দাকোপে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে গ্রাম আদালত

দাকোপ প্রতিনিধি : খুলনার দাকোপ উপজেলার গ্রাম আদালত যেভাবে তাঁদের কার্যক্রম পরিচালনা করছেন এবং এলাকার মানুষের দ্রুত বিচার পাওয়ার ক্ষেত্রে যে ভূমিকা রাখছেন, তা সত্যিই প্রশংসনীয়। দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে গ্রাম আদালত কার্যক্রম। স্থানীয় পর্যায়ের ছোটখাটো বিরোধ ও সমস্যা সমাধানে মানুষ এখন থানা-পুলিশে না গিয়ে গ্রাম আদালতে যেয়ে সুবিচার পাচ্ছেন।
সূত্রমতে, বাংলাদেশ সরকার, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং ইউএনডিপির আর্থিক সহায়তায় পরিচালিত বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ প্রকল্প শুরু হয়। এর আওতায় ২০১৭ সালের ১৭ জুলাই থেকে উপজেলার লাউডোব ইউনিয়ন পরিষদে এর কার্যক্রম চলছে। গত বছরের জুলাই মাস থেকে চলতি বছরের ৩০ মে পর্যন্ত এ আদালতে ১১৩টি দেওয়ানি ও ফৌজদারি মামলা নথিভুক্ত হয়। এর মধ্যে ১০৮টি মামলার নিষ্পত্তি হয়েছে। বাকি পাঁচটি মামলার বিচার চলমান। এ পর্যন্ত আদালতের রায়ে সংশ্লিষ্ট ভুক্তভোগীরা এক লাখ ৯১ হাজার নয়শ টাকা ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন। এ ছাড়াও জমি উদ্ধার করা হয়েছে। ইউনিয়ন কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠিত এ আদালতে ফৌজদারি, দেওয়ানি ও যে সব মামলার বিচার কাজ ৭৫ হাজার টাকার ঊর্ধ্বে হবে না এমন সব মামলা এখানে দ্রুত নিষ্পত্তি করা হয়। সাধারণত সপ্তাহের প্রতি শনিবার বার এখানে গ্রাম আদালত বসে। সর্বোচ্চ ৩০ দিনের মধ্যে একটি অভিযোগ নিষ্পত্তি করা হয়।
লাউডোব ইউনিয়ন পরিষদের নিজস্ব উদ্যোগে গ্রাম আদালত কার্যক্রম শুরু করা হয়। গ্রাম আদালতের প্রধান হচ্ছেন সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান। এ ছাড়া বাদী-বিবাদীদের একজন করে মনোনীত দুজন, একজন ইউপি সদস্য ও একজন গণ্যমান্য ব্যক্তিসহ পাঁচজনকে নিয়ে শুরু হয় এ আদালতের বিচারিক কার্যক্রম।
লাউডোব ইউনিয়নে কালিকাবাটি গ্রামের বাসিন্দা দেবাশীষ মন্ডল,রফিকুল শেখ,অলিয়ার রহমান,বুড়ির ডাবর গ্রামের মোসলেম গাইন,খুটাখালী গ্রামের অসিমা মন্ডলসহ অনেকেই এই আদালতের মাধ্যমে অভিযোগ করার কয়েকদিনের মধ্যেই সমস্যার সমাধান পেয়েছেন তারা। এতে করে তাদের আর থানা পুলিশে যেতে হচ্ছে না।
গ্রাম আদালত দাকোপ উপজেলা সমন্বয়কারী সবুজ আলীর সাথে কথা হলে তিনি জানান, মূলত গ্রাম আদালতে ছোট ছোট দেওয়ানী ও ফৌজদারী যা ৭৫ হাজার টাকা ক্ষতির অধিক নয় এ মামলা ইউপি চেয়ারম্যান পরিষদে গ্রাম আদালত বসিয়ে নিষ্পতি করে থাকেন।
লাউডোব ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সরোজিৎ কুমার রায় বলেন, গ্রামের মানুষরা দিন দিন গ্রাম আদালতের প্রতি আস্থা রাখতে শুরু করেছেন। ছোটখাটো বিরোধ নিয়ে আর মামলা মোকদ্দমায় যাচ্ছেন না তার ইউনিয়নের বাসিন্দারা। তিনি বলেন জনবহুল এলাকায় গ্রাম আদালত সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মাঝে গণসচেতন করার লক্ষে উঠান বৈঠাক, ভিডিও চিত্র প্রদর্শনী, শর্ট ফ্লিম, কমিউনিটি শেয়ারিং মিটিং, যুবকর্মশালা ও র‌্যালি করা হয়।

খুলনায় মাদকসহ আটক ১

বিজ্ঞপ্তি : মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, খুলনা এর উপ-পরিচালক জনাব মো: রাশেদুজ্জামান এর তত্বাবধানে ‘খ’ সার্কেলের পরিদর্শক জনাব মো: সাইফুর রহমান রানা এবং খ সার্কেলের স্টাফ সহ জেলা প্রশাসক, খুলনা কার্যালয়ের বিজ্ঞ সহকারী কমিশনার ও নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মো: মিজানুর রহমান এর নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার (১১/০৭/১৯) সকাল ০৮:৩০ ঘটিকায় খুলনা মহানগরীর খুলনা সদর থানাধীন বাসা নং-৩৬, টিবি বাউ-ারি রোড, মৌলভীপাড়া থেকে ইয়াবা সেবনরত অবস্থায় মো: মিল্টন (৪৮), পিতা: মো: মতিয়ার রহমান কে তার বাসা থেকে আটক করা হয় এবং বিজ্ঞ সহকারী কমিশনার ও নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মো: মিজানুর রহমান ঘটনাস্থলে আসামী মো: মিল্টন (৪৮) কে ০৭ (সাত) দিনের বিনাশ্রম কারাদ- এবং নগদ ১০০০/- টাকা জরিমানা করেন। অপরদিকে ‘ক’ সার্কেলের পরিদর্শক জনাব হাওলাদার মো: সিরাজুল ইসলাম এর নেতৃত্বে এবং ক সার্কেলের স্টাফ সহ অদ্য ১১/০৭/১৯ ইং তারিখে সকাল ১১:৩০ ঘটিকায় রূপসা থানাধীন পূর্ব বাগমারা থেকে হারুন শেখের পুত্র হৃদয় শেখ (২২) কে ৩০ গ্রাম গাঁজা সহ আটক করা হয় এবং তার বিরুদ্ধে রূপসা থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়। রূপসা থানার মামলা নং-১১। গত ০৯/০৭/১৯ ইং তারিখে ড্যাঞ্জারাস ড্রাগস (ডিডি) এর পারমিটধারী আহসান আহমেদ রোডের এলাহী মেডিসিন এর কর্ণধার মুনজুর এ এলাহি লাইসেন্স এর শর্ত ভঙ্গ করে পেথিডিন-মরফিন বিক্রয় করায় লাইসেন্স এর শর্ত ভঙ্গ করার কারণে তাকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, খুলনা এর উপ-পরিচালক জনাব মো: রাশেদুজ্জামান মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ সনের ধারা ১৫ এর ১ (ক) উপ-ধারা মোতাবেক শর্ত সাপেক্ষে প্রথমবারের মত ১০,০০০/- (দশ হাজার) টাকা জরিমানা করেন এবং এ অর্থ সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হয়। কোন হাসপাতাল বা ক্লিনিকে যদি লাইসেন্স বিহীন কেউ পেথিডিন-মরফিন বিক্রয় করে তাহলে খবর পাওয়া মাত্র অভিযান পরিচালনা করে তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। তাছাড়া এ ব্যাপারে আমাদের কঠোর নজরদারি আছে। মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের শূন্য সহিষ্ণুতা।

খুলনা মাদক বিরোধী টাস্কফোর্স সভায় মাদক নির্মুলে জনপ্রতিনিধিদের প্রতিজ্ঞা

নিজস্ব প্রতিবেদক : খুলনা জেলা মাদকবিরোধী ট্যাস্কফোর্স সাথে খুলনা’র সর্বস্তরের জনপ্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন সভায় সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া।
মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, সমাজ থেকে মাদক নির্মুল করার একার পক্ষে সম্ভব না। সেক্ষেত্রে আইন শৃঙ্খলার বাহিনীর পাশাপাশি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সর্বস্থরের মানুষের সহযোগিতায় খুলনাকে মাদকমুক্ত করা সম্ভব। একার পক্ষে কোন বাহিনীর মাদকনির্মুল করা সম্ভব না। সভায় সর্বস্থরের জনপ্রতিনিধিগনসহ উপস্থিত সকলকে মাদক নির্মুল করার জন্য সকলের সহযোগিতার হাত বাড়ানোর জন্য প্রতিজ্ঞাবদ্ধ করানো হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানগণ, পৌর মেয়রগণ, সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলরগণ, জেলা পরিষদের সদস্যগণ এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ অংশ গ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি)’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সরদার রাকিবুল হাসান(বিপিএম), পুলিশ সুপার এম এম শফিউল্লাহ (বিপিএম), অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ইউসুপ আলী এবং মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিপ্তরের খুলনা বিভাগীয় অতিরিক্ত পরিজালক মোঃ আবুল হোসেন, উপ-পরিচালক মো: রাশেদুজ্জামান প্রমুখ।

শপথ নিলেন বিএনপির গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ

ঢাকা অফিস : সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ছেড়ে দেয়া বগুড়া-৬ আসনে উপনির্বাচনে বিজয়ী গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় জাতীয় সংসদ ভবনে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তাঁকে শপথ বাক্য পাঠ করান।

শপথ নিয়ে জি এম সিরাজ বলেন, সরকারের অন্যায় কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে সংসদের সকল বিরোধী দল একমত হয়ে দাঁড়াবে বলে আমি আশা করি। বিরোধী দল হিসেবে নিজের অবস্থান সব সময় স্পষ্ট থাকবে বলেও জানান তিনি।

গত ২৪শে জুন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলের ছেড়ে দেয়া বগুড়া-৬ আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী ছিলেন গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ। বিএনপি মনোনীত প্রার্থী গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ ধানের শীষ প্রতীকে ৮৯ হাজার ৭৪২ ভোট সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। আর তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী টি জামান নিকেতা নৌকা প্রতীকে পান ৩২ হাজার ২৯৭ ভোট। অন্যদিকে, জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকে নির্বাচন করা নুরুল ইসলাম ওমর পেয়েছেন ৭ হাজার ২৭১ ভোট।

এর আগে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৬ আসন থেকে নির্বাচন করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরে, তিনি নির্ধারিত সময় ২৯শে এপ্রিলের মধ্যে শপথ না নেয়ায় ৩০শে এপ্রিল বগুড়া-৬ আসনটি শূন্য ঘোষণা করেন জাতীয় সংসদে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। পরে, উপনির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হয়।

এবারই প্রথম কোনো সংসদীয় আসনের সবগুলো কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএম ব্যবহার করে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে, এই আসনে বরাবরই বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া নির্বাচন করে জয়ী হয়ে আসছেন। কিন্তু, দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাবন্দি থাকায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি অংশগ্রহণ করতে পারেননি।

দাকোপে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত

দাকোপ(খুলনা)প্রতিনিধি: ১১জুলাই বুধবার সকাল ১০টায় দাকোপ উপজেলায় বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত হয়েছে। উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের আয়োজনে, সুশীলন(নিরাপদ ২ প্রকল্প), ওয়ার্ল্ডভিশন বাংলাদেশ ও সূর্যের হাসির সহায়তায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন দাকোপের সহকারী কমিশনার(ভূমি) সঞ্জীব কুমার দাশ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান গৌরপদ বাছাড়, বিশেষ অতিথি ছিলেন দাকোপ ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান বিনয় কৃষ্ণ রায় , স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোজাম্মেল হক নিজামি।দিবসটি উপলক্ষে সকাল ৯টায় উপজেলা চত্বর থেকে একটি র‌্যালী বের হয়ে পৌরসভার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।অতঃপর “জনসংখ্যা ও উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের ২৫ বছর: প্রতিশ্রুতির দ্রুত বাস্তবায়ন” এ প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয় মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালী ও আলোচনা সভায় উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারি ও স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রীরা অংশগ্রহন করে। তখন উপস্থিত ছিলেন,উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নিপা রায়, ওয়ার্ল্ডভিশন প্রতিনিধি নাজমিন নাহার ও প্রকল্প সমন্বয়কারী নিরাপদ ২ প্রকল্পের চম্পা দাস।

ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত মেয়রপুত্রের জামিন বাতিল

ঢাকা অফিস : শরীয়তপুরে কলেজ ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় জাজিরা পৌরসভার মেয়রের ছেলে মাসুদ বেপারীর জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে, তার জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠায় জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

এর আগে, এই মামলায় গ্রেপ্তারের ৮ দিনের মাথায় জামিনে মুক্তি পান তিনি। মুক্তি পেয়ে ভুক্তভোগীর পরিবারকে হুমকি দিচ্ছিলেন মাসুদ। তাই, ওই কলেজছাত্রী ও তার পরিবারের সদস্যরা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। অভিযুক্ত মেয়রের ছেলেকে জামিন দেয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়।

প্রসঙ্গত, গত ২৯শে জুন সন্ধ্যার পর ওই কলেজছাত্রী ধর্ষণের শিকার হন। ওই দিন, বিকেলে মাসুদ তার স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার জন্য কলেজছাত্রীকে বাড়িতে আসতে বলেন। পরে, ওই মেয়ে কাজ শেষ করে সন্ধ্যা ৭টার দিকে মাসুদের বাড়িতে আসেন। সেখানে মাসুদের পরিবারের কাউকে না দেখে বাড়ি ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু, মাসুদ তাকে ঘরে আটকে ধর্ষণ করেন। পরদিন, জাজিরা থানায় মাসুদের বিরুদ্ধে মামলা করেন ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী। এই মামলায় পহেলা জুলাই মাসুদ ব্যাপারীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

১লা জুলাই আদালতের মাধ্যমে মাসুদ ব্যাপারীকে শরীয়তপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। ৭ই জুলাই তার জামিন আবেদন করা হয় শরীয়তপুর জেলা আমলি আদালতে। এ সময়, তার সাতদিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করা হয়। কিন্তু, আমলি আদালতের বিচারক মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন মাসুদ ব্যাপারীর জামিন ও রিমান্ড আবেদন না মঞ্জুর করেন। পরে, জেলা ও দায়রা জজের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মরিয়ম মুন মঞ্জুরী জামিন মঞ্জুর করে আসামিকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয়ার আদেশ দেন।

বুড়িগঙ্গায় উচ্ছেদ অভিযানে হামলায় ম্যাজিস্ট্রেটসহ আহত ৫

ঢাকা অফিস : বুড়িগঙ্গা তীরে উচ্ছেদ অভিযানে হামলা চালিয়েছে প্রভাবশালী এক ঘাট ইজারাদার। এ সময় বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানসহ ৫ কর্মকর্তা আহত হয়। বৃহস্পতিবার সকালে, রাজধানীর পোস্তগোলার শ্মশান ঘাটে উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু করলে, ঘাটের ইজারাদার ইব্রাহীম আহমেদ রিপন লোকজন নিয়ে হামলা চালায়।

এতে বাধার মুখে পড়ে উচ্ছেদ কার্যক্রম। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ঘাট ইজারাদার রিপনের ভাই বাপ্পিসহ তিনজনকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পরে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতিতে আবারো শুরু হয় উচ্ছেদ অভিযান।

গেল ৪৩ কার্যদিবস ধরে চলা এ উচ্ছেদ অভিযান এই প্রথম বাধার মুখে পড়লো। এ পর্যন্ত প্রায় সাড়ে চার হাজার অবৈধ স্থাপনাসহ ১০০ একর জমি উদ্ধার ও পাঁচ কোটি টাকার মালামাল নিলামে তোলা হয়েছে।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে কতদিন কারাবাস,রায় যেকোনো দিন

ঢাকা অফিস : ‘যাবজ্জীবন কারাদণ্ড মানে আমৃত্যু কারাবাস’ বলে আপিল বিভাগের মন্তব্য করা সাভারের হত্যা মামলার রায় পুনর্বিবেচনার আবেদনের শুনানি শেষ হয়েছে। রায় যে কোনো দিন। বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পূর্নাঙ্গ বেঞ্চ রায়টি অপেক্ষমান রাখেন।

গত ১১ এপ্রিল এ বিষয়ে আইনি মতামত নেওয়ার জন্য চার আইনজীবীকে অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে নিয়োগ দেন আপিল বিভাগ। অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে নিয়োগ পাওয়া অ্যাডভোকেট এএফ হাসান আরিফ, ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদসহ সবার মতামত শুনেছেন আদালত। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন।

২০১৭ সালের ১৪ই ফেব্রুয়ারি সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ সাভারের ব্যবসায়ী জামান হত্যা মামলার রায়ে দুই আসামির মৃত্যুদণ্ড কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। একই সঙ্গে আদালত যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাসসহ সাত দফা অভিমত দেন। আপিল বিভাগের দেওয়া এই রায়ের বিরুদ্ধে আসামি আতাউর মৃধা পুনর্বিবেচনার আবেদন করেন।

মন্ত্রিসভায় রদবদল, নতুন যারা আসছেন

ঢাকা অফিস : মন্ত্রি পরিষদের আকার বাড়াসহ আবারো হচ্ছে রদবদল। শনিবার হবে শপথ গ্রহণ বলে জানিয়েছেন মন্ত্রি পরিষদ সচিব শফিউল আলম। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে একথা জানান তিনি।

শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় বঙ্গভবনে মন্ত্রিসভার নতুন সদস্যদের শপথ অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানান তিনি। কিন্তু কতজন শপথ নেবেন সে বিষয়ে কিছু জানাননি মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তবে মন্ত্রিসভায় আরও দুজন যুক্ত হতে পারে বলেও জানা গেছে। এছাড়া একজন প্রতিমন্ত্রীকে পদোন্নতি দিয়ে মন্ত্রি করা হতে পারে।

এ বছর ৭ জানুয়ারি টানা তৃতীয় দফায় আওয়ামী লীগ সরকারের মন্ত্রিসভা শপথ নেয়। প্রধানমন্ত্রীসহ ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও তিনজন উপমন্ত্রী নিয়ে নতুন মন্ত্রিসভা যাত্রা শুরু করে।

গত মে মাসে মন্ত্রিসভায় কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছিল। দুজন পূর্ণমন্ত্রীর দায়িত্ব কমানো হয়েছিল। একজন প্রতিমন্ত্রীর মন্ত্রণালয় পরিবর্তন করা হয়েছিল। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী তাজুল ইসলামকে শুধু স্থানীয় সরকারের মন্ত্রী করা হয়। স্বপন ভট্টাচার্যকে দেয়া হয় পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়। ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে দায়িত্বরত মন্ত্রী মোস্তফা জব্বারকে শুধু ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী করা হয়। আর প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলককে দেয়া হয় তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের দায়িত্ব। এ ছাড়া স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানকে তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী করা হয়।

বটিয়াঘাটায় গরু চুরি

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি : বটিয়াঘাটা উপজেলার জলমা ইউনিয়নের তেঁতুলতলা গ্রামে বুধবার দিবাগত রাতে দুর্ধর্ষ গরু চুরি সংঘটিত হয়েছে। সূত্রে প্রকাশ, তেঁতুলতলা গ্রামে উত্তর পাড়ায় আঃ সালামের ১টি গাভী, একই এলাকার মোঃ হাবিবের ২টি গাভী, মোঃ জাহাঙ্গীরের ২টি গাভী এবং মন্টুর ১টা গাভী-মোট ৬টি গরু চুরি করে নিয়ে যায়। ভুক্তভোগীরা জানায়, গরু গুলো গোয়াল ঘরের পাশে খড়ের গাদায় বাধাঁ ছিল। ৬টি গরুগুলোর আনুমানিক মূল্য ৩ লক্ষ টাকা। এ রিপোট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।