ইউপি নির্বাচনে দলের তৃণমূলের রেজুলেশন কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশ আওয়ামী লীগের

ঢাকা : আওয়ামী লীগ আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের জন্য সংগঠনের সকল জেলা ও মহানগর শাখাকে তৃণমূলের রেজুলেশন পর্যায়ক্রমে কেন্দ্রে পাঠানোর জন্য নির্দেশনা প্রদান করেছে।
আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়–য়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ এ কথা জানানো হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নির্বাচন কমিশন আগামী ১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ২০টি জেলার ৬৩টি উপজেলার ৩২৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। একইভাবে নির্বাচন কমিশন বিভিন্ন ধাপে সারাদেশের প্রায় সাড়ে ৪ হাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ করবে। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের সুনির্দিষ্ট গঠনতান্ত্রিক বিধি মোতাবেক তৃণমূলের রেজুলেশনের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।
এতে আরও বলা হয়, প্রথম ধাপে ৩২৩টি ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়নের ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের অনুচ্ছেদ ২৮(৩)(ঙ) অনুযায়ী আগ্রহী প্রার্থীদের প্যানেল তৈরির জন্য সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ বর্ধিত সভার আয়োজন করবে এবং আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে প্রার্থীদের একটি প্যানেল সুপারিশের জন্য কেন্দ্রে প্রেরণ করবে। এই প্যানেলটি জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের (মোট ৬ জন) যুক্ত স্বাক্ষরে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশক্রমে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষিতব্য তফসিল অনুযায়ী নির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডিস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে (বাড়ি-৫১/এ, সড়ক-৩/এ, ধানমন্ডি আ/এ, ঢাকা) দপ্তর বিভাগে জমা প্রদানের জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।
একই সাথে দলের পক্ষ থেকে প্রার্থী প্যানেল তৈরির ক্ষেত্রে নির্দেশনা অনুসরণ করার অনুরোধ জানানো হয়েছে। নির্দেশনায় বলা হয়, আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের ২৮(৩) ধারা অনুযায়ী ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের পরামর্শ গ্রহণপূর্বক কমপক্ষে ৩ জনের একটি প্যানেল প্রস্তাব করতে হবে।
নির্বাচনী আইন, নীতিমালা ও বিধিমালা অনুযায়ী প্রস্তাবিত প্রার্থীদের নাম (জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী)-এর সাথে প্রয়োজনীয় তথ্য প্রেরণ করতে হবে।
এছাড়াও প্রার্থীদের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি এবং রাজনৈতিক পরিচিতি সম্বলিত একটি সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত অবশ্যই প্রেরণ করতে হবে- যা বাধ্যতামূলক।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠক শনিবার : শিক্ষামন্ত্রী

ঢাকা : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে আগামী শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে বঙ্গবন্ধুর সমাজ ও রাষ্ট্র ভাবনা শীর্ষক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এই কথা জানান। মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক আহ্বান করে।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কত দ্রুত খুলে দেওয়া যায় সে জন্য এই শনিবার আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক রয়েছে। এই ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে।’

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা জানেন এসএসসির জন্য ৬০ কর্মদিসের এবং এইচএসসির জন্য ৮৪ কর্মদিবসের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস দিয়েছি। সেটির জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান যত দ্রুত খুলে দিতে পারি, সেজন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার সমস্ত প্রস্তুতি আমরা নিয়েছি। আমাদের জাতীয় পরামর্শক কমিটি রয়েছে তাদের পরামর্শ নিয়ে নেই। আর এটি নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভাও হবে। সেদিন পরিস্থিতি কী তা পর্যবেক্ষণ করে আমরা সিদ্ধান্ত নেবো। আমরা কী পহেলা মার্চ থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে পারবো? নাকি আরও কয়েকদিন সময় নিতে হবে। এটি আসলে সার্বিক করোনা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে।’

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি এখন অন্য দেশের চেয়ে আমরা অনেক ভালো আছি। সেটি যেনও আমাদের কোনও ভুল সিদ্ধান্তের জন্য খারাপ দিকে না যায়। সেই জন্য গণমাধ্যমসহ সকলের সহযোগিতা চাই।’

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর ওই বছরের ১৭ মার্চ থেকে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। দফায় দফায় তা বাড়িয়ে কওমি মাদ্রাসাছাড়া সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

পি কে হালদার ও তার সহযোগীদের জমি ক্রোকের আদেশ

ঢাকা : অর্থপাচারের মামলায় এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমার হালদার (পি কে হালদার) ও তার সহযোগীদের ৭০ একর জমি ক্রোকের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক মো. সালাহউদ্দিন পি কে হালদার ও তার সহযোগীদের প্রায় ৭০ একর জমি ক্রোকের আদেশ চেয়ে আবেদন করেন। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রাজধানীর উত্তরা, দিয়াবাড়ি, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ ও নরসিংদীসহ বিভিন্ন এলাকায় থাকা পি কে হালদারের ওইসব জমি ক্রোকের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আদালতের সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এর আগে গত বছরের ২১ জানুয়ারি এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) পিকে হালদারসহ ২০ জনের ব্যাংক হিসাব ও পাসপোর্ট জব্দের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের কোম্পানি ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেড পরিচালনার জন্য স্বাধীন পরিচালক ও চেয়ারম্যান হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদকে নিয়োগ দেন আদালত।

এর আগে গত বছরের ৮ জানুয়ারি পি কে হালদারের বিরুদ্ধে ২৭৪ কোটি ৯১ লাখ ৫৫ হাজার ৩৫৫ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে দুদক। তার বিরুদ্ধে ১ হাজার ৬৩৫ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগও আনা হয়। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, পি কে হালদার ও তার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবে জমা হয় প্রায় ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। এর মধ্যে ৩টি প্রতিষ্ঠানের হিসাবে ১ হাজার ২০০ কোটি টাকা, পি কে হালদারের হিসাবে ২৪০ কোটি টাকা এবং তার মা লীলাবতী হালদারের হিসাবে জমা হয় ১৬০ কোটি টাকা। এসব হিসাবে এখন ১০ কোটি টাকার কম জমা আছে। এসব অনিয়ম নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে একের পর এক সংবাদ প্রকাশিত হয়। এসময় গোপনে কানাডায় পাড়ি জমান তিনি।

কাল থেকে ঢাকা-জলপাইগুড়ি যাত্রীবাহী ট্রেন

ইউনিক ডেস্ক : বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে নতুন আরেকটি রেলপথ যোগ হতে চলেছে। আগামী ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের দিন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নিউ জলপাইগুড়ি (এনজেপি) থেকে ঢাকার মধ্যে নতুন এই রেল সেবা চালু হতে যাচ্ছে। এ নিয়ে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে তিনটি রেলপথ চালু হতে যাচ্ছে।

আপাতত সপ্তাহে দুদিন সোমবার ও বৃহস্পতিবার ট্রেনটি ভারতের এনজেপি স্টেশন থেকে ছাড়বে। অন্যদিকে সপ্তাহের প্রতি মঙ্গলবার ও বুধবার ট্রেনটি ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশন থেকে ছাড়বে। বিরতিহীনভাবে ট্রেনটি নয় ঘণ্টা চলবে। তবে ট্রেনটির নামকরণ এবং ভাড়া এখনও ঠিক হয়নি বলে জানা গেছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে নতুন এই রেলপথ চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেন, এই রেলপথ দিয়েই ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তরবঙ্গের সঙ্গে প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশের মেলবন্ধন ঘটবে।

নতুন রেলপথ চালু নিয়ে গত মঙ্গলবার ভারত ও বাংলাদেশের রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠক হয়েছে বলে জানা গেছে। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম এবং ভারতের পক্ষে রবীন্দ্র কুমার ভার্মা নেতৃত্ব দেন।

বৈঠকের পর দুই দেশের কর্মকর্তারা জানান, মূলত পর্যটন শিল্পকে সামনে রেখেই এই রেলপথ চালু করা হচ্ছে। ২৬ মার্চ পশ্চিমবঙ্গের এনজেপি স্টেশন থেকে দুপুর ২টায় ট্রেনটি বাংলাদেশের উদ্দেশে যাত্রা করবে। ট্রেনটিতে ছয়টি স্লিপার কোচের পাশাপাশি দুটি চেয়ার কোচ থাকবে।

এর আগে কলকাতা থেকে ঢাকা পর্যন্ত ‘মৈত্রী এক্সপ্রেস’ এবং কলকাতা থেকে খুলনা পর্যন্ত ‘বন্ধন এক্সপ্রেস’ চালু করা হয়।

খুলনায় ১০ টাকায় মিলছে বাইক ভাড়া

ইউনিক ডেস্ক : খুলনা নগরীর শিববাড়ি মোড়ের কেডিএর সামনে যাত্রীছাউনির পাশে ‘স্কুট’ নামের একটি সংস্থার বুথে সাধারণ মানুষের ভিড়। সেখানে যেতে দেখা যায়, একটি ছাতার নিচে কয়েকজন বসে রয়েছেন। চলছে রেজিস্ট্রেশন। কেউ কেউ বাইক নিয়ে সাতরাস্তা যাচ্ছেন। কেউ চালিয়ে এসে বুথে বাইক ফিরিয়ে দিচ্ছেন। অনেকেই দলবদ্ধভাবে ভাড়া নিয়ে নগর ঘুরে দেখছেন। পুরুষদের পাশাপাশি নারীদের ভিড় রয়েছে বুথে। ভাড়া নিয়ে নগর ঘুরে বাইকটি ফেরত দিয়ে চলে যাচ্ছেন তারাও। দারুণ অনুভূতি সবার।

চিকিৎসক, মেডিকেলের ছাত্র, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, বেকারির কর্মচারী ও পথচারীসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ সেখান থেকে রেজিস্ট্রেশন করে বাইক ভাড়া নিচ্ছেন। কেন-ই-বা করবেন না। মাত্র ১০ টাকায় রেজিস্ট্রেশন।

শিববাড়ি মোড় থেকে সাতরাস্তার মোড় পর্যন্ত বাইক চালিয়ে যেতে লাগছে ১০ টাকা। যদি কেউ বেশি সময় অতিবাহিত করতে চায় তাদের জন্য রয়েছে আধা ঘণ্টা এবং এক ঘণ্টার পৃথক প্যাকেজ। এতেও খরচ কম। আধা ঘণ্টার জন্য ৬০ টাকা এবং এক ঘণ্টার জন্য লাগছে ১০০ টাকা। অনেকেই শখ করে পরিবেশবান্ধব বাইকটি ভাড়া নিয়ে দিচ্ছেন এক চক্কর।

বুথে থাকা স্কুট’র কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জানান, এসব বাইক ব্যাটারিচালিত। সর্বনিম্ন ভাড়া ১০ টাকা। যিনি ভাড়া নেবেন তাকেই চালিয়ে যেতে হবে গন্তব্যে। বাইকগুলোতে ব্যবহার করা হয়েছে একটি নিয়ন্ত্রক সফটওয়্যার, যা বাইককে চুরি হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করবে। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদের উদ্যোগে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। নগরীর সাত রাস্তা মোড় থেকে শিববাড়ি মোড়ে দুটি বুথ প্রাথমিকভাবে চালু করা হয়েছে। বাইকটি যাতে নগরীতে চলাচল করতে পারে সেজন্য খুলনা সিটি করপোরেশন ও খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছে।

ফেসবুকে পোস্ট দেখে শিববাড়ি মোড়ের বুথে এসে রেজিস্ট্রেশন করেছেন পলাশ নামের এক যুবক। তিনি বলেন, বাইকটি আধা ঘণ্টার জন্য ৬০ টাকা দিয়ে ভাড়া নিয়েছি। খুব ভালো লেগেছে। সাতরাস্তা পর্যন্ত যেতে চেয়েও পরে দুই-পাঁচজনকে বাইকটি সম্পর্কে জানালাম। যতটুকু সময় চালিয়েছি, তাতে আমি খুব সন্তুষ্ট।

খুলনা মহানগরীর বেসরকারি ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী সুমাইয়া বলেন, বাইকটি মেয়েদের জন্য খুবই আরামদায়ক। স্কুল-কলেজে যাতায়াতে মেয়েদের জন্য নিরাপদ। করোনা পরিস্থিতি চলছে। সেক্ষেত্রে বাইকটি নিজের মতো করে চালানো যায়। বাইকটিতে কিছু সুবিধা রয়েছে। যেমন; আধা ঘণ্টা ও এক ঘণ্টা ভাড়া নেওয়া যায়। সার্ভিসটি চালু হওয়ার পর তিন-চারবার বাইক ভাড়া নিয়েছি।

একই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী গোলাম হাফিজ হৃদয় বলেন, বাইক সার্ভিসটি দেশের প্রথম খুলনায় চালু হয়েছে। এটি খুবই আরামদায়ক। শিক্ষার্থীদের জন্য উপযুক্ত। আমি প্রতিদিনের কাজ করতে এক ঘণ্টার জন্য বাইকটি ভাড়া নিই। বাইকটি চালাতে অনেক ভালো লাগে আমার।

স্কুট লিমিটেডের সিইও এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী রেদওয়ান আহমেদ বলেন, ইলেকট্রিক বাইক শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মের (স্কুট) এই বাইক রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে সহজে ভাড়া নিতে পারেন যে কেউ। বাইকটি চালক নিজেই চালিয়ে যাবেন গন্তব্যে।

তিনি বলেন, আমাদের মূল লক্ষ্য যানজট নিরসন। এই বাইক যানজট নিরসনে সহায়তা করবে। একই সঙ্গে করোনা পরিস্থিতিতে মানুষ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সহজে অল্প ভাড়ায় নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবে। স্কুট মূলত বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তবায়নের কাজ করছে। স্কুটের মাধ্যমে মানুষের দৈনন্দিন যাতায়াত ব্যবস্থা খুবই সহজ হয়ে যাবে। মানুষকে পাবলিক বাসে ঝুলে যেতে হবে না। স্কুট খুব অল্প ভাড়ায় দিচ্ছে এই সার্ভিস। বাইকটির ভাড়া মাত্র ১০ টাকা। ভাড়া নিয়ে শিববাড়ি থেকে সাতরাস্তা মোড় পর্যন্ত চালিয়ে যাওয়া যাবে। প্রথমবার নিবন্ধন ফি’র জন্য দিতে হবে ১০ টাকা। এরপর নিবন্ধনকারী যতবার ভাড়া নেবেন ততবার তাকে ১০ টাকা করেই ভাড়া দিতে হবে। আরও দুটি প্যাকেজ চালু করা হয়েছে। ৩০ মিনিটের জন্য নিলে ৬০ টাকা এবং এক ঘণ্টার জন্য ভাড়া নিতে লাগবে ১০০ টাকা। অনেক ডেলিভারিম্যান যারা পার্সেল, ডেলিভারি করে তাদের জন্য খুব সহজ হয়ে যাবে। বাইক সফটওয়্যারের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। কেউ যদি রুট বাদে এদিক-ওদিক যাওয়ার চেষ্টা করে তাহলে বাইকটি অটো বন্ধ হয়ে যাবে।

টুঙ্গিপাড়ায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু

গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে রনি সরদার (২৭) নামে এক গাছ কাটা শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় উপজেলার বর্নি ইউনিয়নের উত্তর বর্নি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিদ্যুৎপৃষ্ঠে মারা যাওয়া শ্রমিক গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সিংগারকুল গ্রামের আইয়ুব সরদারের ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার সকালে বর্নি উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে রনি সরদার নামে এক শ্রমিক গাছ কাটতে ওঠে। তখন বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ না থাকায় বিদ্যুৎপৃষ্ঠ হয়ে গাছেই ঝুলে থাকে। এলাকাবাসী ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে। এসময় টুঙ্গিপাড়া ইউএনও একেএম হেদায়েতুল ইসলাম ও বর্নি ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বাদশা উদ্ধার কাজের তদারকি করেন। টুঙ্গিপাড়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার সর্দার শরিফুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। কিন্তু উচ্চতা বেশি হওয়ার গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়া হয়। তখন ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট গাছে ঝুলে থাকা রনি সরদারকে উদ্ধার করে। এরপর তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেস্কে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।

খুলনায় মোট টিকা গ্রহণ ৯০ হাজার ৭শ’ ৬১জন

ইউনিক ডেস্ক : খুলনায় ১৬ দিনে করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক টিকা নিয়েছেন ৯০ হাজার ৭শ’ ৬১ জন। এরমধ্যে ৫৭ হাজার ৩শ’ ৪৮ জন পুরুষ ও ৩৩ হাজার ৪শ’ ১৩ জন নারী।

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) মোট ছয় হাজার ছয়শত ৫৪জন করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছেন। এর মধ্যে খুলনা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় দুই হাজার তিনশত ৬৬ জন এবং নয়টি উপজেলায় মোট চার হাজার দুইশত ৮৮ জন।

উপজেলাগুলোর মধ্যে বটিয়াঘাটায় পাঁচশত ২০জন, দাকোপ এক হাজার ৫৮জন, দিঘলিয়া তিনশত ৫০ জন, ডুমুরিয়া পাঁচশত ৮৭ জন, ফুলতলা দুইশত ৯৮ জন, কয়রা চারশত ৯৬ জন, পাইকগাছা পাঁচশত ৪০ জন, রূপসা দুইশত ৫০ জন এবং তেরখাদায় দুইশত ৮৯ জন টিকা গ্রহণ করেছেন।

টিকা গ্রহীতাদের মধ্যে পুরুষ তিন হাজার আটশত ২১ জন এবং মহিলা দুই হাজার আটশত ৩৩ জন।

বটিয়াঘাটা উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি সভা

ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, বটিয়াঘাটা : বটিয়াঘাটা উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি লিঃ এর ৩৫ তম বার্ষিক সাধারণ সভা বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা বিআরডিবি হলে ইউসিসিএ লিঃ এর চেয়ারম্যান এসএম ফরিদ রানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আশরাফুল আলম খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ও সহকারী কমিশনার ভূমি মোঃ আব্দুল হাই সিদ্দিকী,ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই চন্দ্র গাইন ও চঞ্চলা মন্ডল, ইউপি চেয়ারম্যান শেখ হাদি – উজ-জামান হাদী, ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম হাসান, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রতাপ ঘোষ ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী হাসিবুর রহমান। বিআরডিবির ইরেসপো ম্যানেজার শরিফুল ইসলামের পরিচালনা সভায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ মোঃ ওয়াহেদুর রহমান, সহকারী পল্লী উন্নয়ন অফিসার মোঃ রফিকুল ইসলাম, উপজেলা প্রসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, ইউসিসিএ লিঃ এর সাবেক চেয়ারম্যান প্রবীর ঘোষ, আহম্মদ আলী শেখ, বর্তমান ভাইস-চেয়ারম্যান বিউটি পাল, পরিচালক যথাক্রমে সুনীল বৈরাগী, প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস, জগত আলী মোড়ল, গোপাল মন্ডল,ব্রজেন্দ্রনাথ হালদার, সরকার মনোনীত পরিচালক আজিজুর রহমান, সমবায়ী স্বপন ফৌজদার, বিমান কৃষ্ণ বিশ্বাস, আঃ হালিম শেখ, পরিতোষ দেওয়ান, অহিদুজ্জামান সরদার, কার্তিক মন্ডল, গৌরপদ মন্ডল, শুকলা গোলদার, সবিতা মন্ডল, মহিত্রা মল্লিক প্রমূখ। সভায় বক্তারা উপজেলার প্রতিটি গ্রামে প্রান্তিক কৃষক ও জনগোষ্টিকে সমবায়ের সাথে সম্পৃক্ত করতে প্রয়োজনীয় ভূমিকা রাখতে কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতির নেতৃবৃন্দকে আহবান করেন। একই সাথে কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতির বর্তমান কর্মকান্ডের প্রশংসা করেন। প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন।

মাগুরায় লেগুনার ধাক্কায় ব্যবসায়ী নিহত

মাগুরা : মাগুরায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের পারনান্দুয়ালী পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে এইচ পিকআপের (লেগুনা) ধাক্কায় সালাম বিশ্বাস (৮৫) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। বুধবার সকাল ৮টায় মাগুরা ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের পাল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি কলাপতা ব্যবসায়ী ছিলেন। নিহতের ভাতিজা ইছাদুল বলেন, প্রতিদিনের মত ভ্যান গাড়ি করে শহরের লক্ষ্মীকান্দর এলাকা থেকে কলাপাতা কিনে শহরের মাছ বাজারে বিক্রি করেন চাচা। সকালে শহরের পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে গেলে আট রশি থেকে ছেড়ে আশা এইচ পিকআপ আমার চাচাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। মাগুরা সদর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) রিপদ দাস বলেন, মাগুরা পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে সড়ক দুর্ঘটনায় এক ব্যবসায়ীর মৃতু হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ এইচ পিকআপটি আটক করলেও চালক ও যাত্রীরা পালিয়ে গেছে।

সম্পত্তির লোভেই মাকে খুন!

কুষ্টিয়া : মিরপুরে মাকে হত্যার পর বস্তাবন্দি লাশ পানিতে ফেলে দেওয়ার ৩৪ দিন পর উদ্ধার করেছে কুষ্টিয়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। সম্পত্তির লোভে এই মর্মান্তিক ঘটনা বলে জানিয়েছে পুলিশ। বুধবার বেলা ১১টার দিকে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়। খুন হওয়া ওই মায়ের নাম মমতাজ বেগম। বাড়ি মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ ইউনিয়নের দক্ষিণ কাটদহ এলাকায়। এ ঘটনায় ঘাতক ছেলেসহ ঘটনায় জড়িত অপর দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ব্রিফিংয়ে পুলিশ জানায়, মমতাজ বেগমের স্বামী মারা যাওয়ার পর তিনি একমাত্র ছেলে মুন্না বাবুর সঙ্গে বসবাস করতেন। তার তিন মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। গত ২০ জানুয়ারি ছেলে মুন্না তার বন্ধু রাবিব ও চাচা আব্দুল কাদের মিলে মমতাজকে হত্যা করে লাশ বস্তাবন্দি করে পুকুরে ফেলে দেয়। পরে ২১ জানুয়ারি ছেলে মুন্না বাবু মিরপুর থানায় তার মাকে ‘কে বা কারা অপহরণ করেছে’ মর্মে জিডি করেন। কেবল তাই নয়, এরপর মুন্না তার বন্ধু রাব্বিকে অপহরণকারী সাজিয়ে তার দুলাভাইয়ের কাছে ফোন করিয়ে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করান। মায়ের সম্পত্তির লোভেই এই হত্যাকাণ্ড বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে।