বাংলাদেশ আইপি টিভি ফোরামের আত্মপ্রকাশ

চট্টগ্রাম ব্যুরো: দেশে চলমান আইপি টেলিভিশনের মালিকদের নিয়ে বাংলাদেশ আইপি টিভি ফোরামের আত্মপ্রকাশ হয়েছে। প্রতিটি টেলিভিশনের মালিকপক্ষের একজন প্রতিনিধি এই ফোরামের সদস্য হতে পারবেন।

শনিবার সকালে আইপি টিভি ফোরাম কার্যালয়ে এম. ফজলুল হক ফজলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আইিপি টেলিভিশন মালিকদের এক সভায় জি বাংলা টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম. ফজলুল হক ফজলুকে সভাপতি ও বসন্ত টেলিভিশনের সিইও সাইফুর তালুকদারকে সাধারণ সম্পাদক করে সর্ব সম্মতিক্রমে এ সংগঠন গঠন করা হয়।

সংগঠনের অন্য নেতৃবৃন্দ হলেন- সিনিয়র সহ-সভাপতি আজগর আলী মানিক (চেয়ারম্যান, সিটিজি ক্রাইম টিভি, সহ-সভাপতি সোহেল চৌধুরী (এমডি, কে বাংলা টিভি), সহ সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন রানা (চেয়ারম্যান, নিউজ বিবিসি বাংলা টিভি), সিনিয়র যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক ডিএম সাইফুল্লাহ খান (এমডি, এসবি টিভি), যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক জাহিদ শিকদার (চেয়ারম্যান, জেএস টিভি বাংলা), সাংগঠনিক সম্পাদক মানস চৌধুরী (চেয়ারম্যান, সিটিভি বাংলা), কোষাধ্যক্ষ ডা. নাইমুর রহমান জয় (এমডি, জয় বাংলা টিভি), দপ্তর সম্পাদক খোরশেদ আলম (চেয়ারম্যান, সিটিজি বাংলা টিভি), প্রচার সম্পাদক মেহেদী হাসান (চেয়ারম্যান, আইভিশন টিভি), সদস্য- সাহাদাত হোসেন লিটন (এমডি, সেভেন বাংলা টিভি) ও মোস্তফা খান (এমডি, জোনাকি টিভি)।

সভায় আইপি টিভি সমূহের পেশাগত দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করা হয় এবং অতিদ্রুত তথ্যমন্ত্রণালয়ে নিবন্ধের জন্য জমাকৃত আইপি টিভি সমূহ দ্রুত নিবন্ধন দেয়ার জন্য জোর দাবী জানানো হয়।

উল্লেখ্য, যেসব আইপি টিভি সমূহ সরকারের যথাযত নিয়ম মেনে তথ্যমন্ত্রণালয়ে নিবন্ধনের জন্য আবেদন করেছেন তারা এই ফোরামের সদস্য হতে পারবেন। সদস্য হতে আগ্রহীদের আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে যথাযত কাগজপত্রসহ বাংলাদেশ আইপি টিভি ফোরামের কার্যালয়ে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

দাকোপে শ্লীলতাহানীর অভিযোগে মামলা

দাকোপ প্রতিনিধি : দাকোপের বটবুনিয়ার আব্দুর রাজ্জাক সরদার তার বোনকে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা এবং ঘরে অগ্নিসংযোগের অভিযোগে দাকোপ থানায় মামলা করেছেন। জমিজমা নিয়ে পূর্ব বিরোধের জেরে প্রতিবেশীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে থানায় দাখিল করা এজাহারে তিনি উল্লেখ করেছেন।
গত ১৮ সেপ্টেম্বর দায়ের হওয়া দাকোপ থানার ৮ নং মামলার বাদী আব্দুর রাজ্জাক এজাহারে লিখেছেন একই গ্রামের মাইনুদ্দিন শেখ, রফিকুল গাজী এবং জিল্লা গাজীর সঙ্গে তাদের আগে থেকেই জমি জমা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। ১৮ সেপ্টেম্বর রাত ৩ টার দিকে তাদের বটবুনিয়ার বসত ঘরে কে বা কাহারা আগুন ধরিয়ে দেয়। এলাকাবাসীর সহযোগীতায় আগুন নিভানো হলে ঘরের ভিতরে থাকা ছোট বোন মুক্তা বেগমকে বিধ্বস্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। তার পরনের জামা কাপড় ছিল ছেড়া। মুক্তা বেগম তাদেরকে জানায় উক্ত আসামীরা তার শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। মুক্তা বেগম বর্তমানে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। এ ব্যাপারে দাকোপ থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ সেকেন্দার আলী জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর পরই পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাথমিক তদন্ত করেছে। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে সাংবাদিকদের সৌজন্য সাক্ষাৎ

রাজীব চৌধুরী, কেশবপুরঃ কেশবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কাজী রফিকুল ইসলাম কিছুদিন পূর্বে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ্য ছিলেন। চিকিৎসা নিয়ে তিনি বর্তমানে শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ্য। কেশবপুর নিউজ ক্লাবের সভাপতি আশরাফুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক সরদার, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক রাজীব চৌধুরী, সাংবাদিক আব্দুল হালিম,সাংবাদিক সেলিম রেজা,মাসুদসহ আরও অনেকে কেশবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে তার নিজ বাসভবন চিংড়াতে যান। কেশবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কেশবপুর নিউজ ক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে শারীরিক অসুস্থ্য থাকাকালীন অবস্হার বর্ণনা দেন এবং তাকে দেখতে যাবার জন্য ধন্যবাদ জানান।