ডেঙ্গুতে আজ মারা গেলেন ৬ জন

ঢাকা অফিস : ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর মিছিল ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে। আজ (সোমবার) রাজধানীসহ সারাদেশে মারা গেছেন ৬ জন। এরমধ্যে, শুধু ময়মনসিংহেই মারা গেছেন ২ জন। আর ঢাকা, খুলনা, ফরিদপুর, বরিশালে মারা গেছেন আরও ৪ জন। এ সময়ে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ১৬১৫ জন।

সকালে খুলনা মেডিক্যালে মিজানুর রহমান নামে এক ব্যবসায়ী মারা গেছে। এ নিয়ে গত এক মাসে খুলনায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে পাঁচজনের মৃত্যু হলো। ফরিদপুর মেডিক্যালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে মসজিদের ইমাম দেলোয়ার হোসেন। এছাড়া, ময়মনসিংহ মেডিক্যালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে আনোয়ার ও সেলিম নামে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে, রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে এক তরুণী মারা গেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসেবে, গত ২৪ ঘণ্টায় এক হাজার ৬১৫ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এরমধ্যে, রাজধানীতে সাতশো সাতান্ন জন আর বিভিন্ন জেলায় আটশো আটান্ন জন। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ছয় হাজার সাতশো তেত্রিশ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন আছে। সারা দেশে এখন পর্যন্ত মোট ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে ৫৪,৭৯৭ জন।

বাবাকে হত্যার দায়ে ছেলের মৃত্যুদণ্ড

ঝলকাঠি : পারিবারিক কলহের জেরে বাবাকে পিটিয়ে হত্যার দায়ে ছেলে আলতাফ হোসেন খন্দকারকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার দুপুরে, ঝলকাঠির অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক শেখ মো. তোফায়েল হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন। আসামি আলতাফ খন্দকারের অনুপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করেন আদালত। আসামি আলতাফ বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।

মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত ব্যক্তি আলতাফ হোসেন ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া উপজেলার উত্তর চেচরি গ্রামের আব্দুল বারেক খন্দকারের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৭ সালের ১০ই এপ্রিল সকালে ছেলে আলতাফ হোসেনকে বাড়ির উঠান থেকে লাকড়ি তুলতে বলাকে কেন্দ্র করে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে আলতাফ তার বাবা বারেক খন্দকারকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। ঘটনার তিনদিন পর বরিশাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বারেক খন্দকার মারা যান।

এ ঘটনায় নিহতের আরেক ছেলে মঞ্জু খন্দকার বাদী হয়ে ১৩ই এপ্রিল কাঁঠালিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ওই বছরের ৩০শে মে কাঁঠালিয়া থানার উপপরিদর্শক মো. শহিদুল ইসলাম তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এরপর, আদালতের বিচারক ৮ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে সোমবার দুপুরে আলতাফ হোসেন খন্দকারকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়ে রায় ঘোষণা করেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত সরকারি কৌশলী এম আলম খান কামাল। অন্যদিকে, আসামিপক্ষে রাষ্ট্র নিযুক্ত আইনজীবী ছিলেন মঞ্জুর হোসেন।

তালপাতার পাঠশালায় বর্ণমালা-নামতার পাঠদান

গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জের প্রত্যন্ত এক গ্রাম। সেখানে পরম আনন্দে শিশুরা শিখছে বর্ণমালা, নামতা। আর, লেখার হাতে খড়ি হচ্ছে তালপাতায় খলখাগড়ার তৈরি কলমে। শুকনো তালপাতা, নলখাগড়ার কলম, আর ভাতের হাড়ির কালি; আর তা দিয়েই চলছে শিশুদের লেখাপড়া। এটি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার প্রত্যন্ত জামাইবাজার গ্রামের দৃশ্য। প্রায় ৪০ বছর ধরে, মন্দিরের সামনে এই পাঠশালাটি পরিচালিত হয়ে আসছে।

হাতে-মুখে কালি মেখে আনন্দপাঠ হয় এখানে। হাতের লেখা সুন্দর করার আগ্রহ নিয়ে লেখাপড়া করায় স্বচ্ছল পরিবারের সন্তানদেরও এই পাঠশালায় পাঠায় অভিভাককেরা। বর্ণমালা, নামতা ও বানানরীতিসহ প্রাক প্রাথমিকের নানা শিক্ষা দেয়া হয় তালপাতার পাঠশালায়। এখান থেকে হাতেখড়ি নিয়ে শিশুরা যায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। তালপাতার পাঠশালায় শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৩০ জন। সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে পাঠদান চলে বেলা ১টা পর্যন্ত।

স্থানীয় একজন অভিভাবক বলেন, ‘শিশুরা তালপাতায় প্রথমেই এখান পড়াশোনা করেছে।তালপাতায় লিখলে ওদের হাতের লেখা আরও সুন্দর হয়। অনেক ছেলেমেয়ের অভিভাবকরা ম্যাডামকে টাকা দিতে পারেনা। তারপরও ম্যাডাম তাদেরকে শিক্ষাদান করেই যান।’

পরম মমতায় পাঠদান করে চলেছেন তালপাতার পাঠশালার একমাত্র শিক্ষক কাকলী কৃত্তনীয়। তিনি বলেন, ‘এখানে থেকে পড়াশোনা করে বাচ্চারা যে রেজাল্ট করে তা অন্য জায়গার চেয়ে অনেক ভালো হয়।’

তালপাতার পাঠশালার গুরুত্বের কথা তুলে ধরেন গোপালগঞ্জ টুঙ্গিপাড়ার উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মানব রঞ্জন বাছার। তিনি জানান, ‘এখানে যে কার্যক্রমটা দেখছি তা খুবই ভালো। মূল স্রোতে যাওয়ার আগে হাতে কলমে যে বেসিক শিক্ষা, তা নিজেরাই দেয়ার ব্যবস্থা করেছে।’

পাঠশালাটির মান উন্নয়নের কথা জানান জেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সুকুমার মিত্র। তিনি বলেন, ‘প্রাথমিক শিক্ষা থেকে বিদ্যালয়টির দিকে হাত বাড়িয়ে আমরা যেন প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়ন করতে সে বিষয়ে আমরা চিন্তা-ভাবনা করবো আমাদের বিভাগ থেকে।’

খুলনার দাকোপে ১ কেজি গাঁজা সহ আটক ২

খুলনা অফিস : খুলনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ তোফায়েল আহমেদ এর নেতৃত্বে এসআই (নিঃ)/ মোঃ লুৎফর রহমান সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স সহ রবিবার দাকোপ থানা এলাকায় মাদক উদ্ধার সহ বিবিধ উদ্ধার অভিযান পরিচালনা কালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দাকোপ থানাধীন খুটাখালী বাজার থেকে বাগেরহাট জেলার মোংলা থানার এলাকার মোঃ রাজ্জাক শেখ এর পুত্র মোঃ নুরুল হক শেখ (৩৮) এবং মোংলা থানার নারকেল তলা আবাসন এলাকার মোঃ মজিবর ফকিরএর পুত্র মোঃ মাসুম ফকিরকে ১ কেজি মাদকদ্রব্য গাঁজা সহ আটক করা হয়। উদ্ধারকৃত গাঁজা এর অনুমান মূল্য ৩০,০০০/-টাকা। এ সংক্রান্তে খুলনা জেলা গোয়েন্দা শাখা, খুলনার এসআই (নিঃ)/ মোঃ লুৎফর রহমান বাদী হয়ে উপরোক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে দাকোপ থানায় মামলা দায়ের করেন।

নবম ওয়েজবোর্ড বিষয়ে আদেশ মঙ্গলবার

ঢাকা অফিস : সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থার কর্মীদের জন্য নবম ওয়েজবোর্ড বিষয়ে আপিল বিভাগের আদেশ মঙ্গলবার।

আজ সোমবার সংবাদপত্রকর্মীদের নতুন বেতন কাঠামো নবম ওয়েজ বোর্ডের গেজেট প্রকাশের ওপর দুই মাসের স্থিতাবস্থা দিয়ে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের ওপর শুনানি শেষে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ এ বিষয়ে আদেশের জন্য মঙ্গলবার দিন রেখেছেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। নিউজ পেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (নোয়াব) পক্ষে ছিলেন সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এএফ হাসান আরিফ।

এর আগে, ১৪ই আগস্ট নবম ওয়েজ বোর্ডের চূড়ান্ত গেজেট প্রকাশের বিষয়ে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের শুনানির দিন ধার্য করা হয় ১৯শে আগস্ট। ওই দিন চেম্বার বিচারপতি মো. নূরুজ্জামান শুনানির এই তারিখ ধার্য করেন।

সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থার কর্মীদের নতুন বেতন কাঠামো নির্ধারণে গঠিত হয় নবম ওয়েজ বোর্ড। যার সুপারিশ বাস্তবায়নে চূড়ান্ত গেজেট প্রকাশের বিষয়ে স্থগিতাদেশ চেয়ে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। আর, চূড়ান্ত গেজেট প্রকাশে দুই মাসের স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নিউজ পেপার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (নোয়াব) গত ৫ই আগস্ট নতুন বেতনকাঠামোর সুপারিশ চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়ার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট করে।

ডেঙ্গুতে ৩ জনের মৃত্যু

ঢাকা অফিস : ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে খুলনা, ফরিদপুর ও ময়মনসিংহে তিন জন মারা গেছেন। সকালে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মিজানুর রহমান নামে এক ব্যবসায়ী মারা গেছেন। এ নিয়ে গত এক মাসে খুলনায় ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে পাঁচজনের মৃত্যু হলো ।

এদিকে, ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে মসজিদের ইমাম দেলোয়ার হোসেন। এছাড়া ময়মনসিংহে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসেবে গতকাল ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৭০৬ জন। এবছর এখন পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত ৫৩ হাজার ১৮২ জন।

হাসপাতালগুলো থেকে ডেঙ্গুতে ৭০ জন মারা গেছেন বলে রিপোর্ট করা হয়। তথ্য পর্যালোচনার করে ৪০ জনের মৃত্যুর কারণ ডেঙ্গু বলে নিশ্চিত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ।