ফুলতলায় অস্ত্রের মুখে স্বর্ণ ও টাকা লুটে থানায় মামলাঃ আটক ২

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ অস্ত্রের মুখে স্বামী ও স্ত্রীকে জিম্মী করে স্বর্নালংকার ও নগদ অর্থ লুটে নেওয়ার অভিযোগে তিন দুর্বৃত্তের নামে ফুলতলায় থানায় দ্রুত বিচার আইনে মামলা হয়েছে। পুলিশ শুক্রবার সাকলে এজাহারভুক্ত দুই আসামীকে আটক ও লুন্ঠিত মালামালের আংশিক উদ্ধার করে। এ ঘটনা ঘটে ফুলতলার শিকিরহাট এলাকায় আঃ রাজ্জাকের বাড়িতে। পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে পৌনে ১১টায় ৩ দুর্বৃত্ত শিকিরহাট এলাকার আঃ রাজ্জাকের বাড়ির ভাড়াটিয়া রাজমিস্ত্রী রবিউল ইসলামকে ডাকাডাকি করে। রবিউল (৩১) ও তার স্ত্রী হাবিবা খাতুন (২১) ঘরের দরজা খুলে বাইরে আসলে তাদের বিয়ের কাগজপত্র দেখাতে বলে। এক পর্যায়ে দুর্বৃত্তরা তাদের গলায় ছুরি ঠেকিয়ে হাবিবার কান থেকে স্বর্নের দুল ও গলার থেকে স্বর্ণের চেইন এবং তাদের কাছ থেকে নগদ ২০হাজার টাকা লুটে নেয়। এ ব্যাপারে রবিউল ইসলাম বাদি হয়ে দক্ষিণডিহি গ্রামের খোরশেদ আলমের পুত্র রুবেল শেখ (৩২), অভয়নগরের নওয়াপাড়া মধ্যপাড়া এলাকার আব্দুর রহমান মোল্যার পুত্র সবুজ মোল্যা ২৫) ও দক্ষিণডিহি গ্রামের উজ্জ্বল শেখের পুত্র অপু শেখ (১৯) কে আসামি করে ফুলতলা থানায় দ্রুত বিচার আইনে মামলা করেন। পুলিশ শুক্রবার সকালে এজাহারভুক্ত আসামি রুবেল ও সবুজকে আটক এবং তাদের কাছ থেকে লুষ্ঠিত এক জোড়া কানের দুল উদ্ধার করে।

ফুলতলায় সরদার ইকরামুল কবীরের স্মরণ সভা

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ প্রয়াত কমরেড সরদার ইকরামুল কবীরের স্মরণ সভা শুক্রবার বিকালে ফুলতলা মহিলা কলেজে চত্ত্বরে জাতীয় কৃষক সমিতির উপজেলা সভাপতি রেজোয়ান আলী খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য কমরেড নূর আহম্মেদ বকুল। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা সম্পাদক এ্যাড. মিনা মিজানুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন ওয়ার্কার্স পার্টি নেতা মফিজুল ইসলাম, ওহিদুুুুুুুজ্জামান টিটো, গাজী নওশের আলী, সন্দিপন রায়, ইউপি সদস্য আঃ রহমান সরদার, প্রভাষক গৌতম কুন্ডুৃ, জাহাঙ্গীর আলম, ফজলে খোদা বাচ্চু, শিক্ষক নুরুজ্জামান সরদার প্রমুখ।

সারাজীবন আপনাদের পাশে থেকে সেবা করে যেতে চাই: এমপি শেখ মোঃ নুরুল হক

ইমতিয়াজ উদ্দিন, কয়রা, খুলনাঃ কয়রা উপজেলার দক্ষিণ বেদকাশী ইউনিয়নের জোড়শিং ও আংটিহারায় সোমবার দিনভর সর্বস্তরের জনসাধারণ ও দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন খুলনা-৬ আসনের সাংসদ আলহাজ্ব এ্যাডঃ শেখ মোঃ নুরুল হক। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তাঁকে পুনরায় মনোনয়ন প্রদান করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, দলীয় নেত্রী আমাকে ইতিমধ্যে আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে বলেছেন। আমি এ অঞ্চলেরই সন্তান, এই অঞ্চলের কাদা, মাটি ধুলো আলো বাতাসে আমি বেড়ে উঠেছি, আমি আপনাদের সুখে দুখে ছিলাম,বর্তমানে আছি, সারাজীবন আপনাদের পাশে থেকে সেবা করে যেতে চাই। দক্ষিণ বেদকাশী আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান কবি শামছুর রহমানের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় এমপি নুরুল হক উপস্থিত হয়েছেন এমন সংবাদে ঐ ইউনিয়নের জোড়শিং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও আংটিহারায় শত শত মানুষের ঢল নামে। এমপি উপস্থিত জনতার কাছে দীর্ঘ সময় ইউনিয়নের উন্নয়নের বিভিন্ন দাবি-দাওয়ার কথা শোনেন। পরে তিনি সকলের উদ্দেশে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে দাবি সমুহ বাস্তবায়নের আশ্বাষ প্রদান করেন এবং বলেন, আজ এখানে আমার সাথে মতবিনিময় করতে শুধু আমাকে ভালবেসে যেভাবে আপনারা হাজির হয়েছেন তাতে আমি আপনাদের ভালবাসায় সকলের কাছে চীর কৃতজ্ঞ হয়ে রইলাম। কিন্তু কিছু ব্যক্তি জনগনকে ভুল বুঝিয়ে নৌকা থেকে দুরে রাখতে চায়। সকল অপশক্তিকে ধ্বংস করে আগামীতে আপনারা সকল ভেদাভেদ ভুলে আমাকে পুনরায় নির্বাচিত করবেন বলে আমি দৃঢ় বিশ্বাসী। এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্র লীগ, তাতীঁ লীগসহ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আসা তৃনমূলের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

কুষ্টিয়ায় যাত্রাপালা নাচমহল- দর্শকদের উপচেপড়া ভীড়

এসএম জামাল, কুষ্টিয়াঃ ‘ফিরে চল মাটির টানে’ স্লোগানকে সামনে রেখে কুষ্টিয়ায় ১০ রাতব্যাপী যাত্রা উৎসব চলছে কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গনে।

জেলা শিল্পকলা একাডেমি এ উৎসবের আয়োজন করে। সোমবার রাতে ভৈরবনাথ গঙ্গোপাধ্যয় রচিত দিশা সাংস্কৃতিক গোষ্ঠির সহযোগীতায় তকরিম উদ্দিন খানের নাট্য পরিচালনায় যাত্রাপালা নাচমহল পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানে দিশা সাংস্কৃতিক নাট্যগোষ্ঠির প্রধান সমন্বয়ক দিশা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোঃ রবিউল ইসলামকে ক্রেস্ট,সনদপত্র তুলে দেন জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক আমিরুল ইসলাম। এসময় তিনি বলেন, অশ্লীল নৃত্য আর অসাধু ব্যবসায়িক চিন্তার প্রতিফলনে সভ্য সমাজের রুচিশীল মানুষকে যাত্রামুখী করতে এবং অপসংসস্কৃতির করালগ্রাসে বিলুপ্তপ্রায় যাত্রাশিল্পকে ধ্বংসের পথ থেকে বাঁচাতেই এমন উদ্যোগ।

তিনি বলেন, বর্তমান প্রজন্মের অনেকেই জানেনা যাত্রাপালা কি? এই শিল্পকে নতুনভাবে  তুলে ধরতেই হারানো দিনের সেই যাত্রাপালা উপস্থাপন করার চেষ্টা করছি। গীতাঞ্জলী অপেরা সারাদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। আজকের যাত্রাপালা নাচমহল ও বেশ আলোচিত। দিশা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোঃ রবিউল ইসলাম বলেন, গ্রাম বাংলার মানুষের বিনোদনের মুলেই ছিলো যাত্রাপালা। গ্রাম বাংলার বাস্তব চিত্র নিয়ে যাত্রাপালা অনুষ্ঠিত হতো।  সুস্থ্য বিনোদন ধারা ছিলো সেটিকে ফিরিয়ে আনা উচিৎ বলে মনে করেন।  তিনি বলেন, একময় আমরা পায়ে হেটে অনেক দুরে যাত্রাপালা দেখতে যেতাম। যাত্রা বিলুপ্তির পথে চলে যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখন আর সেই যাত্রাপালা আর দেখা যায় না। যাত্রার এই সমৃদ্ধিকে ধরে রাখার জন্য  এই আয়োজন অব্যহত রাখা প্রয়োজন।
বিলুপ্তপ্রায় যাত্রাশিল্পীদের এ ধারা অব্যহত রাখতে সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

তকরিম উদ্দিন খানের নাট্য পরিচালনায় যাত্রাপালা নাচমমহল যাত্রাপালায় অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেন একসময়ের সসাড়া জাগানো আলোচিত নাট্যশিল্পী তকরিম উদ্দিন খান, নজরুল,উফান আলী, জহুরুল হক, মামুন মহসিন, হেলাল,রাশেদ,জোসনা,তপতি, লক্ষিরানী, বাসন্তীসসহ অন্যরা।

তাতীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি হলেন এ্যাড. চুন্নু

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ কুষ্টিয়ার কৃতি সন্তান এ্যাড. মোঃ নিজামুল হক চুন্নুকে বাংলাদেশ তাতীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি হিসেবে মনোনীত করায় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। সোমবার সকালে তার চেম্বারে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান জেলা তাতীলীগের সদস্য সচিব হাজী হারুনার রশীদ ও শহর তাতীলীগের আহবায়ক মোঃ নাজমুল ইসলাম। এসময় তাতীলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হয়ে এসময় এ্যাড. মোঃ নিজামুল হক চুন্নু বলেন, বাংলাদেশ তাতীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি হিসেবে মনোনীত করায় সংস্লিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, কুুষ্টিয়ার উন্নয়নের রুপকার জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফের হাতকে শক্তিশালী করতে কুষ্টিয়ার তাতীলীগকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

নেপালে বিধ্বস্ত বিমানে ছিলেন খুলনার আলিফ

বিশেষ প্রতিনিধি, খুলনাঃ নেপালের কাঠমান্ডুতে দুর্ঘটনাকবলিত বিমানে খুলনার আলিফুজ্জামান আলিফ (৩২) নামে এক যুবক রয়েছে। দুর্ঘটনার পর থেকে তার সঙ্গে পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো ধরনের যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তার ভাগ্যে ঠিক কী ঘটেছে- সেটিও বলতে পারছেন না পরিবারের সদস্যরা। সে খুলনার রূপসা উপজেলার আইচগাতি বারোপোল গ্রামের মো. আক্তারুজ্জামানের ছেলে। সে খুলনার এমএম সিটি কলেজ থেকে এবার মাস্টার্স পরীক্ষা দিয়েছে। একই সঙ্গে সে খুলনা জেলা প্রজন্ম লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ছিল বলে জানা গেছে।
আলিফের নিকটাত্মীয় মো. সাব্বির খান দ্বীপ জানান, আলিফ নেপাল ভ্রমণের জন্য সোমবার সকালে বাড়ি থেকে বের হয়। সে যশোর থেকে প্রথম ফ্লাইটে বেসরকারি এয়ারওয়েজ নভোএয়ারে ঢাকায় যায়। সে দুপুর পৌনে ১টার দিকে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ইউএস-বাংলায় (ফ্লাইট বিএস ২১১) রওনা হয় নেপালের উদ্দেশে। সে বিমানের সর্বশেষ আসনে ছিল। নেপালের স্থানীয় সময় বেলা ২টা ২০ মিনিটে কাঠমান্ডুতে নামার সময় পাইলট নিয়ন্ত্রণ হারালে বিমানটি রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে এবং আগুন ধরে যায়। ঘটনার পর থেকে আলিফের সঙ্গে তারা কোনো যোগাযোগ করতে পারেননি। দুর্ঘটনায় তার ভাগ্যে ঠিক কী ঘটেছে- সেটিও তার পরিবারের সদস্যরা ধারণা করতে পারছেন না।
এদিকে, ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে আলিফদের আইচগাতির বাড়িতে আত্মীয়-স্বজন, প্রতিবেশীসহ উৎসুক জনতার ভিড় জমে গেছে। তার বাড়িতে এসে আলিফের খবর জানার চেষ্টা করছেন। তবে, পরিবারের সদস্যরা সবাই শোকাহত হয়ে পড়েছেন।
আলিফের বড় ভাই আশিকুজ্জামান হামিম ও ছোট ভাই ইয়াসিন আরাফাত বলেন, তারা তাদের ভাইয়ের সঠিক কোনো তথ্যই এখনও পাননি। যোগাযোগের চেষ্টা করছেন। এর বেশি কিছু বলতে পারেননি তারা।
আলিফের অপর আত্মীয় স্থানীয় আইচগাতি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জুলফিকার আলী খান জুলু বলেন, তিনি খবর পেয়ে আলিফদের বাড়িতে গিয়েছিলেন। তাদের মধ্যে শোক বিরাজ করছে। পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করছেন তারা।
এদিকে এ ঘটনার পর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আরাফাত হোসেন পল্টু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে শোক বাণী তুলে ধরেন। সেখানে তিনি লেখেন ‘মেনে নেয়া বড় কঠিন, সহ্য করা যাচ্ছে না, এ কেমন নির্মম পরিণতি! শোকের ভাষা হারিয়ে গেছে।’

মোল্লাহাটে মাদক বিক্রেতাদের হাতে দুই পুলিশ আহত, আটক ১

মোল্লাহাট, বাগেরহাটঃ বাগেরহাটের মোল্লাহাটে সংঘবদ্ধ মাদক বিক্রেতাদের হাতে মারধরের শিককার হয়েছেন দুই পুলিশ সদস্য। এঘটনায় কামরুল হাসান শুভ (২৭) নামের একজনকে পুলিশ আটক করেছে। সোমবার সকালে মোল্লাহাট উপজেলা সদরের হাসপাতাল মোড়ে মাদক বিক্রেতাদের ধরতে গেলে মাদক বিক্রেতারা জনসম্মূখে প্রকাশ্য দিবালোকে ওই দুই পুলিশ সদস্যকে মারধর করে বীরদর্পে স্থান ত্যাগ করে। তাদের প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তবে পুলিশ এটাকে মারধর নয়, মাদক বিক্রেতাদের ধরতে গেলে তাদের ধাক্কায় পুলিশ সদস্যরা সামান্য আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন। পুলিশ ওই মাদক বিক্রেতাদের পরিচয় সনাক্ত করে তাদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেছে।
আহতরা হলেন, মোল্লাহাট থানায় কর্মরত সহকারি উপপরিদর্শক (এএসআই) রাসেল রানা এবং কনস্টেবল পুলক বিশ^াস।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে মোল্লাহাট থানার দুই পুলিশ সদস্য হাসপাতাল মোড়ে আসেন। এসময় তারা পাঁচ/ছয় যুবকের কাছে গিয়ে তাদের সাথে কথা বলতে থাকেন। এরই মাঝে এক যুবক বড় এক প্যাকেট ইয়াবা মাটিতে ফেলে দেয়। এএসআই রাসেল রানা উক্ত ইয়াবা তুলতে গেলে তাকে প্রথমে সুজাই সেখ মারধর শুরু করে এবং পরে মাদক বিক্রতা চক্রের সকলে একযোগে ওই দুই পুলিশ সদস্যকে এলোপাথাড়ি চড় থাপ্পড়, কিল ঘুষি দিয়ে ফেলে দ্রুত সটকে যায়।
মাদক বিক্রেতা সুজাই সেখ ও কামরুল হাসান শুভ সেখ নামের দুইজনের পরিচয় জানাগেছে। তারা দুই জন গাড়ফা গ্রামের হোসেন আলী (হোসেন পুলিশ)’র ছেলে এবং একাধিক মামলার আসমী।
মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আ স ম খায়রুল আনাম বলেন, পাঁচ/ছয় যুবক হাসপাতালের মোড়ে নিষিদ্ধ ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রি করছে এই গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে থানার সহকারি উপ পরিদর্শক রাসেল রানা একজন কনস্টেবল পুলক বিশ^াসকে সাথে নিয়ে তাদের ধরতে যায়। এসময় ওই অজ্ঞাত যুবকরা পুলিশ সদস্যদের ধাক্কা দিয়ে ফেলে পালিয়ে যায়। ওদের ধাক্কায় দু’জন সামান্য ব্যাথা পেয়েছেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুপুরে কামরুল হাসান শুভ (২৭) নামের একজনকে আটক করেছে। আটক কামরুল হাসান শুভ উপজেলার গড়ফা গ্রামের হোসেন শেখ ( হোসেন পুলিশ)’র ছেলে। অন্যদের ধরতে পুলিশ অভিযান চলছে। পুলিশের কর্তব্যকাজে বাঁধাদানের অভিযোগে ওদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

সুতারখালী এসপিএল ক্রিকেটের ফাইনালে রেড ব্লুজ একাদশ চ্যাম্পিয়ান

দাকোপ প্রতিনিধিঃ দাকোপের সুতারখালী তরুন ক্লাসিক একাদশের আয়োজনে সুতারখালী প্রিমিয়ারলীগ এস পিএল ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা ও পুরুস্কার বিতরন করা হয়েছে। ফাইনালে রেড ব্লুজ একাদশ ৫ উইকেটে এ্যাকটিভ চ্যালেঞ্জার্সকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ান হয়েছে।
সোমবার বিকেলে স্থানীয় জে জে এস কেয়ার সংলগ্ন মাঠে প্রথমে ব্যাটিং করে এ্যাকটিভ চ্যালেঞ্জার্স সব কয়টি উইকেট হারিয়ে ৭১ রান সংগ্রহ করে। জবাবে রেড ব্লুজ একাদশ ৫ উইকেটের বিনিময়ে সহজে জয়ের লক্ষ্যে পৌছে যায়। খেলা শেষে স্থানীয় ইউপি সদস্য সিরাজ মল্লিকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরুস্কার বিতরন করেন দাকোপ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক আজগর হোসেন ছাব্বির। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন ইউপি সদস্য নার্গিস বেগম, নলিয়ান র‌্যাব কর্মকর্তা সোহেল রানা, সাবেক ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম খোকন, যুবলীগনেতা আনিসুর রহমান ফকির, সমাজসেবক আব্দুল্লাহ আল মামুন। বক্তৃতা করেন স্থানীয় সমাজসেবক রেজাউল ঢালী, আসলাম হোসেন বাবু, সরাফাত হোসেন সবুজ, সোহেল রানা, হাবিবুর রহমান, রায়হান কবির, সাজ্জাদ হোসেন, শামিমরেজা, ইউছুপ আলী প্রমুখ। ফাইনালে রেড ব্লুজ একাদশের সেলিম রেজা ৩ উইকেট এবং ১০ রান করে ম্যান অবদা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন। ম্যান অবদা সিরিজ হয়েছেন রেড ব্লুজ একাদশের অধিনায়ক রায়হান কবির।

কেশবপুরে তৃণমূল নারী উদ্যোক্তাদের দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ সম্পন্ন

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধিঃ কেশবপুরে উপজেলা পর্যায়ে তৃণমূল নারী উদ্যোক্তাদের দক্ষতা উন্নয়ন এবং ব্যবসা ব্যবস্থাপনা বিষয়ক ৩দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ সোমবার উপজেলার বিআরডিবি হলরুমে সম্পন্ন হয়েছে। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের তত্ত্বাবধানে এবং এসেসিয়েশন ফর রাইটস এন্ড পিচের বাস্তবায়নে অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষেণের সমাপনী অনুষ্ঠিানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার কানিজ ফাতেমা শেফা। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেশবপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এস আর সাঈদ। ৩দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ প্রদান করেন সিনিয়র প্রশিক্ষক রবীন্দ্রনাথ ব্যানার্জী ও প্রশিক্ষক মনিরুজ্জামান। উপজেলা পর্যায়ে ৩০ জন তৃণমূল নারী উদ্যোক্তা উক্ত ৩ দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।

রাজাপুরে ‘স্বঘোষিত রাজা’ সাবেক ওসি মুনিরকে স্বশরীরে তলব

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ কলেজ ছাত্র ইমরান হোসেন আদনানকে পুলিশ হেফাজতে নির্যাতন, ঘটনা ধামাচাপা দিতে অপচিকিৎসা ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে একাধিক মামলায় জড়িয়ে হয়রানির ঘটনায় রাজাপুর থানার সাবেক বিতর্কিত ওসি মুনির উল গিয়াসকে ১৮ মার্চ স্বশরীরে হাজির হতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। ঝালকাঠি জেলা ও দায়রা জজ আদালত দায়েরকৃত রিভিশন মামলার বিগত শুনানীতে আসামীদের তলব করলেও ১১ মার্চ রবিবার ধার্য তারিখে আসামীরা উপস্থিত না হওয়ায় শুনানীআন্তে মাননীয় বিচারক অসন্তোষ প্রকাশ করে আদেশ প্রদান করেন। শুনানী কালে মামলার বাদী কলেজ ছাত্র আদনানের বিরুদ্ধে রাজাপুর থানার ‘স্বঘোষিত রাজা’ ওসি মুনির আক্রোসমূলক ভাবে অন্যের জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের ঘটনায় দায়েরকৃত নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের একটি মামলায় আদনান ও তার ছোট ভাই মুরাদকে আসামী করন, আদনানকে চুরি মামলায় সন্দিগ্ধ আসামী করন ও নন জিআর একটি মামলাসহ ৪/৫চি জিডি দায়েরের বিশদ বর্ননা শুনে জেলা ও দায়রা জজ আদালত বিস্ময় প্রকাশ করেন।

নির্যাতিত কলেজ ছাত্র আদনানের আইনজীবী আবেদনে উল্লেখ করেন, গত ৭ডিসেম্বর রাত আনুমানিক ১১টায় পুলিশ বিভাগের ইমেজ নষ্টকারী রাজাপুর থানার বিতর্কিত ওসি মুনির উল গিয়াস এক এসআইকে পাঠিয়ে আদনান ও তার ছোট ভাই কামরুল হাসান মুরাদকে টিএন্ডটি রোডস্থ বাসা থেকে সুস্থ-স্বাভাবিক অবস্থায় ডেকে আনেন। সেখানে আসামী ওসি মুনিরের কক্ষে ডুকিয়ে আদনানকে ৭ ডিসেম্বর বেলা ১০টা থেকে ১টার মধ্যবর্তী সময়ে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক তথা প্রভাবশালী এক বিএনপি নেতার ভাই ওলিউর রহমান ওলির বাসায় সংগটিত একটি চুরি মামলায় জড়িত থাকার স্বীকারোক্তি প্রদানের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। প্রায় ৪০বছর সৌদি আরবে চাকুরি করে গত ২০১৫ সালে দেশে ফিরে মারা যাওয়া মোঃ শাহজাহানের পুত্র কলেজ ছাত্র আদনান তার এ অন্যায় দাবীতে বিস্মিত হয় ও কোন প্রকার স্বীকারোক্তি প্রদানে অস্বীকৃতি জানায়।

তখন ওসি তার কক্ষ থেকে ছোটভাই মুরাদকে জোর পূর্বক বের করে দিয়ে ২নং আসামী এসআই নজরুল কে লাঠি নিয়ে তার কক্ষে ডাকে। এক পর্যায়ে তারা দুই আসামী মিলে নিরীহ আদনানকে স্বীকারোক্তি আদায়ের জন্য বেধরক লাঠিপেটা করে, নাকমুখে পানি ডালে ও কারেন্টশকসহ মধ্যযুগীয় কায়দায় টানা দুই ঘন্টা নির্যাতন চালায়। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে সে অচেতন হয়ে পরলে আসামীরা তড়িগড়ি করে মধ্যরাতে এএসআই সঞ্জিবন বালাকে দিয়ে পুলিশ পিকাপে করে আদনানকে রাজাপুর উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থা দেখে বরিশাল শেরেবাংলা হাসপাতালে নিয়ে যেতে পরামর্শ দিলেও ওসি মুনির পুলিশী প্রভাব খাটিয়ে আবাসিক চিকিৎসক তথা ৪নং আসামী রাসেলকে হাসপাতাল এনে রেজিষ্ট্রারে নির্যাতনের প্রকৃত চিত্র গোপন করে সামান্য বুকে ব্যাথা মর্মে উল্লেখ করেন।

এমন কি ঘটনা গোপন রাখতে ৮ডিসেম্বর সকালে অসুস্থ আদনানকে উক্ত চুরি মামলার সন্দিগ্ধ আসামী মর্মে আদালতে প্রেরন করলে তাকে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়। প্রায় দেড় মাস হাজত বাসের পর জামিন বাইরে বের হয়ে সেদিনই হাসপাতালে ভর্তি হয়। প্রায় দুই সপ্তাহ চিকিৎসা শেষে কিছুটা সুস্থ হয়ে নির্যাতিত কলেজ ছাত্র আদনান বিজ্ঞ আমলী আদালত ওসি মুনির, এসআই নজরুল, এএসআই সজ্ঞিবন বালা ও আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ রাসেলকে আসামী করে একটি নালীশি মামলা দায়ের করে। কিন্তু পুলিশের উচ্চ্ পর্যায়ের তদবীর ও চাপের মুখে আসামীরা প্রভাবশালী তথা পুলিশ সদস্য হওয়ায় তাদের ছাড় দিতে মামলাটি খারিজ করেন। তাই ন্যায় বিচার ও ব্যক্তিগত প্রতিহিংসার শিকার নির্যাতিত কলেজ ছাত্র আদনান বাদী হয়ে ঝালকাঠি বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে এই রিভিশন মামলাটি দায়ের করেন।

এব্যাপারে নির্যাতিত কলেজ ছাত্র বাদী আদনান ও তার আইনজীবীরা বলেন, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে নির্যাতন ও হেফাজতে মৃত্যু নিবারন আইন ২০১৩ সনের ১৫ (১) ধারার আইনে বিচার চেয়ে মামলাটি আনায়ন করা হয়েছিল। অথচ আদালত উল্লেখিত আইনে প্রতিবিধান না করে বা কোন প্রকার মতামত নাদিয়ে দঃবিঃ ৩২৫ ধারায় অভিযোগের সত্যতা নেই মর্মে অভিহিত করে মামলাটি খারিজ করে দিয়েছে। এতে নিরিহ-নিরপরাধ ও নির্যাতিত কলেজ ছাত্র বাদী ইমরান হোসেন আদনান ন্যায় বিচার বঞ্চিত হয়ে উচ্চ আদালতে রিভিশন মামলা দায়ের করেছেন। যদি এখানেও তারা ন্যায় বিচার না পায় যায় তবে ন্যায্য বিচারের জন্য যতোদূর যেতে হয় ততোদূর পর্যন্ত যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।