ফুলতলায় ইউপি চেয়ারম্যান শিপলু’র দুঃস্থদের মাঝে চাল বিতরণ

ফুলতলা অফিসঃ পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে ফুলতলার দামোদর ইউপি চেয়ারম্যান শরীফ মোহাম্মদ ভুইয়া শিপলু ভিজিএফ এবং নিজস্ব অর্থায়নে গতকাল সকালে দুঃস্থদের মাঝে চাল বিতরণ করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রিসোর্স কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম রনি, ইউপি সচিব মোঃ রাজিবুল ইসলাম, ইউপি সদস্য বেগম শামসুন্নাহার, কেয়া খাতুন, গাজী আলমগীর হোসেন, মাসুদ পারভেজ মুক্ত, শেখ আঃ রশিদ, আঃ রহমান সরদার, মহাসিন বিশ্বাস, শেখ নজরুল ইসলাম, কায়েস সরদার, ইব্রাহীম গাজী প্রমুখ।

কয়রায় হরিণের মাংস সহ ১ জন আটক

(কয়রা, খুলনা) : কয়রা থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৮ কেজি হরিণের মাংস সহ মিঠুন হালদার (২০) কে আটক করেছে। সে উপজেলার দক্ষিন বেদকাশি গ্রামের গনেশ হালদারের পুত্র। পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার রাত ১২ টার দিকে কয়রা থানার নবাগত কর্মকর্তা ইনচার্জ মোঃ রবিউল হোসেনের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে দক্ষিন বেদকাশি ইউনিয়ন পরিষদের সামনে থেকে হরিণের মাংস সহ তাকে আটক করে। অভিযানকালে উপস্থিত ছিলেন ওসি তদন্ত এস এম শাহাদাত হোসেন, এসআই নিমাই চন্দ্র কুন্ডু, নাজমুল সাকিল, কাটকাটা ক্যাম্প ইনচার্জ ইয়াছিন আলী ও টিএসআই লিয়াকাত আলী। এ ব্যাপারে কয়রা থানায় বন্যপ্রানী নিধন আইনে মামলা হয়েছে।

তালায় বসত ভিটা থেকে উচ্ছেদের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

তালা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরা তালায় শরিকের একই জমি দুইবার বিক্রি করে এক অসহায় পরিবারকে বসত ভিটা থেকে উচ্ছেদের অভিযোগে তালা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিকালে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলার খেশরা ইউনিয়নের শাহাপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হামিদ গোলদার ছেলে মো: আব্দুল হাকিম।
লিখিত বক্তব্যে আব্দুল হাকিম বলেন, আমার বাবা চাচারা দুই ভাই এবং দুই বোন। এর মধ্যে আমার ছোট ফুফু ফতেমা বিবি আমার পিতা বেচে থাকা কালিন সময়ে তার অংশে শাহাপুর মৌজার বর্তমান ৩৯আরএস খতিয়ানের ৪২৮ দাগের সাড়ে ২২ শতক সম্পত্তি প্রাপ্যদার হয়। সেই সময় তার অংশের সম্পত্তি আমার পিতার নিকট থেকে অংশ মোতাবেক টাকা বুঝে নিয়ে জমি আমার পিতার অনুকুলে দখল বুঝে দেন। সেখানে দীর্ঘ ৩০ বছর যাবত আমার পিতা বসত ভিটা তৈরি করে ভোগ-দখল করেছে এবং আমি বর্তমানে সেখানে বসবাস করছি। কিন্তু আমার পিতা মারা যাওয়ায় জমি রেজিষ্ট্রি করা সম্ভব হয়নি। তবে আমার পিতা মারার যাওয়ার পরে আমার ফুফুকে অনেকবার রেজিষ্ট্রির কথা বলেছি তাতে তিনি আমাকে আশ্বাস দিয়ে এসছেন। বর্তমানে আমাকে না দিয়ে টাকার লোভে অন্যের নিকট আমার বসত ভিটা বিক্রি করছে। এই বসত ভিটা ছাড়া আমাদের আর কোন সম্পত্তি নেই।
তিনি বলেন, শান্তি পূর্ণ ভাবে ভোগ দখলীয় জমি বর্তমানে একই গ্রামের মৃত খোরশেদ মোড়ল এর স্ত্রী আমার ফুফু ফতেমা বিবি, একই গ্রামের মৃত একিম মোড়লের ছেলে নিছার আলী মোড়ল এর নেতৃত্বে ও কুপরামর্শে আমার বসত ভিটা পুনরায় বিক্রির পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছে এবং তার এই অপকর্মে আমার চাচাতো ভাই আছাদুল গংরা তাদের নিকট আত্মিয় এক উর্দ্ধতন পুলিশ কর্মকর্তা থাকায় তার ভয় দেখিয়ে আমাদের জিম্মি করে বসত বাড়ী থেকে উচ্ছেদের পায়তারা চালাচ্ছে। আমি সম্প্রতি উপজেলার খেশরা পুলিশ ফাড়িতে একটি লিখিত অভিযোগ করলে সেটিও ঐ পুলিশ কর্মকর্তার পরিচয়ে পন্ড করে দেয়। এছাড়া বিভিন্ন ভাবে মিথ্যা মামলার হুমকি দিচ্ছে। বর্তমানে আমার পরিবার নিয়েএই অপশক্তির কাছে অসহায় হয়ে পড়েছি।
তিনি আরও বলেন, এই জমি রেজিষ্ট্রি হলে আমার বাপ দাদার ভিটা ছেড়ে আমার পরিবার নিয়ে রাস্তায় বসা ছাড়া আর কোন উপায় নেই। এই কুচক্রী মহলের মিথ্যা অপচেষ্টা থেকে রেহায় পেয়ে আমার বসত ভিটা ফিরে পেতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার সহ সংশ্লিষ্ঠ দপ্তরের উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন আব্দুল হাকিম।

বটিয়াঘাটায় জাইকার প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধিঃ স্থানীয় সরকার পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে এবং উপজেলা পরিষদের বাস্তবায়নে বিভিন্ন দপ্তরের তালিকা ভুক্ত সদস্যদের পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন মেয়াদের প্রশিক্ষণ গত ৬ আগস্ট মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় বটিয়াঘাটা বিআরডিবি হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহমেদ জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে প্রশিক্ষণ কর্মশালা উদ্বোধন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফুল আলম খান। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই গাইন, পশু ও প্রানী সম্পাদ অফিসার বঙ্কিম চন্দ্র হালদার, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হাবিবুর রহমান, সাংবাদিক মহিদুল ইসলাম শাহীন, ইমারান হোসেন, জাইকার ইউডিই মোঃ মাহাবুবার রহমান প্রমূখ। এসময়ে জাপান ইন্টারন্যাশাল কোয়াপারেশন এজেন্সি (জাইকার) অর্থায়নে উপজেলা পরিচালণ ও উন্নয়ন প্রকল্পের সভাপতি উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান চঞ্চলা মন্ডলের নেতৃত্বে ৫২ জন সদস্যকে ৩ দিন ব্যাপি পশু ও প্রানী সম্পদ অফিসের উদ্যোগে উন্নত জাতের গাভী পালন এবং প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের উদ্যেগে শিক্ষার মান উন্নয়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণ চলবে। অন্যদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উদ্যোগে ৯০ জন গর্ভবর্তী ও প্রসূতি মাকে ৩ দিনের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হবে। কৃষি অফিসের উদ্যোগে বিষমুক্ত আম চাষের জন্য ১০৮ জন চাষিকে ১ দিনের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হবে। মৎস্য অফিসের উদ্যোগে নিরাপদ মৎস্য চাষ ও আহরন বিষয়ে ৩০ জন জেলেকে ৩ দিনের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হবে। যুব উন্নয়ন অফিসের উদ্যোগে হস্ত শিল্প উপর ২৫ জন সদস্যকে ৩ দিনের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হবে। সর্বশেষ নিরাপদ সড়ক চাই ও মাদক নিরোধী র‌্যালি ও আলোচনা সভায় ১০৮ জন সদস্য মিলে ১ দিনে এই কর্মসূচি শেষ হবে। জানা গেছে ৮টি প্রকল্পের জাইকার ১০ লক্ষ টাকা অর্থায়নে এ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হবে। সার্বিক বিষয়ের ৮টি প্রকল্পের সভাপতি উপজেলা আ’লীগের মহিলা সম্পাদিকা ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান চঞ্চলা মন্ডল বলেন, বিভিন্ন দপ্তরের উপকার ভোগী বা সদস্যদের নিয়ে জাইকার অর্থায়নে নানান বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ চলছে যে কারনে এখান থেকে পুরুষ ও মহিলারা কিছু শিখতে পারবে ও বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন লোকদের শেখাতে পারবে এটাই উপজেলা পরিষদের পরিকল্পনা।

খুলনা বিভাগে আরও ১৪০ আক্রান্ত : জেলায় ৩৭

শিশুদের জ্বর নিয়ে অভিভাবকরা উদ্বিগ্ন

কামরুল হোসেন মনি : খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় ১৪০ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে খুলনায় জেলায় ৩৭ জন। এ পর্যন্ত খুলনা বিভাগে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৭১ জন, যার মধ্যে খুলনায় রয়েছে ২২৯ জন। এ সময়ের মধ্যে মারা গেছে ৫ জন।
এদিকে দেশে ডেঙ্গু প্রাদুুর্ভাব দেখা দেওয়ায় শিশুদের জ্বর হওয়ায় উদ্বিগ্ন, উৎকন্ঠিত অভিভাবকরা। শিশুদের জ্বর হওয়ায় শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা বলেন, উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। জ্বর হলে শিশুদেরকে চিকিৎসকদের শরণাপন্ন হওয়ার পরামর্শ দেন। মঙ্গলবার খুলনা জেনারেল হাসপাতাল ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ঘুরে জ্বরে আক্রান্ত রোগীদের অভিভাবকদের সাথে কথা বললে তারা উদ্বেগ প্রকাশ করেন।
খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের (রোগ নিয়ন্ত্রণ) সূত্র মতে, সোমবার দুপুর ১২টা থেকে মঙ্গলবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত ২৪ ঘন্টায় খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় নতুন করে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪০ জন। এর মধ্যে খুলনা জেলায় রয়েছে ৩৭ জন। সূত্র মতে, গত ২৪ ঘন্টায় খুলনা বিভাগের ১০ জেলার মধ্যে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তের মধ্যে রয়েছে খুলনা জেলায় ৩৭ জন, বাগেরহাটে ৬ জন, সাতক্ষীরায় ১২ জন, ঝিনাইদহে ১৪ জন, মাগুরায় ১ জন, নড়াইলে ২ জন, কুষ্টিয়ায় ১৮ জন, চুয়াডাঙ্গায় ৮ জন ও মেহেরপুরে ৪ জন।
খুলনা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের (রোগ নিয়ন্ত্রণ) সহকারী পরিচালক ডাঃ ফেরদৌসী আক্তার মঙ্গলবার বলেন, গত ২৪ ঘন্টায় খুলনা বিভাগে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।
খুলনা সিভিল সার্জন দপ্তরের সূত্র মতে, গত ২৪ ঘন্টায় খুলনায় নতুন করে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে ৩৭ জন। এ পর্যন্ত খুলনা জেলায় মোট ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২২৯ জন। এর মধ্যে মারা যায় ৩ জন। সোমবার থেকে মঙ্গলবার ১২টা পর্যন্ত খুলনা জেলায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে ৩৭ জন। এর মধ্যে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৪ জন, জেনারেল হাসপাতালে ৩ জন, সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪ জন, গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ জন, আদ-দ্বীন হাসপাতালে ২ জন ও ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে ১ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন। সিভিল সার্জন দপ্তর সূত্র মতে, ১ জুলাই থেকে ৬ আগস্ট পর্যন্ত খুলনা জেলায় মোট ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২২৯ জন। এ সময় মারা যায় ৩ জন। এদের মধ্যে ডেঙ্গু জ্বরে চিকিৎসা নেন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৫০ জন, খুলনা জেনারেল হাসপাতালে ১২ জন, আদ-দ্বীন হাসপাতালে ১০ জন, সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩১ জন, গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৮ জন, ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে ৫ জন, ফুলতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১ জন ও পাইকগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২ জন। এ সময়ের মধ্যে ডেঙ্গু জ্বরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় ৩ জন। এর মধ্যে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১ জন, গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১ জন ও সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১ জন।
রূপসা উপজেলা থেকে আসা শিশু আফসানা (৭)কে নিয়ে আসেন শিশুটির মা আমেনা বেগম। তিনি বলেন, দুই-তিন দিন ধরে তার বাচ্চার জ্বর হয়েছে। কিন্তু তার মেয়ে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত নন। তবে তার মনে আশঙ্কা, মেয়ের আবার এই জ্বর হয় কি না। তিনি বলেন, ডেঙ্গু যে অবস্থায় গেছে, তাতে তো আমরাও চিন্তায় আছি।
খুলনা জেনারেল হাসপাতালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি রয়েছেন গার্মেন্টস কর্মী মোঃ মারুফ বিল্লাহ (২২)। এর আগে ঢাকায় একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। ৩১ আগস্ট রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে ডেঙ্গু জ্বর সনাক্ত হয়। খুলনায় আসার পর গত ৫ আগস্ট আবার জ্বর হলে তিনি খুলনা জেনারেল হাসপাতাল ভর্তি হন। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দিনে-রাতে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীরা ভর্তি হচ্ছেন।
খুলনা জেনারেল হাসপাতালের কনসালট্যান্ট শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ মোঃ শরাফাত হোসাইন গতকাল মঙ্গলবার এ প্রতিবেদককে বলেন, শিশুদের জ্বর নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছুই নেই। যারা ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন তাদের হিস্ট্রি ঘেটে জানা গেছে, অধিকাংশই ঢাকায় অবস্থানকালে এই ডেঙ্গু ভাইরাস বহন করে নিয়ে আসছেন। তিনি বলেন, ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত ব্যক্তিকে মশা কামড়ালে ওই মশা যদি একজন সুস্থ ব্যক্তিকে কামড়ায় তাহলে তারও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এ জন্য ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত ব্যক্তিকে মশারির মধ্যে রাখা হচ্ছে। শিশুদের বর্তমানে যারা জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে এটা সিজন্যাল ভাইরাস। তবে দুই-তিন একাধারে জ্বর থাকলে দেরি না করে চিকিৎসকের পরামর্শে ওষুধ খাওয়াতে হবে। এছাড়া বেশি করে তরল জাতীয় খাবার খাওয়াতে হবে।

ভাসমান পেয়ারা হাটে পর্যটকের ভিড়

ঝালকাঠি : পানির ওপর ভাসমান পেয়ারা হাটকে কেন্দ্র করে পর্যটনের ব্যাপক সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে ঝালকাঠির ভীমরুলি গ্রামে। তাজা পেয়ারার স্বাদ নিতে আর অপরূপ দৃশ্য দেখতে হাজারো পর্যটক এখানে ভীড় করছেন প্রতিদিন। কিন্তু সরকারি-বেসরকারি ভাবে কোন সুব্যবস্থা গড়ে না ওঠায় হতাশ ভ্রমন পিপাশুরা।

ঝালকাঠি সদর উপজেলার কীর্তিপাশা ইউনিয়নের ২০টি গ্রামে প্রায় ৫০০ হেক্টর জমিতে হচ্ছে পেয়ারার চাষ। আর শ্রাবণ ও ভাদ্র মাস জুড়ে পেয়ারা কেনা-বেচার জন্য ভীমরুলি খালের উপর বসে ভাসমান হাট। এখান থেকেই ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় দেশি জাতের সুস্বাদু এ পেয়ারা সরবরাহ করছেন পাইকারী বিক্রেতারা।

আর এই হাট সংলগ্ন মনোরম পরিবেশ উপভোগ করতে দূর-দূরান্তের হাজারো পর্যটক প্রতিদিন ভিড় করছেন এখানে। বিশ্রামাগার না থাকায় ভোগান্তিতে পড়েন পর্যটকরা। পেয়ারা বাগানে পার্ক এবং খাবার মিললেও নেই কোন থাকার ব্যবস্থা।

তবে পর্যটকদের জন্য গেস্ট হাউজ, সিটিং সেট, বিশ্রামাগার নির্মাণসহ অন্যান্য সুব্যাবস্থা দিতে নানা প্রকল্পের কাজ চলছে বলে জানান, জেলা প্রশাসক।
দেশি-বিদেশি পর্যটক আকর্ষণে দ্রুত ও কার্যকর ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন, এমনটাই দাবি স্থানীয়দের।

ঈদ যাত্রা শুরু

ঢাকা অফিস : আনুষ্ঠানিকভাবে ঢাকা থেকে ঈদ যাত্রা শুরু হয়েছে আজ বুধবার। এ পর্যন্ত ১৮টি ট্রেন ছেড়েছে। ৩-৪ টি ট্রেন ছাড়া সব ট্রেন ছাড়ার সময় ঠিক থাকবে বলে জানিয়েছেন রেল কতৃপক্ষ। আজ সারাদিনে ৫২ টি ট্রেন ছেড়ে যাবে। এর মধ্যে আন্ত:নগর ৩৪ টি।

এদিকে বন্যার কারণে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় রংপুর আর লালমনিরহাট রুটে ট্রেনের আসা যাওয়ায় সময় বেশী লাগছে।

আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি কার্যক্রম শেষ হয়েছে গত ২ আগস্ট। আর আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছিল ২৯ জুলাই। প্রথম দিন বিক্রি হয়েছিল ৭ আগস্টের টিকিট।

গত সোমবার থেকে শুরু হয়েছে ট্রেনের ফিরতি টিকিট বিক্রি। গতকাল মঙ্গলবার বিক্রি হয়েছে ১৫ আগস্টের টিকিট। ৭ আগস্ট বিক্রি হবে ১৬ আগস্টের টিকিট, ৮ তারিখে ১৭ আগস্ট এবং ৯ তারিখ বিক্রি হবে ১৮ আগস্টের ফিরতি টিকিট।

রেল কর্তৃপক্ষ জানায়, ঈদের আগে ১০ দিন এবং পরে ১০ দিন পর্যন্ত ট্রেনে ভিআইপিদের জন্য সেলুন সংযোজন করা হবে না। ১১ ও ১৪ আগস্ট ঢাকা-কলকাতা-ঢাকার মধ্যে মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে।

ঈদে অতিরিক্ত যাত্রী চাহিদা মেটানোর জন্য এক হাজার ৪৩৭টি যাত্রীবাহী কোচ সার্ভিসে যুক্ত করার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। রেলে প্রতিদিন দুই লাখ ৭৭ হাজার মানুষ চলাচল করলেও ঈদের সময় তা বেড়ে হবে প্রায় চার লাখ।

মশা নিধনের কার্যকর ওষুধ দুই একদিনের মধ্যেই আসবে

ঢাকা অফিস : এডিস মশা নিধনের ওষুধ দুই একদিনের মধ্যেই দেশে আসবে, তাই জনগণকে আতঙ্কিত না হবার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বুধবার সকালে, মিরপুর মাজার রোডে পরিচ্ছন্নতা অভিযানে এ কথা বলেন তিনি। এছাড়াও, শহরের সব জায়গায় পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানো হবে বলেও জানান তিনি।

এসময় ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দু-চারদিনের মধ্যেই মশা নিধনের কার্যকর ওষুধ ঢাকায় আমরা পাবো। দায়সারা গোছের ওষুধ ছিটানোর প্রয়োজন নেই। যে ওষুধে সত্যিকার অর্থে মশক নিধন হবে, মানুষ আজ সেই ওষুধ চায়। আমরা লোক দেখানো কর্মসূচী দিয়ে জনগণকে ভাওতা দিতে চাইনা।’ এছাড়া, দলের পক্ষ পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম ডেঙ্গুর প্রকোপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। পরে, ডেঙ্গু সচেতনতা বিষয়ক শোভাযাত্রা মিরপুরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

এর আগে, মশারি বিতরণকে কেন্দ্র করে অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। এতে, এক বৃদ্ধাসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এসময়, ডিবিসি নিউজসহ কয়েকটি চ্যানেলের মাইক্রোফোন ক্ষতিগ্রস্থ হয়।

ভারতের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ মারা গেছেন

আন্তর্জাতিক : হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ভারতের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং বিজেপির বর্ষীয়ান নেতা সুষমা স্বরাজ মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

মঙ্গলবার রাত দশটার দিকে হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করায় দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্স হাসপাতালে নেয়া হয় সুষমা স্বরাজকে। পরে রাত সাড়ে এগারোটার দিকে মারা যান তিনি।

হাসপাতালে নেয়ার পরপরই তাকে দেখতে যান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, দলের শীর্ষ নেতা হর্ষবর্ধন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিতিন গডকরী এবং স্মৃতি ইরানি।

তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীও তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন। সুষমার মৃত্যুতে ভারতের রাজনীতিতে এক গৌরবময় অধ্যায় শেষ হয়েছে বলে টুইটারে মন্তব্য করেন মোদি।

অসুস্থতার কারণে এবার মোদির মন্ত্রিসভায় কোনো দায়িত্ব নিতে আগ্রহী হননি সুষমা। তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রথম মেয়াদে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন তিনি। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন সুষমা স্বরাজ।

এর আগে, মঙ্গলবার সন্ধ্যায়ও জম্মু কাশ্মীরের বিশেষ বাতিল নিয়ে সরকারের সিদ্ধান্তের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানিয়ে টুইট করেন সুষমা স্বরাজ।

ভারতে নয়বার সংসদ সদস্য ছিলেন বর্ষীয়ান রাজনীতিক সুষমা স্বরাজ। ১৯৭৭ সালে দেশের সর্বকনিষ্ঠ মন্ত্রী হন তিনি। পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর ২০১৪ সালের প্রথম বাংলাদেশে সফর করেন তিনি। পরে ২০১৭ সালেও দুই দিনের সফরে ঢাকা আসেন তিনি।