রামপালে ৪২ কেজি হরিণের মাংসসহ আটক ২

বাগেরহাট : বাগেরহাটের রামপালে ৪২ কেজিহরিণের মাংসসহ দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত দুই জন সম্পর্কে পিতা পুত্র।
মঙ্গলবার (০২ ফেব্রুয়ারি) ভোরে রামপাল উপজেলার বগুরা ব্রিজ সংলগ্ন বগুরা খালের পাড় থেকে বাগেরহাট জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। এসময় ২টি হরিণের মাথাসহ ৪২ কেজি মাংস জব্দ করে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন, রামপাল উপজেলার ঝনঝনিয়া গ্রামের মৃত জমাত আলীর ছেলে আব্দুর রহমান শেখ (৫২) এবং আব্দুর রহমানের ছেলে মোস্তাকিন শেখ (২৭)। আটককৃতদের বিরুদ্ধে রামপাল থানায় মামলা দায়ের পূর্বক আদালতে সোপর্দের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

মঙ্গলবার (০২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পুলিশ সুপারের কনফারেন্স রুমে প্রেস ব্রিফিংয়ে বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মোঃ শাফিন মাহমুদ এসব তথ্য জানান।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মোঃ শাফিন মাহমুদ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই গাজী ইকবাল হোসেনসহ পুলিশ সদস্যরা বগুরা নদীর তীরে অভিযান চালিয়ে হরিণের মাংসসহ পিতা-পুত্রকে আটক করে। তারা সুন্দরবনে ফাঁদপেতে হরিণ শিকার করে মাংস পাচারের জন্য ওই জায়গায় অপেক্ষা করছিলেন। মামলা দায়ের পূর্বক তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

মোংলায় ৯শ শীতার্তের মাঝে কম্বল বিতরণ

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : মোংলায় অসহায়-দরিদ্র শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। স্থানীয় সাংসদ ও পরিবেশ, বন এবং জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহারের পক্ষ থেকে এ শীত বস্ত্র বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক। সোমবার দুপুরে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ৯শ নারী-পুরুষের হাতে এ শীত বস্ত্র তুলে দেন প্রধান অতিথি তালুকদার আব্দুল খালেক। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, নব নির্বাচিত পৌর মেয়র শেখ আ: রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম ও মোল্লা তারিকুল ইসলামসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

মোংলায় সংখ্যালঘুর জায়গা দখল করে নেয়ার অভিযোগ

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : আদালতের নির্দেশ অমান্য করে মোংলার কানাইনগর এলাকায় এক সংখ্যালঘু পরিবারের জায়গা দখলের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে। জমির মালিক ও দখলদারদের মধ্যে সংঘর্ষ এড়াতে এবং দখল কার্যক্রম বন্ধ রাখতে সোমবার দুপুরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বিরোধপূর্ণ ভূমি থেকে সরিয়ে দেন দখলদারদের। সোমবার সকালে স্থানীয় বাসিন্দা জ্ঞ্যানেন্দ্র নাথ অধিকারীর মালিকানাধীন ৩৩ শতক জমি বাঁশের ঘেরা বেড়া দিয়ে দখল করে নেয় স্থানীয় প্রভাবশালী শহিদুল সরদার ও ইশতিয়াক আহম্মেদ। এরপর বেশ কিছু সংখ্যক শ্রমিক দিয়ে ওই জমিতে মাটি কাটানো কাজ করছিল দখলদারেরা। জমি মালিক জ্ঞ্যানেন্দ্র নাথ অধিকারীর অভিযোগে পুলিশ গিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়। জমি মালিকের আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ৮ ডিসেম্বর ওই জমি দখল রোধে স্ব-স্ব অবস্থানে থাকতে উভয় পক্ষকে নির্দেশনা দেন বাগেরহাট অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ হাফিজ আল আসাদ। তারপরও দখলদারেরা স্থানীয় চাঁদপাই ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা তরিকুল ইসলামের নির্দেশে কাজ করতে থাকেন । তবে সংখ্যালঘুর জমি জবর দখলে নেয়ার চেষ্টকারী শহিদুল ও ইশতিয়াক বলেন, আমরা চেয়ারম্যানের নির্দেশে কাজ করছি। এ জমি নিয়ে আমরা অন্য কারো সাথে কোন কথাই বলবো না।
মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, বিরোধপূর্ণ জমি নিয়ে সংঘাত দেখা দেয়ায় পুলিশ পাঠিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে এবং উভয় পক্ষের কাগজপত্র নিয়ে থানায় ডাকা হয়েছে। কাগজপত্র দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি।