বেনাপোলে চায়ের দোকানের অন্তরালে মাদকের রমরমা ব্যাবসা

বেনাপোলঃ বেনাপোল পোর্টথানার মাদক এলাকা বলে খ্যাত বারোপোতা বাজারে চায়ের দোকানের পাশাপাশি কুতুব উদ্দিন ওরপে রাসেল (৩৫) ফেনসিডল ব্যবসা করে বলে একাধিক অভিযোগ পাওয়া গেছে। রাসেল বেনাপোল পোর্ট থানার মহিষাডাঙ্গা গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে। সুত্র জানায়, ভারত থেকে চোরাকারবারিরা ফেনসিডিল এনে রাসেলের মাধ্যমে পাইকারি ও খুচরা বিক্রি করে থাকে। এলকার উঠতি বয়সের ছেলেরা বারোপোতা যেয়ে তার দোকান থেকে ফেনসিডিল কিনে সে গুলো পথে দাঁড়িয়ে সেবন করে চলে আসে। তবে বেশীর ভাগ লোক মোটরসাইকেল যোগে যেয়ে দ্রুত ফেনসিডিল নিয়ে পুলিশের ভয়ে সেখান থেকে সিটকে পড়ে। নির্ভরযোগ্য সুত্র জানায়, রাসেল নামে মাত্র চায়ের দোকান চালায় আসলে চায়ের দোকানের পাশে তার প্রধান ব্যবসা ফেনসিডিল। সে তার বাড়ির আশে পাশে ও বিভিন্ন গোপন জায়গায় ফেনসিডিল লুকিয়ে রাখে। খরিদ্দার আসলে সে এবং তার সাথে থাকা সাগরেদরা ফেনসিডিল এনে খরিদ্দারদের হাতে তুলে দেয়। আর দুর দুরান্ত থেকে আসা পাইকার খরিদ্দাররা তার নিকট থেকে ফেনসিডিল ক্রয় করে তাদের গন্তব্য নিয়ে যায় বলে সুত্র দাবি করে। প্রত্যাক্ষদর্শীরা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, রাসেলের সাথে বারোপোতা এলাকার রাঘব বোয়ালরা ফেনসিডিল ব্যবসার সাথে জড়িত। এ ব্যাপারে রাসেলের সাথে কথা বললে সে বিষয়টি অস্বীকার করে।

আপনার মতামত জানানঃ