উদ্বেগ উৎকন্ঠার অবসান ঘটিয়ে ১৮ ঘন্টায় উদ্ধার কলামিষ্ট ফরহাদ মজহার

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি: দেশ জুড়ে টানা ১৮ ঘন্টা উদ্বেগ, উৎকন্ঠা ও আতঙ্কের অবসান ঘটিয়ে বিশিষ্ট কলামিষ্ট ও লেখক ফরহাদ মজহার যশোরের অভয়নগর থেকে উদ্ধারের পর খুলনার ফুলতলা থানায় সাংবাদিকদের সামনে হাজির করা হয়। সোমবার দিবাগত রাত সোয়া ১টায় পুলিশের খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি দিদার আহম্মদ ও র‌্যাব-৬ এর সিও খন্দকার রফিকুল ইসলাম থানা চত্ত্বরে সাংবাদিকদের প্রেস ব্রিফিং এ বলেন ভোর ৫টা ৮মিনিটে রাজধানী আদাবর এলাকার নিজ বাসা থেকে সকলের অগচরে ফরহাদ মজহার বেরিয়ে আসেন। গাবতলী থেকে বাসযোগে খুলনায় আসেন। এ ব্যাপারে তার স্ত্রী আদাবর থানায় জিডি এন্টি করেন। উৎকন্ঠা শুরু হয়ে যায় দেশজুড়ে। মোবাইল ট্রাকিং এর মাধ্যমে বিকালে খুলনার শিববাড়ি মোড় ও নিউমার্কেট এলাকায় তার অবস্থান ধরা পড়ে। এ সময় র‌্যাব, পুলিশ ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান শুরু করে ঐ এলাকা জুড়ে। অপরদিকে বিকাল ৬টা নাগাদ নিউ মার্কেট এলাকার গ্রীল হাউজে খাবার খেয়ে ফরহাদ মজহার রিক্সযোগে হানিফ কাউন্টারে গিয়ে নিজ নামে ঢাকার টিকিট সংগ্রহ করেন বলে ব্রিফিং এ বলা হয়।
এদিকে যশোরের অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আনিসুর রহমান বলেন, উর্দ্বোতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে বিকাল থেকে ঢাকাগামী বিভিন্ন পরিবহন, মাইক্রোবাস ও প্রাইভেট কার তল্লাসী শুরু করেন। রাত সাড়ে ১১টায় ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা-মেট্রো-ব-১৪-৯৮০১) তল্লাসীকালে পিছন দিকের ডান পাশের আই সিরিজের সীট থেকে ফরহাদ মজহারকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় র‌্যাবের টহলদল ৪টি মাইক্রোযোগে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে তাকে গাড়ীতে তুলে খুলনা ক্যাম্পের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এদিকে রাত প্রায় ১২টায় খুলনা-যশোর মহাসড়কের ফুলতলা থানা এলাকায় জ্যাম থাকায় র‌্যাবের গাড়ীবহর থানা চত্বরে ঢুকে পড়ে। র‌্যাত ১টা ৫মিনিটে খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি দিদার আহম্মদ, অতিরিক্ত ডিআইজি মোঃ হাবিবুর রহমান, খুলনার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার এস এম শফিউল্লাহ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ সজিব খান, ওসি মোঃ আসাদুজ্জামান মুন্সী উপস্থিত হন। উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে কবি ফরহাদ মজহারের সাথে থাকা ব্যাগে ১টি জামা, ১টি গেঞ্জি, মোবাইল ফোনের ১টি চার্জার ও কিছু নগদ টাকার কথা উল্লেখ করে ডিআইজি দিদার আহম্মদ বলেন, অপহরণ নয়, বরং স্বেচ্ছায় সংক্ষিপ্ত ভ্রমনের উদ্দেশ্যে তার বের হওয়া। এ সময় র‌্যাবের একটি সাদা রং এর মাইক্রোবাস (ঢাকা-মেট্রো-হ-১২-২৩৫২) থেকে কবি ফরহাদ মজহারকে বের করা হয়। তবে তিনি কোন কথাই বলেননি। এদিকে ডিএমপির গোয়েন্দা শাখার এসি শাহাদাৎ এর নেতৃত্বে একটি টিম আদাবর থানার জিডি মূলে লেখক ফরহাদ মজহারকে একটি মাইক্রোবাসে (ঢাকা-মেট্রো-চ-১৩-৮৯৩১) তুলে ডিএমপির অপর একটি গাড়ির স্কট দিয়ে রাত ১টা ৩৫মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে ফুলতলা ত্যাগ করে।

আপনার মতামত জানানঃ