শৈলকুপায় আওয়ামী লীগের দু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ : আহত – ৫

শৈলকুপা, ঝিনাইদহ : শৈলকুপায় আধিপত্য বিস্তার করা কে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার ব্রাহীমপুর গ্রামে ¯ে^চ্ছা সেবক লীগের সভাপ্রতি মিজানুর রহমান বাবুল ও উমেদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি চেয়ারম্যান সাব্দর হোসেন মোল্লার সমর্থকদের মধ্যে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। তার জের ধরে বাবুলের সমর্তকরা সাব্দর হোসেন মোল্লার সমর্থক আমজাদ হোসেন (৪৫) কে গত কাল সকালে কুপিয়ে গুরুতর ভাবে আহত করে। আহত ব্যাক্তি কে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করলে তার অবস্থা অনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎিসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফাড করেছেন বলে জানা গেছে। এই সংবাদ গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে সাব্দর হোসেন মোল্লার সমর্থকরা মিজানুর রহমান বাবুলের সমর্থদের বাড়ীতে ঢাল, সড়কি, রামদাসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে ঝন্টু, আনসার মোল্যা,নিজাম উদ্দিন, গোলাম আলী, বারিক বিশ্বাস, লাল্টু, লিটনও লালভানু বেগমের সহ প্রায় ১০/১৫টি বাড়ী দফায় দফায় হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাবে ভাংচুর করে প্রায় ২০ লাখ টাকার মালামাল লুটপাট ও ক্ষতি করে। এ ব্যাপারে ঝিনাইদহের শৈলকুপা সার্কেল এএসপি তারিক আল মেহেদি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানান গ্রামটিতে পুরুষ শূন্য হয়ে পরেছে। উভয় পক্ষ মামলা দিলে মামলা রেকড করা হবে। শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজি আয়ুবুর রহমান জানান, আধিপত্য বিস্তার করা কে কেন্দ্র করে সকালে দু গ্রæপের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। খবর পেয়ে আমি পরিস্থীতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ মোতায়েন করেছি । এছাড়াও বুধবার দিবাগত রাতে মাছ ধরা কে কেন্দ্র করে উপজেলার আবাইপুর গ্রামে প্রতিপক্ষের সমর্থকরা ছামিউল ( ২৭) নামের এক ব্যাক্তি কে হাতুড় দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে বলে জানা গেছে।আশংকাজনক অবস্থায় আহত ব্যাক্তিকে শৈলকুপা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আসন্ন সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বর্তমানে শৈলকুপা থানার আইন শৃংখলার পরিস্থিতি চরম অবনতির দিকে ধাবিত হচ্ছে।

আপনার মতামত জানানঃ