১লা জুলাই থেকে সুন্দরবনের মাছ আহরণ নিষিদ্ধ

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : ১লা জুলাই বুধবার থেকে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত দুই মাস সুন্দরবনের সকল নদী-খালে মাছ আহরণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে বনবিভাগ। মাছের প্রজনন মৌসুমকে ঘিরে বনবিভাগের এ সিদ্ধান্ত। এর ফলে গত ২৪ জুন থেকে জেলেদের বনে প্রবেশের পাস-পারমিট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সুন্দরবনের মৎস্য সম্পদ রক্ষায় আইআরএমপি’র সুপারিশ অনুযায়ী ২০১৯ সাল থেকে বনবিভাগ প্রজনন মৌসুমের এই দুই মাস মাছ ধরা নিষিদ্ধ ঘোষণা করে আসছে।
পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মাদ বেলায়েত হোসেন জানান, সুন্দরবনে মৎস্য সম্পদ রক্ষায় ইন্টিগ্রেটেড রিসোর্সেস ম্যানেজমেন্ট প্লানস’র (আইআরএমপি) সুপারিশ অনুযায়ী ২০১৯ সাল থেকে সুন্দরবনে ১ জুলাই থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সকল নদী ও খালে মাছ আহরণ বন্ধ থাকে। এবারও ১ জুলাই থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকছে। এই দুই মাসই সুন্দরবনের নদী খালে থাকা বেশির ভাগ মাছের প্রজনন মৌসুম। যার ফলে এ সময় মাছ ধরা বন্ধ থাকলে সুন্দরবনের নদী খালে মাছের প্রজনন বৃদ্ধি ও উৎপাদন বহুলাংশে বেড়ে যাবে।

পাইকগাছায় ইউপি চেয়ারম্যান করোনা আক্রান্ত

পাইকগাছা প্রতিনিধি : পাইকগাছায় একজন ইউপি চেয়ারম্যান নভেল কোভিড-১৯ পজেটিভ শনাক্ত হয়েছেন। এনিয়ে এলাকায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩২ জন। তিনি হলেন রাড়ুলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মজিদ গোলদার। বুধবার দুপুরে পাইকগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা ইউনিটের মূখপাত্র ডাঃ ইফতেখার বিন রাজ্জাক জানান, উপজেলায় এপর্যন্ত নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ৮ জনসহ মোট ২৩৫ জন। তার মধ্যে ১ জন শনাক্ত। সুস্থ হয়েছেন ৭ জন। আইসোলশন ওয়ার্ডে ভর্তি ৮ জন। কোয়ারেন্টাইনে বর্তমান আছেন ২ জন। সর্বমোট ২২৪ জন রয়েছেন। উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নীতিশ চন্দ্র গোলদার বলেন, মঙ্গলবার রাতে খুমেক হাসপাতালের পিসিআর ল্যাব এর তথ্য অনুযায়ী আজ একজন সনাক্ত হয়েছেন। তিনি হলেন রাড়ুলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মজিদ গোলদার। তিনি নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে আছেন। জনসাধারণেরর উদ্দেশ্যে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার কথা জানান এ স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

সাংবাদিক নুরুজ্জামান প্রধানের ৭১তম জন্মবার্ষিকী পালিত

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধা প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকদের উদ্যোগে গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ মিডিয়া ইনস্টিটিউট সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের কেন্দ্রীয় মহাসচিব নুরুজ্জামান প্রধানের ৭১তম জন্ম বার্ষিকী প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে ১ জুলাই বুধবার পালিত হয়। এসময় গাইবান্ধা প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে নুরুজ্জামান প্রধানের দীর্ঘায়ু কামনা করে তাকে জন্মদিনের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন প্রেস ক্লাব সভাপতি কেএম রেজাউল হক, সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সাবু, দপ্তর সম্পাদক আরিফুল ইসলাম বাবু। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাবের সদস্য রেজাউল হক মিতা, খায়রুল ইসলাম, শেখ হুমায়ন হক্কানী, শামসুজ্জোহা, সুরবানী সংসদের সম্পাদক কামরুজ্জামান চান, প্রেস ক্লাবের কম্পিউটার অপারেটর আতোয়ার রহমান। উলে¬খ্য, নুরুজ্জামান প্রধান ছাত্রজীবন থেকেই তিনি শোষণমুক্ত, বৈষম্যহীন সমাজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্নে বিভোর ছিলেন। তিনি যোগ দেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগে, ছিলেন তৎকালীন মহকুমা ছাত্রলীগের সহ-স¤পাদক। পরবর্তীতে তিনি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই জাসদের সাথে যুক্ত হন। সাংবাদিকতায় তিনি রংপুর থেকে প্রকাশিত দৈনিক যুগের আলো ও দৈনিক পরিবেশ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি পলাশবাড়ি উপজেলা জাসদের সভাপতি। তিনি ১৯৫০ সালে পলাশবাড়ী সদরের জামালপুর গ্রামের প্রধানপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন।

গাইবান্ধায় যানজট নিরসনে ফোর লেন প্রকল্প অনিশ্চিত

আশরাফুল, গাইবান্ধা : গাইবান্ধা জেলা শহরের যানজট নিরসন কল্পে পুলিশ সুপারের কার্যালয় সংলগ্ন গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়ক থেকে ডিবি রোড হয়ে শহরের পুরাতন জেলখানার মোড় পর্যন্ত ফোর লেন প্রকল্প গ্রহণ করা হলেও আজও তা বাস্তবায়িত হচ্ছে না। কবে নাগাদ এই প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ শুরু হবে তা এখনও অনিশ্চিতায় রয়েছে। এ কাজ শুরু প্রক্রিয়া জেলা শহরটিতে যানজট বেড়ে গিয়েছে ব্যাপক জনর্দূভোগ সুষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, গাইবান্ধা জেলা শহরের ফোরলেন প্রকল্পটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ১৫৭ কোটি টাকা ব্যয়ে সড়ক ও জনপদ বিভাগ এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। এতে শুধু পুলিশ সুপারের কার্যালয় সংলগ্ন গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী সড়ক থেকে ডিবি রোড হয়ে শহরের পুরাতন জেলখানার মোড় পর্যন্ত সড়ক ফোরলেনই হবে না বরং সড়কের পাশে পথচারী চলাচলের জন্য ফুটপাত, সড়ক ডিভাইডারে সুন্দর নান্দনিক ফুলের বাগান এবং কাচারী বাজার মসজিদ সংলগ্ন মোড়ে একটি গোল চত্বর ও দৃষ্টিনন্দন ফোয়ারাও গড়ে তোলা হবে। প্রকল্প বাস্তবায়নে ইতোমধ্যে ঠিকাদার নিয়োগ এবং জমি অধিগ্রহণের কাজ শুরু করা হয়েছে। এই প্রকল্পের আওতায় জমি অধিগ্রহন এবং জমি সংলগ্ন অবকাঠামোর মূল্য পরিশোধ বাবদ ব্যয় হবে মোট ১১০ কোটি টাকা। ফলে জমি অধিগ্রহণ স¤পন্ন হলেও প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দের অভাবে অধিগ্রহণকৃত জমি ও জমি সংলগ্ন অবকাঠামোর মূল্য পরিশোধ করা সম্ভব হয়নি। তদুপরি রাস্তার ধারে বিশাল বিশাল কয়েকটি রেইন্ট্রিসহ অন্যান্য গাছ রয়েছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি গাছ কাটার কাজ সম্পন্ন হলেও এখনও অনেক গাছ কাটা বাকি রয়েছে। প্রকল্প বাস্তবায়নে এই গাছগুলো অপসারণ করা একান্ত জরুরী। তদুপরি রাস্তার বৈদ্যুতিক ও টেলিফোন লাইন অপসারণ করার বিষয়টিও রয়েছে।

এদিকে ফোরলেন প্রকল্পটি বাস্তবায়ন না হওয়ার কারণে সীমাহীন যানজটে গাইবান্ধা জেলা শহরের মানুষ এখন চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। এদিকে শহরের বাস টার্মিনাল থেকে শুরু করে পুরাতন বাজার পেরিয়ে ডিবি রোড ও বালাসীঘাট সড়ক জুড়েই প্রতিনিয়ত দীর্ঘক্ষণ সীমাহীন যানজট লেগেই থাকে। এছাড়া জেলখানার মোড় থেকে পূর্বকোমরনই বাঁধের মাথা, পুরাতন ব্রীজ থেকে সুন্দরগঞ্জ সড়ক, বড় মসজিদের মোড় থেকে খন্দকার মোড়, ২নং ট্রাফিক মোড় থেকে গাইবান্ধা সরকারি কলেজ পর্যন্ত প্রতিনিয়ত দিন যানজট লেগেই থাকে। এই যানজটের কারণে প্রতিদিন বাস-ট্রাক, অটোরিক্সা, অটোবাইক ও মোটরসাইকেলের সাথে দুর্ঘটনা ঘটছে। ফলে স্বল্প পরিসরের সড়কগুলো দিয়ে পথচারীদের চলাচল বিঘিœত হচ্ছে এবং জীবন ও স¤পদের ক্ষতি হচ্ছে।

বটিয়াঘাটায় জেলেদের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ

ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, বটিয়াঘাটা : সারাদেশের ন্যায় বটিয়াঘাটায় মাছের বংশ বিস্তারের লক্ষ্যে ২০মে থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত ৬৫ দিন নদীতে মাছ ধরা নিষিদ্ধ করে সরকার । সেজন্য এ আপদ কালীন সময়ে জেলেদের বিশেষ ভিজিএফ ৫৬ কেজি করে চাল খাদ্য সহায়তা প্রদান করে । উক্ত খাদ্য সহায়তা প্রদানে এ উপজেলায় ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে । এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী কার্ডধারী খাদ্য সহায়তা বঞ্চিত একাধিক জেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে । অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, এ উপজেলায় ৭ টি ইউনিয়নে নিবন্ধিত জেলের সংখ্যা ৩৫১৭ জন । জলমায় ৪৫৯ জন,সদরে ৬৩৩ জন, গঙ্গারামপুর ৫৮৭ জন, সুরখালী ৬৮৮ জন , ভান্ডারকোট ৪০৪ জন , বালিয়াডাঙ্গায় ৪৫৮ জন ও আমীরপুরে ইউনিয়নে ২৮৮ জন । এরমধ্যে কার্ডধারী জেলের সংখ্যা ২৯৬০ জন । উক্ত কার্ডধারী জেলেদের বাদ দিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য,ট্যাগ অফিসার ও মৎস্য অফিসের কিছু অসাধু কর্মচারীদের যোগসাজশে অর্থের বিনিময়ে জেলে নয় এমন লোকদের চালের সহায়তা প্রদান করা হয়েছে । যে কারনে প্রকৃত কার্ডধারী পূর্বে সহায়তা পেত, কিন্তু বর্তমানে সহায়তা না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে । এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী কার্ডধারী অভিযোগ দায়ের করা কার্ডধারী প্রকৃত জেলে সদর ইউনিয়নের ৯ নং অয়ার্ডের বাসিন্দা সুখেন হালদার ও দেবপ্রসাদ মন্ডল এ প্রতিবেদককে জানান, ট্যাগ অফিসার উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কমলেশ বালা, ইউপি সদস্য কিশোর বিশ্বাস ও সুব্রত হালদার মিলে আমাদের কাছে ৫ শত টাকা দাবী করে । আমরা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে আমাদের নাম অন্য পেশা দেখিয়ে বাদ দিয়ে দেয় । আমরা প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছি । এ ব্যাপারে উপজেলা উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কমলেশ বালার নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা । এ ব্যাপারে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মনিরুল মামুন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ উপজেলায় মোট ৩৫১৭ জন নিবন্ধিত জেলেকে বিশেষ খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে । অনেকে এ পেশা ছেড়ে অন্য পেশায় চলে গেছে । ইউনিয়ন কমিটি সরেজমিনে গিয়ে যাচাই-বাছাই করে তাদের বাদ দেয়া হয়েছে ।

গাইবান্ধায়  ব্রহ্মপুত্রের পানি ৭৮ সেন্টিমিটার

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্র, তিস্তা ও ঘাঘট নদীর পানি সামান্য কমলেও জেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। পানিবন্দী মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে। বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধে আশ্রিত পরিবারগুলো এখন পর্যন্ত কোন ত্রাণ পায়নি বলে অভিযোগ জানিয়েছেন। পানি উন্নয়ন বোর্ড সুত্র জানা যায়, বুধবারেও ব্রহ্মপুত্রের পানি ৭৮ সেন্টিমিটার ও ঘাঘট নদীর পানি ৫০ সেন্টিমিটার বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।  এদিকে কৃষি বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, এ পর্যন্ত ফসলসহ প্রায় ২ হাজার হেক্টর জমি পানিতে নিমজ্জিত হয়েছে। এতে চিনা বাদাম, আউশ ধান ও পাটের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বন্যার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে ইতোমধ্যে কৃষি বিভাগ ১শ’ ৫ একর উঁচু জমিতে বীজতলা তৈরী করেছে। যা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মধ্যে বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে।

সাঘাটা-গাইবান্ধা সড়কের ভাঙ্গামোড় এলাকায় সড়কের গাইড ওয়াল ধ্বসে যায়। এতে আতংকিত হয়ে পড়ে বাধের পশ্চিম পাশের মানুষজন। সংবাদ পেয়ে সড়ক ও জনপদ বিভাগের লোকজন এসে ধ্বসে যাওয়া স্থানে কাঠের পাইলিং দিয়ে গাইড ওয়াল রক্ষার চেষ্টা করে। ফলে ওই এলাকায় সড়কটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। পানি বৃদ্ধি ও ভাঙন অব্যাহত থাকলে মারাত্মক দুর্ঘটনার আশংকা করা হচ্ছে।

কেশবপুরে মাসব্যাপী বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধন

এস আর সাঈদ, কেশবপুর (যশোর): যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের পক্ষে এবং কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রওশন ইকবাল শাহী এবং কেশবপুর উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কাজী আজাহারুল ইসলাম মানিকের আহবানে কেশবপুর উপজেলার বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে মাসব্যাপী বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে। বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মুন্নাফ হোসেন মুন্নার সভাপতিত্বে মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার পরচক্রা হাগিয়াঘোপ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে প্রধান অতিথি হিসাবে বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধন করেন উপজেলা ছাত্রলীগর আহ্বায়ক কাজী আজাহারুল ইসলাম মানিক। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগনেতা শফিকুল ইসলাম শফি, যুবলীগনেতা মিলন, রাকিবুল ইসলাম বাবু, রিপন সরদার, এবাদুল ইসলাম, গনেশ দাস, জাহাতাপ, ছাত্রলীগের এস কে মামুন, রাব্বি, সজীব, রিয়াদ, ইমরান, বাচ্চু, শাহীন, আলতাব, হাসান, হোসেন, রাসেল, বিজন, রবিউল, আরাফাত প্রমুখ।
পরে করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে পরচক্রা বাজারে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন মাওঃ হাফিজুর রহমান।

আটোয়ারীতে ইউএনও-কে বিদায় সংবর্ধনা

মনোজ রায় হিরু, আটোয়ারী : পঞ্চগড়ের বিদায়ী আটোয়ারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন সুলতানা’র পদোন্নতিসহ অন্যত্র বদলী হওয়ায় বিদায় সংবর্ধনা জানালেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। ৩০ জুন বিকেলে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো: নজরুল ইসলাম। শ্রদ্ধাঞ্জলী পাঠসহ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: জাহেদুর রহমান। আটোয়ারীতে ইউএনও মহোদয়ের সাড়ে তিন বছর কর্মকালীন স্মৃতি বিজড়িত তথ্য নিয়ে বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো: তৌহিদুল ইসলাম এবং ইউএনও শারমিন সুলতানা। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো: শাহাজাহান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রেনু একরাম, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ নুরুল ইসলাম, সাংগঠনিক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা লুৎফর রহমান, অর্থ কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা পশিম উদ্দীন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল করিম, বলরামপুর ইউনিয়ন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিয়ার রহমান, রাধানগর ইউনিয়ন কমান্ডার জ্যোতিষ চন্দ্র বর্মন, মির্জাপুর ইউনিয়ন সহকারী কমান্ডার নুরুল ইসলাম নূর প্রমুখ। সাবেক উপজেলা কমান্ডার নজরুল ইসলাম আবেগ আপ্লুত হয়ে তার বক্তব্যে বলেন, ইউএনও শারমিন সুলতানা আটোয়ারীতে মুক্তিযোদ্ধাদের কন্যা সন্তানের মত ছিল। মুক্তিযোদ্ধারা তাঁকে আপন কন্যা সন্তানের মত স্নেহ করতো। তিনিও মুক্তিযোদ্ধাদেরকে পিতার মত শ্রদ্ধা করতেন। তাই তাঁর পারিবারিক জীবন, চাকুরী জীবন, সামাজিক জীবনে সাফল্য বয়ে আনুক এই কামনা করি। বিদায়ী ইউএনও শারমিন সুলতানা তাঁর বক্তব্যে বলেন, সরকারি বিধি মেনে আমার দায়িত্ব পালন করার চেষ্টা করেছি। কোন মানুষ দীর্ঘশ্বাস ফেলবে আমার জানামতে এমন কাজ করিনি। নিয়মের বাহিরে কোন কাজ করিনি। এতে অনেকে কষ্ট পেয়েছেন। আমি যতটুকু পেরেছি, মানুষের সেবা দিয়েছি, এলাকার উন্নয়নে,রাষ্ট্রের স্বার্থে কাজ করেছি। আল্লাহর রহমতে আটোয়ারীবাসীর দোয়া ও বাবা-মায়ের দোয়ায় আজ আমার পদোন্নতি হয়েছে। তিনি বলেন, আপনাদের দোয়া অব্যাহত থাকলে আমার পদোন্নতিও অব্যাহত থাকবে-ইনশাল্লাহ।

আটোয়ারীতে প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ

মনোজ রায় হিরু, আটোয়ারী : পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলা পরিষদের তহবিল হতে পঙ্গু ও প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ করা হয়েছে। ৩০ জুন বিকেলে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে আনুষ্ঠানিকভাবে হুইল চেয়ার বিতরণ করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো: তৌহিদুল ইসলাম ও বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন সুলতানা। এসময় সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো: নজরুল ইসলাম সহ স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এ প্রসঙ্গে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের গরীব, অসহায় অসচ্ছল পঙ্গু ও প্রতিবন্ধীদের জন্য ২০টি হুইল চেয়ার বিতরণের উদ্যোগ নিয়েছি। আজ পাঁচ জন পঙ্গু ও প্রতিবন্ধীর মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ করে কর্মসুচির উদ্বোধন করা হলো। ২/১ দিনের মধ্যে অবশিষ্ট হুইল চেয়ারগুলো বিতরণ করা হবে।

কেশবপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ২

এস আর সাঈদ, কেশবপুর (যশোর) : যশোরের কেশবপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় গৃহবধূসহ ২ জন আহত হয়েছে। মারাত্নক আহতাবস্থায় তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
কেশবপুর থানায় এজাহার সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার মনোহরনগর গ্রামের মৃত আব্দুল গফুর মোড়লের দুই পূত্র শাহিনুর আলম ও মুরাদ হোসেনের সাথে প্রতিবেশি মৃত ঈমান আলী মোড়লের দুই পূত্র রফিকুল ইসলাম ও আলতাফ হোসেনের সাথে জমি সংক্রান্ত বিষয়ে বিরোধ চলে আসছিল। তারই জের ধরে গতকাল বিকালে শাহিনুর আলম ও মুরাদ হোসেন স্ব দল-বলে বাশের লাঠি, লোহার রড, ঠারালো দা ও তে-কালা-সহ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে রফিকুল ইসলাম ও আলতাফ হোসেনের বাড়িতে অনাধিকার প্রবেশ করে হামলা চালায়। হামলায় রফিকুল ইসলাম রক্তাত্ত জখম হয়। হামলাকারীরা আলতাফ হোসেনের স্ত্রী সালেহা বেগমের গলায় থাকা ৩৮ হাজার টাকা মূল্যের একটি সোনার চেইন ছিনিয়ে নিয়ে তাকেও আহত করে। মারাত্নক আহতাবস্থায় তাদেরকে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে আসামীদের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছে।
এব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইসচার্জ মোঃ জসীম উদ্দীন জানান, মারামারির ঘটনায় একটি এজাহার পেয়েছি। যা তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।