ফুলতলায় স্বরস্বতীর মূর্তির মাথা কাটার কথা আদালতে স্বীকার করেছে অনিক

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি// ফুলতলা এম এম কলেজ সার্বজনীন পূজা মন্দিরের দেবী স্বরস্বতীর মূর্তির মাথা কেটে নেয়ার সময় হাতে নাতে আটক অনিক মন্ডল আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে। এলাকায় শান্তি শৃংঙ্খলা বজায় রাখতে শনিবার বিকালে মন্দির চত্ত¡রে কমিউনিটি বিট পুলিশের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নিরঞ্জন কুমার রায় বলেন, ফুলতলা এম এম কলেজ সার্বজনীন পূজা মন্দিরে স্বরস্বতী মূর্তির মাথা কেটে নেয়ার ঘটনায় থানায় দায়েরকৃত মামলায় আটক অনিক মন্ডলকে শনিবার দুপুরে খুলনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নয়ন বিশ্বাস এর আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় আসামী অনিক মন্ডল দেবীর মাথা কেটে নেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে। পরে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। এদিকে এলাকায় শান্তি শৃংঙ্খলা বজায় রাখতে শনিবার বিকালে মন্দির চত্ত¡রে কমিউনিটি বিট পুলিশের উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধা সুবোধ কুমার বসুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওসি মোঃ ইলিয়াস তালুকদার, হিন্দু মহাজোটের জেলা সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক প্রশান্ত কুন্ডু, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি গৌতম কুন্ডু, সাধারণ সম্পাদক সনজিৎ বসু, অজয় সাহা, ইউপি সদস্য জিএম ইমদাদুল হক মিটুল, ডালিয়া বেগম, রায়হান সরদার প্রমুখ। প্রসঙ্গতঃ শুক্রবার দুপুরে ফুলতলা এম এম কলেজ সার্বজনীন পূজা মন্দিরের দেবী স্বরস্বতীর মূর্তির মাথা কেটে নেয়ার সময় হাতে নাতে আটক হয় অনিক মন্ডল। সে যশোর অভয়নগর উপজেলার ধুলগ্রামের অসীম মন্ডলের পুত্র।