মোংলায় জালে আটকে পড়া অজগর উদ্ধার

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : মোংলায় এক নারী জেলের মাছ ধরার জালে আটক হয়েছে সুন্দরবনের একটি অজগর সাপ। সাপটি সুন্দরবনে অবমুক্ত করা হয়েছে। বুধবার সকালে মোংলার সুন্দরবনরে পশুর নদীর চিলা এলাকায় রেশমা বেগম নামের এক নারীর জেলের জালে আটকে পড়ে অজগরটি। পরে খবর পেয়ে বনকর্মকর্তারা অজগরটি উদ্ধার করে সুন্দরবনরে করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে অবমুক্ত করেন।
করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজাদ কবির জানান, বুধবার সকালে নদীতে মাছ ধরার সময় হঠাৎ জাল আটকা পড়ে অজগরটি। এরপর জেলে রেশমা বেগম বিষয়টি স্থানীয়দের জানান। স্থানীয়রা সাপ ধরা পড়ার বিষয়টি বনবিভাগকে জানালে তারা এসে সাপটি উদ্ধার করে নিয়ে যায়।
প্রায় ৮ ফুট দৈর্ঘ্যের এ সাপটি পশুর নদীর স্রোতের টানে সুন্দরবন থেকে লোকালয়ের দিকে ভেসে যাওয়ার সময় জালে আটকা পড়ে।

বটিয়াঘাটায় সার ও বীজ মনিটরিং কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি : বটিয়াঘাটা উপজেলা সার ও বীজ মনিটরিং কমিটির এক সভা বুধবার বিকাল চারটায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে তাঁর নিজস্ব অফিস কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। কৃষি কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ বঙ্কিম কুমার হালদার,সি: মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মনিরুল ইসলাম,পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা নারায়ন চন্দ্র সরকার, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আবু বক্কর,উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতির পক্ষে সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, এস আই আব্দুল আজিজ প্রমূখ।

ডুমুরিয়ায় গৃহবধূ হুমাইয়ারা’র মৃত্যু নিয়ে তোলপাড়

সুজিত মল্লিক, ডুমুরিয়া (খুলনা) : ডুমুরিয়ার পল্লীতে কথিত বিষপানে নিহত গৃহবধু হুমাইয়ারা বেগমের মৃত্যু’র বিষয়টি কোন ভাবেই মানতে পারছে না তার পরিবার। স্বামী ফরহাদ ও শ্বশুর-শ্বাশুড়ীর নির্যাতনেই সে মারা গেছে বলেই অভিযোগ করছে স্বজন ও প্রতিবেশীরা। যা নিয়ে এলাকায় চলছে ব্যাপক তোলপাড়।
নিহতের পরিবার সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার শরাফপুর ইউনিয়নের বৃত্তি ভুলবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুর রহমান শেখের মেয়ে হুমাইয়ারা বেগমের (২৫) মৃত্যু নিয়ে উঠেছে নানা অভিযোগ। গত ৩রা এপ্রিল শনিবার রাতে খুমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। তবে তার এই মৃত্যু’কে কোন ভাবেই মানতে পারছে না তার পরিবার। ক্রমেই ফুঁসে উঠছে স্বজনসহ প্রতিবেশীরা। স্বামী ফরহাদ ও শ্বশুর-শ্বাশুড়ীর বিচারের দাবিতে হয়ে উঠছে সোচ্ছার। এ বিষয়ে নিহত হুমাইয়ারা বাবা আব্দুর রহমান শেখ বলেন, প্রায় ১০ বছর পূর্বে প্রতিবেশী সুফি সরদারের ছেলে ফরহাদ সরদারের (৩০) সাথে আমার মেয়ের বিয়ে হয়। বিয়ের আগে ওদের মধ্যে প্রেমজ সম্পর্ক থাকায় ওই বিয়েতে আমি রাজি হই। ওদের দাম্পত্য জীবনও ছিল বেশ সুখের। সাভারের নবীনগর-চারাবাগ এলাকায় একটি গার্মেন্টসে দু’জনে কাজ করতো। ওদের কোল জুড়ে ফাহমিদা (৯) নামের একটি মেয়েও আছে। সবকিছু নিয়ে মুটামুটি ভাবে চলছিল ওদের সংসার। কিন্তু সমস্যা বাধে জামাই ফরহাদের চলাফেরায়। বছর তিনেক আগে সে অন্য আরেকটি নারীর সাথে প্রেমজ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি হুমাইয়ারা টের পেয়ে যায়। তখন ফরহাদ কৌশল করে করোনার কথা বলে ওদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। সেই থেকে প্রায় ১১ মাস ধরে ওরা এখানে আছে। কিন্তু এরমধ্যে ফরহাদ বাড়িতে আসে না। অনেক বার তাকে ফোন করেছি, মেয়েটিও তাকে বার বার অনুরোধ করেছে তাও আসেনি। এক পর্যায়ে গত ৩০ মার্চ সন্ধ্যায় সে বাড়িতে আসে। তার বাড়ি আসাতে ভেবেছিলাম এবার হয়তো মেয়েটি সুখের সংসার করতে পারবে না। কিন্তু তা আর হল না। ওদের অত্যাচারে মেয়েটি অবশেষে দুনিয়া ছেড়ে চলে গেলো। ঘটনার বর্ণনা করে তিনি বলেন, সেদিন ছিল শনিবার। রাত ৯টার পরেই শুরু হয় নির্যাতন। ফরহাদ ও তার বাবা সুফি, মা রনজিদা বেগম পর্যায়ক্রমে করে মারপিট। রাত সাড়ে ১১টায় শুনতে পাই হুমাইয়ারা বিষ খেয়েছে। ছুটে গিয়ে দেখি সে উঠানে পড়ে আছে। তারপর গাড়িতে করে প্রথমে ডুমুরিয়ায় ও পরে খুলনার হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত দুইটার দিকে ডাক্তার বলে সে মারা গেছে। পরদিন মরদেহ বাড়িতে এনে আমাদের পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করি।
এ বিষয়ে নিহতের চাচা আবদুল্লাহ বলেন, নিহত হুমাইয়ারাকে গোসল করানোর সময় শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। মাটি দেওয়ার সময়ও তাদের পাওয়া যায়নি। হুমাইয়ারার মৃত্যু’র খবর পেয়ে ফরহাদ ও তার পিতা সুফি সরদার গা ঢাকা দিয়েছে। সবকিছু ভেবে, এখন আমরা নিশ্চিত তাকে মেরে ফেলা হয়েছে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান খান বলেন, হুমাইয়ারার মৃত্যুটা বিষপানে হয়েছে এটা বলা যাচ্ছে না। ওদের কার্য কালাপে বোঝা যাচ্ছে, তাকে নির্যাতন করে মেরে মুখে বিষ তুলে দেওয়া হয়েছে।
বিষয়টি নিয়ে ডুমুরিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ওবাইদুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় নগরীর সোনাডাঙ্গা থানায় একটি অপমৃত্যু’র জিডি করা হয়েছে বলে শুনেছি। তবে ডুমুরিয়ায় থানায় এখনো পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ কনিরি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শ্যামনগরে হরিণের চামড়া উদ্ধার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে সদ্য জবাই করা একটি হরিণের লবণ মাখানো টাটকা চামড়া উদ্ধার করেছে বনকর্মীরা। বুধবার সকালে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার খোসালখালি গ্রামের আসগর আলির বাড়ির পাশে রাস্তা থেকে চামড়াটি উদ্ধার করা হয়।
কদমতলি ফরেস্ট স্টেশন অফিসার আবু সাঈদ জানান, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তিনি তার সহকর্মীদের নিয়ে খোসালখালি গ্রামে অভিযান চালিয়ে রাস্তার পাশ থেকে পলিথিনে জড়ানো চামড়াটি জব্দ করেন। এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি বলে জানান তিনি। তিনি অঅরো জানান, এ ব্যাপারে বন আইনে একটি মামলা হয়েছে শ্যামনগর থানায়।

দিঘলিয়া নারীর মৃতদেহ উদ্ধার

ওয়াসিকরাজিব, দিঘলিয়াঃ দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটী পুলিশ ফাড়ি সংলগ্ন ভৈরব নদীর ঘাটে একজন মহিলার মৃত দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত দেহ সম্পর্কে এখনো কোন তথ্য পাওয়া যায় নি।
স্থানীয়রা জানান বুধবার সকাল ৯টার দিকে তারা নদীর ঘাটে কাজ করতে গেলে মহিলার মৃত দেহটি পানিতে ভাসতে দেখে তৎক্ষনাত পুলিশকে খবর দেয়।ঘটনাস্থলে সেনহাটি পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ নিপুন বোস পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে স্হানীয়দের সহায়তায় নদীর পাড়ে তোলে।মৃত মহিলার পরিচয় এখন পাওয়া যায়নি বলে জানায় পুলিশ সূত্র ।

বটিয়াঘাটার জলমা ইউনিয়নে প্রধানমন্ত্রীর “শুভেচ্ছা উপহার” বিতরণ

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি : জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ হেলাল হোসেন বলেছেন, করোনার প্রকোপে লকডাউন চলাকালীন কর্মহীন ও দুঃস্হ মানুষের যাতে সংসার চালাতে হিমশিম না খেতে হয় সে লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। আজ থেকে জেলার নয়টি উপজেলায় একযোগে এ উপহার পৌঁছে দেওয়ার কর্মসূচীর উদ্ভোধন করা হচ্ছে। তিনি গতকাল বুধবার বটিয়াঘাটার জলমা ইউনিয়নের করোনা কালীন লকডাউনে কর্মহীন,দুঃস্থ, ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০ পরিবারকে জনপ্রতি ১ হাজার টাকা করে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর ” শুভেচ্ছা উপহার” বিতরণ কালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। বুধবার বেলা ১১ টায় সরকারি স্বাস্থ্য বিধি মেনে নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক ও এডিএম) মোঃ ইউসুফ আলী, উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আশরাফুল আলম খান, ভাইস চেয়ারম্যানদ্বয় নিতাই গাইন ও চঞ্চলা মন্ডল। সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল হাই সিদ্দিকী এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বিতরণী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ এমদাদুল হক, ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আশিকুজ্জামান আশিক, উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, কোষাধ্যক্ষ মোঃ মনিরুজ্জামান, ইউপি সদস্য যথাক্রমে আলহাজ্ব বাবুল হোসেন, বিপ্রদাস টিকাদার কার্তিক, আলহাজ্ব মোঃ লিটন, তরিকুল ইসলাম, দেবব্রত মল্লিক,নিভানন গোলদার, তপতী বিশ্বাস,বলি রাণী রায় সহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও উপকারভোগীরা । পর্যায়ক্রমে বটিয়াঘাটা উপজেলার ৭ টি ইউনিয়ন ও জেলার সকল উপজেলায় এ কার্যক্রম পরিচালিত হবে বলে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক জানান ।