করোনায় মৃত্যু নাটক, ২৪ ঘন্টা কফিন বন্দী হয়ে দেখলেন মৃত্যুর পর কেমন লাগে

আর্ন্তজাতিকঃ ‘জন্মিলে মরিতে হবে’ আমরা প্রত্যেকে এই কথাটির সাথে অবগত। যখন কেউ মারা যায় লোকেরা তার শোকসভার আয়োজন করে এমনকি বৈষ্ণব সেবা ও দেন। আপনার এই যাত্রায় আপনার অনেক আত্মীয় এবং পরিচিত জন এসে চোখের জল ফেলে। কিছু ব্যক্তিরা শেষ মুহূর্তে আপনার সাথে দেখা করতে আসবে তাদের আচরণে মনে হবে তারা আপনার জন্য কতটা যত্নবান।
তবে বিষয়টি হলো আপনি যখন মারা যাবেন আপনি কিভাবে জানলেন যে আপনার জন্য কত জন কেঁদেছেন? কতজন এসেছে আপনাকে শেষ দেখা দেখতে? এই কথাটিতে অনেকেই হয়তো সহমত দেবেন যে সবারই এই কৌতুহল টি থেকেই থাকে। এমন একটি ঘটনা ঘটেছে চিলিতে। চিলির ৫৯ বছর বয়সী বাসিন্দা মাইরা আলোনজো তার মৃত্যুর ভান করে সবাইকে অবাক করে দিয়েছিলেন।
মাইরা ৪ ঘন্টা কফিনে মারা যাওয়ার ভান করেছিলেন। সমস্ত আত্মীয়-স্বজন মাইরার শেষ যাত্রায় উপস্থিত ছিলেন। মাইরা যখন বুঝতে পারে যে অনেক লোক তার সাথে দেখা করতে এসেছে তখন তিনি হঠাৎ কফিন থেকে উঠে বসলেন। প্রত্যেকে তাকে দেখে হতবাক হয়ে যায়। তারপর মাইরা সবাইকে তার মিথ্যা মৃত্যুর নাটকের কথা জানায়। তারপরে তিনি সমস্ত আত্মীয় স্বজনের সাথে জোরদার পার্টি ও করেন।
মাইরা তার নকল অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার জন্য প্রায় ১ লাখ টাকা ব্যয় করেছিলেন। এর জন্য তিনি একজন পেশাদার ফটোগ্রাফার ভাড়া করেছিলেন যিনি মাইরা শেষ যাত্রায় আগত সমস্ত আত্মীয়দের ছবি তুলবেন। আসলে এই সমস্ত কিছু করার পিছনে মাইরার আরেকটি বিশেষ উদ্দেশ্য ছিল। তিনি দেখতে চেয়েছিলাম যে তিনি যদি মারা যান তবে কারা তার শেষ যাত্রায় আসেন এবং চোখের জল ফেলেন।
অন্যদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনাটি সম্পর্কে লোকেরা জানতে পেরে বেশ অবাক হয়েছেন। কিছু লোক মাইয়ারে ধারণা বেশ পছন্দ করেছেন আবার কেউ এর নিন্দা করেছেন। একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন যে ‘এটি দুর্দান্ত ধারণা। আমিও চেষ্টা করব এরকম কিছু করার।’ যাইহোক মাইরার ধারণাটি আপনার কেমন লেগেছে আপনি কি কখনো এরকম কোনো কিছু ট্রাই করতে চান?

আপনার মতামত জানানঃ