তালায় সড়ক দুর্ঘটনায় যুবকের পা বিচ্ছিন্ন

তালা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার তালায় ইঞ্জিনভ্যান ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক যুবকের পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও চারজন। বুধবার (১ এপ্রিল) দুপুরে খুলনা-পাইকগাছা সড়কের তালা উপজেলার তেঁতুলিয়া হাসেমী বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় খুলনার পাইকগাছা উপজেলার হরিঢালী ইউনিয়নের উলুডাঙ্গা গ্রামের ইউসুফ মোড়লের পুত্র বাবলু মোড়ল(৪০) এর পা কেটে বিচ্ছিন্ন হয়ে রাস্তায় পড়েছিল।
এদিকে তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিজেই আহত বাবলুকে নিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। আহত অন্যরা হলেন, তালা উপজেলার ভায়ড়া গ্রামের মৃত নওয়াব আলীর পুত্র আকরাম গোলদার(৬০), আবুল হোসেনের পুত্র রবিউল বিশ্বাস(৩৮), রেজাউল ইসলামের পুত্র রবিউল বিশ্বাস(৪০), ইনছার আলীর পুত্র মিজানুর রহমান(৩৫)। তাদের মধ্যে মিজানুর রহমান বাদে বাকি ৩ জনকে তালা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রথমিক চিকিৎসা শেষে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
তালা থানার ওসি মেহেদী রাসেল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে দুর্ঘটনা কবলিত মোটরসাইকেল ও ইঞ্জিনভ্যানটি উদ্ধার করে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

ফুলতলায় ছাত্রলীগের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

ফুলতলা অফিসঃ ফুলতলা উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে বুধবার বিকালে নিজস্ব অর্থায়নে ফুলতলা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন। এ সময় উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস কে সাদ্দাম হোসেন, দপ্তর সম্পাদক নয়ন কুমার বিশ্বাস, ডালিম শাহ, ফুলতলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সাজ্জাদ হোসেন, কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাজহারুল ইসলাম মভি, ছাত্রনেতা শেখ হেলাল, শেখ হাসিব হোসেন, শেখ সবুজ প্রমুখ। রে হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন।

ঠাকুরগাঁওয়ে পথচারী ও আদিবাসিদের মাঝে নবীন আলো’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ      

ঠাকুরগাঁও : ঠাকুরগাঁওয়ের গুটি কয়েক তরুণ-তরুণীর হাতে গড়া সেচ্ছাসেবী সংগঠন নবীন আলো’র উদ্যোগে পথচারী ও আদিবাসিদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।
নিজেদের মধ্যে চাঁদা তুলে বুধবার (১ এপ্রিল) দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত শহরের পথচারী, মুন্সিপাড়া, মুজিবনগর ও নারগুন ইউনিয়নের আদিবাসিদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে খাদ্য সামগ্রী হিসেবে চাল,ডাল, তেল ও সাবান তুলে দেয় সংগঠনের সদস্যরা। খাদ্য সামগ্রী বিতরণসহ এসময় তারা সচেতনতামুলক প্রচারণাও চালায়।       খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে নবীন আলোর সভাপতি সৈয়দ শিহাব, ডা: শুভেন্দু দেবনাথ, সাংবাদিক জয় মহন্ত অলক, সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসিন আরাফাত, সদস্য মঞ্জু রানা, সোনিয়া আক্তার রুমিসহ  অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
সংগঠনের সভাপতি সৈয়দ শিহাব বলেন, আমাদের সামর্থ্যের মধ্যে থেকে ১৭৭ জন পথচারী ও আদিবাসিদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করলাম। এসময় কর্মহীন ও অসহায় মানুষদের পাশে দাড়ানোর জন্য তিনি সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

ফুলতলায় জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত অধিকারীর ত্রান বিতরণ

ফুলতলা অফিসঃ খুলনা জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত অধিকারী বলেছেন, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে জনকল্যাণে স্বচ্ছতার সাথে ত্রান বিতরণ করতে হবে। দুর্নীতি, অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতি পরিহার করে পর্যায়ক্রমে সকলের কাছে ত্রান পৌছে দিতে হবে। বেকার হয়ে পড়া কর্মজীবি ও অসহায়দের সহযোগিতায় সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তশালী ও বিভিন্ন সংস্থাকে সাহায্যের হাত বাড়িতে দিতে হবে।

বুধবার দুপুরে ফুলতলা উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ আকরাম হোসেনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সরদার শাহাবুদ্দিন জিপ্পীর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ আসলাম খান, এ্যাড. তারিক হাসান মিন্টু, মৃনাল হাজরা, আবু তাহের রিপন, কে এম জিয়া হাসান তুহিন, শেখ আফছার আলী, ইসমাইল হোসেন বাবলু, শাহাদাৎ বিশ্বাস, এস কে মিজানুর রহমান, আশরাফুল আলম কচি, রবিন বসু, প্রফুল্ল চক্রবর্তী, রবিউল ইসলাম মোল্যা, মনিরুল ইসলাম সরদার, বেগম শামসুন্নাহার, ছাত্রলীগ নেতা মঈনুল ইসলাম নয়ন, এস কে সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ। পরে তিনি হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন।

করোনা ভাইরাসের পরিত্রান পেতে নিজেদেরকে সচেতন এবং স্রষ্টার কাছে প্রার্থনা করতে হবে -নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি

তাপস কুমার বিশ্বাস, ফুলতলা অফিসঃ সাবেক মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি বলেছেন, দেশে করোনা ভাইরাসের মহামারী থেকে রক্ষা পেতে লকডাউন করা হয়েছে। লকডাউনে সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষেরা বেকার হয়ে পড়েছে। ফলে তাদের মৌলিক চাহিদা পুরণে সরকার ত্রানের ব্যবস্থা করেছে। দলমত, ধর্ম বর্ণের কোন ভেদাভেদ নেই- দল ও ধর্ম একটাই, সেটি হলো দেশের জনগন। গরিব দুঃস্থ ও অসহায় জনগনের দুঃখ দুর্দশা লাঘবের জন্য পর্যায়ক্রমে সকলকে ত্রানের আওতায় আনতে হবে। এ মহামারী থেকে পরিত্রান পেতে নিজেদেরকে সচেতন, স্বচ্ছতার সাথে দায়িত্ব পালন ও স্রষ্টার কাছে প্রার্থনা করতে হবে।

বুধবার বেলা ১১টায় ফুলতলা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ত্রাণ বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। ইউএনও পারভীন সুলতানা সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ আকরাম হোসেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারি কমিশনার (ভুমি) রুলী বিশ্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান কে এম জিয়া হাসান তুহিন, ওসি মোঃ মনিরুল ইসলাম, ইউপি চেয়ারম্যান শরীফ মোহাম্মদ ভুইয়া শিপলু, শেখ আবুল বাশার প্রমুখ। পরে প্রধান অতিথি নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় এবং ফুলতলা ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সে অসহায় ও হতদরিদ্র ইউনিয়নবাসীদের মাঝে ত্রান বিতরণ করেন।

দাকোপে উপজেলা প্রশাসন ও আ’লীগের খাদ্য সামগ্রী বিতরন

আজগর হোসেন ছাব্বিরঃ দাকোপের বিভিন্ন স্থানে উপজেলা প্রশাসন ও আওয়ামী লীগের পৃথক উদ্যোগে করোনা মোকাবেলায় দরিদ্র শ্রেনীর মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে।
বুধবার বিকেলে দাকোপ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় চত্বরে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ সুজিত অধিকারী ও উপজেলা আ’লীগ সভাপতি আলহাজ্ব শেখ আবুল হোসেনের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে দলীয় সমর্থিত দুস্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়। পরিবার প্রতি ৫ কেজি চাল, ২ কেজি আলু এবং ১ পিচ সাবান বিতরন করা হয়। জেলা সম্পাদকের পক্ষ থেকে ১০০ পরিবার এবং উপজেলা সভাপতির পক্ষ থেকে পৃথক ১০০ পরিবারের মাঝে এই খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়। এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগনেতা এ্যাডঃ নিমাই চন্দ্র রায়, এ্যাডঃ নব কুমার চক্রবর্তী, অসিত বরন বিশ্বাস, উপজেলা সম্পাদক বিনয় কৃষ্ণ রায়, জেলা পরিষদ সদস্য জয়ন্তী রানী সরদার, চালনা পৌর মেয়র সনত কুমার বিশ্বাস, ইউপি চেয়ারম্যান পঞ্চানন মন্ডল, পৌর আ’লীগনেতা শফিকুল ইসলাম আক্কেল, শেখ রেজাউল করিম রেজা, আব্দুল গফুর সানা প্রমুখ। এর আগে জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ সুজিত অধিকারী এবং উপজেলা আ’লীগ সভাপতি আবুল হোসেন পানখালী ইউনিয়ন পরিষদে সরকার প্রদত্ত খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল কাদেরসহ ইউপি সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
অপর দিকে দুপুরে উপজেলার সুতারখালী ইউনিয়নে সংরক্ষিত আসনের এমপি এ্যাডঃ গ্লোরিয়া সরকার ঝর্ণা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ৪ শ’ পরিবারের মাঝে চাল ডাল আলু বিতরন করেন। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান মাসুম আলী ফকিরসহ ইউপি সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া দাকোপ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নির্বাহী অফিসার আব্দুল ওয়াদুদের নেতৃত্বে উপজেলার পোদ্দারগঞ্জ ঘাট, বৌমার গাছতলা ও পানখালী ফেরী ঘাট এলাকায় ভ্যান চালক, চা বিক্রেতা ও খেয়া মাঝি শ্রেনীর ১০০ পরিবারের মাঝে পরিবার প্রতি ১০ কেজি চাল, ২ কেজি আলু এবং ১ কেজি ডাল বিতরন করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি তারিফ উল হাসান, দাকোপ থানার অফিসার ইনচার্জ সফিকুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শেখ আব্দুল কাদের এবং সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

লঘু অপরাধে দণ্ডিত কারাবন্দিদের মুক্তির পরিকল্পনা

ঢাকা অফিস : করোনাভাইরাসের ঝুঁকি এড়াতে অচল, অক্ষম ও লঘু অপরাধে দণ্ডিত কারাবন্দিদের মুক্তির পরিকল্পনা কারা কর্তৃপক্ষের। লঘু অপরাধে দণ্ডিত কারাবন্দিদের মুক্তির পরিকল্পনার বিষয়টি ডিবিসি নিউজকে জানিয়েছে আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। বুধবার (১লা এপ্রিল) বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেন পুলিশ প্রধান।

করোনাভাইরাসের ঝুঁকি বাড়তে থাকায় জেলাখানাকে নিরাপদ রাখতেই এমন পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। ইতিমধ্যে হাজতিদের একটি তালিকা তৈরি করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে প্রস্তাবঅও পাঠিয়েছে কারা কর্তৃপক্ষ। সারা দেশের বিভিন্ন জেলখানা থেকে এসব কয়েদিদের মুক্তি দেয়া হবে।

এখন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো তালিকা অনুমোদন পেলে তা যাবে আইন মন্ত্রণালয়ে। সেখানে আপত্তি না থাকলে পাঠানো হবে আদালতে। এরপর, বিচারক সিদ্ধান্ত নেবেন জামিন দেয়া যায় কিনা। মুক্তির বিষয়টি শেষ পর্যন্ত বিচারকদের হাতে।

প্রতি বছরই বিভিন্ন সময়ে বন্দিদের মুক্তির সুপারিশ করা হয়। এর মধ্যে, যারা অচল, অক্ষম বা অল্পদিন সাজা বাকি আছে তাদের তালিকা করে নিয়মিত মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। মন্ত্রণালয় বোর্ড গঠন এবং মিটিং করে তাদের মুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে। এছাড়া, বন্দিদের সাধারণত ঈদ, নববর্ষ, বা জাতীয় দিবস সামনে রেখে মুক্তি দেওয়া হয়। সেরকম বন্দিদের একটি প্রস্তাবও আলাদাভাবে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

দাকোপে খাদ্য বিতরন অনুষ্ঠানে এমপি ঝর্ণা

আজগর হোসেন ছাব্বির : দেশে চলমান করোনা ভাইরাসের এই ভয়াবহ দূর্যোগে মানুষ যাতে খাদ্য অভাবে না থাকে সে জন্য শেখ হাসিনার সরকার সামার্থ্যরে সব টুকু দিয়ে মানুষের পাশে থাকার ঘোষনা দিয়েছেন। তারই অংশ হিসাবে সারা দেশে দরিদ্র শ্রমজীবি মানুষের মাঝে চাল ডালসহ খাদ্য সামগ্রী বিতরন চলছে। সরকারী প্রশাসনের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ এবং সংশ্লিষ্ট উপজেলা ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ অসহায় মানুষের পাশে থেকে স্বচ্ছতার সাথে বিতরন কার্যক্রমে সহায়তা করবে।
বুধবার বেলা ১১ টায় দাকোপের কামারখোলা ইউনিয়নে করোনা মোকাবেলায় খাদ্য সামগ্রী বিতরনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডঃ গ্লোরিয়া সরকার ঝর্ণা এ কথা বলেন। ইউনিয়নের কালীনগর বাজারে বিতরন কার্যক্রম শুরু করে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী বাড়ী বাড়ী গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেওয়া হয়। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত থেকে কথা বলেন দাকোপ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আলহাজ্ব শেখ আবুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান বিনয় কৃষ্ণ রায়, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাদিজা আকতার, কামারখোলা ইউপি চেয়ারম্যান পঞ্চানন মন্ডল, চালনা পৌর আ’লীগনেতা শিপন ভূইয়া, ইউপি সদস্য বিথীকা রায়, সুধা রানী হালদার, আঃ সাত্তার সানা, সুশংকর বাছাড় চিকন, ননী গোপাল মাঝী প্রমুখ। সেখানে ইউনিয়নের সাড়ে ৪ শ’ পরিবারের মাঝে পরিবার প্রতি ১০ কেজি চাল, ১ কেজি আলু এবং ৫০০ গ্রাম করে ডাল বিতরন করা হয়।

বটিয়াঘাটায় হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরনে অভিযান

ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, বটিয়াঘাটা: বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেন এর নির্দেশে আজ বুধবার হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরনের লক্ষ্যে বটিয়াঘাটা সদর, জলমা ও  গঙ্গারামপুর ইউনিয়নে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: রাশেদুজ্জামান। এসময় তিনি বিদেশ ফেরত নাগরিকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইন মানছেন কিনা তার খোঁজ খবর নেন।এবং বিদেশ ফেরত নাগরিকদের বলেন, দেশ এখন করোনা ভাইরাসের কারনে বিপদের মধ্যে রয়েছে। আপনারা হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে নিজের পরিবার এবং দেশকে করোনা ঝুকি মুক্ত করবেন। সকলে পরিস্কার পরিছন্ন থেকে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। এছাড়া তিনি বিভিন্ন বাজরে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে সচেতনা মুলক লিফলেট বিতরণ এবং অসাধু ব্যবসায়ীরা দ্রব্যমুল্য বৃদ্ধি করতে না পারে সে লক্ষে বাজার মনিটরিং করেন। পাশাপাশি তিনি হোম কোয়ারেন্টাইন না মানায় বটিয়াঘাটা স্ট্যান্ডে একটি স্যানিটারি দোকানে ভ্রাম্যমান আদলত পরিচালনা করে ৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। এসময় তাকে সার্বিক সহোযোগীতা করেন সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন সাকিব, ইউপি চেয়ারম্যান মনোরঞ্জন মন্ডল, আলহাজ্ব আশিকুজ্জামান আশিক ও শেখ হাদি উজ-জ্জামান হাদীসহ আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যবৃন্দ।

বটিয়াঘাটায় সন্ত্রাসী হামলায় ইউপি সদস্য জখম

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি : বটিয়াঘাটা উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের ইউপি সদস্য রেজওয়ান মোল্লা সন্ত্রাসী হামলায় জখম হয়েছে। জানা গেছে উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের
রণজিতের হুলা গ্রামের ইউপি সদস্য রেজওয়ান মোল্লা গত সোমবার গভীর রাতে মটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে নোয়া পাখিয়া খালের গোড়ায় পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা দুবৃত্তেরা হাতুড়ি ও রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর ভাবে জখম করে।তাকে বটিয়াঘাটা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে ই্উপি সদস্য এর পিতা ইউসুফ মোল্লাবাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।