তালায় তুচ্ছ ঘটনায় যুবককে পিটিয়ে জখম 

তালা প্রতিদনিধিঃ জমিতে চাষ করতে ট্রাক্টর যেতে বাঁধা দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সঞ্জয় দাশ (৪২) নামের এক যুবককে হাতুড়ি,ইট , টর্চ লাইট ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মাথা থেতলে দিয়েছে তারই প্রতিবেশী সুখেন দাশ ও তার পরিবারের লোকেরা। ঘটনাটি ঘটেছে ২৪ মে বুধবার রাত আনুমানিক সাড়ে ৯ টার দিকে তালার ঘোষ নগর গ্রামে। সঞ্জয় ঐ এলাকার বিষ্টু পদ দাশেন ছেলে।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্র জানায়, (২৪মে) বুধবার সকালে সঞ্জয় দাশের শ্রমিকরা সুখেনের বাড়ির পাশে তার একটি জমিতে চাষ করতে ট্রাক্টর নিয়ে যাচ্ছিল। এসময় তারা সুখেনদের জমির উপর দিয়ে ট্রাক্টর নিতে বাঁধা দেয়ায় ঐ দিন আর জমি চাষ করা হয়নি। ঐসময় সঞ্জয় বাড়িতে ছিলনা। পরে ঐদিন রাত আনুমানিক সাড়ে ৯ টার দিকে কাশিমনগর বাজার থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে সঞ্জয় সুখেনের বাড়ির সন্নিকটে পৌছালে তারা তাকে ডেকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। এর আগে তারা তার পিতা বিষ্টু পদ দাশকেও একইভাবে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। এসময় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই পঞ্চানন দাশের দু’ছেলে সুখেন (৪০) ও তার ভাই ধনঞ্জয় (৩২) সহ বাড়ির অন্যান্যরা সংঘবদ্ধভাবে পিতার সামনে সঞ্জয়কে ইট,লোহার হাতুড়ি ও টর্চ লাইট দিয়ে পিটিয়ে তার মাথা থেতলে দেয়। তাৎক্ষণিক তার পরিবারের লোকেরা সঞ্জয়কে উদ্ধার করে তালা হাসপাতালে ভর্তি করে। এব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে সঞ্জয়ের পক্ষে থানায় মামলা করতে ওসি’র কথা বলে স্থানীয় ইউপি সদস্যের এক সাগরেদ ঘোষ নগরের জনৈক মিঠু সঞ্জয়ের পিতা বিষ্টু পদ দাশের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা নিলেও অদ্যবধি কোথাও কোন মামলা করেনি। সার্বিক ঘটনায় এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ