষণে নদী পার হওয়ার আগেই রাত সাড়ে ১২টার দিকে মারা যায় ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র তিতাস ঘোষ।

এক হাজার ডলার রেমিট্যান্স পাঠালেই প্রণোদনা

ঢাকা অফিস : এক হাজার ডলার প্রবাসী আয় বা রেমিট্যান্স এলে তাৎক্ষণিক ২ শতাংশ প্রণোদনা দেওয়ার প্রস্তাব করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর বেশি রেমিট্যান্স এলে নথিপত্র যাচাই-বাছাই করা হবে, এরপরই টাকা ছাড় হবে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে এমন একটি প্রস্তাব পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বুধবার মুদ্রানীতি প্রকাশ অনুষ্ঠানে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য মুদ্রানীতি ঘোষণা করেন গভর্নর ফজলে কবির। আগে ছয় মাসের জন্য মুদ্রানীতি ঘোষণা করা হলেও এবার থেকে পুরো অর্থবছরের জন্য ঘোষণা করা হয়েছে।

গভর্নর ফজলে কবির বলেন, বর্তমান মুদ্রানীতি কৌশল থেকে একটি সুবিবেচিত নীতি সুদ হারে খোলাবাজার কার্যক্রমে যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। যার মাধ্যমে ব্যাংকগুলোকে তারল্য জোগান দিয়ে বা উত্তোলন করে সুদ হারের ক্ষেত্রে সরাসরি প্রভাব পড়বে। এতে মুদ্রানীতির কার্যকারিতা আরও বাড়বে। মধ্যম ও উন্নত অর্থনীতির দেশগুলোতে এমন কৌশল ব্যবহার হচ্ছে বলে গভর্নর জানান।

বৈধপথে রেমিট্যান্স বাড়াতে সরকার ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে প্রবাসীদের দুই শতাংশ প্রণোদনা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

গৃহকর্ত্রীসহ থানায় গ্রিলে ঝুলে থাকা গৃহপরিচারিকা

ঢাকা অফিস : রাজধানীর কাকরাইলের কর্ণফুলী গার্ডেন সিটির পেছনের ১৫ তলা ভবনটির বারান্দায় ঝুলে থাকা সেই গৃহপরিচারিকাকে গৃহকর্ত্রী লাভলীসহ থানায় নিয়ে এসেছে পুলিশ। গৃহপরিচারিকার পরিবারকেও খবর দেয়া হয়েছে। এদিকে ঘটনা উদঘাটনে গাড়িচালক রুবেল ও কেয়ারটেকারকেও থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। তাদেরকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করছেন।

রমনা থানার পরিদর্শক জহিরুল ইসলাম জানান, গতকাল মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) ১৫ তলা ভবনটির ১০ম তলার বারান্দার কার্নিশে গ্রিল ধরে দীর্ঘ সময় ঝুলে ছিল কিশোরী খাদিজা। সে ভবনটির ১০তলার বি-১০ নম্বর ফ্ল্যাটে হাবিবুর রহমান ও লাভলী রহমানের বাসায় কাজ করতো।

তিনি বলেন, আমাদের পুলিশের টীম গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করি। মেয়েটির মা নেই। বাবা বিয়ে করে আলাদা থাকে। তাদের গ্রামের বাড়ি সিলেটে। এক বছর আগে এই বাসায় সে গৃহকর্মী হিসেবে কাজে আসে। এই বাসায় আরও একজন গৃহকর্মী কাজ করে। তারা নিজেদের মধ্যে কোনও ঝামেলা করে হয়তো মেয়েটি গ্রিলে গিয়ে ঝুলেছিল। তবে ভেতরে আর আসতে পারছিল না। আমরা গিয়ে তাকে ভবনের ভেতরে নিয়ে আসি।

তিনি আরো বলেন, আমরা বিভিন্ন কৌশলে মেয়েটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি, তাকে কোনও নির্যাতন করা হয়েছিল কিনা? সে কোনও নির্যাতন বা মারধরের কথা স্বীকার করেনি। সে কেবল হাসে। মেয়েটি কোনও অভিযোগ করছে না। আমরা তাকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে পাঠিয়েছি। খাদিজার মামা ঢাকায় আসতেছে। তিনি আসলে খাদিজাকে তার কাছে দেয়া হবে।

বটিয়াঘাটায় “বর্ষামঙ্গল” অনুষ্ঠিত

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি : বটিয়াঘাটা উপজেলা প্রশাসনের উদ্দোগে ও উপজেলা শিল্প কলা একাডেমীর সহযোগীতায় বুধবার সন্ধ্যা ৬ টায় স্থানীয় পরিষদ অডিটরিয়ামে “বর্ষামঙ্গল” অনুষ্ঠান শিল্পকলা একাডেমীর সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহমেদ জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ দেলোয়ার হোসেন, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মনিরুল মামুন, কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ রবিউল ইসলাম, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নারায়ন চন্দ্র মন্ডল, পরিসংখ্যান কর্মকর্তা গৌতম বিশ্বাস, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রতাপ ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, কোষাধ্যক্ষ মনিরুজ্জামান, প্রান কৃষ্ণ বিশ্বাস, চিত্রা বিশ্বাস, পরেশ বিশ্বাস, ননী গোপাল গোলদার, সুপ্রিয়া তরফদার, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সি,এ মনিরুল ইসলাম, সাংবাদিক মহিদুল ইসলাম শাহীন, সাংবাদিক এস,এম ভুট্টো, সাংবাদিক পরিতোষ রায়, প্রমূখ।