ফুলতলার জামিরা কলেজে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

তাপস কুমার বিশ্বাস, ফুলতলা অফিসঃ ফুলতলার জামিরা বাজার আসমোতিয়া স্কুল এন্ড কলেজে দু’দিন ব্যাপী বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শেষে বৃহস্পতিবার বিকালে বিদ্যালয়ে চত্তরে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি বিশ্বনাথ ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ইউএনও পারভীন সুলতানা। স্বাগত বক্তৃতা করেন অধ্যক্ষ গাজী মারুফুল কবির। বিশেষ অতিথি ছিলেন শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. ফিরোজ মাহমুদ। প্রভাষক সমীর কুমার বিশ্বাসের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পরিচালনা কমিটির সদস্য ডা. সুকুমার দত্ত, মোশারফ হোসেন খোকন, কাজী শহিদুল ইসলাম, আবু মুছা, মাসুদ সরদার, ইকতিয়ার উদ্দিন, সহকারী অধ্যাপক মোঃ নেছার উদ্দিন, ইউনুচ আলী শেখ, নজরুল ইসলাম, শেখ ইকবাল হোসেন, রুকসানা মেহেবুবা, সাবিনা ইয়াসমিন, প্রভাষক শাহানাজ পারভীন, সালমা খাতুন, তাপস কুমার মজুমদার, ড. রতন কুমার হালদার, সহকারী প্রধান শিক্ষক গোলাম সরোয়ার মোল্যা, জুলফিকার আলী, পল্লীবিদ্যুৎ জামিরা ইনচার্জ মোঃ আঃ গফুর, শিক্ষক খাদিজা খাতুন প্রমুখ।

স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ: আটক ৪

মানিকগঞ্জ : মানিকগঞ্জের সিংগাইরে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ করেছে নেশাখোর বখাটেরা। এ ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার গভীর রাতে উপজেলার চারিগ্রাম ইউনিয়নের বড়াাটিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ওই এলাকার চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা এলাকায় নেশাখোর হিসেবে পরিচিত।

নির্যাতনের শিকার ওই নারীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

নির্যাতিতা নারীর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাত সাড়ে ১২ টার দিকে ৬/৭ জন নেশাখোর সিঁদ কেটে ঘরে ঢুকে গৃহবধুর স্বামীর হাত-পা বেঁধে ফেলে। তারা গৃহবধূকে পাশের কক্ষে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে তারা ওই গৃহবধূর স্বামীর ব্যবহৃত মুঠোফোন নিয়ে পালিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার ভোরে গুরুতর অবস্থায় ধর্ষিতা ওই নারীকে স্বজনরা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যায়। পরে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে স্থানান্তর করা হয়।

পুলিশ জানায়, নির্যাতিতা নারীর স্বামীর দেওয়া তথ্যমতে ঘটনার সাথে জড়িত চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, মধ্য চারিগ্রাম গ্রামের মতিয়ার (৪৫), আব্দুল মাজেদ (৪০), জহুরুল (৩০) ও লেবু মিয়া (৩৫)। গ্রেপ্তারকৃত চারজনসহ অভিযুক্তদের নামে থানায় মামলা দায়ের করেছেন ওই গৃহবধূর স্বামী। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

যশোরে গাছের সাথে বাসের ধাক্কায় আহত ২৫

যশোর : যশোরে যাত্রীবাহী একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছে ধাক্কা দিয়েছে। এতে কম-বেশি ২৫ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১৩ জন। তাদের মধ্যে আব্দুর রহমান ও গোলাম রসুল নামে দুই যাত্রীর অবস্থা আশঙ্কাজনক।
বৃহস্পতিবার সকাল আটটার দিকে যশোর শহরতলির সানতলা এলাকায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শী, পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে চৌগাছা থেকে ছেড়ে আসা ‘হীরা পরিবহন’ নামে বাসটি যশোর সদর উপজেলার সানতলা ফুয়েল পাম্পের কাছে এসে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশের একটি মেহগনি গাছে ধাক্কা দেয়। এসময় বাসের মধ্যে থাকা যাত্রীরা এদিক-সেদিক ছিটকে পড়েন। আহত হন ২৫ যাত্রী। পরে আহতদের উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়।
আহতদের মধ্যে বাসের সুপারভাইজার গোলাম রসুল (৩০), যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী আব্দুর রহমান (৩৮), চৌগাছা উপজেলার ফুলসারা গ্রামের নুরুল হাফিজের ছেলে আব্দুর রহমান (৩২), একই গ্রামের আবুল কালামের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (২৮), লুৎফর রহমানের ছেলে মো. হারুন (৩৫), যশোর সদর উপজেলার সানতলা এলাকার ইউনুছ মণ্ডলের ছেলে ইরাদ আলী (৩৮), জগহাটি গ্রামের রতনের ছেলে রবিন (৪০), উজ্জ্বল হোসেন (৪৪), ফারুক হোসেন, দাউদ হোসেন (২৬), আবু জাফর (২৫), জাহাঙ্গীর আলম (৫০), বাঁধন হোসেন (৪২) এবং হারুনের (৪০) নাম জানা গেছে। অন্য আহতরা জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এছাড়া কেউ কেউ বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন।
জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ডাক্তার এম আব্দুর রশিদ বলেন, এখানে ১৩ জনকে চিকিৎসা দিয়ে অর্থোপেডিক বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে আব্দুর রহমান ও গোলম রসুলের অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক।
বারবাজার হাইওয়ে থানার ওসি শেখ মাহফুজুর রহমান বলেন, দুর্ঘটনাস্থলে একজন অফিসারকে পাঠানো হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো নিশ্চিত করা হয়েছে। বাসটি পুলিশ হেফাজতে আছে, তবে চালক পালিয়ে গেছেন।

লাউডোব বানিশান্তা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া ও পুরস্কার বিতরণ

দাকোপ প্রতিনিধি : দাকোপের লাউডোব বানিশান্তা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগে বার্ষিক ক্রীড়া সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় বিদ্যালয় কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি সমরেন্দ্রনাথ সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরণ করেন বানিশান্তা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সুদেব কুমার রায়। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন চালনা এম এম কলেজের অধ্যক্ষ অসিম কুমার থান্দার, বাজুয়া এস এন ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক বিজন কুমার রায়, উজিরপুর যোগীরকান্দা মহিলা কলেজের সহকরী অধ্যাপক মোঃ ওয়ালিউর রহমান লিংকন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অশোক কুমার সরকার, প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক রজত শুভ্র গাইন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিল্পপতি অমলেন্দ্র সরকার, মোঃ আজিজ হোসেন সুমন, মোঃ আকবর তালুকদার, সমাজসেবক সুকুমার রায়, সমারেশ মন্ডল, সাংবাদিক মোঃ শামীম হাসান, অভিভাবক সদস্য অসিত মন্ডল, নিধির মন্ডল, বিভাষ পাইক, নিলিমা গাইন, শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ অভিভাবকবৃন্দ। এ সময় বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

প্রত্যেক শিক্ষকের তাঁর বিদ্যালয় নিয়ে স্বপ্ন থাকতে হবে : প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব

তথ্যবিবরণী : একজন মা হচ্ছে সন্তানের প্রথম শিক্ষক আর শিক্ষক হলেন দ্বিতীয় মা। প্রত্যেক শিক্ষকের তাঁর বিদ্যালয় নিয়ে স্বপ্ন থাকতে হবে। মানসম্মত ও অন্তর্ভূক্তিমূলক শিক্ষার মাধ্যমে দেশের ৯৮ শতাংশ শিশুর বিদ্যালয়ে ভর্তি নিশ্চিতের পাশাপাশি প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থী ঝরেপড়ার হার ১৭.৫০ শতাংশে নামিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। দেশের প্রাথমিক স্তরের তিন লাখ ৮১ হাজার শিক্ষক হতে সচিব পর্যন্ত সবার প্রচেষ্টায় নিশ্চিত হবে মানসম্মত শিক্ষা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মোঃ আকরাম-আল-হোসেন আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে খুলনা নৌবাহিনী স্কুল এন্ড কলেজ অডিটরিয়ামে মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা বাস্তবায়নে জেলা পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের অংশগ্রহণে সামাজিক উদ্বুদ্ধকরণ মতবিনিময় সভার প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, শিশুদের স্কুলভীতি দূর করা ও মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতে নতুন শিক্ষাক্রমে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত প্রচলিত পরীক্ষা পদ্ধতি থাকবে না। ২০২৩ সালের মধ্যে দেশের শতভাগ প্রাথমিক বিদ্যালয় মিড-ডে মিলের আওতায় আসবে। শিশুদের গণিতভীতি দূর করতে দেশব্যাপী গণিত অলিম্পিয়াড শুরু হয়েছে।
খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের খুলনা বিভাগীয় উপপরিচালক মেহেরুন নেছা। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) গোলাম মাঈনউদ্দিন হাসান, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এ এস এম সিরাজুদ্দোহা ও খুলনা নৌবাহিনী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ক্যাপ্টেন এম কামাল নাসের উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মোঃ আকরাম-আল-হোসেন খুলনা জেলা স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টের বিভাগীয় পর্যায়ের খেলার উদ্বোধন করেন। খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ড. মুঃ আনোয়ার হোসেন হাওলাদার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
পরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব নগরীর নজরুল নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন এবং চাইল্ড ইন্টিগ্রিটি ও শিশু বঙ্গবন্ধু ফোরামের কার্যক্রম আনুষ্ঠিকভাবে উদ্বোধন করেন।

কেশবপুরের সাংসদ ইসমাত আরা সাদেকের পক্ষে কম্বল বিতরণ

রাজীব চৌধুরী,কেশবপুর: কেশবপুরের গণমানুষের নেত্রী সাবেক সফল জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বর্তমান কেশবপুরের সাংসদ জনাব ইসমাত আরা সাদেক মহোদয়ের এর পক্ষে ১৬ই জানুয়ারি রোজ বৃহস্পতিবার  কেশবপুর উপজেলার ১০নং সাতবাড়িয়া  ইউনিয়ন এর ১নং ও ০৫ নং ওয়ার্ডের হতদরিদ্র, অসহায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছেন সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের বিশিষ্ট সমাজসেবক, ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক। এ সময়  উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুস সবুর,নূর ইসলাম, প্রভাষক মোয়াজ্জেম হোসেন,কামরুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ কেশবপুর উপজেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল্যাহ আল মাহফুজ, সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাসুম বিল্লাহ,শামীম রেজা, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতা  রাজীব চৌধুরী,সাংবাদিক এম এ রহমান সহ প্রমুখ।

দাকোপে ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত

দাকোপ প্রতিনিধি : দাকোপ থানা পুলিশের আয়োজনে ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় থানা অভ্যান্তরে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সি সার্কেল মোঃ আসাদুজ্জামান।
দাকোপ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সফিকুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে আলোচনা করেন ইনেস্পেক্টর তদন্ত দেবাশীষ দাস, এস আই মমিনুর রহমান, ফারুকুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম, সাইদ আল মামুন, এ এস আই কামরুল ইসলাম, আবু জাফর, রবিউল ইসলাম, আজিজুর রহমান, চালনা পৌরসভার প্যানেল মেয়র এস এম আব্দুল গফুর, দাকোপ প্রেসক্লাব সভাপতি শচীন্দ্রনাথ মন্ডল, কাউন্সিলর রুস্তুম আলী খান, জামিলা বেগম বেবী, দাকোপ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আজগর হোসেন ছাব্বির, মোজাফ্ফার হোসেন, সাংবাদিক গোবিন্দ বিশ্বাস, এস এম মামুনুর রশীদ, সরোয়ার গাজী, পারুল বেগম, মুক্তিযোদ্ধা মৃনাল রায়, গ্রাম পুলিশ প্রধান ভবেন রায় প্রমুখ। সভায় পুলিশ জনতা বন্ধুত্ব ও সহযোগীতাপূর্ন সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে পুলিশী সেবা নিশ্চিত এবং এলাকার আইন শৃংক্ষলা রক্ষায় বিস্তারিত আলোচনা হয়।

বটিয়াঘাটায় ভ্যান ও মোটর সাইকেল আন্তঃ চোরচক্রের ১০ সদস্য আটক

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি : ইজিবাইক, চার্জার ও ইঞ্জিন চালিত ভ্যানসহ মোটর সাইকেল আন্তঃ চোরচক্রের ১০ সদস্যকে আটক করেছে বটিয়াঘাটা থানা পুলিশ। জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আসাদুজ্জামান থানার ওসি রবিউল কবীর, এসআই আহম্মেদ কবীর ও এসআই রাজিউল আমিন সহ সঙ্গীয় ফোর্স গত বুধবার বিকাল ৫টায় উপজেলার চক্রাখালী বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে চোরচক্রের সদস্য মোঃ আরজু শেখ (৩০) কে আটক করে। সে উপজেলার বিরাট গ্রামের বাবর আলী শেখের পুত্র। পরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক উপজেলার দারোগার ভিটা এলাকা থেকে বাবু শেখ (২৮) কে আটক করে। পুলিশের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে পরবর্তীতে মোহাম্মদ নগর এলাকা থেকে মোঃ বাদল খাঁ (৪৫), তেরখাদা উপজেলার মোকামপুর থেকে ইসরাফিল সরদার (৪২) ও রামমাঝি এলাকা থেকে মোঃ ওবায়দুল শেখ (৩৫), পাইকগাছা উপজেলার গজালিয়া এলাকা থেকে মোঃ আসাদুল শেখ (৫২), নড়াইল জেলার কালিয়া থানার কালিয়া চাঁদপুর এলাকা থেকে মোঃ আরিফ মোল্লা (২৮), উপজেলার কল্যানশ্রী এলাকা থেকে মোঃ ডালিম সরদার (৪৫), ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা থানা থেকে বিদ্ধেধর এলাকা থেকে মোঃ আমিরুল মৃধা (৩৮) ও নিরালা আবাসিক এলাকা থেকে জামাত আলী শুরু (৫৫) কে অভিযান চালিয়ে আটক করে। পুলিশ জানায়, আটককৃতরা আন্তঃ বিভাগীয় চোর সিন্ডিকেটের সদস্য। তারা দীর্ঘদিন যাবৎ মোটর সাইকেল, ইজিবাইক, চার্জার ও ইঞ্জিন চালিত ভ্যানসহ নানাবিধ চুরির সাথে যুক্ত। এ ছাড়াও তারা গত ২০ আগষ্ট আমিরপুর ইউনিয়নের নিজ গ্রাম এলাকায় ভ্যান চুরি করতে গিয়ে ভ্যান চালক রাশেদুলকে গলা কেটে হত্যা করে একটি ডোবার ভিতরে ফেলে রেখে তার ভ্যান নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে থানায় ঐ রাতেই ১১ নং মামলা রুজু হয়েছে।

চট্ট্রগ্রাম মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মোট্র: উপঅঞ্চলের মাদক বিরোধী অভিযানে ২৬০ পিস ইয়াবাসহ আবু জোবায়ের সুমন (২৮) নামে এক ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আটক করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে আকবরশাহ থানাধীন লতিফুর স্কুল রোড এলাকা অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করেন।
চট্টগ্রাম মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মেট্ট্রো উপঅঞ্চল সূত্র মতে, সংস্থার উপ-পরিচালক মো: রাশেদুজ্জামনের তত্ত্বাবধানে সার্কেল সমূহের পরিদর্শক মোঃ নজরুল ইসলাম, মো: মোজাম্মেল হক, মোঃ সিরাজুল ইসলাম, মোঃ আমিরুজ্জামান সমন্বয়ে একটি টিম গতকাল বৃহস্পবিার দুপুরে উক্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় ওই এলাকার বাসিন্দা আবু বক্করের পুত্র আবু জোবায়ের সুমনকে ২৬০ পিস ইয়াবাসহ আটক করেন। আটককৃত জোবায়ের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, সে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন কৌশলে ইয়াবা ট্যাবলে ঢাকা ও চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করে আসছে।