জ্বালানি তেলের দাম বাড়ল, রাতেই কার্যকর (ভিডিও)

ইউনিক ডেস্ক : বাংলােদেশে জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়েছে সরকার। বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে দেশের বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। আজ (শুক্রবার) রাত ১২টা থেকে এটি কার্যকর হবে।

নতুন দাম অনুযায়ী- প্রতি লিটার ডিজেল ৮০ টাকা থেকে ৩৪ টাকা বেড়ে ১১৪ টাকা, কেরোসিন ৩৪ টাকা বেড়ে ১১৪ টাকা, অকটেন ৪৬ টাকা বেড়ে ১৩৫ টাকা এবং পেট্রল ৪৪ টাকা বাড়িয়ে ১৩০ টাকা করা হয়েছে।

শুক্রবার রাত ১০টায় বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপপ্রধান তথ্য অফিসার মীর মোহাম্মদ আসলাম উদ্দিন স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সর্বশেষ ২০২১ সালের ৪ নভেম্বর ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বাড়ানো হয়। সেই সময় এই দুই জ্বালানির দাম লিটারপ্রতি ৬৫ টাকা থেকে ১৫ টাকা বাড়িয়ে ৮০ টাকা করা হয়। ৮ মাসের ব্যবধানে আবার বাড়ানো হলো তেলের দাম। তবে ওই সময় পেট্রল আর অকটেনের দাম অপরিবর্তিত রাখা হয়েছিল। এবার সব ধরনের জ্বালানি তেলেরই দাম বাড়ানো হলো।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য বাংলাদেশের তুলনায় অনেক বেশি হওয়ায় বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি), ইস্টার্ন রিফাইনারি লিমিটেড (ইআরএল)-এ পরিশোধিত এবং আমদানি/ক্রয়কৃত ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন ও পেট্রলের মূল্য সমন্বয় করে ভোক্তা পর্যায়ে এই দাম পুনঃনির্ধারণ করা হলো।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের উর্ধ্বগতির কারণে পার্শ্ববর্তী দেশসহ বিভিন্ন দেশে নিয়মিত তেলের মূল্য সমন্বয় করা হয়। ভারত গত ২২ মে থেকে কলকাতায় ডিজেলের মূল্য প্রতি লিটার ৯২ দশমিক ৭৬ রুপি এবং পেট্রল ১০৬ দশমিক ০৩ রুপি নির্ধারণ করেছে।এই মূল্য বাংলাদেশি টাকায় যথাক্রমে ১১৪ দশমিক ০৯ টাকা এবং ১৩০.৪২ টাকা (১ রুপি = ১.২৩ টাকা ধরে)। অর্থাৎ বাংলাদেশে কলকাতার তুলনায় ডিজেলের মূল্য লিটার প্রতি ৩৪ দশমিক ০৯ এবং পেট্রল লিটার প্রতি ৪৪ দশমিক ৪২ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছিল। তাই সংশ্লিষ্টরা বলছেন, তেল পাচার হওয়ার আশঙ্কা থেকেও জ্বালানি তেলের মূল্য বাড়ানো ছিল সময়ের দাবি।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন বিগত ছয় মাসে (২২ ফেব্রুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত) জ্বালানি তেল বিক্রয়ে (সব পণ্য) ৮০১৪ কোটি ৫১ লাখ টাকা লোকসান দিয়েছে। বর্তমানে, আন্তর্জাতিক তেলের বাজার পরিস্থিতির কারণে বিপিসির আমদানি কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখতে যৌক্তিক মূল্য সমন্বয়ও অপরিহার্য হয়ে পড়েছিল।

 

আজই রাজধানীর বারিধারায় গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ তেলের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।তিনি বলেন, ‘যেহেতু বিশ্ববাজারে জ্বালানির দাম ঊর্ধ্বমুখী, সেই জায়গায় আমাদের খুব চিন্তাভাবনা করতে হবে। এটার সরাসরি প্রভাব পড়ে জনগণের ওপর। ডিজেল, পেট্রল, অকটেন- এগুলো যেন একটা সহনীয় পর্যায়ে থাকে। দেশ ও দশের কথা চিন্তা করে আমরা একটা অ্যাডজাস্টমেন্টে যাব।’

এ সময় তিনি বিশ্ব বাজারের সঙ্গে মিল রেখে প্রয়োজন অনুযায়ী নিয়মিতভাবে জ্বালানির দাম সমন্বয় করার পক্ষে মত দিয়ে বলেন, ‘যদি বাড়তির দিকে থাকে, তবে বাড়তি, যদি কমতির দিকে থাকে তাহলে কমতির দিকে। এখন যেহেতু বাড়তির দিকে, তাই পার্শ্ববর্তী দেশ ও বিশ্বের অবস্থা বিবেচনায় একটা অ্যাডজাস্টমেন্ট হওয়া উচিত। যদি বিশ্ববাজারে দাম কমে আসে, আমরাও চেষ্টা করব সেই অনুযায়ী দাম কমাতে।’

ফুলতলায় আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের জন্মদিন পালিত

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি// বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন কামালের ৭৩ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ফুলতলায় বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে ফুলতলা উপজেলা আওয়ামীলীগ। এ উপলক্ষে সন্ধ্যায় ফুলতলা উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ শেখ আকরাম হোসেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মৃনাল হাজরার পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আশরাফ হোসেন আশু, মোঃ আসলাম খান, আবু তাহের রিপন, কামরুজ্জামান নান্নু, কে এম জিয়া হাসান তুহিন, ইউপি চেয়ারম্যান শরীফ মোহাম্মদ ভুইয়া শিপলু, ইসমাইল হোসেন বাবলু, আলী আজম মোহন, সাহিদা ইসলাম নয়ন, শহিদুল্লাহ প্রিন্স, আশরাফুল আলম কচি, এস কে মিজানুর রহমান, রবীন বসু, রেক্সনা আজম, আঃ হাই সরদার, নাসরিন সুলতানা, ইকতিয়ার উদ্দিন সুমন প্রমুখ।

আটোয়ারীতে শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী পালিত

মনোজ রায় হিরু, আটোয়ারী : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জৈষ্ঠ্য পুত্র মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ শেখ কামালের ৭৩ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৫ আগষ্ট সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মকলেছুর রহমানের সঞ্চালনায় আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ এমদাদুল হক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জামিলুর রেজা মানিক, সদস্য সাংবাদিক মনোজ রায় হিরু, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি মোঃ কামরুজ্জামান গোলাপ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ জয়নুল হক কোহিনূর, উপজেলা আওয়ামী যুব লীগের যুগ্ন আহবায়ক মোঃ সেলিম মোর্শেদ মানিক, এ্যাড.আ.ফ.ম ফরহাদ হোসেন, জেলা স্বেচ্ছা সেবক লীগের সদস্য মোঃ খায়রুল ইসলাম প্রমূখ। আলোচনা সভা শেষে শেখ কামালের স্মরণে মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

পলাশবাড়ীতে শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের জন্মদিন পালিত

আশরাফুল ইসলাম, গাইবান্ধা : গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের জন্মদিন উদযাপনে অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল , আগস্টে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের শাহাদত বরণকারী সদস্যগণ সহ সকল শহীদের আত্মার মাাগফেরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম আলহাজ মোস্তাজিুর রহমান রাজা। পরে আজ ৫ আগস্ট শুক্রবার সকালে এ উপজেলা পরিষদের টাউন হলরুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত উপলক্ষে হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুজ্জামান নয়নের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ একেএম মোকসেদ চৌধুরী বিদ্যুৎ।
সভায় আরো বক্তব্য রাখেন পৌর মেয়র গোলাম সরোয়ার প্রধান বিপ্লব,উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি উপাধ্যক্ষ শামিকুল ইসলাম সরকার লিপন, সহ সভাপতি অধ্যক্ষ সাইফুল্যার রহমান চৌধুরী তোতা, থানা অফিসার ইনচার্জ মাসুদ রানা, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপন,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ারা বেগম, উপজেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা আফতাব হোসেন, রিপোটার্স ইউনিটির সভাপতি আশরাফুল ইসলাম, মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবিনা ইয়াসমিন ঝুনু,যুব মহিলালীগ সভাপতি কল্পনা বেগম,স্টুডেন্ট কেয়ার স্কুল এন্ড কলেজ এর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আব্দুল্লা আল মামুনসহ অন্যান্যারা। এসময় উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ,বিভিন্ন রাজনৈতিক,সামাজিক,পেশাজীবী ,সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ,শিক্ষক- শিক্ষার্থী,পৌর কর্মকর্তা ও কর্মচারী, স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য,সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী ,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জৈষ্ঠ পুত্র বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল। ১৯৪৯ সালের ৩ আগস্ট টুঙ্গিপাড়ায় জন্ম গ্রহন করেন এবং ধানমন্ডি ৩২ নাম্বারের বাসায় ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ সালে ঘাতকের নির্মম গুলিতে পরিবারের সদস্যদের সাথে শাহাদত বরণ করেন।

আটোয়ারীতে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধা নিহত

মনোজ রায় হিরু, আটোয়ারী : পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় জমেলা খাতুন (৬০) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার তোড়িয়া-গুঞ্জরমারী সড়কের বর্ষালুপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।
নিহত জমেলা খাতুন কোনপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল এর স্ত্রী। তিনি পাঁচ সন্তানের জননী।
আটোয়ারী থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ দুলাল উদ্দিন জানান, চারজন মহিলা একসাথে বাড়ী থেকে গুঞ্জরমারী বাজারে ঔষধ কেনার জন্য যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে আবু তাহের এর বাড়ির সামনে এলে পিছন দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলের ধাক্কা লাগে। এসময় রাস্তার উপরে ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন জমেলা খাতুন। স্থানীয়রা দ্রুত তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জমেলাকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে মোটরসাইকেল সাইকেল চালক আটোয়ারীর তোড়িয়া ইউনিয়নের বোধগাঁও খ্রিস্টানপাড়া গ্রামের জনৈক মৃতঃ হরিমোহনের পুত্র জগেশ্বরকে এলাকাবাসী আটক করলেও অদৃশ্য কারনে তাকে ছেড়ে দিয়েছেন মর্মে অভিযোগ রয়েছে।
বৃদ্ধার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ঠাকুরগাঁওয়ে গাড়ির শব্দে আতঙ্কিত নারীরা

জয় মহন্ত অলক ঠাকুরগাঁও : গাড়ির শব্দ পেলেই বুক কেপে উঠে এলাকার নারীদের। আতঙ্ক ও ভয়ে দিন কাটছে বলে জানান ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলার বাচোঁর ইউনিয়নের ভাংবাড়ি মহেশপুর গ্রামের নারীরা।

প্রায় পাঁচ বছর আগে নদী ভাঙনে বাড়ি-ঘর জমি জায়গা সব বিলীন হয়ে যায় সবুরা খাতুন (৫০)। নদী ভাঙ্গনে নিঃশ্ব হয়ে বগুড়া থেকে স্বামী সন্তান নিয়ে চলে আসেন রাণীশংকৈলের মহেশপুরে।

পাঁচ সদস্যদের পরিবারের একমাত্র উপার্যনক্ষম ব্যক্তি স্বামী বেল্লাল হোসেন। দিনমুজুরি আয়ে সংসার চলে তাদের।

কিন্তু গেল ২৭ জুলাই ইউপি নির্বাচনী সহিংসতায় ভাংবাড়ি ভিএফ নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রে পুলিশের গুলিতে সুরাইয়া আক্তার নামে সাত মাস বয়সী শিশু নিহত হয়। এ ঘটনায় অজ্ঞতনামা আটশ জনের নামে মামলা হওয়ায় স্বামী ও সন্তান গ্রেপ্তার আতঙ্ককে ঘর ছাড়া।

বর্তমানে বাড়িতে পুরুষ মানুষ না থাকায় বৃদ্ধা সবুরার দিন কাটছে আতঙ্কে। সবুরা খাতুনের অভিযোগ, এখানকার ভোটার না হয়েও আমার স্বামী-সন্তান গ্রেপ্তারের ভয়ে পালিয়ে বেড়াতে হচ্ছে। বাড়িতে খাওয়ার মতো চাল ডাল কিছুই নেই।

অন্যদিকে সবুরা খাতুনের মতো নদী ভাঙনে নিঃশ্ব হয়ে কয়েক বছর আগে হাতিবান্ধা থেকে স্বামী-সন্তান নিয়ে মহেশপুর গ্রামে বসবাস শুরু করেন সখিনা আক্তার। ভ্যানগাড়ি চালিয়ে তার স্বামী যা আয় রোজগার করেন তা দিয়েই চলতো সংসার।

সখিনা আক্তার কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, নির্বাচনী সহিংসতায় বর্তমানে পরিবারের একমাত্র উপার্যনক্ষম ব্যক্তি গ্রেপ্তারের আতঙ্কে পালিয়ে থাকায় অনাহারে থাকতে হচ্ছে সখিনা আক্তারকে।

মারামারি করলো ভোটে অংশ নেয়া ব্যক্তিরা আর শাস্তি ভোগ করতে হচ্ছে আমাদের মতো দিনমুজুর গরিবদের। একদিন ভ্যাগ না চালালে যেখানে চুলা জ্বলেনা। সেখানে স্বামী পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তাহলে কতটা ভালো আছি বলার অপেক্ষা নেই।

সখিনা আক্তারের পাশে বসে থাকা পঞ্চান্ন বছর বয়সী নারী রুবিনা বেগম অঝরে কান্না করছিলেন। স্বামী দিনমুজুর সিরাজুল ইসলাম ও ছেলেরা আজ কয়েকদিন থেকে বাড়িতে থাকতে পাচ্ছেন না যদি পুলিশ এসে ধরে নিয়ে যায় এই ভয়ে।

কান্না যেন থামছেইনা রুবিনা বেগমের।
তিনি জানায়, বাড়ির পাশে ভোট কেন্দ্রটি আনাতেই আমাদের উপর বিপদ নেমে আসলো। আজ কয়েকদিন হলো আমার স্বামী বাড়িতে নেই। ছেলেদের কোন খোজ নেই। আমার বাপের জন্মেও এমন ঘটনা দেখিনি।

আল্লাহর কাছে বলছি এর থেকে মৃত্যুই অনেক ভালো। আমরা নদী ভাঙালোক। অনেক কষ্ট করে সন্তানদের বড় করেছি। এখন যে এখান থেকে চলে যাবো তারও কোন অবস্থা নেই। কিস্তি চালাতে পারছি না। চিকিৎসা করার টাকা নাই। খাবার টাকা নাই।

বিপদের মধ্যে দিন কাটছে
কথা হয় একই এলাকার সালেহা আক্তারের সাথে। পুলিশের ভয়ে তার স্বামী পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। দুই শিশু সন্তান নিয়ে কষ্টে দিন কাটছে সালেহার। পুলিশ যদি তার স্বামীকে ধরে নিয়ে যায় এ ভয়ে কোথাও কাজ করতে পারে না।

বড় ছেলের জ্বর টাকার অভাবে ওষুধ কিনতে পারেন না। মায়ের কাছে ২০০ টাকা নিয়ে সন্তানের ওষুধ ও বাজার করেছেন তিনি। এভাবে আর কত দিন থাকতে হবে প্রশ্ন রাখেন সালেহা।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, সহিংসতার ঘটনায় তিনটি পৃথক মামলা হয়েছে।

এতে ভাংবাড়ি ভিএফ নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের দায়িত্বরত প্রিসাইডিং কর্মকর্তা খতিবর রহমান একটি ও থানার দুই সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) বিলাশ চন্দ্র রায় ও আহাদুজ্জামান বাদী হয়ে দু’টি মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় কারো না উল্লেখ্য নেই অজ্ঞাত আটশ জনের বিরুদ্ধে। তবে এ মামলায় নির্দোষ কাউকে হয়রানী করা হবে না।

উল্লেখ্য, নিহত সুরাইয়াকে নিয়ে মা মিনারা বেগম রাণীশংকৈল উপজেলার বাচোঁর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ভাংবাড়ি ভিএফ নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে ভোটের ফলাফল দেখতে যান ।

সেখানে ভোটে ফলাফলকে কেন্দ্র করে পরাজিত ইউপি সদস্য সমর্থকদের সাথে আইনসৃংখলাবাহিনীর সংর্ঘষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের পুলিশ গুলি ছুড়লে গুলিবিদ্ধ হয়ে শিশু সুরাইয়া আক্তার নিহত হয়।

ফুলতলায় শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের জন্মদিন পালিত

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি// বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন কামালের ৭৩ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ফুলতলায় বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে উপজেলা প্রশাসন। এ উপলক্ষে শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলা পরিষদ সভা কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন। যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা এস এম কামরুজ্জামানের সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ফারজানা ফেরদৌস নিশা, সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) দিপা রানী সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মৃনাল হাজরা, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার এম নাজমুস সাকিব শাহীন, ভেটেরিনারী সার্জন ডাঃ তৌহিদুল ইসলাম, সমাজসেবা কর্মকর্তা শাহীন আলম, ইউপি চেয়ারম্যান শরীফ মোহাম্মদ ভুইয়া শিপলু, বীজ কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসেন, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফাতেমা বেগম, প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মুহা. আবুল কাশেম, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সেলিনা খাতুন, আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা সালমা খাতুন, মেরিন ফিশারিস অফিসার কচি খানম, সহকারী প্রোগ্রামার পুষ্পেন্দু দাস, প্রসক্লাব সভাপতি তাপস কুমার বিশ্বাস, সহকারী অধ্যাপক মোঃ নেছার উদ্দিন প্রমুখ। পরে উপজেলা চত্বরে শহীদ শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। এছাড়া বাদ জুম্মা উপজেলা জামে মসজিদে শহীন ক্যাপ্টেন শেখ কামালের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।