অসহায় মানুষের জন্য কাজ করতে চায় চেয়ারম্যান প্রার্থী মফিজ

রাজীব চৌধুরী, কেশবপুর : গরিব, অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করতে চায় আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী কেশবপুর সদর ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মফিজুর রহমান মফিজ। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে কেশবপুরে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীরা আগে থেকেই প্রচার প্রচারনায় নেমেছেন।তারই ধারাবাহিকতায়০৬ নং কেশবপুরের সদর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে গণসংযোগ করে চলেছেন কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মফিজুর রহমান মফিজ।গণ সংযোগ করে তিনি সকলের দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেন।আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এলাকায় চলছে নানা ধরনের আলোচনা- পর্যালোচনা।ইউনিয়ন বাসীর মধ্যে অনেকেই বলেন মফিজ একজন মিষ্টভাষী, পরোপকারী ব্যক্তি।তার মত একজন মিষ্টভাষী ও পরোপকারী ব্যক্তিকে এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে প্রয়োজন।আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমরা মফিজ কে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই এবং ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে জয়ের মালা পরাতে চাই।এক প্রতিক্রিয়ায় সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী মফিজ বলেন এই ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত গরীব, অসহায় মানুষের পাশে পূর্বেও ছিলাম এবং আগামীতেও পাশে থেকে কাজ করতে চাই।

বটিয়াঘাটার জলমা ইউনিয়নে নৌকার মাঝি বিধান চন্দ্র রায়

ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, বটিয়াঘাটা : বটিয়াঘাটায় ৪র্থ ধাপে ইউপি নির্বাচনে ১নং জলমা ইউনিয়নের আ’লীগের মনোনীত নৌকা মাঝি হলেন জলমা ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিধান চন্দ্র রায় । গত কয়েকদিন যাবৎ জলমা ইউনিয়নে উপজেলা পর্যায়ে আ’লীগ, ইউনিয়ন আ’লীগ ও অঙ্গসংগঠনের পদাসীন নেতা- কর্মী দলীয় মনোনয়ন পেতে দলীয় মনোনয়ন কিনেছেন । জলমা ইউনিয়ন থেকে আ’লীগের নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে যে সকল নেতারা দলীয় ফর্ম ক্রয় করে কেন্দ্রে দৌড় ঝাঁপ করছিলেন তারা হলেন, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বিগত বাবের নৌকার প্রার্থী অনুপ গোলদার, উপজেলা আ’লীগের সদস্য বিশিষ্ট দানবীর ও সমাজ সেবক আলহাজ্ব আসলাম তালুকদার, ৭ নং ওয়ার্ড আ’লীগ সদস্য ও সাবেক ছাত্রনেতা নারায়ন চন্দ্র রায় ও উপজেলা যুবলীগের সদস্য উদীয়মান তরুণ প্রজন্মের নেতা রথীন্দ্রনাথ রায় । তবে সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে আজ রবিবার বেলা সাড়ে ১২ টায় জলমা ইউনিয়নের নৌকার মাঝি হিসেবে বিধান চন্দ্র রায় এর নাম ঘোষনা করেন আ’লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির মনোনয়ন বোর্ডের নেতারা । অন্যদিকে এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে আ’লীগের নেতা কর্মীদের মধ্যে নতুন ইমেজ তৈরি হয়েছে । উৎসুক নেতা কর্মীরা ইউনিয়নের বিভিন্ন বাজার ও জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে মিষ্টি বিতরণ শুরু করেছে । সব মিলিয়ে উপজেলার জলমা ইউনিয়নে এখন নির্বাচনী উৎসবের আমেজ পুরো দমে বইতে শুরু করেছে ।