ফুলতলায় পূজা উদযাপন পরিষদের মতবিনিময় সভা

ফুলতলা অফিসঃ বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ফুলতলা উপজেলা শাখার উদ্যোগে মঙ্গলবার বিকালে উপজেলা হাবিবুর রহমান মিলনায়তনে আসন্ন শারদীয় দূর্গোৎসব উদযাপন উপলক্ষে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মৃনাল হাজরার পরিচালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ আকরাম হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত ইউএনও অনিমেষ বিশ্বাস, ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আবুল বাশার, শরীফ মোহাম্মদ ভুইয়া শিপলু, ওসি মোঃ মনিরুল ইসলাম, ওসি (তদন্ত) উজ্জ্বল দত্ত, আনছার ভিডিপি কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম শরীফ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রধান শিক্ষক প্রফুল্ল কুমার চক্রবর্তী, বিশ্বনাথ ঘোষ, প্রভাষক গৌতম কুন্ডু, প্রেসক্লাব সভাপতি তাপস কুমার বিশ্বাস, মুক্তিযোদ্ধা সুবোধ চন্দ্র বসু, পূজা পরিষদের নেতা অজিত সরকার, ডাঃ সরোজ সুর, প্রেমচাঁদ দাস, সুব্রত কুমার বিশ্বাস, নারায়ণ চন্দ্র বকশী, বিপ্লব রায়, তপন মিত্র, দীপক বিশ্বাস, সুমন্ত্ কুন্ডু, রুহিদাস মোহন্ত, দুলাল চন্দ্র অধিকারী, বিশ্বনাথ কুন্ডু, শেখর পাল, অচিন্ত কুমার দাস, বিশ্বজিৎ মন্ডল, অমুল্য হালদার প্রমুখ। প্রসঙ্গঃ ফুলতলা উপজেলায় এবার ৪২টি মন্ডপে শারদীয় দূর্গোৎসব পালিত হচ্ছে।

ফুলতলা প্রধানমন্ত্রীর চাচীর সুস্থ্যতা কামনায় আওয়ামীলীগের দোয়া অনুষ্ঠান

ফুলতলা অফিসঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চাচী ও শেখ হেলাল এমপি’র মাতা রিজিয়া বেগমের আশু সুস্থ্যতা কামনা করে এক দোয়া অনুষ্ঠান ফুলতলা উপজেলা আওয়ামীলীদের উদ্যোগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় স্থানীয় দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ আকরাম হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ আসলাম খান, সরদার শাহাবুদ্দিন জিপ্পী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কে এম জিয়া হাসান তুহিন, মৃনাল হাজরা, আবু তাহের রিপন, ইউপি চেয়ারম্যান শরীফ মোহাম্মদ ভুইয়া শিপলু, মোর্শারফ হোসেন মোড়ল, প্রফুল্ল কুমার চক্রবর্তী, ইসমাইল হোসেন বাবলু, সাহিদুল মোল্যা, শহিদুল্লাহ প্রিন্স, এস কে মিজানুর রহমান, রবীন বসু, সুবোধ বসু, খুরশিদ মোড়ল, এস কে সাদ্দাম হোসেন, বিজয় কৃষ্ণ হালদার, ইকতিয়ার উদ্দিন সুমন প্রমুখ। পরে মাওঃ রফিকুল ইসলামের পরিচালনায় দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

খুলনায় ডোপ টেস্টে ৪ মাদক সেবনকারি সনাক্ত: জেল-জরিমানা প্রদান

নিজস্ব প্রতিবেদক : নগরীতে মাদক বিরোধী টাস্কফোর্সের অভিযানে ফেনসিডিল ও গাজা সেবনের অপরাধে ৪ জনকে আটক করেছেন। খুলনায় এই প্রথম মাদকবিরোধী টাস্কফোর্সের অভিযানে এই প্রথম আটককৃতদের ডোপ টেস্টের মাধ্যমে গাজা ও ফেনসিডিল শরীরের উপস্থিতি সনাক্তকরণ করা হয়। আটককৃতরা হচ্ছে মৃত মোজাম্মেল হকের পুত্র এনামুল হক হীরা (৪২), মৃত শাহ মাহমুদ আশফাকের পুত্র ওম্মিদ উল ইসলাম (৪০), মৃত মহিউদ্দিন আহম্মেদ এর পুত্র আফতাফ উদ্দিন আহমেদ (৪২) এবং লুৎফর রহমানের পুত্র মোঃ হাবিবুর রহমান (২৭)। এ সময়ে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে আটক ৪ জনের প্রত্যেককে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান অনাদায়ে আরো এক মাসে কারাদ- প্রদান করা হয়। জেলা প্রশাসকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার মোঃ ইমরান খান ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।
গতকাল সোমবার বিকেলে মাদকবিরোধী টাস্কফোর্সের একটি টিম নগরীর ৭১নং বাইতি পাড়ায় বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়।
খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সূত্র মতে, জেলা প্রশাসকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারি কমিশনার মোঃ ইমরান খানের নেতৃত্বে মাদকবিরোধী টাস্কফোর্স একটি টিম নগরীর ৭১নং বাইতি পাড়া বাসায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানের সময় খুলনা বিভাগের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ আবুল হোসেন, উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান, সহকারি পরিচালক শিরীন আক্তার, মিজানুর রহমান, মোঃ হাশেম, মোঃ বাহউদ্দিন, মোঃ শরিয়াত উল্লাহ, মোঃ ইখতেখার, মোঃ সিরাজুল মোস্তফাম, মোঃ নজরুল ইসলাম, মোঃ বুলু শেখ এবং ‘ক’ ও ‘খ’ সার্কেলের স্টাফ ও এপিবিএন এর উপ-পরিদর্শক মোঃ জাকির হোসেন উপস্থিত ছিলেন। অভিযানের সময় ওই বাড়িতে উল্লিখিত ৪ জন ফেনসিডিল ও গাজা সেবন করছিলো।
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান বলেন, মাদকবিরোধী টাস্কফোর্সের অভিযানের সময় ডোপ টেস্টের মাধ্যমে গাজা ও ফেনসিডিল শরীরের মধ্যে পাওয়া যায়। এ সময় তাদেরকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে উল্লিখিত সাজা প্রদান করা হয়।