চট্টগ্রাম নগরীর খাল পরিষ্কার নামলেন প্রশাসক সুজন

চট্টগ্রাম ব্যুরো: বজ্রপাত, বৃষ্টি মাথায় নিয়ে মশক নিধন কর্মসূচির উদ্বোধনকালে খবর আসে বাকলিয়ার ইছহাকের পুলে বর্জ্য-আগাছায় পানি আটকে আছে। খবর শুনেই চসিক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন ছুটে যান পুলের দিকে।

 পুলের নিচে ওয়াসার সংযোগ লাইনের দুটি বড় লোহার পাইপ দেখতে পান। যার সঙ্গে বড় বড় কচুরিপানা, ঘাস, বিভিন্ন আগাছা, লতা-গুল্ম আটকে খালের পানি চলাচলে বাধা সৃষ্টি হচ্ছে। চসিকের শতাধিক শ্রমিকসহ নিজে নেমে পড়েন আবর্জনা পরিষ্কারের কাজে। দীর্ঘদিনের জঞ্জাল সরাতেই দেখা যায় কালো পানি।

পাইপ সরিয়ে বিকল্প ব্যবস্থা করতে ওয়াসার প্রকৌশলীকে ঘটনাস্থল থেকে ফোনও করেন সুজন।

বুধবার (৪ নভেম্বর) বাকলিয়ায় এমন ঘটনা দেখা গেছে।

মশক নিধন কার্যক্রম উদ্বোধনকালে সুজন বলেন, চাক্তাই-মহেশখালসহ অধিকাংশ খাল এখন ময়লা আবর্জনায় ভরা। করপোরেশন মশক নিধনে এসব আবর্জনা পরিষ্কারে কাজ শুরু করেছে। আগামীতে পরিষ্কার হওয়া খাল-নালায় কোনো ময়লা, আবর্জনা দেখলে কঠোর ব্যবস্থা নেব।

নগরবাসীকে পলিথিন বর্জনের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, পলিথিনের কারণে আজ কর্ণফুলী নদীর তলদেশ ভরাট হয়ে গেছে। পলিথিন ব্যবসায়ীদেরও বিকল্প ব্যবসার পথ খুঁজতে বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রশাসক বলেন, ময়লা-আবর্জনার মধ্যে মশা বংশ বিস্তার করে। সামনে ডেঙ্গুর মৌসুম। ম্যালেরিয়ার পাশাপাশি এডিশ মশা ফুলের টবে জমে থাকা স্বচ্ছ পানি, রেফ্রিজারেটরের পানি ও ছাদের কর্নিশে জমা পানিতে বংশ বিস্তার করে। তাই এডিশ মশার প্রজনন ধ্বংসে আমাদের নিজ বাসা-বাড়ি, আঙিনা পরিষ্কার রাখতে হবে। মশার প্রজনন ধ্বংসে আমরা পরিবেশবান্ধব ওষুধ ছিটানোর কথা ভাবছি। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শমতে জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি নয়, তেমন ওষুধ ছিটাতে হবে। আমরা এখন তা নিয়ে ভাবছি। নগরবাসী সচেতন হলে ডেঙ্গুসহ ম্যালেরিয়া থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব।

সাবেক মেয়রের নাছিরের করোনামুক্তির জন্য মিলাদ

চসিকের সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের করোনামুক্তি কামনায় এক মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন  করেন চসিক প্রশাসক সুজন। বুধবার নগর ভবনের কনফারেন্স রুমে আয়োজিত এ দোয়া মাহফিলে চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক, সচিব আবু সাহেদ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমদ, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, প্রশাসকের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, উপ সচিব আশেক রসুল চৌধুরী টিপুসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। মিলাদ ও দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন চসিকের মাদ্রাসা পরিদর্শক মাওলানা হারুনুর রশিদ চৌধুরী। মোনাজাত পরিচালনা করেন শেখ ফরিদ (র.) চসিক জামে মসজিদের সাবেক পেশ ইমাম মাওলানা আবদুর রহমান।

অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান

চসিকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী ও স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ) জাহানারা ফেরদৌসের নেতৃত্বে বুধবার বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

অভিযানকালে পাহাড়তলী থানার সাগরিকা রোডের উভয় পাশের ফুটপাত ও নালা অবৈধভাবে দখল করে লোহার দোকানের মালামাল স্তূপ করে রাখে এবং অবৈধভাবে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করায় স্থাপনাসহ সাগরিকা রোডের অবৈধ কাচাঁবাজার উচ্ছেদ করা হয়। এ সময় ফুটপাত ও নালার জায়গা অবৈধ দখল করে লোহার পাইপসহ বিভিন্ন পণ্য স্তূপ করার দায়ে ৮টি প্রতিষ্ঠানকে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

পৃথক অভিযানে বাকলিয়া থানাধীন বির্জা খালের ওপর অবৈধভাবে নির্মিত ব্রিজের অবশিষ্টাংশ অপসারণ করা হয়।

চট্টগ্রাম ডিএনসি’র অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ২

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রাম মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের (ডিএনসি)’র অভিযানে ২ হাজার ৪৪০ পিস ইয়াবাসহ দুইজনকে আটক করেছেন। আটককৃতরা হচ্ছে মো: জসিম উদ্দিন (২৫) এবং মো: আব্দুল্লাহ (২৫)। ৪ নভেম্বর ( বুধবার) দিন ব্যাপী পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করেন।
চট্টগ্রাম ডিএনসির সুত্র মতে,   মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মেট্রো কার্যালয়ের উপ পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে সহকারী পরিচালক মোঃ এমদাদুল হক  সমন্বয়ে কোতোয়ালি  সার্কেল পরিদর্শক  জনাব মোঃ মোজাম্মেল হক ও ডবলমুরিং সার্কেল পরিদর্শক  লোকাশীষ চাকমা এর নেতৃত্বে মোঃ জসিম উদ্দিন (২৫),পিতা-ভুলুমিয়া,সাং-হোল্ডিং নং-১০৬৬,গ্রাম -পানখালি,পোস্ট-হ্নীলা,  থানা- টেকনাফ, জেলা- কক্সবাজার কে সিনেমা প্যালেস এলাকা হতে ১৯৯০(এক হাজার নয়শত  নব্বই) পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করে কোতোয়ালি সার্কেলর সহকারী উপপরিদর্শক মোঃ লুৎফর রহমান বাদী হয়ে  কোতোয়ালি থানার একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করেন। অপর অভিযানে মোঃ আব্দুল্লাহ (২৫), পিতা-মোঃ আবু সাইদ মোল্লা, সাং-হাসনাবাদ,কুকুরিয়া,০৯ নং ওয়ার্ড,ইউপি-মাহমুদ নগর,থানা ও জেলা-টাঙ্গাইল কে  নগরীর ১১নং হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী রোড হতে  ৪৫০ (চারশত পঞ্চাশ) পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করে ডবলমুরিং সার্কেল উপ পরিদর্শক মোঃ আব্দুল মতিন বাদী হয়ে কোতয়ালী থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের  করেন।

ফুলতলায় বিএনপির সাবেক তিন নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠান

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সাবেক সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী মরহুম তরিকুল ইসলাম, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও ঢাকার সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা মরহুম সাদেক হোসেন খোকা এবং খুলনা মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও ভাষা সৈনিক এম নুরুল ইসলাম দাদু ভাই’র আত্মার মাগফেরাত কামনায় আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান বুধবার বিকালে উপজেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। ফুলতলা উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির উদ্যোগে যুগ্ন আহবায়ক মোঃ সেলিম সরদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এস এ রহমান বাবুল।

শেখ আঃ সালামের পরিচালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা আলহাজ্ব হারুন অর রশিদ, আনোয়ার হোসেন বাবু, নজরুল ইসলাম মোল্যা, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, ডাঃ আব্দুল গণি, মহিউদ্দিন শেখ, আব্দুল হালিম, আনোয়ার হোসেন, আক্তার হোসেন, তুষার মোল্যা, সিরাজুল ইসলাম, আক্তারুজ্জামান কচি, আনিছুর রহমান রনি, সৈয়দ আল শাকিল, আল আমিন সানা, মোঃ মহিউদ্দিন প্রমুখ। পরে মরহুমদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় এক দোয়া ও তাবারক বিতরণ করা হয়।

ফুলতলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহত ৪

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ ফুলতলায় পৃথক ২টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ ব্যক্তি হতাহত হয়েছেন। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার সন্ধ্যায় ফুলতলার জামিরা-সড়কের গাড়াখোলা পোড়াবটতলা এলাকায় বেপরোয়া মটরসাইকেল নিয়ন্ত্রন হারিয়ে থ্রি-হুইলারের সাথে ধাক্কা খায়। মটরসাইকেল আরোহী গাড়াখোলা গ্রামের জাহাঙ্গীর মোড়লের পুত্র রিফাত মোড়ল (২৫) ও চৌদ্দমাইল এলাকার মৃতঃ মিজান মোড়লের পুত্র রাহুল মোড়ল (২৪) ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রিফাত মোড়লকে মৃতঃ ঘোষনা করেন।

এদিকে গত ৩০ অক্টোবর সকালে ফুলতলা-জামিরা সড়কের ধোপাখোলা ঋষি পাড়া এলাকায় সুপার জুট মিলের শ্রমিক বহনকারী বাস (নং-ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৩৭৪৫) ও ভিশন কোম্পানীর কাভার্ড ভ্যান (নং-ঢাকা মেট্রো-অ-১৪-১৭৪৫) এর মুখোমুখি সংঘর্ষে গুরুতর আহত মোঃ রাব্বি গাজী (৩৫) রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। বুধবার বিকালে উপজেলা সরকারি গোরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়। তিনি ফুলতলার দামোদর গ্রামের শুকুর গাজীর পুত্র।

এছাড়া বুধবার সকাল ১০টায় খুলনা-যশোর সহাসড়কের ফুলতলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে বসুন্ধরা গ্রæপের সিমেন্টবাহী ট্রাক (নং-ঢাকা মেট্রো-ট-১৩-০৩১৫) চাপা পড়ে অজ্ঞাত (৩০) ব্যক্তি গুরুতর আহত হলে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তবে তার অবস্থা আশংকাজনক বলে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে।

ডুমুরিয়ায় যুবলীগের বিশেষ বর্ধিত সভা

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি : ডুমুরিয়া উপজেলা যুবলীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিকেল ৪টায় উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে উপজেলা শাখার আহবায়ক প্রভাষক গোবিন্দ ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় বক্তৃতা করেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা অধ্যক্ষ এবিএম শফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহনেওয়াজ হোসেন জোয়ার্দার, মোল্যা জাহিদুল ইসলাম, এ্যাড. আশরাফুল আলম রাজু, শেখ ইকবাল হোসেন, অভিজিৎ কুন্ডু টুটুল, রাজিউল বারী সৈকত, আলহাজ্ব রবিউল ইসলাম খান আন্টু, সরদার মাসুদ রানা, বিশ্বনাথ দে, আব্দুল হামিদ সরদার, বিকাশ চন্দ্র মন্ডল, আবু দাউদ মোড়ল, কামরুল ইসলাম, ইকবাল সালাম, মাস্টার খান আলামিন, খান তহিদুল ইসলাম রাতুল, আমীর সোহেল, দিলিপ মন্ডল, জাকির হোসেন বিশ্বজিৎ মজুমদার প্রমুখ।

ডুমুরিয়ায় মারামারিতে আহত ২

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি : ডুমুরিয়া উপজেলার শোভনা কাউন্সিল বাজারে মঙ্গলবার রাতে বাজিতে লুডু-খেলার টাকা না পেয়ে মারামারির ঘটনায় দু’জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার শোভনা ইউনিয়নের কাউন্সিল বাজারে বসে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মৌলবীপাড়ার পীরআলী সরদারের ছেলে তৌহিদ সরদার (৪২) ও একই পাড়ার মাহাজন গাজীর ছেলে শরিফুল গাজী (৩৪) মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বাজিতে লুডু-খেলা করতে ছিল। খেলা শেষে বাজির টাকা নিয়ে দু’জনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় পরস্পরের কিলঘুষিতে দু’জনই ফোলা ও রক্তাক্ত জখম হয়। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে ডুমুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তবে ঘটনাটি নিয়ে স্থানীয় দু’টি গ্রুফের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় বড় আকারে সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে ডুমুরিয়া থানার শোভনা বিট পুলিশের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসআই রজত কুমার বলেন, লুডু-খেলা নিয়ে মারামারি ও উত্তেজনার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি দু’পক্ষের মধ্যে মহড়া বিরাজ করছিল। এ সময় উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। আহত দু’জনই হাসপাতালে ভর্তি আছে।

চট্টগ্রামের বহদ্দদারহাটের ‘আতঙ্ক’ হামকা রাজু গ্রেপ্তার

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রাম নগরের বহদ্দদারহাট এলাকার ‘আতঙ্ক’ কিশোর গ্যাং লিডার হামকা রাজুকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-৭। তার বিরুদ্ধে চাঁন্দগাও ও পাঁচলাইশ থানায় হত্যাচেষ্টাসহ ৫টি মামলা আছে। বুধবার (৪ নভেম্বর) রাত ১ টায় চাঁন্দগাও থানার বাস টার্মিনাল এলাকার নিজ ঘর থেকে রাজুকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে গণমাধ্যমকে জানান র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. মাহমুদুল হাসান। র‍্যাব জানায়, গ্রেপ্তার হামকা রাজু (৩২) নগরের চান্দগাঁও থানার কসাই পাড়া এলাকার বাসিন্দা। দীর্ঘদিন ধরে সে এলাকায় ছিনতাই আর কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ করে আতঙ্ক ছড়িয়ে যাচ্ছিল। তার বিরুদ্ধে কিশোরগ্যাং পরিচালনা ও কিশোর গ্যাংয়ের মাধ্যমে ছিনতাই, চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসার অভিযোগে থানায় ৫টি মামলাও রয়েছে। এ বিষয়ে র‌্যাব-৭ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোহেল মাহমুদ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাতে রাজুর বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় লাইট বন্ধ করে তিনি পালাবার চেষ্টা করলেও তাকে নিজ বাসার টয়লেট থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরবর্তীতে তার দেখানো তথ্য অনুযায়ী টেলিভিশন বক্সের পেছন থেকে ১টি বিদেশি পিস্তল, ৩ রাউন্ড গুলি সহ একটি ইলেক্ট্রিক শক বোটম উদ্ধার করা হয়। তিনি বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে সে কিশোর গ্যাং পরিচালনার কথা স্বীকার করে। ৮০ থেকে ১০০ জন কিশোর গ্যাং দিয়ে ইয়াবা ব্যবসা, চাঁদাবাজি ও ছিনতাই কাজ করার কথাও স্বীকার করে হামকা রাজু।