করোনার ৪০টি ভ্যাকসিন তৈরির কাজ দ্রুত এগুচ্ছে

আন্তর্জাতিক : সহসাই পাওয়া যাচ্ছে না করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন, যদিও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসের অন্তত ৪০টি ভ্যাকসিন তৈরির কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে।

এর মধ্যে দুটি টিকা মানুষের ওপর পরীক্ষামূলকভাবে প্রয়োগ করা হয়েছে। তবে নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ করে বাজারে ভ্যাকসিন আসতে ন্যূনতম এক বছর সময় দরকার বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

গত মার্চ থেকেই মানব শরীরে দুটি ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলু প্রয়োগ শুরু করে চীনের ক্যান্সিনো বায়োলোজিক্যাল এবং মার্কিন কোম্পানি মডারনা। এছাড়া সম্প্রতি করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য দুটি ভ্যাকসিনের প্র ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা শুরু করেছেন অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীরা।

ভ্যাকসিন দুটি যৌথভাবে তৈরি করেছে যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং যুক্তরাষ্ট্রের ইনোভিও ফার্মাসিউটিক্যাল। এনিয়ে অন্তত ৪০টি ভ্যাকসিন এখন প্রি ক্লিনিক্যাল পর্যায়ে রয়েছে।

শুক্রবার করোনাভাইরাসের কার্যকর ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি করেন যুক্তরাষ্ট্রের পিটার্সবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। তারা এর নাম দিয়েছে পিটকোভ্যাক। কয়েকমাসের মধ্যে মানব শরীরে এ ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্র্যায়াল শুরু নিয়ে আশাবাদী গবেষকরা।

তবে করোনাভাইরাসের টিকা আবিষ্কারের দীর্ঘসুত্রিতার কারণে নানা এন্টিভাইরাল ওষুধেরও পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করে দেখছেন বিজ্ঞানীরা। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক, টেক্সাস, ক্যালিফোর্নিয়া, ওয়াশিংটন ও জর্জিয়াসহ বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে স্বেচ্ছাসেবকদের শরীরে নানা ওষুধের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হচ্ছে।

এন্টিভাইরাল ওষুধ রেমডিসিভার ছাড়াও ম্যালেরিয়া প্রতিরোধী হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন এবং কেভজারারও কার্যকারিতা দেখতে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করে দেখছেন মার্কিন গবেষকরা।  এখন পর্যন্ত অন্তত ৪৪ জনের ওপর এগুলোর পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হয়েছে। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই এর ফল পাওয়া যাবে বলে আশাবাদী গবেষকরা।

এছাড়া, চিকিৎসার পর যারা পুরোপুরি সুস্থ হয়েছেন তাদের রক্তের প্লাজমা নিয়ে অন্য আক্রান্তদের শরীরে ট্রান্সফিউশনের পদক্ষেপ নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।  এর মাধ্যমে আক্রান্তদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে বলে আশাবাদী বিজ্ঞানীরা।

তরমুজের চাষে বাজুয়ার নারী পুরুেষর ব্যাস্ত সময় পার

দাকোপ, খুলনা : অকাল বন্যায় গুবছর ক্ষেতের কোটি কোটি টাকার দেশের সেরা তরমুজ নষ্ট হলেও এবার তরমুজের ভাল ফলনের সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে। করনার ভয়ে দেশের মানুষ যখন রাস্তা ঘাট,হাটবাজার ফেলে বাড়িতে অলস জিবন যাপন করছেন ঠিক তখন দাকোপের বাজুয়া এলাকার নারিপুরুষ বছরের সেরা ফসল তরমুজের ভাল ফলন ফলাতে বাজুয়া এলাকার সোনাফলা মাঠে ভোর থেকে গভির রাত পর্যন্ত হাজার হাজার নারি পুরুষ তরমুজ ক্ষেতের পরিচর্যা করে চলেছে।দাকোপ উপজেলাধীন বাজুয়ার তরমুজ দেশের সেরা তরমুজ নামে খ্যাত, শুধু দেশের না, বিভিন্ন জেলা ও ঢাকাও এর সুনাম, সুস্বাধু এ তরমজুজের নাম বিশ্ববাজারেও চড়িয়ে আছে।বিদেশের বাজারে বাজুয়ার এ তরমুজ সিজনের সময় কিনতে পাওয়া যায় বলে জানা গেছে,গল্প করেছেন।গত প্রায় ১৮/২০ বছর ধরে বাজুয়ার ৫টি ইউনিয় দাকোপ,কৈলাশগনজ,লাউডোব,বানিশান্তা,বাজুয়ায় এই তরমুজ চাষ শুরু হয় মাএ কয়েকশ এশর জমি নিয়ে,ব্যবসাটি খুুবই লাভজনক হওয়ায় ৫ ইউনিয়নের হাজার হাজার হেক্টর সম্পূর্ন জমিতে প্রধান তরমুজের চাসের পাশাপাশি ঢেড়শ,ঝাল,বেগুন,উচ্ছে,করলা,ঝিঙ্গে,বাংগি,তিল,মিষ্টি কুমড়ার চাষ হয়ে থাকে ।।৫টি ইউনিয়নের কৃষকরা প্রতিবছর কোটি কোটি টাকার তরমুজ বিকিরি করবে বলে জানা গেছে,তবে গত বছর চাষের সময় অকাল বন্যা হওয়ায় ফসলটি মার খায় তাই এবার গতবারের লোকসান কাটিয়ে উঠতে বেশি পরমিানে যত্ন সহকাওে চাষ করছে বলে বাজুয়া এলাকার কৃষক বিভুতি ভুষন রায় জানালেন। তরমুজ চাষে বেশ লাভ তাই বাজুয়ার দেখাদেখি বর্থমানে বটিয়াঘাটা,পাইকগাছা উপজেলায়ও বেশ তরমুজ চাষ করছে,এরাকার কৃষক হরিপদ,জামির আলি,গোবিন্দ মন্ডলের সাথে আলাপ হলে জানান আবহাওয়া বেশ অনুকুলে থাকায় গাছের বাড়বাড়ন্ত বেশ ভাল এবং গাছের গুটি তরমুজ দ্রুত বেড়ে উঠছে,কৃষকদেও সাথে াালাপ কওে আরো জানা যায় এক এক বিঘা জমিতে ভাল ফলন হলে ৪০/৫০ টাকা পর্যন্ত তরমুজের ক্ষেত বিকরি হয,আর ধানে হয় বেশি হলে১৫ হাজার,তাও হয়নি এবার বুলবুল ঝড়ের কারনে ।আর তরমুজ ট্রলার,ট্রাক ভরে কিছুকাল বাদে দেশের বিবিন্ন বাজার ও ঢাকায় নেওয়ার সময় এক শ্রেণীর দালালদেও উদভব ঘটে,এসকল নেতাদের পোষা দালালদের বখরা দিতে হয় রিতীমত। এ বিষয় কথা হয় শিক্ষক ও কৃষকনেতা গৌরাঙ্গ প্রসাদ রায় ও সাবেক চেয়ারম্যান শেখ যুবরাজ ও দেবপ্রসাদ রায়ের সাথে ওনারা জানান ওনারা জানান এ সমস্যাটি প্রতি বছর দেখা যায,এ বিষয় আমরা পদক্ষেপ নেবো,তবে এখন বড় সমস্যা সেচের পানির সমস্যা ও কিটনাশক, এ বিষয সরকারের সহযোগিতা দরকার।কথা হয় দাকোপ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মেহেদি হাসান সাহেবের সাথে উনি বলেন সারের বিষয়টি মনিটরিং করছি.আর এ বছর লক্ষ্য মাএার চেয়ে অনেক বেশি জমিতে চাষ হচ্ছে।লক্ষ্যমাএা ছিল ৭০০ হেক্টর আর চাষ হচ্ছে প্রায়১৭০০ হেক্টর জমিতে ।

গাইবান্ধায় ১৩টি চোরাই গরু উদ্ধার

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধা সদর উপজেলার সাহাপাড়া ইউনিয়নের কাশদহ গ্রাম থেকে শুক্রবার রাতে ১৩টি দেশি বিদেশী জাতের গরু চোরাই সন্দেহে আটক করা হয়েছে। কাশদহ এলাকার গরু ব্যবসায়ি আবদুর রহমান রাজা বেপারীর বাড়ি থেকে ওইসব গরু উদ্ধার করে পুলিশ।

এলাকাবাসী ও সদর থানা সূত্রে জানা গেছে, পাশ^বর্তী এলাকার জনৈক ব্যক্তির গরু চুরির অভিযোগের প্রেক্ষিতে সদর থানা পুলিশ শুক্রবার রাতে গরু ব্যবসায়ি আবদুর রহমান রাজার বাড়িতে অভিযান চালায়। এসময় ওই বাড়িতে রাখা ১৩টি বিভিন্ন আকারের দেশি বিদেশী জাতের গরু উদ্ধার করে। পরে গরুগুলো স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের জিম্মায় রেখে দেওয়া হয়। ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গোলাপ উদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, চোরাই সন্দেহে আটক করা গরুগুলো বর্তমানে ইউনিয়ন পরিষদের জিম্মায় রয়েছে। সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মো. শাহরিয়ার সাংবাদিকদের বলেন, এব্যাপারে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। চুরির বিষয়টি প্রমাণ হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে আটক করা হবে।

সাদুল্যাপুরে আরও এক নারীর করোনা সনাক্ত 

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধায় করোনায় আক্রান্ত দুই আমেরিকা প্রবাসীর সংস্পর্শে আসা আরও এক নারী নতুন করে করোনা ভাইরাস পজেটিভ সনাক্ত হয়েছে। এ কারণে জেলার সাদুল্যাপুর উপজেলার হবিবুল্যাপুর গ্রামের পশ্চিম (হিন্দু) পাড়া এলাকায় ১৫ হতে ১৬ টি পরিবার লকডাউন করা হয়েছে। এনিয়ে জেলায় শনিবার পর্যন্ত জেলায় ৫ জন করোনা ভাইরাস পজেটিভ রোগী সনাক্ত হল। এর মধ্যে ২ জন আমেরিকা প্রবাসী মা ও ছেলে এবং এই দুইজনের সংস্পর্শে আসা বাকী ৩ জন। এই ৫ জনেই পরস্পরের আত্মীয় স্বজন। ৪ এপ্রিল শনিবার দুপুরে সাদুল্যাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নবীনেওয়াজ এই লকডাউন আদেশ জারি করেন। এসময় তার সাথে ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাহারিয়া খান বিপ্লব, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পা কর্মকর্তা, ওসি মাসুদ রানা ও বনগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ শাহীন সরকার। সাদুল্যাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পা কর্মকর্তা ডাঃ শাহীনুল ইসলাম মন্ডল জানান, নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ওই নারীকে আপাতত তার নিজ বাড়ীতেই হোম আইসোলেশনে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের নজরদারীতে রাখা হয়েছে। তিনি আরও জানান, শনিবার সকালে ঢাকার রোগতত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা (আইইডিসিআর) থেকে করোনা ভাইরাস পজেটিভ সনাক্ত হওয়ার বিষয়টি তাদেরকে জানানো হয়েছে । এই পাড়ায় মোট ১৫ থেকে ১৬ টি পরিবারের বসবাস।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, সাদুল্যাপুর উপজেলার হবিুল্যাপুর গ্রামে গত ১১ মার্চ এক বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে ৫ শতাধিক আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশি অংশ নেন। এই অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণে আমেরিকা থেকে আসা দুইজন আত্মীয় আসেন। তারা ওই বাড়িতে গত ১১, ১২ ও ১৩ মার্চ অর্ধশতাধিক লোকজনের সাথে অবস্থান করেন। গত ১৪ মার্চ বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ খেয়ে গাইবান্ধা শহরে নিজ বাড়ি চলে যায়। এরপর ওই বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া অনেকে গত ২১ মার্চ গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী) আসনের উপ-নির্বাচনে ভোট দেন। এছাড়া আমেরিকা প্রবাসী ওই ২ জন বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগদান ও প্রত্যাহিক কাজকর্মে বিভিন্ন জায়গায় যায়। পরে গত ২২ মার্চ আমেরিকা প্রবাসি ওই দুইজনের করোনা ‘পজেটিভ’ ধরা পড়ে। এরপর গত ২৭ মার্চ আরও দুই জন করোনা ভাইরাস ‘পজেটিভ’ সনাক্ত হয়।

গোবিন্দগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশের অভিযানে ১ বছরের সাজা ও ১৬ লাখ টাকা জরিমানা সংক্রান্তে এক আসামি গ্রেফতার করা হয়েছে।

আজ ৪ এপ্রিল শনিবার সন্ধ্যায় অনুমানিক ৭ টার সময় পৌর এলাকার মায়ামনি মোড় হতে গোবিন্দগঞ্জ থানার এসআই মামুনের নেতৃত্বে একটি টিম অভিযান চালিয়ে এক বছরের সাজা প্রাপ্ত  ও ১৬ লাখ টাকা জরিমানার  আসামি ওমর ফারুক @ সোহেল কে গ্রেফতার করে।
গ্রেফতারকৃত ওমর ফারুক @ সোহেল, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার নুনতলা গ্রামের প্রধান পাড়ার জফির উদ্দিনের ছেলে।
এখবর নিশ্চিত করে থানা অফিসার ইনচার্জ একেএম মেহেদী হাসান জানান, বিজ্ঞ যুগ্ম দায়রা জজ, ২য় আদালত,গাইবান্ধা জনাব রাম কৃষ্ণ রায় চেক ডিজআনার মামলায় আসামি কে এই সাজা প্রদান করেছেন।

নারী চিকিৎসককে অশ্লীল ভিডিও পাঠানো ব্যক্তিকে খুঁজছে পুলিশ

ঢাকা অফিস : ফেসবুক লাইভে চিকিৎসা পরামর্শ দেয়ার সময় অশ্লীল ভিডিও পাঠিয়ে ডাক্তারকে উত্ত্যক্ত করায় থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

লাইভে এসে চিকিৎসা পরামর্শ প্রদান করছিলেন রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের অধ্যাপক ডা. ফাতেমা আশ্রাফ। এসময় ননী বিশ্বাস নামে এক ব্যক্তি অশ্লীল ভিডিও পাঠিয়ে ওই ডাক্তারকে উত্ত্যক্ত করেছে।

এ ঘটনায় আজ শনিবার শেরে বাংলা নগর থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। পুলিশ ননী বিশ্বাসকে খুঁজছে।

নিয়মিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে অধ্যাপক ডা. ফাতেমা আশ্রাফ ভিডিও বার্তার মাধ্যমে গাইনি রোগীদের পরামর্শ দিচ্ছিলেন। এই পরামর্শদানকালে ডা. ফাতেমার লাইভে ঢুকে অশ্লীল ভিডিও পাঠাতে থাকেন ননী বিশ্বাস।

এ ঘটনায় হাসপাতালের পরিচালককে লিখিত অভিযোগ করা হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শেরে বাংলা নগর থানায় সাধারণ ডায়েরি করে।

বাংলাদেশে করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত

ঢাকা অফিস : বিশ্বে করোনা পরিস্থিতি আরও সংকটময় হচ্ছে। এরইমধ্যে প্রায় ৬০ হাজার মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে এবং ১১ লক্ষের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে এই মহামারি রোগে। বাংলাদেশেও বেড়েই চলেছে করোনায় মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা।

বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো মোট ৮ জন। এছাড়া, গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আরও ৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। নতুন ৯ জনসহ এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭০ জন। এর আগে, শুক্রবার (৩রা এপ্রিল) করোনায় দেশে আক্রান্ত হন ৫ জন। নতুন করে ৯ জন আক্রান্ত হওয়ার আগে সেটাই ছিলো একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের ঘটনা।

শুক্রবার (৪ঠা এপ্রিল) দুপুরে, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে আইইডিসিআরের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান আইইডিসিআর এর পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। এসময় তিনি জানান, যারা মারা গেছেন তাদের সবার বয়স পঞ্চাশের বেশি। আক্রান্ত প্রতি ৯ জনের মধ্যে ১ জন করে মারা গেছেন। নতুন শনাক্তদের মধ্যে দুইজন শিশু। মৃত্যুবরণ করাদের মধ্যে ৫ জন আগের আক্রান্তের সংস্পর্শে এসেেছিলেন। আরও ৪ জনসহ মোট সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৩০ জন।

এরপরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ জানান, গত ২৪ ঘন্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ৫৫৩টি। এরমধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে ৪৩৪টি। আইসোলেশনে নতুন করে পাঠানো হয়েছে ১৮ জনকে। বর্তমানে মোট ১০০ জন আইসোলেশনে রয়েছেন। গত ২৪ ঘন্টায় আরও ২৫৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট ১৬,৯১০ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

গত ৮ই মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর সংক্রমণ দিন দিন বাড়ছে। প্রথমে ২৬শে মার্চ থেকে ৪ঠা এপ্রিল পর্যন্ত করোনার বিস্তার ঠেকাতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। পরে এই ছুটি ১১ই এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়। অফিস-আদালত থেকে শুরু করে গণপরিবহন সবই বন্ধ রয়েছে। তবে কাঁচাবাজার, খাবার, ওষুধের দোকান, হাসপাতালসহ জরুরি সেবা এই বন্ধের বাইরে রয়েছে। আর, সামাজিক দূরত্ব ও হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে সক্রিয় রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন ৫৯ হাজার ২২২ জন ব্যক্তি। গত ২৪ ঘন্টায় কোভিড-১৯ এর সংক্রমণে মারা গেছেন ৫,৯৭৩ জন। সারা বিশ্বে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১১ লক্ষ ১৮ হাজার ৩২৯ জন। গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৩ হাজার ৬৯৭ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ লক্ষ ২৯ হাজার ২৪৫ জন। বর্তমানে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৮ লক্ষ ২৯ হাজার ৮৬২ জন। যাদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় রয়েছেন ৩৯ হাজার ৪০৪ জন।

কেশবপুরে ৭ কেজি গাঁজাসহ গাঁজাসহ আটক ২

এস আর সাঈদ, কেশবপুর (যশোর) : কেশবপুর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৭ কেজি গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে।
কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জসীম উদ্দীনের নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে থানার এস আই মেহেদী হাসান ও এ এস আই আব্দুস সালাম সঙ্গীয় ফোঁস নিয়ে শনিবার সকলে যশোর- সাতক্ষীরা সড়কের পাশে বাদুড়িয়া মোড় থেকে মটরভ্যানে ৭ টি প্যাকেটে মোড়ানো ৭ কেজি গাঁজাসহ ২ জনকে হাতেনাতে আটক করে। আটক ব্যক্তিরা হলেন পাঁটকেলঘাটা থানার কুমিরা গ্রামের মৃত মতলেব আলী মোড়লের ছেলে আমিরুল ইসলাম (৩৮) ও ফরিদপুর জেলার আলোয়া কান্দি গ্রামের আব্দুর বর মুন্সির ছেলে সেকেন্দার আলী (৪২)। এ ব্যাপারে আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে।

কেশবপুরে ফাঁস দিয়ে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

এস আর সাঈদ, কেশবপুর (যশোর) : যশোরের কেশবপুরের বসুন্তিয়া গ্রামে ওড়নায় ফাঁস দিয়ে মাহফুজা খাতুন (১৬) নামে এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে।
জানাগেছে, উপজেলার বসুন্তিয়া গ্রামের আফছার আলী সরদারের মেয়ে মাহফুজা খাতুন শনিবার সকালে মা-বাবার সাথে টুকিটাকি কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ঘরে আড়ার সাথে ওড়নায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। মাহফুজা খাতুন মঙ্গলকোট আদর্শ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ২০২০ সালের এস এস সি পরীক্ষার্থী হিসাবে পরীক্ষা দিয়েছে। মাহফুজা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন, মঙ্গলকোট আদর্শ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজুর রহমানসহ অন্যান্য শিক্ষক, শিক্ষিকা ও কর্মচারীবৃন্দ।

আটোয়ারীতে টিসিবি’র পণ্য বিক্রি শুরু

মনোজ রায় হিরু, আটোয়ারী (পঞ্চগড়): পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে টিসিবি’র মাধ্যমে খোলাবাজারে ডাল, চিনি ও তেল বিক্রি শুরু হয়েছে। পণ্য বিক্রয় পয়েন্টে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড় থাকায় শৃংখলা নিয়ন্ত্রনে কাজ করছে পুলিশ। চলমান করোনার প্রভাবে দোকানপাট বন্ধ থাকায় নায্য মুল্যে পণ্য কিনতে বিক্রয় পয়েন্টে ক্রেতারা হুমড়ি খেয়ে পড়ছে। শুকবার বিকেলে টিসিবি ডিলার মেসার্স মানিক এন্ড ব্রাদার্স এর বিক্রয় পয়েন্টে প্রধান অতিথি হিসেবে আটোয়ারী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: তৌহিদুল ইসলাম উপস্থিত থেকে কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন। টিসিবি ডিলার মো: জামিলুর রেজা মানিক, মো: আবুল কালাম আজাদ এবং গনেশ ঘোষ ভানু জানান, প্রথম পর্যায় উপজেলায় ৬৯০০ কেজি চিনি, ২৭০০ কেজি ডাল এবং ১২০০ লিটার তেল বিক্রয় করা হচ্ছে।
উপজেলায় মেসার্স মানিক এন্ড ব্রাদার্স, ফারুক ট্রেডার্স, এসএ এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স গনেশ ট্রেডার্স ও তপতী হাস্কিং মিল নামীয় টিসিবি ডিলারগণ সরকার নির্ধারিত দর ডাল ও চিনি ৫০ টাকা এবং তেল ৮০ টাকা প্রতি কেজি দরে বিক্রয় করবেন।
এ ব্যাপারে আটোয়ারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন সুলতানা বলেন, করোনার সংকটময় মুহুর্তে জনদুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে সরকার আগামী রমজান মাস পর্যন্ত এ কার্যক্রম চালু রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পাশাপাশি সঠিকভাবে পণ্য সরবরাহ এবং করোনা পরিস্থিতিতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিয়মিত মনিটরিং করা হচ্ছে।