মানহীন ৫২টি পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা

মানহীন ৫২টি পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা করেছে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। আজ বুধবার, এ মামলা দায়ের করে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ।

বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় মানহীন ৫২ টি পণ্য বাজার থেকে তুলে নেয়ার নির্দেশনা দেয় হাইকোর্ট। সে অনুযায়ী কাজ শুরু করে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। পরে, এসব পণ্য সরিয়ে নেয়ার বিষয়েও বিভিন্ন দোকানে তৎপরতা চালানো হয়।

গেল ৯ই মে কনসাস কনজ্যুমার সোসাইটি বিএসটিআই এর পরীক্ষায় পাওয়া ৫২টি মানহীন পণ্য বাজার থেকে জব্দের আদেশ চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করে। এরপর, ১২ই মে রিটের প্রাথমিক শুনানি হয়। এতে ওই ৫২টি পণ্য উৎপাদন এবং বাজার থেকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন আদালত।

ভোমরা স্থল বন্দরের আমদানি রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : ভারতের ঘোজাডাঙ্গা বন্দরের সিএন্ডএফ এজেন্ট কর্মচারী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের কারনে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দরের আমদানি রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে। তবে পাসপোর্ট যাত্রীদের যাতায়াত স্বাবাবিক রয়েছে।
ভোমরা সিএন্ডএফ এ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ জানান, চলতি সপ্তাহে ভারতীয় কাষ্টমসের নির্দেশে ঘোজাডাঙ্গা শুল্কষ্টেশনে অনলাইনে (ডিজিটাল পদ্ধতিতে) দাপ্তরিক কার্যক্রম শুরু হয়। এর ফলে ভোমরা ও ঘোজাডাঙ্গা বন্দরের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম ৭০ ভাগ হ্রাস পায়। এর প্রতিবাদে ভারতের ঘোজাডাঙ্গা সিএন্ডএফ এজেন্ট কর্মচারী ও কার্গো ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন গতকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক দেয়। ধর্মঘটের প্রভাবে ভোমরা বন্দরের বিপরীতে ভারতের ঘোজাডাঙ্গা এলাকায় প্রায় আড়াই হাজার আমদানীজাত পন্য বাহী ট্রাক আটকে পড়েছে বলে ব্যবসায়ীরা জানান।
ভোমরা সিএন্ডএফ এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আরাফাত হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ভারতের ঘোজাডাঙ্গা সিএন্ডএফ এজেন্ট কর্মচারী ও কার্গোওয়েল ফেয়ার এসোসিয়েশনের ধর্মঘটের কারনে অচল হয়ে পড়েছে ভোমরা স্থল বন্দরের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম।
ভোমরা কাস্টমের সহকারি কমিশনার নিয়ামুল হাসান গতকাল থেকে কোন আমদানি রপ্তানি হয়নি স্বিকার করেই জানান, ওপারের সিএন্ডএফ এজেন্টরা ধর্মঘট ডেকেছে বলে তিনি শুনেছেন। লিখিত ভাবে কেউ জানায়নি।