কিছু কিছু ওসি-ডিসি নিজেদের সর্বেসর্বা মনে করে: হাইকোর্ট

ঢাকা অফিস : কিছু কিছু ওসি-ডিসি নিজেদের সর্বেসর্বা মনে করে করে, মনে হয় তারাই অল ইন অল-এমন মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। আজ মঙ্গলবার, ফেনীর সোনাগাজী মডেল থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের জামিন শুনানিকালে বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন।

সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন শুনানিতে আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর মোয়াজ্জেমের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. আহসান উল্লাহ ও সালমা সুলতানা।

এছাড়াও আদালতে উপস্থিত ছিলেন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলার বাদী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। তার সঙ্গে আইনজীবী মো. আব্বাস উদ্দিন।

শুনানিতে মোয়াজ্জেমের আইনজীবী মো. আহসান উল্লাহ আদালতকে বলেন, ‘তার (মোয়াজ্জেম) মোবাইল ফোন থেকে ভিডিওটি এক সাংবাদিকের হাতে চলে গেছে। সেখান থেকেই ভিডিওটি ছড়িয়েছে।‘

তখন আদালতে তার কথার উত্তরে বলেন, ‘সাংবাদিকের হাতে ভিডিওটি আগে পৌঁছালে তাকে (নুসরাত) মরতে হত না।‘

মোয়াজ্জেমের আইনজীবী বলেন, ‘দেশের সাংবাদিকের সংখ্যা বেশি হয়ে গেছে। ওই সাংবাদিক ওসির মোবাইল থেকে ভিডিওটি নিয়ে তা ছড়িয়ে দিয়েছে এবং সে তা স্বীকার করেছে। যে ধারায় তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে তার সাজার মাত্রা কম, তার অপরাধটি জামিনযোগ্য এবং তিনি অসুস্থ হওয়ার কারণে তার চিকিৎসা দরকার বলেই জামিন আবেদন করেছি। এছাড়া তিনি একজন সরকারি কর্মকর্তা তার পেনশনের বিষয় রয়েছে। জামিন দিলে তিনি তো আর পালিয়ে যাবেন না।‘

এ সময় আদালত বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগটি গুরুতর। সে অপরাধে সাজা বেশি না কম তা বড় কথা নয়।‘

এরপর মোয়াজ্জেমের আইনজীবী মামলার বাদী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের ব্যক্তিগত বিষয়ে মন্তব্য করলে আদালত বলেন, সাংবাদিকরা সমাজের দর্পণ। ব্যারিস্টার সুমনও সমাজের দর্পণ’

তখন মোয়াজ্জেমের আইনজীবী বলেন, ‘সরকারি চাকরি যারা করেন তারাই জানেন তাদের কি কষ্ট।‘

শুনানির সময় অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, ‘সরকারি অফিসার হয়ে তিনি (মোয়াজ্জেম) ভিডিও করলেন, তা ভাইরাল হল। তাকে জামিন দিলে জনমনে কি বার্তা যাবে। তিনি অসুস্থ থাকলে জেল অথরিটি রয়েছে, তারাই তাকে চিকিৎসা করাবেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রিজনারস সেলে চিকিৎসা দেয়ার সুযোগ আছে।‘

তিনি আরও বলেন, ‘পুলিশ কর্মকর্তাদের এমন দায়িত্বহীন কাজ আগে দেখিনি। মেয়েটিকে যেসব প্রশ্ন করেছে তা অশ্লীল ভাষা।‘

তখন আদালত বলেন, ‘কিছু কিছু অফিসার নিজেদের সর্বেসর্বা মনে করে। কিছু কিছু কর্মকর্তা এমন আছে, তবে সবাই কিন্তু না। অনেক দেশেই আছে, তবে আমাদের দেশে বেশি।

এর আগে, ১৭ই জুন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। ৩০শে জুন ওসি মোয়াজ্জেমের পক্ষে হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবী। পহেলা জুলাই এই বিষয়ে শুনানির জন্য আজকের দিন ঠিক করে হাইকোর্টে।

গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করার ২০ দিনের মাথায় গত ১৬ই জুন মোয়াজ্জেম হোসেনকে হাইকোর্ট এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে শাহবাগ থানা পুলিশ।

বিয়ের ফাঁদে ফেলে আনসার আল ইসলামের সদস্য সংগ্রহ

ঢাকা অফিস : প্রেম ও বিয়ের ফাঁদে ফেলে জঙ্গি সংগঠনে অন্তর্ভূক্তির দায়ে এক নারী সহ আনসার আল ইসলামের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এক নারী ভিকটিমকেও উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে, র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানায় র‌্যাব।

কৌশলগত কারণে জঙ্গি সংগঠনগুলো নারী সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধি করছে। এর অংশ হিসেবে, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নারী সদস্য সংগ্রহে দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালনা করছে তারা। গোয়েন্দা নজরদারির পরে র‌্যাব ৯ই জুলাই, বরিশালে একটি মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে ভিকটিম সাফিয়া আক্তার তানজিকে উদ্ধারসহ আনসার আল ইসলামের সক্রিয় সদস্য জান্নাতুল নাঈমাকে গ্রেপ্তার করে।

পরে, তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীর ডেমরা থেকে আরেক সদস্য মো: আফজাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। তাদের কাছ থেকে উগ্রবাদী বই ও মোবাইল উদ্ধার করে র‌্যাব। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা সাফিয়া আক্তারকে কথিত প্রেমিকের নিকট বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বরিশাল থেকে চট্টগ্রাম নিয়ে আসার কথা স্বীকার করে। এছাড়া, জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কথাও স্বীকার করেছে তারা।

গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদ গণফোরামের

ঢাকা অফিস : গ্যাসের দাম বৃদ্ধি ও ২০১৯-২০ অর্থবছরের পাশ করা বাজেটের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে গণফোরাম। জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ বিক্ষোভ করেন।

এসময় নেতারা বলেন জনগণ নয় বরং নিজেদের জন্যই বাজেট পাশ করেছে সরকার। একইসঙ্গে গ্যাসের দাম বাড়িয়ে জনগণের কাঁধে দুর্ভোগের বোঝা আরো ভারি করেছে সরকার। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল করে নেতাকর্মীরা। ঘোষিত এই কর্মসূচিতে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের অংশ নেয়ার কথা থাকলেও তিনি উপস্থিত হননি।

জাল টাকা তৈরির কারখানা থেকে সাড়ে ২৫ লাখ টাকার জাল নোট উদ্ধা

ঢাকা অফিস : রাজধানীর রামপুরার উলন রোডে জাল টাকা তৈরির কারখানা থেকে সাড়ে ২৫ লাখ টাকার জাল নোট উদ্ধার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে জাল টাকা উৎপাদন ও বাজারজাতে নেমেছে একটি চক্র। তাদের উদ্দেশ্য ছিলো কোরবানির হাটসহ বিভিন্ন স্থানে এই টাকা ছড়িয়ে দেয়া।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ উত্তর বিভাগের ডিসি মসিউর রহমান জানান, মঙ্গলবার দুপুরে উলন রোডের চারতলা একটি ভবনে কারখানার সন্ধান পেয়ে অভিযান চালায়। ঐ ভবনের চতুর্থ তলায় জাল টাকা তৈরি করে আসছিল চক্রটি। অভিযানে দুই নারীসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। এসময় সাড়ে ২৫ লাখ টাকার জাল নোট উদ্ধার করা হয়। টাকার পাশাপাশি ভারতীয় রূপিও তৈরী করে আসছিল চক্রটি। অভিযানে ল্যাপটপ, প্রিন্টারসহ জাল নোট তৈরীর নানা সরঞ্জাম জব্দ হয়।

বটিয়াঘাটায় কিশোর-কিশোরীদের সু-স্বাস্থ্য ও সুরক্ষিত পরিবেশ প্রতিষ্ঠা কর্মসূচি অনুষ্ঠিত

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি : বটিয়াঘাটা উপজেলা রূপান্তরের আয়োজনে মঙ্গলবার বেলা ১২ টায় স্থানীয় বিআরডিবি হল মিলনায়তনে কিশোর-কিশোরীদের জন্য সু-স্বাস্থ্য ও সুরক্ষিত পরিবেশ প্রতিষ্ঠা কর্মসূচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ জিয়াউর রহমান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। রূপান্তরের এসবিসিসি অফিসারের সঞ্চলানায় উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যানদ্বয় নিতাই গাইন ও চঞ্চলা মন্ডল, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ রাম চন্দ্র সাহা, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রসেনজিৎ প্রনয় মিশ্র, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোনায়েম খান, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বিপাশা দেবী তনু, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রতাপ ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, থানা প্রতিনিধি এস,আই আসাদ, ইউপি সদস্য বিউটি মন্ডল, রমা মন্ডল, রূপান্তের সুরক্ষা প্রকল্পের সমন্বয়কারী কার্তিক রায়, রূপান্তর কর্মী দিপ্তী রানী রায়, বন্ধনা রায় সহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।

বটিয়াঘাটায় দলিত জনগোষ্টিা উন্নয়ন বাস্তবতা ও করনীয় শীর্ষক মতবিনিময়

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধিঃ বটিয়াঘাটা উপজেলায় নাগরিক উদ্যোগ এর আয়োজনে মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় স্থানীয় উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে দলিত জনযোষ্ঠীর সামাজিক,অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন সমুন্নতকরন প্রকল্প দলিত জনগোষ্টি আর্থ সামাজিক উন্নয়ন বাস্তবতা ও করনীয় শীর্ষক মতবিনিময় সভা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহমেদ জিয়াউর রহমান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। নাগরিক উদ্দ্যেগের প্রোগ্রাম অফিসার কৈলাশ চন্দ্র দাসের সঞ্চলনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যানদ্বয় নিতাই গাইন ও চঞ্চলা মন্ডল, উপজেলা প্রেকক্লাবের সভাপতি প্রতাপ ঘোষ,সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বিপাশা দেবী তনু, সমবায় কর্মকর্তা জান্নাতুনন্নেছা, তথ্য কর্মকর্তা মিতালী মন্ডল, সাংবাদিক মনিরুজ্জামান, সাংবাদিক পরিতোষ রায়,সাংবাদিক ইমরান হোসেন, লোকজের প্রোগ্রাম অফিসার মিলন কান্তি মন্ডল, নাগরিক উদ্দ্যোগের ফিল্ড অফিসার পলাশ দাস রুপান্তর কর্মী দীপ্ত রানী রায়, নিজেরা করির ম্যানেজ্যার নাহিদা রেহানা, দলিত মানবাধিকার কর্মী দেবদাস, রাধা মন্ডল, মিলন দাস উত্তম শীল প্রমূখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন নাগরিক উদ্যেগের জেলা সভাপতি সুব্রত কুমার মিস্ত্রী।

ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ডের দাবিতে মানববন্ধন

ঢাকা অফিস : ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ডের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আগামীকালও মানববন্ধন ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে তারা।

মানববন্ধনে বক্তারা জানান, ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করার দাবিতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও প্রধান বিচারপতির কাছে বৃহস্পতিবার স্মারকলিপি দেয়া হবে।  মানববন্ধনে অংশ নেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ মানবন্ধনের আয়োজন করা হয়। মানববন্ধন থেকে বিশেষ ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে ৩০ দিনের মধ্যে বিচার করে ধর্ষককে ফাঁসিতে ঝোলানোর দাবি জানান শিক্ষার্থীরা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ইভেন্ট খুলে এ কর্মসূচির ডাক দেন শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি বিএম লিপি আক্তার বলেন, ‘আমরা ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড চাই, তাদের প্রকাশ্য শাস্তি চাই।’

চার দফা দাবিতে নার্সদের কর্মবিরতি

ঢাকা অফিস : চার দফা দাবিতে দেশের সব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নার্সরা কর্মবিরতি ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছেন।  তাদের দাবিগুলো হচ্ছে- নতুন কারিকুলাম পর্যালোচনা করা, তার আগ পর্যন্ত পুরাতন কারিকুলাম বহাল রাখা, নার্সিংকে স্বতন্ত্র পেশাগত ক্যাডার চালু, ভাতা বাড়ানো এবং সকল নার্সিং কলেজকে পূর্ণাঙ্গ কলেজে উন্নীত করা। অবিলম্বে দাবি না মানলে আরো কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তারা।

সাবেক এমপি রানা জামিনে মুক্ত

ঢাকা অফিস : টাঙ্গাইল জেলা কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেলেন সাবেক এমপি আমানুর রহমান খান রানা।  এর আগে, যুবলীগের দুই নেতা হত্যা মামলায় টাঙ্গাইল-৩ আসনের আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) আমানুর রহমান খান রানারকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রাখেন আপিল বিভাগ।

গত ১৯ জুন রানার জামিনের বিষয়ে জারি করা রুল যথাযথ ঘোষণা করে তাকে স্থায়ী জামিন দেন বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ। হাইকোর্টের এ রায় স্থগিত চেয়ে আপিলে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ। এ আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত এ আদেশ দেন।

২০১৩ সালের ১৮ই জানুয়ারি টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমদের মরদেহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। ২০১৬ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি এমপি রানা ও তার তিনভাইসহ মোট ১৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

হাসপাতালে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর চাপ

ডেঙ্গু রোগীর চাপ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে রাজধানীর হাসপাতালগুলো। নিয়মিত ওয়ার্ডের মাধ্যমে সেবা দিয়ে কুলিয়ে উঠতে পারছেন না চিকিৎসকরা। তাই আলাদা ওয়ার্ডের ব্যবস্থা রাখছে বেশিরভাগ হাসপাতাল। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, চলতি বছর ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা আগের সব বছরের রেকর্ড ভেঙ্গেছে।

সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ওয়ার্ডের পাশাপাশি বারান্দায়ও রাখা হয়েছে ডেঙ্গু রোগীদের। সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল থেকে শতাধিক রোগী চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে ৫৪ জন আছেন চিকিৎসাধীন। পান্থপথের সেন্ট্রাল হাসপাতালে রোববার পর্যন্ত চিকিৎসা নিয়েছেন ৭৪ জন। ঢাকা মেডিক্যালে ২৮২ এবং হলি ফ্যামিলি হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ২২৯ জন।

ঢাকার সব হাসাপাতালেই ডেঙ্গু রোগী ভর্তির হার প্রতিদিন বাড়ছে। শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক গোবিন্দ চন্দ্র রায় জানান, ‘এখন অনেক রোগী আসছে। তাই ক্যাজুয়ালিটি ওয়ার্ড এবং ক্যন্সার ওয়ার্ড এখন  ডেঙ্গু রোগীদের জন্য ছেড়ে দেয়া হয়েছে।’

ডেঙ্গুর ভয়াবহতার চিত্র উঠে এসেছে জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যেও। ৪ বছরে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ৭ গুণ। ২০১৬ সালের জুনে ছিল ২৫৪ জন। এবার তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৭১৩। আর ১লা জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত এই সংখ্যা ২ হাজার ৮০৩ জন।

জনস্বাস্থ্য বিভাগএর রোগ নিয়ন্ত্রণ বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ড. সানিয়া তাহমিনা জানান, ‘এডিস মশার ঘনত্ব সবচেয়ে বেশি হচ্ছে কনসট্রাকশান সাইডে। জলাবদ্ধতা, অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ এ জিনিসগুলোই আমরা এখনও ঠিক করতে পারিনি।’ ডেঙ্গুর ভয়াবহতা সম্পর্কে ড. সানিয়া তাহমিনা আরও বলেন, ‘কারো যদি ডেঙ্গু একবার হয়, তবে তার ক্ষেত্রে দ্বিতিয়বার অথবা তৃতীয়বার ঝুঁকি আরও বেশি।’

জনস্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, প্রতি বছর এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত ডেঙ্গুর প্রকোপ বাড়ে। সবচেয়ে বেশি বাড়ে সেপ্টেম্বর থেকে অক্টোবরে। পুরো সময়ই ঢাকায় কোন এলাকায় এডিস মশার প্রকোপ বেশি, তা প্রতি ৪০দিন অন্তর জরিপ করে সংস্থাটি। দুই সিটি কর্পোরেশনকেও দেয়া হয় সে তথ্য।