তিন নাইজেরিয়ান নাগরিক আটক

ঢাকা অফিস : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় তিন নাইজেরিয়ান নাগরিককে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবির সদস্যরা।  মঙ্গলবার রাতে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের দৌলতপুর এলাকা দিয়ে ভারতে যাওয়ার সময় ঘাগুটিয়া ক্যাম্পের টহল বিজিবি সদস্যরা তাদেরকে আটক করে। আটককৃতদেরকে বুধবার দুপুরে আখাউড়া থানায় সোপর্দ করেছে বিজিবি। পুলিশ জানায়, এই তিনজন নাইজেরিয়ান ২০ জুলাই বাংলাদেশে আসেন। কেন এবং কিভাবে তারা আখাউড়া সীমান্তে গিয়েছেন তা জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্ততি চলছে।

কাল রাজশাহীর আদালতে তোলা হবে সাঈদীকে

ঢাকা অফিস : একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে আমৃত্যু কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামি জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাজশাহীর আদালতে তার একটি মামলায় হাজিরা রয়েছে।

জামায়াতের নায়েবে আমীর দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীকে কঠোর গোপনীয়তার সঙ্গে গত ২০শে জুলাই রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়। এরপর বিষয়টি গোপন রাখা হয়। তবে বৃহস্পতিবারের হাজিরা উপলক্ষ্যে আগের দিন বুধবার থেকেই আদালতে নিরাপত্তা জোরদার করা হলে বিষয়টি প্রকাশ পায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার হালিমা খাতুন তেমন কিছু জানাননি। তবে তিনি জানিয়েছেন, গত ২০শে জুলাই সাঈদীকে রাজশাহীতে আনা হয়েছে। কোন থানার কী মামলা সেটাও জানাতে চাননি কারাগারের এই কর্মকর্তা।

কারাগার সূত্রে জানা যায়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ কর্মী ফারুক হত্যা মামলার আসামি দেলাওয়ার হোসেন সাঈদী। ২০১০ সালের ৮ই ফেব্রুয়ারি ইসলামী ছাত্রশিবির ও ছাত্রলীগের মধ্যে সংঘর্ষের পর গভীর রাতে ফারুককে হত্যা করে লাশ ম্যানহোলে ফেলে রাখে শিবির ক্যাডাররা। এতে আসামি হন জামায়াতের শীর্ষ নেতারাও। এ মামলাতে রাজশাহীর অতিরিক্ত মহানগর জজ আদালতে দেলাওয়ার হোসেন সাঈদীর হাজিরা রয়েছে।

গুজব-গণপিটুনি রোধে স্কুলে-কলেজে ঠাকুরগাঁও পুলিশের বার্তা

ঠাকুরগাঁও : ছেলেধরা গুজব ছড়িয়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় অনেককে গণপিটুনিতে হত্যার মাধ্যমে একটা অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরী করার চেষ্টা চলছে বলে মনে করেন ঠাকুরগাঁও জেলা পুলিশ।

এরই লক্ষ্যে বুধবার সকাল থেকেই জেলার বিভিন্ন স্কুল কলেজে গিয়ে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক,গভনিং বডির সদস্য ও ছাত্রছাত্রীদের সাথে নিয়ে করেছেন মতবিনিময় সভা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ঠাকুরগাঁও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেলের আবু তাহের মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, সদর থানার ওসি অপারেশন গোলার মুর্তুজা, এস আই ফিরোজা, জয় মহন্ত অলক, নাহিদ রেজা সহ সদর থানার কর্মকর্তাবৃন্দ।

এসময় পুলিশের সদস্যরা বলেন, গুজবের সাথে তাল মিলিয়ে কোন মানুষকে হত্যা করার অধিকার কারো নেই। গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে ছেলেধরা সন্দেহে কাউকে গণপিটুনি দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না। যদি কাউকে ছেলেধরা সন্দেহ হয় তাহলে তাৎক্ষণিক পুলিশকে সংবাদ দেয়ার অনুরোধ জানান তারা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা হবে ১২০ নম্বরের

ঢাকা অফিস : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা হবে ১২০ নম্বরের। দেড় ঘন্টার পরীক্ষায় ৭৫ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৪৫ নম্বরের লিখিত উত্তর দিতে হবে।

বুধবার উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি বিষয়ক সাধারণ ভর্তি কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এ বছর প্রতি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার সময় হবে দেড় ঘণ্টা। এমসিকিউ অংশে ৬০টি প্রশ্নের জন্য নির্ধারিত সময় ৫০ মিনিট। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১.২৫ অনুসারে সর্বমোট ৭৫। এমসিকিউ অংশে পাস মার্ক নির্ধারন করা হয়েছে ৩০। আর লিখিত অংশে সময় ৪০ মিনিট এবং পাস মার্ক নির্ধারন করা হয়েছে ১২।

সূত্র আরও জানায়, এমসিকিউ পরীক্ষায় ৩০ নম্বর পেলে লিখিত পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন করা হবে। কেউ যদি এমসিকিউ অংশে পাস মার্কের বেশি পাওয়ার পরও লিখিত পরীক্ষায় ১২ নম্বরের কম পায় তাহলে সে ভর্তির অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে। লিখিত অংশের জন্য বাংলা ও ইংরেজির বোর্ড বই পড়তে হবে। এ অংশে সাধারণ জ্ঞান থেকে কোনো প্রশ্ন আসবে না। মোট ১২০ নম্বরের পরীক্ষার সঙ্গে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার জিপিএ যোগ করে সর্বমোট ২০০ নম্বরের ভিত্তিতে ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

এ বছর ১৩ই সেপ্টেম্বর ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষার মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে। এছাড়া ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২০শে সেপ্টেম্বর, ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২১শে সেপ্টেম্বর, ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২৭শে সেপ্টেম্বর নেয়া হবে। আর ‘চ’ ইউনিটের (সাধারণ জ্ঞান) ১৪ই সেপ্টেম্বর এবং ২৮শে সেপ্টেম্বর অংকন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার মাধ্যমে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শেষ হবে।

রেনু হত্যায় হৃদয়ের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর, জড়িত থাকার দায় স্বীকার

ঢাকা অফিস : রাজধানীর বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনুকে গণপিটুনি দিয়ে হত্যার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত ইব্রাহিম হোসেন ওরফে হৃদয়ের পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ বুধবার, ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মো. জসিম পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

তাসলিমা বেগম রেনু হত্যাকাণ্ডের বিভিন্ন ফুটেজ দেখে হৃদয়কে এ হত্যাকাণ্ডের মূলহোতা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

গণপিটুনিতে তাসলিমা বেগম রেণু হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে মামলার প্রধান অভিযুক্ত হৃদয়। গতকাল রাতে নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদে রেণু হত্যায় আরও সাতজনের জড়িত থাকার কথাও জানিয়েছে হৃদয়। বুধবার দুপুরে, সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানিয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

গত ২০শে জুলাই, রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় মেয়েকে স্কুলে ভর্তি করানোর জন্য তথ্য জানতে স্কুলে গিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে মারা যান তসলিমা বেগম রেনু।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার আব্দুল বাতেন বলেন, ‘প্রধান আসামি হৃদয় স্থানীয় সবজি বিক্রেতা। গত ২০শে জুলাই রেনুকে ছেলেধরা হিসেবে এক নারী চিহ্নিত করলে মুহূর্তেই সে খবর ছড়িয়ে পড়ে। সে সময়, রেনুকে স্কুলের দোতলায় আটকে রাখা হয়। একপর্যায়ে তালা ভেঙে রেনু বের করে এনে পিটিয়ে হত্যা করে হৃদয়সহ আরও সাত-আটজন।’ হৃদয়ের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, ঘটনা জড়িত অন্যদেরও আইনে আওতায় আনা হচ্ছে বলে জানান আব্দুল বাতেন।

ঘটনার সময় ধারণ করা ভিডিও ফুটেজে কয়েকজন যুবককে উৎসাহ নিয়ে মারতে দেখা যায়। পরবর্তীতে এসব যুবকের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তাদের ধরিয়ে দেয়ার আহ্বানও জানানো হয়। এদের মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত ইব্রাহিম হোসেন ওরফে হৃদয় নামে এক যুবক।

এ ঘটনায় বাড্ডা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হলে কয়েকজন যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে, হৃদয় ছিল পলাতক। মঙ্গলবার রাতে, ঘটনার পাঁচ দিন পর নারায়ণগঞ্জের ভুলতা থেকে হৃদয়কে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ।

এছাড়া, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ গুজব ছড়ালে বা এমন পোস্টে কমেন্ট করে উৎসাহ দিলেও তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানান ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার।

প্রসঙ্গত, শনিবার সকালে রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় মেয়েকে ভর্তি করানোর তথ্য জানতে স্থানীয় একটি স্কুলে যান তাসলিমা রেনু (৪০)। এ সময়, তাকে ছেলেধরা সন্দেহে প্রধান শিক্ষকের রুম থেকে টেনে বের করে গণপিটুনিতে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় বাড্ডা থানায় অজ্ঞাত ৪০০ থেকে ৫০০ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন নিহত তাসলিমা বেগম রেনুর ভাগনে নাসির উদ্দিন।

এবার ‘ছেলেধরা’ গুজবের শিকার শিক্ষা কর্মকর্তা

চট্টগ্রাম : এবার স্কুল পরিদর্শনে এসে ‘ছেলেধরা’ গুজবের শিকার হলেন চট্টগ্রাম প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের শিক্ষা কর্মকর্তা তাপস পাল। সোমবার দুপুরে, প্রশাসনিক কাজে নগরীর উত্তর কাট্টলী মুন্সিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনে এসে অভিভাবকদের সন্দেহের কবলে পড়েন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, বিদ্যালয় পরিদর্শনে এসে অভিভাবকদের সন্দেহের কবলে পড়েন এডিপিও তাপস পাল। অচেনা কাউকে স্কুলে প্রবেশ করতে দেখে উপস্থিত অভিভাবকরা এসে জড়ো হতে থাকেন। একপর্যায়ে অভিভাবকরা স্কুল কার্যালয়ের সামনে চিৎকার ও স্কুল কর্তৃপক্ষকে ফোন করতে থাকেন। এ সময় ৪ শিক্ষার্থীদের মাথা নেয়ার ব্যাপারে স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ওই কর্মকর্তা চুক্তি করছে বলেও গুজব রটিয়ে দেয়া হয়। এমন পরিস্থিতিতে অভিভাবকরা গুজবের ঘটনাটিকে সত্য মনে করে আগুন্তুক ওই কর্মকর্তাকে সন্দেহ করতে থাকে।

এমন পরিস্থিতিতে স্কুল কর্তৃপক্ষ স্থানীয় প্রশাসনকে ঘটনাটি জানায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসলে অভিভাবকরা কিছুটা শান্ত হন। কিন্তু তাদের সন্দেহ কমে না। পুলিশের উপস্থিতিতে স্কুল ছুটি হবার পর পরিস্থিতি শান্ত হয়।

কলারোয়ায় ফেনসিডিলসহ দুই নারী আটক

জুলফিকার আলী,কলারোয়া(সাতক্ষীরা) : সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ফেনসিডিল পাচারকালে থানা পুলিশের হাতে আটক হয়েছে দুই নারী সদস্য। ঘটনাটি ঘটেছে-বুধবার (২৪জুলাই) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে কলারোয়া উপজেলার কাজিরহাট বাসষ্টান্ডে। থানার সেকেন্ড অফিসার রাজ কিশোর পাল জানান-গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিনি ফোর্স নিয়ে ওই স্থানে অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় যশোরের শার্শা উপজেলার জিরনগাছা গ্রামের মৃত বজলে মোড়লের মেয়ে রহিমা খাতুন (৬০) ও একই উপজেলার দাদপুর গ্রামের জব্বার মোড়লের মেয়ে ছকিনা বেগম (৫৫) কে আটক করা হয়। সকলের উপস্থিততে ওই দুজনের কাছ থেকে ২৩ পিচ ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। এবিষয়ে কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মুনীর-উল-গীয়াস জানান-মাদক আইনে মামলা হয়েছে। আটককৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

সুন্দরবনে আগ্নেয়াস্ত্র ও তক্ষক উদ্ধার

বাগেরহাট প্রতিনিধি : সুন্দরবনে আগ্নেয়অস্ত্র ও বিরল প্রজাতির তক্ষক উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড।কোস্ট গার্র্ড পশ্চিম জোনের অপারেশান কর্মকর্তা লেঃ বিএন আবদুল আল মাহমুদ এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতর মাধ্যমে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার ভোরে সুন্দরবনের আন্দারমানিক খাল সংলগ্ন এলাকায় ও মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মোংলা থানার লাউডোব ঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে চালিয়ে ৪ রাউন্ড গুলি, ৩ টি বিদেশী বন্দুক ও ১ টি বিরল প্রজাতির তক্ষক উদ্ধার করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, বাংলাদেশ কোস্ট গার্র্ড পশ্চিম জোনের এখতিয়ারভূক্ত এলাকাসমূহে আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রন ও জননিরাপত্তার পাশাপাশি সুন্দরবনে জলদস্যুতা,বনদস্যুতা, ডাকাতি ও দমনে কোস্ট গার্ড জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করে এবং কোস্ট গার্ডের অভিযান অব্যাহত থাকবে। উদ্ধারকৃত আগ্নেয়াস্ত্র(বিদেশী) ও তাজাগোলা পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য কয়রা থানায় ও তক্ষকটি সুন্দরবনে অবমুক্ত করার জন্য করমজল ফরেস্ট অফিসে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সারাদেশে নৌযান চলাচল বন্ধ

ঢাকা অফিস : নৌপথে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী, ডাকাতি বন্ধসহ ১১ দফা দাবিতে মধ্যরাত থেকে সারাদেশে সব ধরণের নৌযান চলাচল বন্ধ রেখে কর্মবিরতি শুরু করেছে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন।

ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আশিকুল আলম পটল জানান, এর আগে গত ১৫ই এপ্রিল থেকে একই দাবিতে সারাদেশে নৌযান শ্রমিকেরা কর্মবিরতি পালন করে।

তিনি বলেন, ‘১৭ই এপ্রিল সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীসহ নৌযান মালিক পক্ষ ও শ্রমিক নেতাদের মধ্যে বৈঠকে নেয়া সিদ্ধান্ত নির্দিষ্ট সময় পার হলেও বাস্তবায়ন হয়নি। ফলে বাধ্য হয়ে আবারো এ কর্মবিরতি পালনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

এদিকে নৌযান শ্রমিকদের এ কর্মবিরতিতে মোংলা বন্দরে অবস্থান করা সব বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজের পণ্য বোঝাই-খালাস ও পরিবহণ কাজ বন্ধ রয়েছে।

প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে অনুদান আত্মসাতের অভিযোগ

ঢাকা অফিস : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে নালিশ জানানো প্রিয়া সাহার এনজিও শারি’র বিরুদ্ধে আনা নানা অভিযোগ তদন্ত করছে এনজিও বিষয়ক ব্যুরো।  তার সাবেক সহকর্মী ও প্রকল্প এলাকার লোকজন প্রিয়ার বিরুদ্ধে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ এনেছেন। এরইমধ্যে সংখ্যালঘুদের নিয়ে চলা একটি প্রকল্পে অনিয়মের প্রমাণ পেয়ে তার ব্যাখ্যাও চাওয়া হয়েছে।

২০১৫ সাল থেকে এ পর্যন্ত প্রিয়া সাহার এনজিও শারি দলিত সম্প্রদায় ও সংখ্যালঘুদের জন্য দুটি প্রকল্পে অনুদান খরচ করেছে ৬ কোটি ১৬ লাখ ৩১ হাজার ৪৮৪ টাকা। এনজিওটির তথ্য বলছে, এই টাকার প্রায় অর্ধেকই খরচ করা হয়েছে পিরোজপুর, খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরায়।

কিন্তু সংখ্যালঘুদের জন্য যে এলাকায় সবচেয়ে বেশি কাজের কথা বলেছে এনজিওটি, সেখানের সংখ্যালঘু লোকজন এই এনজিও তাদের জন্য কিছুই করেনি।

সম্প্রতি প্রিয়া সাহার এনজিও থেকে অব্যহতি নেয়া সদস্যরা অভিযোগ করেছেন সংখ্যালঘুদের দেখিয়ে বিদেশী অনুদান আত্মসাৎ করেছেন প্রিয়া সাহা।

প্রিয়া সাহার এনজিও থেকে সদ্য পদত্যাগ করা সদস্য খালিদ আবু বলেন, ‘তিনি (প্রিয়া সাহা) কোনো কার্যক্রম করছেন না, শুধু চা-নাস্তা আর বাকিটা বিল করে টাকা আত্মসাতের জন্য তিনি এ কার্যক্রমটা করেছেন।’

প্রিয়া সাহা দলিতদের নাম নিয়ে বিভিন্ন দেশ থেকে টাকা আনতেন উল্লেখ করে সদ্য পদত্যাগ করা আরেক সদস্য সাদুল্লাহ লিটন কিছু কর্মকর্তাসহ প্রিয়া সাহার দ্রুত তদন্ত করার দাবি জানান।

বর্তমানে প্রিয়া সাহার এনজিও শারি’র মাধ্যমে সংখ্যালঘুদের জন্য চলমান তিন বছরের একটি প্রকল্পের প্রথম বছরের অর্থের ব্যয় ও পরিচালনা নিয়ে নানা অসংগতি পেয়েছে এনজিও বিষয়ক ব্যুরো। ব্যুরোর নিরীক্ষা বিভাগ বলছে, এনজিও ব্যুরোর অনুমোদন না নিয়েই স্থানীয়ভাবে অনুদান নিয়েছে শারি। এরকম আরোকিছু অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর পরিচালক (নিবন্ধন ও নিরীক্ষা) মোহাম্মদ শাহাদাত হোসাইন বলেন, ‘যেকোনো অভিযোগ আসলে আমরা তদন্ত করবো এবং আমাদের যে আইন আছে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।’