যশোরে ওয়াজ মাহফিলকে কেন্দ্র করে দু’ যুবক জখম

যশোর: যশোর শহরের লোহাপট্টিতে ওয়াজ মাহফিল করতে নিষেধের প্রতিবাদ করায় সন্ত্রাসীদের হাতে প্রহৃত দুই যুবক চরমভাবে নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে। আসামীরা মারপিট করে উল্টো থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করেছে। হামলার ঘটনায় সন্ত্রাসীদের হাতে আহত পারভেজ হোসেন কোতয়ালি মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। সে শহরের গাড়ীখানা রোডের আওয়ামীলীগ অফিসের পিছনে মৃত রজব উদ্দিন আহম্মেদের ছেলে। আসামীরা হচ্ছে,শহরের শংকরপুর গোলপাতা মসজিদ পাড়ার মৃত আল আমিন সরদারের ছেলে লোকমান হোসেন,আব্দুর রব,লোকমান হোসেনের ছেলে রাকিব,আব্দুর রবের ছেলে বাবু ও মান্নান হাওলাদারের ছেলে রুবেল হাওলাদারসহ অজ্ঞাতনামা ৪/৫জন।

পারভেজ হোসেন দায়েরকৃত এজাহারে বলেছেন, গত ১০ ফেব্রুয়ারী রাতে শহরের লোহাপট্টি মহল্লাবাসীর উদ্যোগে ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ওয়াজ মাহফিল করতে আসামীরা বাধা নিষেধ করা নিয়ে আসামীদের সাথে বিরোধ সৃষ্টি হয়। পরের দিন ১১ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা আনুমানিক ৭ টায় পারভেজ হোসেন ও তার বন্ধু গোহাটা রোডস্থ লোহাপট্টির আমজাদ হোসেনের ছেলে শাহরিয়ার হোসেন জনি লোকমান হোসেনের আলেয়া আয়রণ ষ্টোরের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় পূর্ব শত্রুতার কারণে পরিকল্পিতভাবে তাদের দু’জনের উপর হামলা চালায়। তাদের পথের গতিরোধ করে এলোপাতাড়ীভাবে মারপিট করার এক পর্যায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ ও  রড দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। এতে দু’জন গুরুতর আহত হয়। পারভেজ হোসেনকে মারপিট করে তার কাছে থাকা ব্যবসায়ীক নগদ ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের দু’জনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদিকে আসামীরা হামলা চালিয়ে পুলিশের ভয়ে নিজেরা মিথ্যা আক্রমন সাজিয়ে কোতয়ালি মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। আক্রমনে জনির চোখে ৪টি সেলাই ও পারভেজকে ভর্তি হতে হয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ